এই সাইটটি বার পঠিত
ভাটিয়ালি | টইপত্তর | বুলবুলভাজা | হরিদাস পাল | খেরোর খাতা | বই
  • টইপত্তর  আলোচনা   সমাজ

  • ফিরহাদ হাকিম ও তসলিমা

    দীপ
    আলোচনা | সমাজ | ০৯ জুলাই ২০২৪ | ৩৩৪ বার পঠিত
  • (ফিরহাদ হাকিমের সাম্প্রতিক বক্তব্য নিয়ে তসলিমার লেখা)
     
    কলকাতা পুরসভার মেয়র ফিরহাদ হাকিমের একখানা ভাষণ দেখলাম ফেসবুকের ভিডিওতে। টুপি পরা মুসলিমদের একটি সভায় তিনি বলছেন যারা ইসলাম নিয়ে জন্মায়নি, তারা দুর্ভাগ্য নিয়ে জন্মেছে, যারা মুসলিম তারা জান্নাতে যাবে, কিন্তু যারা মুসলিম নয়, তাদের দুর্ভাগ্য তারা মুসলিম নয়, তাদের ইসলামের দাওয়াত দিতে হবে, তাদের ভেতর ঈমান আনাতে পারলে আল্লাহ খুশি হবেন, অর্থাৎ অমুসলিমদের ইসলামের দাওয়াত দিয়ে মুসলিম বানাতে হবে, মুসলিম হলেই তারা জান্নাতে যেতে পারবে, নচেৎ নয় । তাঁর ভাষণ শুনে মুসলিমরা বেজায় খুশি, আল্লাহু আকবর বলে চিৎকার করেছে। আল্লাহু আকবর বলে ফিরহাদ হাকিমও চেঁচিয়েছেন। জাকির নায়েকও তো এমন কথাই বলতেন। অমুসলিমদের তিনি ইসলামে কনভার্ট করার সব রকম উদ্যোগ নিতেন। 
     
    ফিরহাদ হাকিম জোর গলায় বলেন তিনি সাম্প্রদায়িক নন, কারণ তিনি দুর্গা পূজা করেন, কালী পূজা করেন। তিনি ধুতি পরেন। তাহলে ধুতি পরে, টুপিটা না পরে তিনি কেন মুসলিমদের সভায় যান না, সেখানে গিয়ে কেন বলেন না তিনি দুর্গা পূজা করেন, কালী পূজা করেন? তা বললে তিনি মুসলিমদের হাততালি পাবেন না, সে কারণেই বলেন না? আর কী বললে হিন্দুদের হাততালি পাবেন, সেটাও ভাল জানেন। বোকা বানাচ্ছেন দুই সম্প্রদায়কে, নাকি দুই সম্প্রদায়কে নাচাচ্ছেন। 
     
    আমি কলকাতায় বাস করি না, কলকাতার খবর খুব একটা রাখা হয় না। ফিরহাদ হাকিম আসলে কেমন মানুষ তা আমি, সত্যি বলতে কী, জানিনা। তাঁকে দেখলে তো অসাম্প্রদায়িকই মনে হয়, কিন্তু মুসলিমদের সামনে তিনি যা বললেন তা তো কোনও ভাবেই অসাম্প্রদায়িক কারও ভাষণ হতে পারে না, যা বলেছেন তা একমাত্র কট্টর সাম্প্রদায়িকরাই বিশ্বাস করে এবং বলে। কট্টর সাম্প্রদায়িকরাই কিন্তু একসময় জিহাদিতে রূপান্তরিত হয়। 
     
    পশ্চিমবঙ্গের মুসলিমদের মধ্যে যে সেক্যুলার মুসলিম নেই, তা নয়। আমি নিজেই পশ্চিমবঙ্গের মুসলিম পরিবারে জন্ম নেওয়া অনেক অসাম্প্রদায়িক, ধর্মনিরপেক্ষ, প্রগতিশীল, আধুনিক মনস্ক, বিজ্ঞানমনস্ক, ধর্মমুক্ত, মুক্তচিন্তক, এমনকী নাস্তিকও দেখেছি। রাজনৈতিক দলগুলো চাইলে কি সেইসব সভ্য শিক্ষিত অসাম্প্রদায়িক মানুষকে দলে আমন্ত্রণ জানাতে পারে না? নিশ্চয়ই পারে। ভারতীয় উপমহাদেশে হিন্দু মুসলিম সাম্প্রদায়িক রাজনীতির অবসান হোক। যার যা ধর্ম বিশ্বাস থাকুক, যার যা জেন্ডার থাকুক, কাস্ট থাকুক, যার যা বিত্ত থাকুক, শ্রেণী থাকুক, সকলকে মানুষ হিসেবে ট্রিট করা হোক।
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • দীপ | 42.110.164.33 | ১০ জুলাই ২০২৪ ১৪:১৪743384
  • সম্প্রতি কলকাতার মহানাগরিক ফিরহাদ হাকিম মহাশয় একটি ধর্মীয় অনুষ্ঠানে সাম্প্রদায়িক বক্তব্য প্রকাশ করেছেন। ঐ বক্তব্য অত্যন্ত বিরক্তিকর, ধর্মীয় সাম্প্রদায়িক দোষে দুষ্ট। কোনো ধর্মনিরপেক্ষ দেশে ঐ ধরনের মন্তব্য সহ্য করা সম্ভব নয়। স্বাভাবিক ভাবেই অনেক নাগরিক ঐ মন্তব্যের সমালোচনা করেছেন। তাঁদের সাধুবাদ জানাই।
    কিন্তু আশ্চর্য হয়ে দেখলাম, পশ্চিমবঙ্গের মহাবিপ্লবীকুল এইসময় আশ্চর্যজনকভাবে মৌন হয়ে র‌ইলেন! অথচ এই মহাবিপ্লবীকুল কথায় কথায় ধর্মনিরপেক্ষতার আদর্শ নিয়ে বক্তব্য রাখেন, হিন্দুত্ববাদ ও সাম্প্রদায়িকতার বিরুদ্ধে গর্জন করতে থাকেন! বিদ্যাসাগর, বঙ্কিম, বিবেকানন্দ, সূর্য সেন; সবার মধ্যেই এঁরা হিন্দুত্ববাদ খুঁজে পান! দেশকে মাতৃরূপে বন্দনা করলে এঁদের সমস্যা হয়! দুর্গাপূজা নিয়েও এঁরা বিপ্লব করতে থাকেন! কখনো হুদুড়বাদুড়ের গপ্পিবাজি নিয়ে কীর্তন‌ করতে থাকেন, কখনো নবকৃষ্ণের কথা তুলে দুর্গাপূজাকে বাঙালীর জাতীয় লজ্জা বলে নাকের জলে-চোখের জলে একাকার হতে থাকেন! মার্কিন সাম্রাজ্যবাদ, মধ্যপ্রাচ্য, লাটিন আমেরিকা; সব কিছু নিয়েই জ্বালাময়ী ভাষণ দেন অথবা গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ লেখেন। ইসরোর বিজ্ঞানী মন্দিরে পূজা দিতে গেলে ধর্মনিরপেক্ষতা নিয়ে কান্নাকাটি করেন (যদিও ধর্মনিরপেক্ষ দেশে প্রত্যেক ব্যক্তির স্বীয় ধর্মপালনের অধিকার আছে।)!  
    আসলে এই মহাবিপ্লবীকুলকে আমরা খুব ভালোভাবেই চিনি! এঁদের ধর্মনিরপেক্ষতার বুলি আসলে ভণ্ডামি ছাড়া আর কিছু নয়! ধর্মনিরপেক্ষতার কথা বলে এঁরা আসলে একটি বিশেষ মৌলবাদী শক্তিকে তোষণ করতে চান! সেজন্যই এঁরা সর্বত্র হিন্দুত্ববাদ খুঁজে পান! কথায় কথায় বঙ্কিমের শ্রাদ্ধ করলেও এঁরা বাংলাদেশের সংখ্যালঘু নির্যাতন নিয়ে একটি কথাও বলেন না! বরং তসলিমা এসব নিয়ে লেখালেখি করলে তসলিমার ব‌ই নিষিদ্ধ করে তসলিমাকে পশ্চিমবঙ্গ থেকে তাড়ানো হয়! এঁরা নূপুর শর্মার বিরুদ্ধে গর্জন করেন, কিন্তু আব্বাস বিধর্মীদের গলা কেটে নেবার হুমকি দিলেও তাঁদের গলা দিয়ে একটা শব্দও বেরোয় না! কোনো কোনো মাতব্বর আবার একে সাব‌অল্টার্ন রাজনীতি বলে অভিহিত করেন!
    শাসক দলের আশ্রিত ধর্মীয় নেতা ফেসবুকে বেলুড় মঠে আক্রমণ করার প্ররোচনা দেয়, এঁরা মৌনব্রত অবলম্বন করেন! বাংলাদেশে একের পর এক ব্লগারদের উপর আক্রমণ হলেও এঁরা চুপ করে থাকেন! কে আর যেচে অভিজিৎ রায় হতে চায়?
    দিনের পর দিন একটি মৌলবাদী শক্তিকে তোষণ করলে আরেকটি মৌলবাদী শক্তি ক্রমশ শক্তিশালী হয়ে উঠে আসে! পশ্চিমবঙ্গে সেটাই হয়েছে! তাই পশ্চিমবঙ্গের একদিকে ইসলামী মৌলবাদ ক্রমশ শক্তিশালী হয়ে উঠছে, অন্যদিকে গোবলয়ের রাজনীতি জাঁকিয়ে বসেছে! 
    মিথ্যা দিয়ে কখনো সত্যে উপনীত হ‌ওয়া সম্ভব নয়! পশ্চিমবঙ্গের মহাবিপ্লবীরা যদি সেকথা বুঝতেন! 
     
  • ar | 71.174.70.185 | ১০ জুলাই ২০২৪ ১৮:১৫743385
  • তসলিমার লেখাটা কোথায় পাওয়া যাবে?
    সোর্সটা দেবেন?
  • দীপ | 2402:3a80:196b:4e4b:678:5634:1232:5476 | ১০ জুলাই ২০২৪ ২০:১২743389
  • তসলিমার লেখা।
  • দীপ | 2402:3a80:42f4:608d:678:5634:1232:5476 | ১৫ জুলাই ২০২৪ ১৫:২১743430
  • দীপ | 2402:3a80:42f4:608d:678:5634:1232:5476 | ১৫ জুলাই ২০২৪ ১৫:২৩743431
  • ফিরহাদ এর মন্তব্য নিয়ে প্রতিবাদ করলেন সমীর আইচ। হয়তো এবার সমীর আইচকে চাড্ডি, বিজেপির লোক বলা হবে! 
    আবার কেউ কেউ মনুসংহিতা নিয়ে নাচানাচি শুরু করবে!
    অন্যদিকে বিজেপি উঠে আসবে!
  • ar | 71.174.70.185 | ১৭ জুলাই ২০২৪ ০৫:৪৫743458
  • ও ফেসবুকের কপি-পেষ্ট!!
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]


মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত
পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। চটপট মতামত দিন