• হরিদাস পাল
  • খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে... (হরিদাস পাল কী?)
  • দেব কিন্তু আমজনতারই একজন....

    Animesh Baidya
    বিভাগ : আলোচনা | ২৪ মার্চ ২০১৪ | ৭৯ বার পঠিত
  • ইতিমধ্যেই অনেকেই বিষয়টা জেনে গিয়েছেন। অনেক চর্চাও চলছে। একটি সাক্ষাৎকারে অভিনেতা তথা এ বারের লোকসভা নির্বাচনের তৃণমূল কংগ্রেসের প্রার্থী দেবের একটি মন্তব্য রীতিমতো আলোড়ন তুলেছে সর্বত্র। কি সেই মন্তব্য? সাক্ষাৎকারের সেই অংশটি তুলে দেওয়া যাক।
    প্রশ্ন- তার মানে আপনি বিষয়টা(সংবাদমাধ্যমের নজর এখন আরও বেশি করে তাঁর উপরে)এনজয় করছেন?
    দেব- এনজয়....! ইটস জাস্ট লাইক বিয়িং রেপড ইয়ার! ইউ ক্যান সাউট অর ইউ ক্যান এনজয়(হাসি...)! ব্যস, এর বেশি আর কী!

    এমন মন্তব্য ঘৃণ্য নিঃসন্দেহে। এ নিয়ে কোনও সংসয় নেই। তার উপরে লোকসভা নির্বাচনে প্রার্থী হিসেবে দাঁড়ানো একজন যিনি কিনা সাংসদ হতে চান, তাঁর মুখে এমন কথা দুঃখজনক অবশ্যই। কিন্তু এতে ভীষণ অবাক হওয়ার কিছু আছে বলে মনে হয় না। কেন? পুরুষতান্ত্রিক এই সমাজব্যবস্থায় অধিকাংশ জনমানসে ধর্ষণ নিয়ে মনোভাবটা অনেকটা এরকমই।

    উচ্চপদস্থ কারও মুখে এমন মন্তব্যও অবশ্য নতুন নয়। একটু ফিরে তাকানো যাক। গত বছরেরই নভেম্বর মাসের ঘটনা। ক্রিকেট বেটিংকে আইনী বৈধতা দেওয়া নিয়ে কথা উঠলে সংবাদমাধ্যমের সামনে সিবিআই ডিরেক্টর রঞ্জিত সিনহাও অনেকটা একই সুরে মন্তব্য করেছিলেন। কি ছিল তার বক্তব্য? তাঁর মতে, ক্রিকেট বেটিংকে বন্ধ না করতে পেরে তাকে আইনসম্মত করে দেওয়া অনেকটা ওই ধর্ষণ যদি ঠেকাতে না পারি তবে তাকে উপভোগ করার মতো। উপভোগ মানে এনজয়। যে এনজয় করার কথা দেব-ও বললেন।

    এ তো গেলো উচ্চপদস্থ লোকেদের মন্তব্য। আমজনতা কি বলেন ধর্ষণ নিয়ে? এটা বুঝতে আরও একটি পিছনে ফেরা যাক। ১৯৯০ সালের ৫ মার্চ দক্ষিণ কলকাতার একটি অভিজাত বহুতলের বাসিন্দা কিশোরী হেতাল পারেখকে ধর্ষণ ও খুনের ঘটনায় দোষী সাব্যস্ত হওয়ার পর ফাঁসি হয় ধনঞ্জয় চট্টোপাধ্যায়ের। ঠিক তার পরপর একটা কথা রীতিমতো বহুব্যবহৃত হয়েছিল এই বঙ্গে। পাড়ার চায়ের দোকানের আড্ডা থেকে শুরু করে নামী বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্রমহলেও বহু বার ব্যবহৃত হতে দেখেছি সেই কথাটি। সেটি হল, ‘ধরা না পড়লে এনজয়, ধরা পড়লে ধনঞ্জয়।’ আমজনতা এই কথায় হেসেছে, এনজয় করেছে। মানে নারী ধর্ষণ আসলে বহু পুরুষের কাছে আনন্দদায়ক একটি ঘটনা যদি না সে ধরা পড়ে। সুতরাং বুঝতে অসুবিধা নেই যে পুরুষতান্ত্রিক সমাজব্যবস্থায় ক্ষমতাবান পুরুষ ধর্ষণ বিষয়টিকে কী ভাবে দেখে।

    কিছু দিন আগের আর একটি ঘটনা। ভারত বনাম অষ্ট্রেলিয়ার একটি ক্রিকেট ম্যাচে তিন ভারতীয় ব্যাটসম্যানের বিক্রমের মুখে নতি স্বীকার করেছিল অস্ট্রেলিয়া ক্রিকেট টিম। তার পরপরই ফেসবুকে একটি পেজে দেখলাম একজন ইংরেজিতে মন্তব্য করেছিলেন যার বাংলা তর্জমা হয়, ‘তিন ভারতীয়র হাতে ধর্ষিত হল ১১ জন অস্ট্রেলিয় ক্রিকেটার! হুররে!’। সেই মন্তব্যকে লাইক করেছেন প্রচুর লোকও। বিপক্ষকে দুমড়ে দিয়ে আনন্দ প্রকাশের ক্ষেত্রেও তাই আমজনতার কাছে ব্যবহারযোগ্য প্রিয় শব্দ সেই ধর্ষণ।

    দেবের মন্তব্য আমাদের যতোই আলোড়িত করুক না কেন এই ঘটনা ঠিক যে দেব আসলে এই সমাজের অনেকের ভাবনা-চিন্তাকেই প্রতিনিধিত্ব করছেন। ধর্ষণ নিয়ে জনমানসে যে ধারণা, তা-ই প্রতিফলিত দেবের মন্তব্যে। যে ধর্ষক সে তো ধর্ষণে এনজয় করেই এবং ধর্ষিতা যখন ধর্ষণ ঠেকাতে না পারে তখন বরং ধর্ষণটা উপভোগ করাই ভাল। কিছুক্ষণ আগে দেখলাম দেব টুইটারে ক্ষমা চেয়ে নিয়েছেন তাঁর করা মন্তব্য নিয়ে। কী বলছেন তিনি? ‘আমি রাজনীতিতে নতুন। আমার মন পরিষ্কার। কাউকে উদ্দেশ্য করে ওটা বলিনি। আমি মা, বোন, সকল নারী এবং ভাইদের সম্মান করি। কাউকে আহত করতে চাইনি। আন্তরিক ভাবে ক্ষমাপ্রার্থী।’ এই মন্তব্য বিষয়টা আরও খোলসা করে দেয়। দেব আসলে সচেতনে এই মন্তব্য করে কাউকে আহত করতে চাননি। তিনি সরল মনের মানুষ। এই মন্তব্য আসলে তার অচেতন মনের কথা। এবং এ ক্ষেত্রে আমি তাঁকে অবিশ্বাসও করছি না। তবে এখানেই পুরো বিষয়টা স্পষ্ট হয়ে যায় যে, আসলে জনমানস ধর্ষণের ঘটনাকে কি ভাবে দেখে। যা তার চেতন স্তরের আরও নীচে গভীর ভাবে প্রোথিত। সচেতন অবস্থায় আমরা কথা বলার সময় সতর্ক হই। যা ভাবি তার অনেক কিছুই বলি না। কিন্তু অচেতনে থেকে যায় কোনও বিষয় ঘিরে কারও প্রকৃত ধারণা, প্রকৃত বক্তব্য, প্রকৃত অনুভব। তাই দেব যেহেতু রাজনীতিতে নতুন তাই এখনও বুঝে উঠতে পারেননি যে, যা কিছু আমরা ভাবি এবং বিশ্বাস করি তার সব কিছুই বলতে নেই। মানে, ভাবনা এবং বিশ্বাসটা সত্যি, সেটা নিয়ে কোনও প্রশ্ন নেই। কিন্তু এমন কথা প্রকাশ্যে বলতে নেই। রাজনীতিতে নতুন বলেই এটা এখনও শিখে ওঠা হয়নি পুরোপুরি।

    এ বার মূল কথায় আসি। আজ দেবের মন্তব্য ঘিরে আমরা সর্বত্র সমালোচনার ঝড় তুলছি। কিন্তু আমাদের নিজেদের আড্ডায়, আমাদের অচেতন বক্তব্যে আমরা ধর্ষণকে সেই এনজয়-এর সঙ্গে মিলিয়ে ভাবি না তো? মানে দাঁত কেলিয়ে বলি না তো যে, ধরা না পড়লে এনজয়, আর ধরা পড়লে ধনঞ্জয়? খেলায় বিপক্ষ দলকে হারানোকে ধর্ষণের সঙ্গে তুলনা করি না তো? তাই দেবকে সমালোচনা করার সঙ্গে সঙ্গে একটু নিজেদের দিকেও তাকানো হোক, দেখা হোক নিজের কাছের লোকজনের কথাগুলোও। দেবের বিরুদ্ধে প্রতিবাদে গর্জে ওঠার সঙ্গে সঙ্গে প্রতিবাদ হোক এমন সব ধরনের মন্তব্যের বিরুদ্ধেই।
  • বিভাগ : আলোচনা | ২৪ মার্চ ২০১৪ | ৭৯ বার পঠিত
  • আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা ভাইরাস

  • পাতা : 1 | 2 | 3
  • সে | 188.83.87.102 (*) | ২৮ মার্চ ২০১৪ ১০:৫৮73893
  • বিএল এর অ্যাডমিন- ২০১১
  • করোনা ভাইরাস

  • পাতা : 1 | 2 | 3
  • গুরুর মোবাইল অ্যাপ চান? খুব সহজ, অ্যাপ ডাউনলোড/ইনস্টল কিস্যু করার দরকার নেই । ফোনের ব্রাউজারে সাইট খুলুন, Add to Home Screen করুন, ইন্সট্রাকশন ফলো করুন, অ্যাপ-এর আইকন তৈরী হবে । খেয়াল রাখবেন, গুরুর মোবাইল অ্যাপ ব্যবহার করতে হলে গুরুতে লগইন করা বাঞ্ছনীয়।
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত