• হরিদাস পাল
  • খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে... (হরিদাস পাল কী?)
  • করোনা আতংকে অকারণ মবলিঞ্চিং - অর্চন মুখার্জি, জয়দীপ জানা

    বকলমে
    বিভাগ : আলোচনা | ২৩ মার্চ ২০২০ | ৩৮৫ বার পঠিত
  • ভুল যে করে সে ঠিক লোক হয়,
    ঠিক যে করে সে জুতোপেটা খায়।

    দৃশ্য ১ঃ এক আতঙ্কিত নেটিজেন ভদ্রমহিলার সোশাল সাইটে পোষ্ট, তাঁর পাশের ফ্ল্যাটে বিদেশ থেকে একজন এসে ১০ দিন ঘরবন্দী হয়ে বসে আছেন। কেন তিনি টেস্ট করাতে যাচ্ছেন না। তিনি পুলিশে খবর দিয়েছিলেন। পুলিশ এসে ওই বিদেশ ফেরত ব্যক্তির কিছু সিম্পটম নেই বলে ফিরে গেছে। উনি বুঝতে পারছেন না কি করে এর বিহিত করবেন।
    দৃশ্য ২ঃ স্বাস্থ্যভবনের এক কর্মী মাস্ক না পড়ে অফিস গিয়েছিলেন। রাস্তা ও অফিসে তাকে রীতিমতন শাসানি শুনতে হয়েছে, তিনি সরে না গেলে মার খেতেও পারতেন।
    দৃশ্য ৩ঃ নেপাল ভারত সীমান্তে মেচী নদীর ওপরে একটা পুল। দিনে টানা ১২-১৪ ঘন্টা ধরে সীমান্ত পারাপারকারী প্রত্যেকটা গাড়ি পরীক্ষা করছেন এক রাজ্যের এন্টোমোলজিস্ট। অনেক সময় মাস্ক নেই, কারণ কালোবাজারীর কারণে মাস্ক অপ্রতুল।
    দৃশ্য ৪ঃ কলকাতার এক সরকারী চিকিৎসক সোজাসুজী নিদান দিচ্ছেন WHO গাইডলাইন না মানার, কারণ তার অনুমান এটা ভুল। এই অনুমান শুধুই অনুমান, এর বেশী কিছু নয়।
    দৃশ্য ৫ঃ রাজ্যের এক বয়স্ক ডায়ালিসিস রোগীর বাড়ির লোক হন্যে হয়ে মাস্ক খুঁজে বেড়াচ্ছেন সারা কোলকাতা জুড়ে। পেলেন একটা, তার দাম ৯৫০ টাকা।

    ওপরের কোন দৃশ্যই কাল্পনিক নয়।
    কথা না বাড়িয়ে WHO, কেন্দ্রীয় ও রাজ্য সরকারী গাইডলাইন দেখে নিই।

    আজ অন্তত গাইডলাইন মানার জন্য কাউকে যেন আক্রান্ত হতে না হয়।
    আপনার ভুলভাল নিয়ম মানার জন্য গাইডলাইন মানা কাউকে অসুবিধেয় না পড়তে হয়।
  • বিভাগ : আলোচনা | ২৩ মার্চ ২০২০ | ৩৮৫ বার পঠিত
আরও পড়ুন
বলি! - Tridibesh Das
আরও পড়ুন
পি কে - Anjan Banerjee
  • আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা ভাইরাস

  • পাতা : 1
  • π | 162.158.23.100 | ২৩ মার্চ ২০২০ ০১:১৪91704
  • এই গাইডলাইনটা নিয়ে সমস্যা আছে। আমি যদ্দুর কথা বলে যা বুঝেছি, মাস্কের অপ্রতুলতার কারণে রিস্ক অনুযায়ী, যাঁদের সব চেয়ে রিস্ক, হবার আর যাঁদের ছড়াবার সম্ভাবনা সবচেয়ে বেশি, তাঁদের যেন থাকে ( অলরেডি নেই) সে জন্য।
    নইলে, আগেও অনেক জায়গায় লিখলাম। যুক্তি দিয়ে ভাবতে গেলে,
    ১। যদি এয়ারবর্ন নাও হয়, তিন ফুট ট্রাভেল করেই সারফেসে পড়ে যায়, তাও, একটা খুব ভিড় ট্রেনে বাসে, ফ্লাইটের পাশের সিটে কারুর নাক মুখের খুব কাছে আক্রান্ত মাস্ক না পরা কেউ হেঁচে কেশে দিলে, কথা বললে? সেক্ষেত্রে সুস্থ ব্যক্তি পরে থাকলে কিছুটা হলেও প্রোটেকশন তো।স্বাস্থ্যকর্মীদের থেকে খুব কম রিস্ক এসব খুব ক্লোজ কন্ট্যাক্টের জায়গায় নেই বলে মনে করি।

    ২। এবার আরো সমস্যা হল। বলছে আসিম্পটমেটিক স্টেজেই ছড়াতে পারে। তাহলে আরোই চিত্তির। আক্রান্ত জানেনই না তিনি আক্রান্ত, সিম্পটম ও নেই, অতেব এই গাইডলাইন অনুযায়ী পরবেন না।কিন্তু কথা বললে খুব ক্লোজ কন্টাক্টে ছড়াতে পারেন। তাহলে এখানেও গাইডলাইন ভেংংেংে অন্যেরা পরে থাকলে ভাল। বিশেষ করে বিদেশ থেকে ফেরা লোকজন না পরে ঘুরে বেড়ালে আর তাঁদের ক্লোজ কন্টাক্টে যেতে হলে।

    ৩। আরো ভয়নকর। এসব কিছুই বলা হয়েছে, এই ভাইরাসককে এয়ারবর্ন না ধরে। কিন্তু ক'দিন আগেই পড়লাম, হতেও পারে।
    আরআজ পড়ছি ( হু র মূল স্টেটমেন্ট এখনো দেখিনি),
    The World Health Organization is considering “airborne precautions” for medical staff after a new study showed the coronavirus can survive in the air in some settings.

    The virus is transmitted through droplets, or little bits of liquid, mostly through sneezing or coughing, Dr. Maria Van Kerkhove, head of WHO’s emerging diseases and zoonosis unit, told reporters during a virtual news conference on Monday. “When you do an aerosol-generating procedure like in a medical care facility, you have the possibility to what we call aerosolize these particles, which means they can stay in the air a little bit longer.”
    https://www.cnbc.com/2020/03/16/who-considers-airborne-precautions-for-medical-staff-after-study-shows-coronavirus-can-survive-in-air.html?fbclid=IwAR2-SKJK3lbT2jRJdzuSf4ke70yIcSTQTn-XuiMZ-Bz0YYBkKhm_KxbO-R4

    এই যে, আগেরটা। নেচার ব্রিফিং এ দিয়েছিল। পড়ে দেখুন ভাল করে। খুব ইন্টারেস্টিং রিড।
    https://www.wired.com/story/they-say-coronavirus-isnt-airborne-but-its-definitely-borne-by-air/

    অবশ্যই আইসোশনে বাড়িতে বসে থাকলে, সোশাল ডিস্ট্যান্সিং করলে, ফাঁকা জায়গায় ঘুরলে পরার মানে নেই হয়ত, ঠিকভাবে না পরলে আরো ক্ষতি হয়ত, এই বাড়ন্ত মাস্কের দিনে অবশ্যই স্বাস্থ্যকর্মী আর আক্রান্তদের পরার প্রয়োজনীয়তা জনিত প্রায়োরিটি অনেকই বেশি, কিন্তু তাও, এই গাইডলাইন আমার সমস্যাজনক মনে হয়েছে। অযৌক্তিক বলা ভাল। বিশেষ করে আমাদের কত ভিড়েঠাসা দেশে। লকডাউন না হলে তো তাইই। বা, ধরুন হাস্পাতালের লাইনে, অপেক্ষারত অবস্থায়। যে কেউ হতেই পারে আক্রান্ত। সেখানে থাকা, এই ফ্লু সিম্পটম না থাকা লোকজনের রিস্ক স্বাস্থ্যকর্মীদের কাছাকাছিই কিন্তু প্রায়!
  • π | 162.158.22.147 | ২৩ মার্চ ২০২০ ০৪:২৯91708
  • অরিন | 198.41.238.121 | ২৩ মার্চ ২০২০ ০২:৪৪437925
    এখানে যেটা গোলমেলে, এই সতর্কবার্তাগুলো প্রায় সব পুরোনো অভিজ্ঞতার ভিত্তিতে যার জন্য বলছে "হেলথি পিপল" এর মাস্ক পরার প্রয়োজন নেই। সেদিক দিয়ে তো এই নির্দেশ ঠিক ই আছে, শুধু শুধু সুস্থ মানুষ মাস্ক পরবেই বা কেন, আর ভাইরাল ইনফেকশন যদি এমন হতো যে যেইমাত্র ইনফেক্টেড হলেন তার কিছুক্ষনের মধ্যে লক্ষণ বেরিয়ে পড়লো, আপনাকে আলাদা করে রেখে কন্টাক্ট ট্রেস করে পরীক্ষা নিরীক্ষা করে ট্রান্সমিশন বন্ধ করে দেয়া যেতে পারে, তখন সাধারণ সুস্থ মানুষের নাকে মুখোশ পরে থাকাটা খুব একটা কাজের নয় ।

    কিন্তু এই বিশেষ করোনার ক্ষেত্রে যে লোকটার মনে করুন সংক্রমণ হয়েছে, বা তার বাড়িতে আরো কেউ সংক্রমিত তিনি জানেন না, তাদের মধ্যে অনেকেরই লক্ষণ বেরোতে এখনো দু চার দিন বাকি, সেই মানুষটা আপাত ভাবে 'সুস্থ' কিন্তু আসলে তা নয় । এনার থেকে অন্য লোকের সংক্রমণ হতে পারে । এদের নিয়েই সবচেয়ে বেশি সমস্যা। এঁরা যদি নিজে জানতেন যে যিনি রোগ ছড়াচ্ছেন তো তিনি অবশ্যই মাস্ক পরতেন, এমনিতে দেখলে সুস্থ লাগলেও পরতেন । এখন টেস্ট না করলে তো জানার কোনো উপায় নেই যে আপাত ভাবে কোন সুস্থ লোকের ইনফেকশন হয়েছে, আর টেস্ট তখনি হবে যখন তিনি "নিজে" সন্দেহ করে টেস্ট করতে যাবেন।

    এই সব কারণে সরকারি নির্দেশাবলী যাই হোক, নিজেরা একটু সতর্ক হয়ে যদি মনে হয় যে এমন জায়গায় থাকেন যে আপনি রোগ হয়েছে এমন কারো সংস্পর্শে এসেছেন বা নিজে নিজে আলাদা হয়ে থাকা সম্ভব হচ্ছে না (বাড়িতে অনেক লোক, ঘর কম), তখন একটা মাস্ক পরে থাকলে অন্তত খুব ক্ষতি হবে না।
  • করোনা ভাইরাস

  • পাতা : 1
  • গুরুর মোবাইল অ্যাপ চান? খুব সহজ, অ্যাপ ডাউনলোড/ইনস্টল কিস্যু করার দরকার নেই । ফোনের ব্রাউজারে সাইট খুলুন, Add to Home Screen করুন, ইন্সট্রাকশন ফলো করুন, অ্যাপ-এর আইকন তৈরী হবে । খেয়াল রাখবেন, গুরুর মোবাইল অ্যাপ ব্যবহার করতে হলে গুরুতে লগইন করা বাঞ্ছনীয়।
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত