• আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা

  • পাতা : 1 | 2
  • π | 172.68.146.247 | ২১ মার্চ ২০২০ ২১:৫৪91663
  • হুম্ম, এল।

    এই যে টেস্টিং এর ক্রাইটেরিয়া রিলাক্স করা হল, এটা লেটেস্ট। উপরে গাইডলাইনটা দেওয়া থাকছে,

    Current testing strategy:

    i. All asymptomatic individuals who have undertaken international travel in the last 14 days:

    - They should stay in home quarantine for 14 days. - They should be tested only if they become symptomatic (fever, cough, difficulty in breathing) - All family members living with a confirmed case should be home quarantined

    ii. All symptomatic contacts of laboratory confirmed cases.

    iii. All symptomatic health care workers.

    iv. All hospitalized patients with Severe Acute Respiratory Illness (fever AND cough and/or shortness of breath).

    v. Asymptomatic direct and high-risk contacts of a confirmed case should be tested once between day 5 and day 14 of coming in his/her contact.

    - Direct and high-risk contact include those who live in the same household with a confirmed case and healthcare workers who examined a confirmed case without adequate protection as per WHO recommendations.Current testing strategy:

    i. All asymptomatic individuals who have undertaken international travel in the last 14 days:

    - They should stay in home quarantine for 14 days. - They should be tested only if they become symptomatic (fever, cough, difficulty in breathing) - All family members living with a confirmed case should be home quarantined

    ii. All symptomatic contacts of laboratory confirmed cases.

    iii. All symptomatic health care workers.

    iv. All hospitalized patients with Severe Acute Respiratory Illness (fever AND cough and/or shortness of breath).

    v. Asymptomatic direct and high-risk contacts of a confirmed case should be tested once between day 5 and day 14 of coming in his/her contact.

    - Direct and high-risk contact include those who live in the same household with a confirmed case and healthcare workers who examined a confirmed case without adequate protection as per WHO recommendations.
  • b | 172.68.146.247 | ২১ মার্চ ২০২০ ২২:১৫91664
  • একটি সর্বভারতীয় প্রতিষ্ঠানে সহ অধিকর্তার ই মেলঃ
    The honorable Prime Minister of India in his address to the nation on 19th March called for a “Janata curfew” on March 22nd from 7 am-9 pm. In this, except those involved in essential services, are requested to be confined in their house. This is not only a social distancing for breaking the chain but also a symbolic expression to India’s readiness to fight the challenges of the COVID-19 pandemic.

    I therefore request all staffs, faculty members and students staying in the campus neither to leave our residence, not get on to the streets nor roam around our localities. I also request the campus residents to not entertain any guests or other persons as far as possible including house helpers, gardeners, etc. to your homes during this period.

    Between 5 pm – 5.15 pm, our ambulance will be roaming around the residential areas with siren. As an expression of our solidarity to the health workers of our country let us all salute them for their tireless and sincere efforts in fighting the pandemic by standing at either our doors or windows or balcony and clap our hands, beat our plates or ring our bells.

    I request all of you to take this in a positive sense and request you to be a part of this endeavor.

    With best regards
  • pi | 172.69.135.201 | ২১ মার্চ ২০২০ ২২:৫২91665
  • বিদা, লিনটার জন্য অনেক ধন্যবাদ। উপরে রেখে দেওয়া যায়। কেউ বাংলা করলে ভাল হত। অবশ্য অনুমতিও লাগবে।
  • π | 162.158.23.94 | ২২ মার্চ ২০২০ ১২:২০91683
  • কী।করণীয় নয়, তার আরেক প্রকৃষ্ট উদাহরণ।

    হ্যাঁ, সেটাই ভয়।

    আরেক দায়িত্বজ্ঞানহীনতার উদাহরণ। এই বস্তিতে লোকজন কোথা থেকে কত সোশ্যাল ডিস্টেন্সিং করবেন আর কীভাবে ক'বার হাত ধোবেন।? বস্তির ওই জনঘনত্বে তো দাবানলের মত ছড়াতে পারে!!
    বিদেশ থেকে ফেরার পরে এটুকু সাবধানতা নেওয়া যায়না, সচেতনতা দেখানো যায়না??

    কাল আমাদের কম্পলেক্সেও শুনলাম লোকজন ইউকে থেকে ফিরে, হোন কোয়ারান্টাইনের কড়া নির্দেশ বেলেঘাটা আইডি থেকে দেবার পরেও, বাজারঘাটে ঘুরে বেরিয়েছেন।

    মনে হয়, এগুলো নিয়ে এইসময়ের জনন্য পাব্লিক হেলথ আক্ট লাগিয়ে ফাইন ইম্পোজ না করলে হবেনা।
    https://indianexpress.com/article/india/coronavirus-case-in-a-mumbai-slum-officials-hit-tracking-hurdle-6324652/
  • π | 188.114.110.105 | ২২ মার্চ ২০২০ ১৫:০৩91693
  • Indian Council of Medical Research (ICMR) issues guidelines for COVID-19 testing by private laboratories. Maximum cost for testing samples capped at Rs 4,500 (Rs 1,500 for screening test for likely cases & additional Rs 3,000 for confirmation test).
  • π | 162.158.23.100 | ২২ মার্চ ২০২০ ১৫:৫৮91694
  • কাল বিকেল ৪ টে থেকে কোলকাতা সহ সব মিউনিসিপালিটি পুরো লকডাউন । অত্যাবশ্যকীয় পণ্য পরিষেবা, ওষুধ বাদে। ভাল সিদ্ধান্ত। আরো আগে নিলেই হয়তো ভাল হত। আশা কররি স্ট্রিক্ট এনফোর্সমেন্ট হবে। যাঁ্রা মানবেন না, কড়া শাস্তি। আর সেই সংগে রিলিফ মেজারস থাকবে। বিশেষ করে ডেইলি ওয়েজ আর্নারদের জন্য। হয়তো ইতিমধ্যেই নেওয়া হয়েছে। একটু জানান।
    আর বাকি জেলা কী হচ্ছে?
    পুনে থেকে যে ট্রেন এল তাদের সবার স্ক্রিনিং হল, কোয়ারান্টাইন কি করা যায়?
    এয়ারপোর্ট্ব বিশেষ কিছু দেশ থেকে এলে বাধ্যতামূলক কোয়ারান্টাইন ( নিজের ঘরে না), করা যায়? বিদেশ ফেরত লোকজন, নানা জায়গায় খবর পাচ্ছি, দিব্বি ঘুরে বেড়াচ্ছেন, ঘরে কাজ করতে আসতেও বাধ্য করছেন।!

    আরেক্টা কথা, কাল থেকে সবাই নিশ্চয় কেনাকাটার জন্য লাইন দেবেন। কাল কিন্তু ভিড়ভাট্টায় প্রচুর কন্টাক্টের সম্ভাবনা। সেটা আটকানো, মিনিমাম ৩ ফুট দূরত্ব সর্বত্র মেন্টেন করানো, হবে আশা করি। কোলকাতা থেকে তো প্রচুর লোক গ্রামে চলে যেতে চাইবেন, সেই নিয়ে কোন ব্যবস্থা নেওয়া হবে? অলরেডি শুনছি ইরান থেকে ফেরত আসা অনেকে গ্রামে, ঠিক কি?
  • ছাগলছানা | 162.158.166.148 | ২৩ মার্চ ২০২০ ১৮:৩৪91713
  • covidout এখন ডাউন হয়ে আছে
  • ছাগলছানা | 162.158.167.185 | ২৪ মার্চ ২০২০ ০৮:১৩91722
  • https://www.covid19india.org/ রাখা উচিত না অফিসিয়াল তথ্যসূত্র হিসেবে । এর ডেটা পাড়ামন্য নয় । লোকেদের দেয়া এবং তাতে এরর মার্জিন থাকবেই
  • খাবার ডেলিভারির জন্য রোবট | 188.114.111.176 | ০১ এপ্রিল ২০২০ ১৪:০৯91942
  • IIT researchers developing robots to deliver food, medicines to patients in isolation wards
    Researchers at the Indian Institute of Technology (IIT) are developing two robots which can be deployed in isolation wards for COVID-19 infected cases for delivery of food and medicine to patients and the collection of contagious waste.
    The team from IIT Guwahati's Mechanical Engineering and Electrical Engineering departments believes the move will reduce human intervention in isolation wards.
  • ঋক্ ধর্মপাল বন্দ্যোপাধ্যায় | 108.162.215.123 | ১১ এপ্রিল ২০২০ ০১:৩২92151
  • ভারতে প্রতিদিনের আক্রান্তের সংখ্যা, টেবিল করা আছে এমন একটি লিঙ্ক কেউ দিয়েছিলেন। পাওয়া যাবে?
  • r2h | 162.158.198.189 | ১১ এপ্রিল ২০২০ ০১:৪১92152
  • ওপরে ড্যাশবোর্ড তথ্যাবলীর মধ্যে আছে
  • !! | 172.69.134.170 | ১৯ এপ্রিল ২০২০ ০৬:৫০92511
  • এই প্রথম উপরে দেওয়া সরকারি সাইটের ডাটা দুটো ড্যাশবোর্ডের চেয়েও অনেক বেশি!  ২০০০+!! 

    প্রতিদিনের ডাটা উপরে আলাদা করে ক্লিক করলেই পাওয়া যায়।

  • হু | 172.69.135.233 | ২০ এপ্রিল ২০২০ ০৮:২৮92551
  • ১৪ এপ্রিলের খবর। এখন অনেক সংখ্যাই এই ৫ দিনে দেড় থেকে দ্বিগুণ, যেমন আমেরিকায় মৃত ২২০০০ থেকে ৪০০০০, ইন্ডিয়ায় আক্রান্ত ১০০০০ থেকে ১৭০০০।

    New York: In first such bold admission, the World Health Organization (WHO) on Monday said that the SARS-CoV2 -- the new corovavirus that has infected over 18 lakh people and killed over 1.17 lakh globally -- is at least 10 times deadlier than the Swine Flu virus.

    In a virtual media briefing from Geneva, WHO chief Tedros Adhanom Ghebreyesus warned the governments not to lose control over lockdowns and take strict measures to flatten the Covid-19 curve.

    "We know that Covid-19 spreads fast, and we know that it is deadly, 10 times more deadly than the 2009 flu pandemic," the WHO chief stressed.

    The 2009 Swine Flu pandemic was an influenza pandemic that lasted from January 2009 to August 2010, and the second of the two pandemics involving the H1N1 influenza virus, albeit a new strain. It killed 18,036 people besides infecting 6,04,446 others globally.

    "This pandemic is much more than a health crisis," said the WHO chief.

    As some of the European countries hardest hit by the Covid-19 pandemic are starting to see signs of slowing in infections, the WHO sounded a stern warning against lifting restrictions too soon, saying it could lead to a deadly resurgence of Covid-19.

    "In the past week, we've seen a welcome slowing in some of the hardest-hit countries in Europe like Spain, Italy, Germany and France," said the WHO Director-General.

    As "some countries are already planning the transition out of stay-at-home restrictions," the WHO chief warned that "lifting restrictions too quickly could lead to a deadly resurgence."

    "The way down can be as dangerous as the way up if not managed properly," he said, underlining that the WHO is working with the affected countries on strategies for gradually and safely easing the restrictions.

    The US has become the epicentre of the disease that originated in China late last year. The virus has so far infected over 557,000 people in the US, while more than 22,000 have died.
  • একের পর এক ভুলভাল টেস্টিং কিট | 162.158.165.173 | ২২ এপ্রিল ২০২০ ০৮:০২92602
  • এসব নিয়েও লিখুন জয়ন্তবাবু?
    আমেরিকার রিসার্চ কি এখন ভরসার অযোগ্য ? ট্রাম্প আমলে কি বাজেট কাট হয়েছিল? নাকি এসব টাকা পয়সা মারার নতুন কল? একের পর এক ফল্টি কিট। চায়নার সাপ্লাই করা কিট ইউ কেও দেখল ফল্টি, কিন্তু তারা অন্তত নিজেরা টেস্ট করে দেখে নিয়েছে আগে।

    FDA র আপ্রুভাল পাওয়া আন্টিবডি কিট কাজ করেনা ( সে চাইনিজ কিট হলেও আপ্রুভাল পায় কিকরে আর ইন্ডিয়ার ও শিক্ষা হওয়া উচিত, FDA র আপ্রুভাল দেখে নিজেরা পরীক্ষাই করল না!),

    "The ICMR-NICED authorities said it could be possible because the kits have not been standardised and it is
    considering the matter “very seriously”. These materials (kits) had the approval of the US Food and Drug Administration, but it was learnt that these kits show error results when kept above 20 degrees Celsius."

    https://www.financialexpress.com/lifestyle/health/icmr-niced-withdraws-defective-covid-19-test-kits-from-west-bengal-labs/1935213/

    নিজেদের ফাস্ট PCR abbott এত ফলস নেগেটিভ রেজাল্ট দেয়।
    The fastest test being used to diagnose people infected with the coronavirus appears to be the least accurate test now in common use, according to new research obtained by NPR.

    Researchers at the Cleveland Clinic tested 239 specimens known to contain the coronavirus using five of the most commonly used coronavirus tests, including the Abbott ID NOW. The ID NOW has generated widespread excitement because it can produce results in less than 15 minutes.

    But the ID NOW only detected the virus in 85.2% of the samples, meaning it had a false-negative rate of 14.8 percent, according to Dr. Gary Procop, who heads COVID-19 testing at the Cleveland Clinic and led the study.

    https://www.npr.org/sections/health-shots/2020/04/21/838794281/study-raises-questions-about-false-negatives-from-quick-covid-19-test

    নিজেদের প্রথম টেস্ট কিট বানাতে দুই মাস ধরে ন্যাজে গোবরে হয়ে গাদা গাদা ভুল কিট বানিয়ে শুরুর দিকের টেস্টিং প্রায় হতেই দেয়নি, এতবড় ডিজাস্টার। ট্রাম্প আডমিনিস্ট্রেশন তো সুগ্রীব দোসর।
    এখানে পড়ে দেখুন, বিস্তারিত আছে, প্রথম দিন থেকে কী হয়েছে। লজ্জাজনক বললেও তো কম। অনেকটাই প্রিভেন্টেবল ছিল।
    https://www.nytimes.com/2020/03/28/us/testing-coronavirus-pandemic.html
  • ডাক্তার দিএম কোভিড মিট | 172.69.135.45 | ৩০ এপ্রিল ২০২০ ০৮:৩৩92833
  • On April 28, 2020 evening the delegation of doctors met the Chief Minister, West Bengal. West Bengal Doctors Forum along with other Constituents of Joint Platform of Doctors (AHSD, DOPA, HSA and Shramajibi Swasthya Udyog), SDF, MSC and IMA a participated in the meeting. The Chief Secretary, the Health Secretary, Home Secretary, the DME and DHS were present in the meeting.

    The Chief Minister emphatically assured

    The doctors about the steady supplies of PPE, Masks, Sanitisers and others.
    ETO sterilization of reusable PPE as per guidelines were being organized and have started at few places too.
    Transportation (between places of work and home) and accommodation of HCWs, specially those in Govt. Service, were having teething problems and the issue would be specifically handled by the Chief Secretary himself.
    Special financial package for Covid postive HCWs, Special protection of SRs and JRs, Separate treatment and intensive diagnosis facilities (Test, Test and more Tests, even for asymptomatic contact HCWs) and duty hours of the doctors were also mentioned.
    Doctors had been assured of full support by the Administration. The Chief Secretary as per instruction by the CM will look into the matter actively.
    Doctors reiterated that utmost care should be taken for all medical staff and that wasthe only way to increase their moral and boost the confidence. It was unanimously agreed upon by all concerned.
    CM on being suggested assured that NGOs, self help groups would be suitably utilised for dissemination of messages, preparation of masks and prevention of spread of rumors by a section of people.
    As per doctors’ suggestion it was also accepted that a research institute would be formed for study of different issues related to epidemic diseases.
    It was also assured by her that epidemiologist, virologists and preventive medicine specialists would be engaged for effective control and management of disease.
    She instructed that no positive patient should be harassed for want of bed. Phone no. of two officers responsible for arrangement of admission would be shared so that doctors could accordingly make arrangements.
    The issue of Death Audit Committee had been appropriately raised by all and it was agreed that Death Certificate will be issued as per ICMR guidelines using ICD codes.
    All the organisations of doctors would continue to participate in long fight against CORONA and expected same reciprocity from the Government.
    The proposal that no Health Care Workers in Private Health Care settings should loose jobs was appreciated by the CM and she assured that she would request the private owners to refrain from any retrenchment.
    It was also assured that all doctors who would be operating the private clinics would have options to procure PPEs at Govt. rates from appropriate places all over the state e.g. fair price shops.
    The Joint Platform of Doctors expressed satisfaction that the Chief Minister heard its long standing grievances which it had been pursuing for last one and a half months. It also requested that there should be more such meetings in future. The CM assured that all grievances of doctors should be henceforth directly sent to her. She thanked and requested doctors to continue their fight against diseases. The meeting ended with vote of thanks to the chair.

    The WBDF leadership stated that they have always been of principled views that safety, security and dignity of the medical community is of paramount importance and concern and they will continue to keep all channels of communication open at all times and expect all concerned to reciprocate.

    They expected that the assurances given would be realised at the earliest. As there is a significant number of HCWs already testing positive, with two senior members of the fraternity passing away and several others in quarantine, they shuddered to think of a situation where there would be dearth of manpower to cope up with the increasing case loads.
  • কেস বাড়ছে | 162.158.50.254 | ০৪ মে ২০২০ ১৮:৩০93018
  • আজ নতুন কেস ৩৫০০-৪০০০ হয়ে যাবে!
  • ~ | 162.158.166.56 | ০৫ মে ২০২০ ০০:৩৯93038
  • হুম, https://www.covid19india.org/ বলছে ৩৬৫৬।

    আর আনভেরিফায়েড উড়ো কথা শুনে মনে হয় তথ্যগোপনে পবঙ্গ একা না।
  • হুম্ম | 172.68.146.133 | ১৩ মে ২০২০ ০৮:৫৪93263
  • যেমন দুম করে লকডাউন করা হল তেমনি দুম করে লকডাউন তোলা হবে বলে মনে হচ্ছে। প্রথমেই আন্তঃরাজ্য ট্রেন চালানো খুব অপরিহার্য্য ছিল ? প্রথম কদিন তো রাজ্যস্তরে কিছু সিলেক্টিভ লোকাল ট্রেন চালিয়ে রাজ্যস্তরের অর্থনীতিটাকে একটু সচল করার চেষ্টা করা যেত। আমাদের রাজ্যে খুব কম লোক লোকাল ট্রেনে করে কর্মস্থলে যায় ? কর্মস্থলগুলো কম কর্মী দিয়ে চালানো হলে আর কিছু সিকেক্টিভ লোকাল ট্রেন চালানো হলে তো রাজ্যের ম্যাক্সিমাম সরকারি/বেসরকারি সংস্থা চালু হয়ে যেত। সেসব না করে হঠাৎ এক দিনের ঘোষনায় সরকার আন্তঃরাজ্য ট্রেন চালু করে দিতে মরীয়া হয়ে উঠল কেন ? তাও আবার যে ট্রেনগুলো চালানো হচ্ছে সেগুলো এসি ট্রেন। এইসময়ে কেউ এসি ট্রেন চালায় ? কোনো একজনের শরীরে ভাইরাস থাকলে তো পুরো ট্রেনে ছড়িয়ে পরবে ! এখন এতদিন পর দুম করে আন্তঃরাজ্য ট্রেন না চালিয়ে লকডাউনের আগে যখন কেস কম ছিল তখন কদিন ট্রেন চলতে দিলে কি ছিল। সেই তো পরে শয়ে শয়ে শ্রমিক স্পেসাল চালাতে হল।
    এই সরকারকে আগাগোড়াই সব বিষয়ে অতিরিক্ত তাড়াহুড়ো করতে দেখেছি। করতে গিয়ে ছড়ায়। দিশাহারা টাইপের আচরণ করে। যখন কেস হাতে গোনা ছিল তখন লকডাউন , মধ্যবর্তী অবস্থায় লকডাউন+ কনটেইনমেন্ট, আর যখন কেস ৭০০০০ ছাড়িয়েছে তখন শুধু কনটেইনমেন্ট। পুরোটাই উলটো। একদম প্রথমেই যে গুটিকয়েক জায়গায় কেস ছিল সেই জায়গাগুলোয় কনটেইনমেন্ট করা যেত। তা না করে প্রথমেই লকডাউন করে দেওয়া হল। তাতে যখন কোটি কোটি মানুষের জীবনে চূড়ান্ত অর্থনৈতিক বিপর্যয় নেমে এল তখন সরকার জোন ওয়াইজ কনটেনমেন্টের রাস্তায় হাঁটল। সময় থাকতে কনটেইনমেন্ট করা হলে লকডাউনের থেকে বেশি ইফেক্টিভ হতে পারতো । কারণ লকডাউন সারা দেশ জুড়ে হলেও তাতে কড়াকড়ি কম হয়, জোন ওয়াইজ কনটেইনমেন্ট করলে তাতে কড়াকড়ি বেশি করা যায়। প্রথম দিকে গুটিকয়েক জায়গায় কেস ছিল, সেই জায়গা গুলো পুরো সিল করে দিলে ফলাফল খুব আলাদা হত কি ? কেস বাড়ার হলে লকডাউনেও বাড়বে, কনটেইনমেন্টেও বাড়বে। দুটোরি লক্ষ্য এক। ইনফেকশনের স্প্রেড হওয়াটাকে বিলম্বিত করা। সারা দেশ জুড়ে লকডাউন করে ভাইরাসের চেন অফ ট্রান্সমিশন ভেংঙে দেওয়া যায় এমনটা কেউ কখনো বলেনি। যে জিনিস বেশিদিন টানতে পারবো না সে জিনিস প্রথমেই করার কি দরকার ? কেস অনেক বেড়ে গেলে সাময়িক ভাবে রাশ টানার জন্যে লকডাউন করা যেতে পারতো, নচেত প্রথম থেকেই ব্রেক দিয়ে গাড়ি চালিয়ে কি লাভ ?
    যাই হোক, এসব কথা বলা বেকার। আমাদের দেশের মানুষের মানসিকতাটাই এরকম। ন্যায্য চিন্তা ভাবনায় বিশ্বাসী নয়। যখন যা দরকার তা করব না। আগ বাড়িয়ে ভাববো। পরে আর সামলাতে পারবো না। মানুষ যেমন সরকার তেমন।

    ডাঃ রাকেশ ভট্টাচার্য
  • !! | 14.139.221.129 | ১৯ মে ২০২০ ১৪:১০93472
  • একি! ৮০০ টা কেস আনআসাইন্ড রাজ্যে দেখাচ্ছে কেন!
  • রামছড়ানো | 2402:3a80:a43:4321:0:4e:5565:df01 | ৩১ মে ২০২০ ১৩:৫৬93846
  • আজ রিপোর্ট দিয়েছে, নানা মডেল নাকি দেখিয়েছে লকডাউন হয়ে কত লাখ কেস, কত হাজার মৃত্যু এড়ানো গেছে। যদিও এই ভিকেপাল সাহেবই তার আগের এক মডেল দেখিয়ে বলেছিলেন ১৬ই মে থেকে কেস শূন্য হয়ে যাবে। সাংবাদিক সম্মেলনে কি গরুগাধারা যায় যে এসব নিয়ে প্রশ্ন তুলতে পারেনা!

    আর এই কেস তো তখনকার মত এড়ানো। এখন তো আরো বেশি হবে। লকডাউন করে ওই হাস্পাতাল টেসট বাড়ানোর সময় কিনেছে মাত্র। তা,সেও তো আরো আগে থেকে প্রস্তুতি নিয়েই করতে পারত। অনেক সময় পেয়েছিল ইন্ডিয়া, জানুয়ারি থেকে মার্চ। তখন প্রায় কিছুই করেনি। একমাত্র 'পাপ্পু' সেই ফেব্রুয়ারি থেকে চেঁচিয়ে গেছেন। ভিয়েতনামের রাস্তা নিতে পারত। জাপানে। শুরুর দিকে মাস্ক পরতেও বলেনি,বারণ ও করেছে। সবাইকে না, সট্রাটেজিক টেস্টিং ও কাপবিলিটি অনুযায়ী পুরো করেনি। অল্প যা কেস ছিল, তখন কেন কন্টেনমেন্ট জোন করেনি? সেখানে সিলেক্টিভ আর প্লানড লকডাউন করলেই হত। এখন যেটা করছে, গোড়াতে সেটা করলে এই ভোগান্তি, এই এত ক্ষতি হত না। এখন এই লাখ লাখ লোক কোয়ারান্টাইনে বাধ্যতামূলক, তখন যারা বাইরে বা অন্য কেসের এলাকা থেকে আসছিল, তাদের করলেই অল্পের উপর দিয়ে যেত। করল না কেন?

    এখন ছড়িয়ে ছিটিয়ে লাট। স্বাস্থ্যকর্মীদের নাভিশ্বাস দশা।
    একেই বলে রামছড়ান ছড়ানো!
  • ;) | 2402:3a80:a6a:7e04:0:2e:d425:f301 | ৩১ মে ২০২০ ১৯:০১93853
  • https://indianexpress.com/article/india/experts-criticise-covid-handling-community-transmission-has-set-in-6435172/

    As India gradually opens up, some of the country’s prominent public health and community medicine experts, including two members of an ICMR research group on Covid-19, have criticised the government’s handling of the pandemic and the lack of epidemiologists in decision-making.

    “It is unrealistic to expect that COVID-19 pandemic can be eliminated at this stage given that community transmission is already well-established across large sections or sub-populations in the country,” reads a joint statement by Indian Public Health Association, Indian Association of Preventive and Social Medicine and Indian Association of Epidemiologists.

    “India’s nationwide “lockdown” from March 25, 2020 till May 30, 2020 has been one of the most stringent; and yet COVID cases have increased exponentially through this phase... This draconian lockdown is presumably in response to a modeling exercise from an influential institution which was a ‘worst-case simulation’... Subsequent events have proved that the predictions of this model were way off the mark. Had the Government of India consulted epidemiologists who had better grasp of disease transmission dynamics compared to modelers, it would have perhaps been better served…,” the statement says.
  • r2h | 49.37.12.111 | ০৩ জুলাই ২০২০ ১২:৩০94824
  • কোভ্যাক্সিন নিয়ে কেউ বিস্তারিত জানেন/ লিখবেন?

  • করোনা

  • পাতা : 1 | 2
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত