এই সাইটটি বার পঠিত
ভাটিয়ালি | টইপত্তর | বুলবুলভাজা | হরিদাস পাল | খেরোর খাতা | বই
  • খেরোর খাতা

  • হেদুয়ার ধারে - ১২৮

    Anjan Banerjee লেখকের গ্রাহক হোন
    ০৫ মে ২০২৪ | ১৫৯ বার পঠিত
  • রাত্রি একটু ভেবে নিয়ে বলল, ' তোদের বাড়িতে একদিন যেতে হবে রে সঞ্চারী। তোর দাদাভাইয়ের রিঅ্যাকশানটা ডায়রেক্টলি জেনে নিতে চাই। আমাদের জন্য প্রতিটি ফিডব্যাকই ইমপর্ট্যান্ট। নিখিল স্যার সেরকমই বলেন ... '
    ----- ' ও ব্বাবা ... তোরা তো একেবারে ডেডিকেটেড সোলজার মনে হচ্ছে। দেখিস ... একটু ভেবেচিন্তে পা ফেলিস। জালে একবার জড়িয়ে গেলে কিন্তু আর বেরোতে পারবি না। আনবায়াসড জাজমেন্ট দিয়ে বিচার করা উচিত। ইলজিক্যাল ইমোশনাল দিয়ে কিন্তু জীবন চলে না, এটা মাথায় রাখিস। '
    ----- ' সব কিছু মাথায় আছে। তুই মিছিমিছি চিন্তা করছিস। আমি বলছিলাম যে তোদের বাড়িতে ....'
    ----- ' ও ... হ্যাঁ, কবে আসবি বল। আমি দাদাভাইকে বলে রাখব। রবিবার হলে দুপুরের দিকে যেতে পারিস। আর ওয়ার্কিং ডে তে হলে সন্ধে সাতটার পর না গেলে তো ওকে পাওয়া যাবে না।
    ---- ' হ্যাঁ ... তা তো বটেই। আচ্ছা কাল বলব তোকে ... '

    সাগর বটতলা থানায় গিয়ে হাজির হল সন্ধেবেলায়। কালীবাবু ফাইল ওল্টাতে ওল্টাতে চায়ের কাপে চুমুক দিচ্ছিলেন। সাগরকে দেখে বললেন, ' আরে ... আসেন আসেন ... কি খবর ? অনেকদিন দেখা নাই ... '
    ----- ' একটু কাজে ছিলাম। নতুন ফ্যাকড়া আর কি ... একটা এফ আই আর নিতে হবে ... '
    ----- ' এফ আই আর ? কোন এরিয়ার ? '
    ----- ' এরিয়া অফ ক্রাইম তো বারুইপুর। কিন্তু ওখানে এখন যাওয়া যাবে না। এখানেই নিয়ে নিন ... এদের বাড়ি গুলু ওস্তাগর লেনে ... '
    ----- ' কেসটা কি শুনি ... '
    সাগর অভয়চরণ পালের কেসটা আগাগোড়া বর্ণনা করল।
    কালীবাবু চায়ের কাপে শেষ চুমুকটা মেরে কাপ প্লেটটা সরিয়ে রেখে বললেন, ' হ ... বুঝসি ... বুঝসি ... দ্যান দেহি ... চা খাইবেন তো ? '
    ---- ' হ্যাঁ, তা হলে হয় ... '
    কালীবাবু একজনকে চা আনতে বললেন।
    তারপর বললেন, ' তারপর বলেন, ম্যাডামের খবর কি ? '
    ----- ' ও ঠিক আছে। আমরা এর মধ্যে একদিন নিখিল স্যারের কাছে গিয়েছিলাম। রাত্রি একটা নতুন ছেলেকে নিয়ে গিয়েছিল। শিক্ষিত ছেলে। সেও খুব মন দিয়ে স্যারের কথা শুনছিল। কথা শেষ হবার পর কেমন যেন তড়িঘড়ি বেরিয়ে গেল। আমরা বললাম সঙ্গে যাব কিন্তু ছেলেটা, না না কাউকে যেতে হবে না ... আমি একাই যেতে পারব, বলে ঝট করে বেরিয়ে গেল। এরকম হাবভাবের কোন মানে বুঝতে পারলাম না ... '
    ----- ' তাই নাকি ? রাত্রি ম্যাডামের সঙ্গে পরিচয় হইল কি কইরা ? '
    ----- ' ওই ... ওর এক ক্লাসমেটের দাদা ... জ্যাঠতুতো দাদা বোধহয়। রাত্রি ওদের বাড়িতে গিয়েছিল, ওখানেই ... সে নাকি খুব ভাল গীটার বাজায় ... রাত্রি আমাকেও একদিন নিয়ে যাবে বলেছে ওদের বাড়িতে গীটার শোনাতে ... আমি যেন গান বাজনা কত বুঝি ... হাঃ হাঃ ... '
    কালীবাবু চেয়ারের হাতলে দুহাত রেখে চেয়ারে হেলান দিয়ে বসে সাগরের মুখের দিকে তাকিয়ে গম্ভীরমুখে বললেন, ' হ ... বোঝলাম ... '
    সাগর অবাক হয়ে জিজ্ঞাসা করল, ' কি বুঝলেন ?'
    ----- ' সেটা এখন বলা যাবে না। দেখা যাক কি দাঁড়ায় ... নজর রাখেন ... '
    ----- ' কার ওপর নজর রাখব ? '
    ----- ' এই ... আপনের কাছাকাছি যারা আছে আর কি ... যাক ওসব বাদ দেন। এফ আই আর এর বয়ানটা তো করে আনসেন... ওটা দেন ...'
    ----- ' হ্যাঁ ... এই যে ... '

    রাত্রি সঞ্চারীদের বাড়ি এল রবিবার সন্ধে সাড়ে পাঁচটা নাগাদ। সঞ্চারীদের ঘরে গিয়েই ঢুকল।
    সঞ্চারী বলল, ' দাঁড়া একটু পরে যাব। দাদাভাই বোধহয় এখনও ঘুমোচ্ছে। বস ... চা টা খা ... ততক্ষণে ও উঠে যাবে ... '

    অমল রাত্রিকে অপ্রত্যাশিতভাবে দেখতে পেয়ে রীতিমতো বিহ্বল হয়ে গেল। বেশ থতমত খেয়ে গেল। তার সেদিনের ব্যবহারটা মনে করে তার খুব খারাপ লাগতে লাগল। এদিকে রাত্রিকে দেখে মনের মধ্যে আলোছায়ার খেলা শুরু হয়েছে।
    সে বলল, ' আরে এস এস ... কি ব্যাপার ... আমিই খবর দিতাম ... নিখিল স্যারের কাছে আবার যেতে হবে ... অনেক কিছু জিজ্ঞাসা করার আছে ... যাব একদিন ... কবে যাওয়া যায় বল তো ... '
    বিহ্বলতা কাটিয়ে বেশ সপ্রতিভভাবে কথাগুলো বলল অমল।
    রাত্রি বিনা চেষ্টাতেই অমলের মতামত জানতে পেরে স্বস্তি পেল।
    ----- ' হ্যাঁ হ্যাঁ অমলদা ... কবে যাবে বল। ওই বিবেকানন্দ রোডের মোড়েই মিট করে সেদিনের মতো ... ' রাত্রি উৎসাহিত হয়ে উঠল।
    রাত্রি বলল, ' গীটার শোনাবে না ? '
    অমল কি একটা চিন্তা করছিল। রাত্রির কথার উত্তর না দিয়ে সে বলল, ' ভালভাবে চিন্তাভাবনা করতে হবে। স্যারের কাছ থেকে কিছু বই নিয়ে পড়াশোনা করার দরকার। মানুষের জীবনটা আগে। এক যুগসন্ধিক্ষণে এসে পৌঁছেছি আমরা। তার কাছে এসব গানবাজনা তুচ্ছ ... '
    রাত্রির চোখ নতুন আশায় উদ্দীপিত হয়ে উঠল। সে অভিভূত দৃষ্টিতে অমলের মুখের দিকে তাকিয়ে রইল। এদিকে সঞ্চারী দাঁড়িয়ে মনে মনে হতাশায় আচ্ছন্ন হয়ে ভীষণ বিরক্ত বোধ করতে লাগল।
    ভাবল, ' ভালরকমই মগজ ধোলাই হয়েছে দেখছি। ভোলাভালা ছেলে পেয়ে একেবারে স্ক্রু ঢিলে করে দিয়েছে .... '
    মুখে বলল, ' আরে দাদাভাই ... সবকিছু একটু রয়েসয়ে করা ভাল। নইলে বদহজম হতে পারে ... '
    অমল কোন কথা বলল না। রাত্রি বলল, ' সঞ্চারী ... কার কতটা হজম শক্তি সেটা কি আগে থেকে বোঝা যায় ? দাদার ডিসিশান দাদাকেই নিতে দে না ... '
    সঞ্চারী ফোঁস করে একটা শ্বাস ফেলে বলল, ' দেখ ... যা ভাল বুঝিস ... '
    এবার অমল আচমকা অদ্ভুত একটা কথা বলল।
    রাত্রির দিকে তাকিয়ে বলল, ' সেদিনের ওই ভদ্রলোকের নাম কি সাগর মন্ডল ? ওনাকে আমি নলিন সরকার স্ট্রিটে একবার দেখেছিলাম একটা ঝামেলা মেটাতে। আমি ঠিক বলছি কি ? '
    রাত্রি একটু সময় নিয়ে বলল, ' হ্যাঁ ... ঠিকই বলেছ দাদা ... '
    ----- ' উনি একটা নীরিহ ফ্যামিলির একটা স্কুলে পড়া মেয়েকে কতকগুলো লোফারের ইভটিজিং-এর হাত থেকে বাঁচিয়েছিলেন। লুম্পেনগুলোকে এমন শিক্ষা দিয়েছিলেন উনি, তারপর থেকে আর ও তল্লাটে দেখা যায়নি তাদের। মেয়েটার বাবা ছিল না। অসহায় মা আর এক ছোট ভাই ছিল ... '
    ----- ' হ্যাঁ ... পরে শুনেছি ঘটনাটা ... ' রাত্রি বলল ধীর গলায়।
    অমল আবার বলল, ' আমি তখন ওখানে যেতাম একটা টিউশনি করতে। বছরখানেক করেছিলাম। সে যাই হোক, তোমার সঙ্গে তো বেশ ঘনিষ্ঠতা আছে দেখলাম ... কিভাবে পরিচয় হল ওনার সঙ্গে ? কখনও কোন সাহায্যের দরকার হয়েছিল বোধহয় ... '
    রাত্রি মাথা নীচু করে নীচুস্বরে বলল, ' তা একটু হয়েছিল ... '
    অমল বলল, ' ওনাকে নিখিল স্যারের নিশ্চয়ই দরকার লাগবে। একটা সাবলাইম এনার্জি ... '
    রাত্রি আবার নীচু স্বরে বলল, ' হ্যাঁ ... তা ঠিক ... '
    সঞ্চারী এসব ব্যাপার স্যাপার দেখে ভাবল, ' খেলাটা যে কখন কোন দিকে বাঁক নিচ্ছে কিছু আন্দাজ করা যাচ্ছে না ... '
    এবার রাত্রি কথাটা তুলেই ফেলল, ' আচ্ছা ... একটা কথা বলছি, কিছু মনে করবেন না ... সেদিন আপনি ওভাবে তাড়াহুড়ো করে চলে এলেন কেন ? '
    প্রশ্নটা কিন্তু খুব সহজ বলে মনে হল না অমলের। সে ভাবতে লাগল, তাইতো সে সেদিন ওভাবে চলে এল কেন ?

    ( চলবে )

    ********************************************
    পুনঃপ্রকাশ সম্পর্কিত নীতিঃ এই লেখাটি ছাপা, ডিজিটাল, দৃশ্য, শ্রাব্য, বা অন্য যেকোনো মাধ্যমে আংশিক বা সম্পূর্ণ ভাবে প্রতিলিপিকরণ বা অন্যত্র প্রকাশের জন্য গুরুচণ্ডা৯র অনুমতি বাধ্যতামূলক। লেখক চাইলে অন্যত্র প্রকাশ করতে পারেন, সেক্ষেত্রে গুরুচণ্ডা৯র উল্লেখ প্রত্যাশিত।
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • :|: | 174.251.161.118 | ০৬ মে ২০২৪ ০১:০৪531424
  • বড্ড বেশী টাইপো এই পর্বতে, যথা ১ -- 
    একবার দেখছি অমলকে "রাত্রি বলল, ' গীটার শোনাবে না ? ' আবার  শেষে জিজ্ঞাসা "তাড়াহুড়ো করে চলে এলেন কেন ?" ওদের মধ্যে আপনি চলে নাকি তুমি? 
    তার সঙ্গে আছে যথা ২ -- 
    "ইলজিক্যাল ইমোশনাল দিয়ে কিন্তু জীবন চলে না"।
     
    আরও জানতে ইচ্ছে করে আসলেই কি সেই সময় মধ্যবিত্ত বাড়ীর সাধারণ মেয়েরা এইরকম বাংরেজি ভাষায় কথা বলতেন? 
  • Anjan Banerjee | ০৮ মে ২০২৪ ১৩:৫৭531507
  • ঠিক ঠিক । এগুলো সংশোধনের প্রয়োজন আছে । ধন্যবাদ । 
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]


মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত
পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। হাত মক্সো করতে মতামত দিন