এই সাইটটি বার পঠিত
ভাটিয়ালি | টইপত্তর | বুলবুলভাজা | হরিদাস পাল | খেরোর খাতা | বই
  • খেরোর খাতা

  • হেদুয়ার ধারে - ৭৫

    Anjan Banerjee লেখকের গ্রাহক হোন
    ০২ জানুয়ারি ২০২৪ | ১৭৭ বার পঠিত
  • প্রতিবিম্ব বসে পড়ল সুমনার পাশে ।
    ----- ' জ্যোতিষ ফোতিস নয় রে বাবা । অনার্সের এক্সট্রা ক্লাস ছিল অমিয় তরফদার স্যারের । মিস করা যেত না । স্যারের ডেলিভারি এক্সট্রাঅর্ডিনারি.... '
    ----- ' তা তোমার ডেলিভারিও তো  এক্সট্রাঅর্ডিনারি... '
    ----- ' মানে ? '
    ----- না , মানে ... মাকে সেদিন যেভাবে গুণ করলে .... '
    ----- ও তাই বল ... ওটা তো অলোকেন্দু স্যারের ডেলিভারি । আমি তো শুধু এক্জিকিউট করেছি ... '
    ----- ' ওটাই তো আসল । তুমি সিনেমার লাইনে গেলেও উন্নতি করতে ... সে যাক , নেক্সট কবে হচ্ছে আবার ? '
    ----- ' কি ? '
    ----- ওই  যে ... জ্যোতিষীগিরি । '
    ----- ' সেটা স্যারকে জিজ্ঞেস কোর ... উনি খবর পাঠালেই ... '
    ----- ' ও আচ্ছা ... ডিরেক্টরের নির্দেশ পেলে তবেই  অ্যাক্টর অ্যাকশান শুরু করবে ? '
    ----- ' সে তো বটেই... '
    ----‐ ' তাহলে শোন বাপি তোমাকে কাল সন্ধে সাতটা নাগাদ যেতে বলেছে । আগে চেম্বারে দেখা করে টিপস নিয়ে নিও বুঝলে ... '
    ----- ' হ্যা বুঝলাম মোটামুটি ... বাকিটা কাল বুঝব ... '

    পরদিন সন্ধে প্রায় সাতটায় প্রতিবিম্ব অলোকেন্দুবাবুর চেম্বারে হাজির হল । তিনি প্রতিবিম্বর সঙ্গে দু চার কথা বলে বললেন, ' তুমি দিবাকরের সঙ্গে ভিতরে যাও । সেদিনকার মতো পারফর্ম করলেই হবে । ডাকতে লাগলেন, ' দিবাকর ... দিবাকর ... '

    দিবাকর প্রতিবিম্বকে নিয়ে ভিতরে গিয়ে বললেন, ' মা , ওই জ্যোতিষী ঠাকুর এসেছে ... '
    বাসন্তীদেবীর মুখ আগ্রহে উজ্জ্বল হয়ে উঠল । সুমনা ওখানে ঘুরঘুর করছিল । সে মুখ টিপে হাসল অন্যদিকে মুখ ঘুরিয়ে  ।
    বাসন্তীদেবী বাৎসল্য স্নেহের সুরে বললেন , ' এস বাবা ... তোমার কথাই ভাবছিলাম ... বস বস  ... '
    প্রতিবিম্ব বলল, ' হ্যাঁ মাসীমা ... কয়েকদিন ধরে আসব আসব ভাবছিলাম... আজকে একটু সময় হল ... '
    ----- ' তাই তো ... তোমারও তো পড়াশোনার চাপ আছে ... '
    -----  ' হ্যাঁ , সে তো আছেই ।  তাছাড়া অন্যান্য দায়িত্বপূর্ণ কাজও থাকে ... যেমন কারো সঙ্গে  সময় মেনে দেখা করা এবং তার বিভিন্ন নির্দেশ পালন ঠিকমতো করা ইত্যাদি ... বড় কঠিন দায়িত্ব মাসীমা ... '
    সুমনা চোখ বড় বড় করে  মুখে ছদ্ম রাগ ফুটিয়ে তার দিকে তাকাল ।
    বাসন্তীদেবী অবশ্য কিছু ধরতে পারলেন না । ধরার জন্য গা-ও করলেন না ।
    তিনি বললেন, ' তা তো বটেই ... তা তো বটেই... সংসারে থাকতে গেলে দায় দায়িত্ব তো থাকেই ... সংসার বড় ঝামেলার জায়গা ... '
    প্রতিবিম্ব মনে মনে বলল, তুমি আর ঝামেলার বুঝবে কি ... দিব্যি তো আছ । খাচ্ছ দাচ্ছ ঘুমোচ্ছ আর মেয়েদের পার করার চিন্তা করছ দিন রাত । নেই কাজ তো খই ভাজ ... ভাগ্যিস ওরকম শিবতুল্য স্বামী পেয়েছিলে ...
    বাসন্তীদেবী তার নিজস্ব আসল কথায় এলেন এবার ।
    ----- ' বলছি যে ... সেদিন তো সবকিছু জানা হল না ... আজ যদি একটু ভাল করে দেখে বল ... অ্যাই ফুচা এখানে বস ... তুমি তো মুখ দেখে বল ... '
    ----- ' ঠিক কি জানতে চাইছেন আপনি , মানে আপনারা ? '
    ----- ' হ্যাঁ ... তুমি আমার সন্তানের বয়সী । কিন্তু জ্যোতিষীর কাছে তো কোন কিছু নুকুলে চলবে না ... বুঝতেই তো পারছ , মেয়ে বড় হলে মায়েদের কেমন চিন্তা বাড়ে  ।  এটা আমার ছোট মেয়ে ... বিয়ের চিন্তা এক্ষুণি করছি না ... ওপরে আরও দুই বোন আছে ... আগে তাদের হোক , তারপর দেখা যাবে ... '
    ----- ' তাহলে আর কিসের চিন্তা মাসীমা ? '
    ---- ' না ... মানে , দেখ তো ভাল করে ও কোন কুসঙ্গে পড়বে কিনা ... মানে উল্টোপাল্টা সম্পর্ক হলে তো আমরা মেনে নিতে পারব না ... খুব ভয় করে আমার ... '
    ----- ' কেন আপনার কি সেরকম কোন সন্দেহ হচ্ছে ? '
    ----- ' সত্যি কথা বলতে কি , কিছুদিন ধরে মেয়ের হাবভাব আমার যেন কেমন কেমন লাগছে ... অবশ্য আমার ধারণা ভুলও হতে পারে । '
    ----- ' সেটা আপনার মেয়েকে জিজ্ঞাসা করলেই তো হয় । '
    ----- ' ওর কাছ থেকে কিছু জানতে পারলে তো চিন্তাই ছিল না । ও তো ঝেড়ে কাশছে না  ... '
    ----- ' আচ্ছা, আমি বলার চেষ্টা করছি ... '
    ----- ' বল তো বাবা ... '
    প্রতিবিম্ব তার মুখোমুখি বসা সুমনার মুখের দিকে একদৃষ্টে তাকিয়ে রইল।  সুমনাও স্থিরভাবে তাকিয়ে আছে প্রতিবিম্বর চোখে চোখ ফেলে । দেখে মনে হচ্ছে যেন শুভদৃষ্টির পর্ব চলছে । প্রায় দেড় মিনিট অতিক্রান্ত হয়ে গেল এই দৃষ্টি যোগাযোগ পর্বের । 
    বাসন্তীদেবী বোধহয় একটু অধৈর্য হয়ে পড়লেন ।
    বললেন, ' কি হল ... কিছু জানা গেল বাবা ? '
    ----- ' হ্যাঁ ... জানা কেন যাবে না ... সবই দেখতে পাচ্ছি । ' প্রতিবিম্ব গম্ভীর উত্তর দিল ।
    ----- ' তাই...তাই ? কি দেখা যাচ্ছে বাবা ? '
    ----- ' আজেবাজে ছেলের সঙ্গে তো সম্পর্ক হবার কথা নয় এ মেয়ের । যার সঙ্গে এর সম্পর্ক হবে সে আপনার মেয়ের থেকে বহুগুণ গুণবান । আমার দৃষ্টিতে পরিষ্কার দেখতে পাচ্ছি সে জীবনে কখনও পরীক্ষায় দ্বিতীয় হয়নি ... '
    ----- ' তাই নাকি ! আর কি দেখা যাচ্ছে বাবা ... আর কি দেখা যাচ্ছে ? বিয়েটা কবে হবে ? আর ওই ইয়ে ... টাকা পয়সার দিক দিয়ে ... বুঝতেই তো পারছ ... মেয়েকে অনেক আদরে মানুষ করেছি ... '
    ----- ' বুঝতে পেরেছি ... কিন্তু এখানে একটা সমস্যা রয়েছে ... পয়সাওয়ালা ঘরের ছেলে হলে এ মেয়ের জীবনে নানা অশান্তির সৃষ্টি হতে পারে ।  সুতরাং এ ব্যাপারে বুদ্ধি বিবেচনা করে এগোবেন । আমি যেটুকু দেখতে পাচ্ছি তাতে এ মেয়ের সম্বন্ধের ব্যাপারে লক্ষীর পিছনে না ছুটে সরস্বতীর সন্ধান করাই মঙ্গলজনক হবে । আর একটা কথা আপনার মেয়ের বিয়ে হবে খুব কাছাকাছি । হয়ত পাশের পাড়াতেই .... ছেলে অবশ্য ভবিষ্যতে বৈজ্ঞানিক হবে । তখন রোজগার খুব ভাল হবে ... '
    বাসন্তীদেবী কিছুটা খুশি এবং কিছুটা হতাশ হলেন। মানে, মিশ্র প্রতিক্রিয়া হল । তবে, হয়ত প্রতিবিম্বর নিপুন অভিনয় গুণের প্রভাবে তার  ভবিষ্যত দর্শনের ব্যাপারে একটা গাঢ় বিশ্বাস তার মনে দৃঢ় হয়ে বসল । তিনি এই কথাগুলো বেদবাক্য বলে মনে করতে লাগলেন ।

    সুমনা অতি কষ্টে হাসি সামলে চুপ করে বসে রইল।
    বাসন্তী বললেন, ' হুমম্ .... তা কপালে যা আছে তাই হবে ... আমি আর ভেবে কি করব ... ভাল হলেই ভাল ... তা বিয়েটা কবে হবে সেটা বলা যাবে কি ? '
    ----- ' হ্যাঁ বলা যাবে । তিন বছরের আগে নয় । '
    ---- ' ও ... তা ভাল । তার আগে হবেই বা কি করে ... দিদিদেরই তো এখনও  ... আর ওই যে কথাটা বলছিলাম  ... '
    ----- ' কি বলুন তো ? '
    ----- ' না ... মানে , এখন কারো সঙ্গে ওর কিছু আছে কিনা ... '
    ----- ' সেটা এই মুহুর্তে ঠিক বলতে পারছি না ... আর একদিন আসতে হবে । সেদিন সব বলে দেব ... কোন কিছু অজানা থাকবে না আপনার । হয়ত আপনার হবু জামাইকেও সেদিন এনে হাজির করতে পারি ...'
    শেষের কথাগুলো বাসন্তীদেবীর মাথার অনেক ওপর দিয়ে চলে গেল । প্রস্থান উদ্যত প্রতিবিম্বর দিকে তিনি  বিভ্রান্ত দৃষ্টিতে তাকিয়ে রইলেন।
    সুমনা হাসি চাপার চেষ্টা করে যাচ্ছে  আর ভাবছে ... 'ছেলে আপনার মেয়ের থেকে বহুগুণ গুণবান ..'
    ওরে আমার গুণবান রে ... দেখাচ্ছি মজা ... '

           ( চলবে )

    ********************************************
    পুনঃপ্রকাশ সম্পর্কিত নীতিঃ এই লেখাটি ছাপা, ডিজিটাল, দৃশ্য, শ্রাব্য, বা অন্য যেকোনো মাধ্যমে আংশিক বা সম্পূর্ণ ভাবে প্রতিলিপিকরণ বা অন্যত্র প্রকাশের জন্য গুরুচণ্ডা৯র অনুমতি বাধ্যতামূলক। লেখক চাইলে অন্যত্র প্রকাশ করতে পারেন, সেক্ষেত্রে গুরুচণ্ডা৯র উল্লেখ প্রত্যাশিত।
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]


মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত
পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। ঠিক অথবা ভুল প্রতিক্রিয়া দিন