এই সাইটটি বার পঠিত
ভাটিয়ালি | টইপত্তর | বুলবুলভাজা | হরিদাস পাল | খেরোর খাতা | বই
  • ভাটিয়ালি

  • এ হল কথা চালাচালির পাতা। খোলামেলা আড্ডা দিন। ঝপাঝপ লিখুন। অন্যের পোস্টের টপাটপ উত্তর দিন। এই পাতার কোনো বিষয়বস্তু নেই। যে যা খুশি লেখেন, লিখেই চলেন। ইয়ার্কি মারেন, গম্ভীর কথা বলেন, তর্ক করেন, ফাটিয়ে হাসেন, কেঁদে ভাসান, এমনকি রেগে পাতা ছেড়ে চলেও যান।
    যা খুশি লিখবেন। লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়। এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই। সাজানো বাগান নয়, ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি। এই হল আমাদের অনলাইন কমিউনিটি ঠেক। আপনিও জমে যান। বাংলা লেখা দেখবেন জলের মতো সোজা। আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি।
  • গুরুভার আমার গুরু গুরুতে নতুন? বন্ধুদের জানান
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • dc | 2402:e280:2141:1e8:ad5f:51d0:fa65:39ec | ২২ এপ্রিল ২০২৪ ২০:৪৭522663
  • kk এর সাথে একদম একমত। 
     
    আর বিজেপি এবার মুশকিলে পড়েছে, এটা আমারও মনে হচ্ছে। তার আরেকটা কারন প্রধানসেবক ভয় পেয়ে প্রলাপ বকতে শুরু করেছে, মনে হয়না সুবিধেজনক অবস্থায় থাকলে করতো বলে।  
  • | ২২ এপ্রিল ২০২৪ ২০:৪৭522662
  • ও পলিটিশিয়ানের নাম দেখে মনে পড়ল। ওদিকে 'দিল দিল নওশাদ ভাই' আবার দিয়েছে একখানা ঘপাৎ। 
  • | ২২ এপ্রিল ২০২৪ ২০:৪৪522661
  • সেটাই। @সুদীপ্ত।
     
    আর এই রায়টা বিজেপীকে আরো গাড্ডায় ফেলবে বলেই মনে হয়। দেখা যাক। 
     
     
  • রমিত চট্টোপাধ্যায় | ২২ এপ্রিল ২০২৪ ২০:৪৪522660
  • বিচার ব্যবস্থা ও তদন্তকারী সংস্থার আটার ফেলিওর হল এই রায়। এতদিন তদন্ত করেও এরা বের করতে পারলেননা কারা আসল দোষী, চালের কাঁকর আলাদা করতে পারছেনা, বলছে পুরো বস্তাই ফেলে দাও। এটা কি কোনো সলিউশন হতে পারে ? এখন বলা হচ্ছে সবাইকে পরে চান্স দেওয়া হবে যোগ্যতা প্রমাণের। যারা ঘুষ দিয়ে পেয়েছে তারাও তো বেঁচে যাওয়ার সুযোগ পেয়ে গেল। ধরে নিচ্ছি যারা সঠিক পদ্ধতিতে চাকরি পেয়েছিলেন তারা চাকরি ফিরে পাবেন যোগ্যতা প্রমাণ করে। নইলে হঠাৎ করে 40 লাখ টাকা ফেরত দিতে হবে 12% সুদ সহ। কজন পারবে ফেরত দিতে। তবে সবাই যা বলছেন, আমারও তাই ধারণা সুপ্রিম কোর্ট আবার স্থগিতাদেশ দিয়ে দেবে। ঠিক যেমন ডি এ মামলা বহুদিন ধরে চেপে রেখে দিয়েছে, সরকারি কর্মীরা দিনের পর দিন উকিলের টাকা দিয়ে চলেছেন ক্রাউড ফান্ডিং করে অথচ মামলা এজলাসে উঠছেই না। 
  • সুদীপ্ত | ২২ এপ্রিল ২০২৪ ২০:৪১522659
  • এই প্রসঙ্গে মনে পড়ল, পলিটিশিয়ান -কে বলেছিলাম, 'কাকু'র কন্ঠস্বর নিয়েও কিছু হবে না, এত নাটক করে টেস্ট করে সেও অশ্বডিম্ব প্রসব করেছে। বিচারের বাণী এখন কোন এজলাসে কাঁদছে কে জানে। 
     
    কোনো রায় দেখে কারোরই উদ্বাহু হয়ে নৃত্য করার কিছু নেই, ভরসারও কিছু নেই।
  • | ২২ এপ্রিল ২০২৪ ২০:৩২522658
  • যে কোন বিচারপ্রক্রিয়ায় মূল নীতি হিসেবে মানা হয় একজন নির্দোষও যেন শাস্তি না পায়।  এই ২৫৭৫৩ জন,  প্রত্যেকে  ঘুষ দিয়ে চাকরি পেয়েছে সেটা অসম্ভব। যা মনে হচ্ছে   হাইকোর্ট প্রথমেই ধরে নিয়েছে সবাই দোষী, তারপরে ঝেড়ে বেছে দেখবে সত্যিই কারা দোষী!! আশ্চর্য! 

    ইডি এতদিন ধরে  এত কাঁড়ি কাঁড়ি টাকা উদ্ধার করেও আসল দোষীদের সবাইকে চিহ্নিত করতে পারল না?  আর সেই না পারার দায় গিয়ে পড়ল এই ২৫৭৫৩ জনের উপর? 

    ১) কেন ইডির শাস্তি হবে না? 
    ২) কেন মমব্যানের সরকার পদত্যাগ করবে না? 
    ৩) এই ২৫৭৫৩ জন যে সব স্কুলে নিযুক্ত ছিলেন তাদের পড়াশোনা পরীক্ষা কীভাবে চলবে? এমনিতেই অধিকাংশ স্কুলে পর্যাপ্ত শিক্ষক নেই বলে শুনি।

    এক আনন্দ বোস রোজ কজন করে উপাচার্য নিয়োগ করে, পরেরদিন আবার তাদের পদ থেকে সরিয়ে দেয়। এবারে স্কুল শিক্ষাও সম্পূর্ন চাঁড়ে তুলে দেবার ব্যবস্থা করছে আনন্দবোসের বসেরা। 

    এদের ঠিক কী শাস্তি হওয়া উচিৎ জানি না।
  • সুদীপ্ত | ২২ এপ্রিল ২০২৪ ২০:২৩522657
  • আরও একটা জিনিস বলার, ভারতের সংবিধানে যতদূর জানি দোষীদের শাস্তি দেওয়ার ব্যাপারে একটা জিনিস নিশ্চিত করা হয়, কোনো নির্দোষদের শাস্তি না পাওয়া,  সেইটে এই রায়ে খানিক ঘেঁটে গেছে, যেহেতু এই পঁচিশ হাজারের মধ্যে অনেকেই যোগ্য শিক্ষক রয়েছেন।
    আর স্থগিতাদেশ তো আসবেই, এ-'খেলার' অভিজ্ঞ দর্শক আমরা এখন, শেষ অবধি হয়ত লবডঙ্কা হবে! যদিও দোষীরা শাস্তি পেলে খুশী হবো।
  • kk | 172.58.190.241 | ২২ এপ্রিল ২০২৪ ২০:১০522656
  • মানুষ কখনোই জানোয়ারের সমগোত্রীয় হতে পারবেনা। জানোয়াররা মানুষের থেকে অনেক বেশি ভালো। আজকে আর্থ ডে উপলক্ষে একটা ভিডিও দিয়ে গেলাম। 'মানুষের' কার্য্যকলাপ সংক্রান্ত।

  • সৈকত বন্দ্যোপাধ্যায় | ২২ এপ্রিল ২০২৪ ২০:০৬522655
  • ভ্গবান গাঙ্গুলি তখন বিচারক। তাঁর আমলে অঙ্কিতা বলে একজনের চাকরি গিয়েছিল। পেয়েছিলেন ববিতা। তারপর ববিবারও চাকরি গিয়েছিল। পেয়েছিলেন অনামিকা। এবার অনামিকারও চাকরি গেল। নতুন কে পাবেন কে জানে।

    কবীর সুমনের তোমাকে চাই যখন হিট হয়েছিল, তখন তার একটা প্যারডি গাইতাম আমরা। প্রথমত আমি সোমাকে চাই, দ্বিতীয়ত আমি রমাকে চাই, তৃতীয়ত আমি শ্যামাকে চাই, শেষ পর্যন্ত সব বামাকে চাই। এটা উপর-উপর দেখলে সেই মাপের ইয়ার্কি মনে হচ্ছে। কিন্তু এটা তো ঠিক প্যারডির সঙ্গে তুলনীয় না। একটা রাজ্যের শিক্ষাব্যবস্থার প্রশ্ন।

    তৃণমূল আমলে শিক্ষাব্যবস্থায় দুর্নীতি হয়েছে। তার চেয়েও বড় যেটা হয়েছে, বিশেষত কোভিড-পরবর্তী সময় শিক্ষার মান হু হু করে নিচে নেমেছে। সরকারের কোনো উদ্যোগ দেখা যায়নি সেটা ফেরত আনতে। বাংলা আবশ্যক করা হবে বলেও করা হয়নি। এরকম নানা গোলমাল হয়েছে। কিন্তু রাজ্য সরকারি শিক্ষাব্যবস্থাটা তুলে দেওয়া হচ্ছে, এরকম কোনো চিহ্ন দেখা যায়নি। আদালতের আজকের রায়ে দেখে  ঠিক সেই জিনিসটাই মনে হচ্ছে, যে, ভগবানের পথ ধরে এবার রাজ্যের শিক্ষাব্যবস্থাটাই লাটে তোলার সুবন্দোবস্তো হচ্ছে। মধ্যবিত্ত কেন্দ্রীয় বোর্ডমুখী হয়েই আছে। কেন্দ্রীয় বোর্ডের সিলেবাস থেকে শুরু করে পঠন-পাঠন-নিয়োগ  এ সবই ভয়াবহ রকম অস্বচ্ছ অথবা গোলমেলে। কিন্তু তাতে কী। রাজ্যের শিক্ষাব্যবস্থা উঠে যাবে, থাকবে কেবল কেন্দ্রীয় ব্যবস্থা, সেই দিকে ঠেলে দেওয়াটাই লক্ষ্য। ১০০ দিনের কাজের টাকা বন্ধ থেকে শিক্ষাব্যবস্থা তুলে দেওয়া, পুরোটাই একই লক্ষ্যের দিকে ধাবিত। এক ভাষা - এক রাষ্ট্র - এক নেতা। চোখে ঠুলি পরে থাকায় কেউ কেউ সেটা দেখতে পাচ্ছেননা এখনও। গাঙ্গুলিবাবুকে নিয়ে যখন লিখেছিলাম, অনেকেই রুষ্ট হয়েছিলেন, এবারও হবেন, যদিও সংখ্যাটা কমবে, এবং যাঁরা এখনও বুঝছেননা, একদিন তাঁরাও টের পাবেন, যে, এই রাজনৈতিক দ্যূতক্রীড়ায় তাঁরা মূলত দুঃশাসনকে হাততালি দিয়ে উৎসাহিত করার ভূমিকা পালন করেছিলেন। 

    তবে সবকিছুরই একটা ভালো দিক থাকে। এটারও আছে। ভোটের মাঝখানে এরকম একটা ব্যাপার হচ্ছে, তার মানে, নিশ্চিতভাবেই অবস্থা ওঁদের জন্য ভালো না। জিনিস ঠিকঠাক গড়াচ্ছেনা। এবং এর পরেও গড়াবেনা। ব্যাকফায়ার করার আশঙ্কা প্রচন্ড। আন্দাজ যা বলছে, এখনই কারো চাকরি যাবেনা, সুপ্রিম কোর্টে স্থগিতাদেশ আসবে। আসুক বা না অসুক, সরকারি শিক্ষকদের একটা বড় অংশ, যা দেখি বা শুনি, নিশ্চিতভাবেই উনিজির  পক্ষে ছিলেন। এরকম একটা ক্যাডাভেরাস কান্ডের পরও, তাঁদের সব্বার আস্থা এখনও অটুট থাকবে? মনে হয়না। দুঃশাসনের পক্ষে সমর্থনে চিড় ধরেছে বলেই এই কান্ড, এবং এরকম নি-জার্ক রিঅ্যাকশনে চিড় আরও বাড়বে।
  • সৃষ্টিছাড়া | 117.252.227.119 | ২২ এপ্রিল ২০২৪ ১৭:৩৯522654
  • *আজকের এই উচ্চ আদালতের রায়ের পর মানুষ যদি তৃণমূলকে ভোট দেয়, তাহলে প্রমাণিত হবে, মানুষ জানোয়ারের সমগোত্রীয়।*
  • যোষিতা | ২২ এপ্রিল ২০২৪ ১১:০৫522651
  • হাইকোর্টের নির্দেশে।
  • যোষিতা | ২২ এপ্রিল ২০২৪ ১১:০৫522650
  • ২৫৭৫৬ চাকরি বাতিল — হাইকের্টের নির্দেশে
  • যদুবাবু | ২২ এপ্রিল ২০২৪ ০৪:০৭522649
  • রৌহিন-দা, কয়েকটা সোর্স দিচ্ছি। তবে, এগজ্যাক্ট কী চাও বললে একদম সেই ডেটাই খুঁজে বের করা যায় কি না দেখতে হবে। না হলে ডেটার সাগরে তো সকলেই ভাসচি। 

    ১) https://github.com/pratapvardhan/NFHS-5 - সেন্সাস না, তবে আমার মতে খুব-ই ক্রিটিক্যালি দরকারি - ন্যাশনাল ফ্যামিলি হেলথ সার্ভে। এখানে প্রত্যেক রাজ্যের এবং জেলার এন-এফ-এইচ-এস ইন্ডিকেটরের ডেটা আছে। (যেমন, https://github.com/pratapvardhan/NFHS-5/blob/master/NFHS-5-States.csv ক্লিক করলে দেখতে পাবে কী কী আছে।) 
    ২) https://iipmaps.com/map/india - যদি ডেটা থাকে, শুধু ম্যাপ বানাতে চাও। স্টেট-ওয়াইজ় ডেটা থাকলে গোটা ভারতের ম্যাপ বানানো যাবে। আর চাইলে কোনো একটা স্টেটের জেলা-অনুযায়ী ডেটা থাকলে সেই রাজ্যের-ও ম্যাপ আঁকা যাবে। খুব-ই সহজ।
    ৩) https://www.dataforindia.com/ - সদ্য রিলিজড হয়েছে। বিভিন্ন মেট্রিকের ডেটা আছে। ভিজুয়ালাইজেশন সহ। দেখতে পারো। 

    আরও অজস্র এইরকম আছে। কোথাও কোথাও সুন্দর সি-এস-ভি ফাইল বা ওইরকম, কোথাও পিডিএফ, যা থেকে একটু নিষ্কাশন করতে হবে, কিন্তু সুন্দর করে রিপোর্ট আছে, যেমন পারি (https://ruralindiaonline.org/en/library/), যেমন aser (https://asercentre.org/) ... কিছু দেখেছিলাম ট্রান্সপোর্ট নিয়ে। 

    (স্বগতোক্তি - একটা টই খুললে হয়। কিন্তু আজ রোববার।)
  • অরিন | 119.224.61.73 | ২২ এপ্রিল ২০২৪ ০৩:৩৯522648
  • "হুতেন্দ্রবাবু মহাশয় "
    হেঃ, হুতো লান?
  • &/ | 107.77.234.184 | ২২ এপ্রিল ২০২৪ ০৩:১১522647
  • কিন্তু হুতেন্দ্রবাবু মহাশয় গেলেন কই ?
  • অরিন | 119.224.61.73 | ২২ এপ্রিল ২০২৪ ০১:২৭522646
  • kk-লান," হা হা, 'লান' কথাটা অন্তত একজনের কাছেও গ্রহণযোগ্য মনে হয়েছে :-)। দেখে ভালো লাগলো।"
     
    শুধু মনে ধরেছে বললে হবে, কাজেও করে দেখাচ্ছি। আপনিও করুন।
  • অরিন | 119.224.61.73 | ২২ এপ্রিল ২০২৪ ০১:২৬522645
  • "ফটোল্যাব ও এ আই দিয়ে সাজসজ্জা করায় , ওরা শুরুতে কিছু ফ্রী দেয় পরে পয়সা নেয় "
    এই ব্যাপারটাই enshittification, কোরি ডকটরভ পড়ে দেখুন, 
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]


মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত