এই সাইটটি বার পঠিত
ভাটিয়ালি | টইপত্তর | বুলবুলভাজা | হরিদাস পাল | খেরোর খাতা | বই
  • খেরোর খাতা

  • হেদুয়ার ধারে - ১৫

    Anjan Banerjee লেখকের গ্রাহক হোন
    ২৭ আগস্ট ২০২৩ | ৩৫১ বার পঠিত
  • পাড়ার মধ্যে শুধু দুটো বাড়িতে টেলিফোন আছে। এক মানিকলাল চ্যাটার্জি, যার বাড়িতে ঘড়িবাবু নরেন পাল ঘড়িতে দম লাগাতে আসে। আর দুই নম্বর হল পরিমল শীল। বউবাজারের শীলদের জ্ঞাতি। বেশিদিন না, চল্লিশ পঁয়তাল্লিশ বছর আগেও বাইজি নাচত ওদের বউবাজারের বাড়িতে। তেমন জরুরী প্রয়োজন পড়লে ওদেরই শরণাপন্ন হতে হয় পাড়ার লোকের। পাড়ার অনেক লোকের কিছু জরুরী ট্রাঙ্ককলও আসে মাণিকবাবু বা পরিমলবাবুদের বাড়ির টেলিফোনে।উপায় নেই। তেমন মরণ বাঁচন ব্যাপার হলে খবর তো দিতেই হবে। নেহাত রাতবিরেতে না হলে ওই দুই পরিবার কখনও বিরক্তবোধ করে না। কাউকে পাঠায় বাড়ি থেকে ডেকে নিয়ে যাবার জন্য কিংবা শুধু খবরটা দিয়ে দেবার জন্য। কেউ কেউ ফোন করতেও যায় মানিকবাবুদের বাড়িতে। দূরের মানুষ হলে ট্রাঙ্ককল বুক করে হা পিত্যেস করে বসে থাকতে হয়। যে বসে থাকে সে ভীষণ সংকোচ বোধ করে। বলে, ' কি অন্যায় বলুন দিকিনি .... এইভাবে আপনাদের বিরক্ত করা ... '
    মানিক, পরিমলদের বাড়ির লোক অতিথির উৎকন্ঠা এবং অস্থিরতা অনুভব করতে পারে। বলে, ' ওমা ... তাতে কি হয়েছে ! তা'লে টেলিফোনটা আছে কি করতে ... যদি দরকারের সময় কাজেই না লাগে ... আর্জেন্ট দরকার বলেই তো এসেছেন ... '। অতিথি কৃতজ্ঞতায় জড়সড় হয়ে যায়।
    সমীরণের বাবার জামশেদপুর থেকে এইরকম একটা ট্রাঙ্ককল এল দুপুর তিনটে নাগাদ। তিনি তো তখন আপিসে। সমীরণের মা একরাশ উদ্বেগ বুকে চেপে হাঁফাতে হাঁফাতে দৌড়লেন পরিমল শীলের বাড়ির দিকে। গিয়ে ফোন কানে চেপে খবর পেলেন যে তার ননদের মেয়ের বিয়ের ঠিক হয়েছে সামনের অঘ্রাণ মাসে। এই খবরটা এক্ষুণি পরের বাড়ির টেলিফোনে ট্রাঙ্ককল করে না জানালে চলছিল না ! এখনো তো ঢের দেরি আছে বিয়ের। চিঠি লিখে জানালেই তো হত। বেআক্কিলেপনা দেখে সমীরণের মায়ের গা পিত্তি জ্বলে যেতে লাগল।

    উৎপল একদিন বলল, ' বাড়ির ছাদে থিয়েটার করলে হয় না ? '
    ----- ' কি ... হ্যাঁ ... তা করলে ভাল হয় ... ওই তো পরেশরা করল ওদের বাড়ির ছাদে দুটো চৌকি লাগিয়ে ... ' অনিমেষ বলে।
    ----- ' হ্যাঁ দেখেছি .... বেশ ভাল হয়েছিল কিন্তু। '
    ----- ' কর না ... কর না ... কবে করবি বল ... ' , সমীরণ সঙ্গে সঙ্গে ঝুলোঝুলি শুরু করে দিল।
    ----- ' আরে দাঁড়া ... রিহার্সাল টিহার্সাল করতে হবে তো ... তারপর ড্রেস ট্রেস জোগাড় করার ব্যাপার আছে ... ' উৎপল শান্ত করে সমীরণকে।
    অনিমেষ বলল, ' পরেশরা তো বাড়ির লোকজনের বেনারসী শাড়ি, জরির পাঞ্জাবী, কালো কোট, সাহেবদের টুপি এইসব নিয়ে এসেছিল ... দারুণ মানিয়েছিল কিন্তু ... '
    ----- ' কি নাটক করল ওরা ? ' , উৎপল জিজ্ঞেস করে।
    ----- ' ওই ... একটা সামাজিক নাটক। 'কার দোষ' না কি যেন নাম। একজন একটা খুন করেছিল। কিন্তু শেষে দেখা গেল তার অপরাধী হয়ে ওঠার জন্য সমাজই দায়ী। জজসাহেব তাকে খুব কম শাস্তি দিলেন। সকলে খুব ভাল পার্ট করেছিল, বিশেষ করে যে উকিল হয়েছিল ... '

    বিকেল সাড়ে পাঁচটা বাজে। ওরা তিনজনে কথা বলতে বলতে হেদোয় ঢুকে পড়ল। ওদের মাথায় এখন ছাদে চৌকির মাচা খাটিয়ে নাটক করার চিন্তা ঘুরপাক খাচ্ছে।
    সমীরণ পারলে আজকেই নাটক নামায়। সে এই বিষয়বস্তু থেকে সরতে চাইছে না ....
    ----- ' কাদের ছাদে হবে তা'লে ? '
    ----- ' অনিমেষদের বাড়ির ছাদটা বড় আছে ... বিভূতি জেঠুকে বলে ওখানে যদি .... এখন, আমার মনে হয় অনিমেষের কথা ফেলতে পারবে না ... খাওয়াবার কথা ছিল ... কোন উচ্চবাচ্য করছে না ... খাওয়ালে চাচা-তে খাওয়াতে হবে কিন্তু ... কবিরাজি কাটলেট ... বুড়ো কিন্তু হাড় কিপটে ... ' উৎপল বলে চলে।
    ----- ' ধ্যাৎ... ওনার কি কিপটেমি দেখেছিস তুই ? বাজে কথা বলছিস কেন ? ' অনিমেষ সঙ্গে সঙ্গে প্রতিবাদ করে।
    সমীরণ কিন্তু নাটকের প্রসঙ্গ থেকে সরতে চায় না।
    ----- ' কি নাটক করবি তা'লে .... কাদের নেওয়া হবে ? '
    ----- ' দাঁড়া ... দু একদিন ভাবতে দে .... আমি ভাবছি অসিত বলে ওই যে ছেলেটা কাশী বোস লেনে থাকে ... সলিলবাবু স্যারের কাছে পড়তে আসত অনিমেষদের পাশের বাড়িতে ... ওকে বলব .... দুর্দান্ত অভিনয় করে ও। টাউন স্কুলের বার্ষিক অনুষ্ঠানে দেখেছিলাম একবার। খুব ট্যালেন্ট আছে ... আর দেখি কাকে বলা যায় .... সবার আগে নাটকটা ঠিক করতে হবে ... '
    অসিত নামটা বলায় তার দিদি শ্রীলেখার সঙ্গে চক্করের ব্যাপারটা ঝট করে মাথায় চাড়া দিল অনিমেষের। কিন্তু সে চুপ করে থাকল।
    নাটকের হুজুগে মেতে উঠল তিন বন্ধু। কয়েকটা চক্কর মারার পর ওরা হেদুয়ার গেট দিয়ে বেরিয়ে রাস্তা পার হয়ে বৈকুন্ঠ বুক হাউসের সামনে এসে দেখল বিভূতিবাবু দাঁড়িয়ে আছেন। যেন ওদের অপেক্ষাতেই দাঁড়িয়ে আছেন। ওদের দেখে বললেন, ' এই যে থ্রি মাসকেটিয়ার্স ... কোথায় থাক ? কখন থেকে দাঁড়িয়ে আছি। চল ... '
    ----- ' কোথায় ? ' , উৎপল জিজ্ঞেস করে।
    ---- ' চাচার হোটেলে। কবিরাজি খাব ... ', বিভূতিবাবু ঘোষণা করলেন।
    ওরা নিজের কানকে বিশ্বাস করতে পারছিল না।

    এক টুকরো কবিরাজি কাটলেট মুখে পুরে পরমানন্দে চিবোতে চিবোতে উৎপল বলল, ' জেঠু আমরা একটা নাটক করব ভাবছি .... তোমাদের ছাদটা দেবে ? '
    নাটকের কথা কানে যেতেই বিভূতিবাবু উৎপলের দিকে ঘুরে খাড়া হয়ে বসলেন।
    ------ ' আ..চ্ছা ! কি নাটক ... কবে হচ্ছে ? কারা পার্ট করবে ? ', বিভূতিভূষণবাবু সমীরণের মতোই উত্তেজনায় অস্থির হয়ে উঠলেন।
    উৎপল বলল, ' না, মানে ... এসব কিছুই ঠিক হয়নি এখনও। এই একটু আগেই ভাবলাম আর কি ... '
    ----- ' ও ... তা করবি যখন ভাল করে কর। ছাদে করবি কেন ? '
    ----- ' অন্য জায়গায় করতে গেলে তো ভাড়া দিতে হবে ... '
    ------ ' না না .... গোয়াবাগানে রাজা রাজকৃষ্ণ স্ট্রিটে বিশ্বরূপার পাশে বটতলা থানার পেছন দিকটায় একটা ছোট হল আছে। ওখানে করা যেতে পারে। ভাড়া খুব সামান্য। ওটার জন্য তোদের ভাবতে হবে না .... আর রিহার্সালটা নয় আমার ঘরেই করিস .... '
    অনিমেষ উৎপলের চোখে চোখ রাখল। যার মানে, ' লোক চিনলি না ... '
    সমীরণ আহ্লাদে আটখানা।

    ( চলবে )

    *******************************************
    পুনঃপ্রকাশ সম্পর্কিত নীতিঃ এই লেখাটি ছাপা, ডিজিটাল, দৃশ্য, শ্রাব্য, বা অন্য যেকোনো মাধ্যমে আংশিক বা সম্পূর্ণ ভাবে প্রতিলিপিকরণ বা অন্যত্র প্রকাশের জন্য গুরুচণ্ডা৯র অনুমতি বাধ্যতামূলক। লেখক চাইলে অন্যত্র প্রকাশ করতে পারেন, সেক্ষেত্রে গুরুচণ্ডা৯র উল্লেখ প্রত্যাশিত।
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • Ranjan Roy | ২৭ আগস্ট ২০২৩ ০৮:১৯522982
  • ছাদে চৌকি জুড়ে নাটক করা, অন্যের বাড়ির টেলিফোনে ট্রাংককল রিসিভ করতে জড়সড় হয়ে বসে থাকা!
     পুরো দে জা বহু!
     চলুক।
  • Anjan Banerjee | ২৮ আগস্ট ২০২৩ ০৯:১৬523037
  • হাঃ হাঃ হাঃ .... যা বলেছেন .... deja vu 
    ঠিক  ঠিক ... 
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]


মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত
পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। বুদ্ধি করে প্রতিক্রিয়া দিন