• হরিদাস পাল  আলোচনা  বিবিধ

  • ।। হিন্দু শব্দের উৎস।।

    Sudipto Pal লেখকের গ্রাহক হোন
    আলোচনা | বিবিধ | ১০ মে ২০২০ | ১৮২৭ বার পঠিত | জমিয়ে রাখুন পুনঃসম্প্রচার
  • হিন্দু শব্দটার উৎস নিয়ে একটা সংশয় অনেকের দেখতে পাই। এটা নিয়ে আলোকপাত করছি। শব্দটির অস্তিত্ব সুলতানী আমলের আগে ছিল কিনা সেই নিয়ে অনেকের সংশয় দেখা যায়। প্রথমেই বলি, এই লেখার উদ্দেশ্য হিন্দু ধর্মের উৎপত্তি খোঁজা নয়, বরং হিন্দু শব্দটার ব্যুৎপত্তি খোঁজা।

    চলুন পঞ্চম পূর্বশতকে, তাকিয়ে দেখি একটা বইয়ের দিকে- ইন্ডিকা। গ্ৰীক উচ্চারণে ইন্দিকা। মেগাস্থিনিসের নয়, তাঁর থেকে অনেক আগে, গ্ৰীক চিকিৎসক Ctesias এর লেখা। কিছুটা বাস্তব কিছুটা আজগুবি এই বই। আজগুবি ব্যাপারটার একটা তাৎপর্য আছে। আজগুবি ব্যাপারগুলো থেকে বোঝা যায় এটা second hand account. হবারই কথা, কারণ এটা আলেকজান্ডারের অনেক আগের সময়। এটি মূলতঃ পারসিকদের কাছ থেকে গ্ৰীকরা ইন্ডিয়ার ব্যাপারে যা শুনেছিল তার ভিত্তিতে লেখা। হেরোডোটাসও একই ভাবে ইন্ডিয়ার কথা লিখেছেন। অতএব এই ইন্দোই, ইন্দোস, ইন্দিকা, ইন্দিয়া এই গ্ৰীক কথাগুলো পারসিকদের হাত ধরেই গ্ৰীসে পৌঁছেছে। সিন্ধু থেকে সোজা ইন্দ হয় না। স থেকে সোজা লুপ্তস্বর হয় না। স থেকে হ হয়, আর হ টা লুপ্তস্বর হয়। পুরোনো পারসিক ভাষায় স হ হয়ে যায় অনেক ক্ষেত্রে। অতএব সিন্ধু আর ইন্ডিয়া শব্দদুটোর মাঝখানে রয়েছে হিন্দ বা হিন্দু বা অনুরূপ কোনো শব্দ। ভারতীয় আর গ্ৰীকের মাঝে রয়েছে পারসিক।

    ভাষাগত ভাবে বোঝা গেল হিন্দ/হিন্দু জাতীয় শব্দ পঞ্চম পূর্বশতকে ছিল। পুরোনো পারসিক ভাষায়।

    এবার দেখা যাক এই শব্দটার কোনো আর্কিওলোজিকাল এভিডেন্স আছে কিনা। আছে। একদম পাথরে খোদাই করা। ইরানের নকশ এ রোস্তম শিলালিপিতে। পঞ্চম পূর্বশতকেই। দারায়ুসের শিলালিপি। ওখানে আছে "হিদুস"। তবে পুরোনো পারসিক লিপিতে চন্দ্রবিন্দু ছিল না, মানে, কথার মধ্যে চন্দ্রবিন্দু থাকলেও সেটাকে লেখার উপায় ছিল না, অতএব হিদুস শব্দটাকে হিঁদুস বলেই মনে করা হয়। হিদুস শব্দটা মূলত উত্তর পশ্চিম ভারতীয় উপমহাদেশকে বোঝাতে ব্যবহার হয়েছিল।

    নকশ এ রোস্তমে এক জায়গায় তিরিশটি আলাদা আলাদা জাতির সৈনিকদের নাম ও মূর্তি সারিবদ্ধভাবে আছে। তিরিশটি জাতির মধ্যে বিভিন্ন ইরানীয় জাতির নামের পাশাপাশি রয়েছে অনেক বিদেশী জাতির নাম- আরব, যবন, ব্যাবিলোনীয় ইত্যাদির সাথে রয়েছে হিঁদুস জাতির বা অঞ্চলের নাম। হিদুস বা হিঁদুস বলতে যে একটা অঞ্চল বা তার মানুষজনকে বোঝাতো দারায়ুসের যুগে, অর্থাৎ শুধুই একটা নদীকে বোঝাতো না- তাতে সন্দেহ নেই।

    পরে অবশ্য মেগাস্থিনিসের ও অন্যান্য গ্ৰীক লেখকদের পরিভাষায় ইন্ডিয়ার ব্যাপ্তি দেখা গেছে দক্ষিণ ভারত অবধি।

    এবার দেখা যাক ফার্সী শব্দ হিন্দুস্তান বা হিন্দোস্তান শব্দটা কতটা পুরোনো। ঐ নকশ এ রোস্তমেরই আর একটা শিলালিপিতেই। রাজা শাপুরের শিলালিপি। তৃতীয় শতক। এখানে পাবেন হিন্দেস্তান।

    আল বিরুনির একাদশ শতকের বইয়ের নামেও আছে হিন্দ। হিন্দু শাহী রাজবংশের কথাও উনি বলেছেন। এটি অবশ্য ইসলাম ধর্ম প্রবর্তনের পরবর্তী যুগে।

    তাহলে বোঝা গেল হিন্দু বা হিন্দ বা ইন্ডিয়া শব্দগুলো exonym বা বহিঃপ্রদত্ত নাম (জার্মান জাতি বা চীন দেশের মতই) যা প্রাচীন পারসিক ভাষা থেকে বিভিন্ন দেশে পৌঁছেছে। প্রাচীনত্ব নিয়ে সন্দেহ নেই। আড়াই হাজার বছর পুরোনো নাম- দারায়ুস ও গৌতম বুদ্ধর সময়ের নাম। উৎপত্তি সংস্কৃত শব্দ সিন্ধু থেকে।

    আবার বলছি হিন্দু শব্দটার উৎস খোঁজাই এই পোস্টের উদ্দেশ্য, হিন্দু বলতে ধর্ম, রিলিজিয়ন, জাতি, না সংস্কৃতি বোঝায় সেটা নিরূপণ করা পোস্টের উদ্দেশ্য নয়।

    তথ্যসূত্র:
    1. https://en.m.wikipedia.org/wiki/Naqsh-e_Rostam
    2. https://en.m.wikipedia.org/wiki/Hindush
    3. https://en.m.wikipedia.org/wiki/DNa_inscription

    ছবিতে দারায়ুসের নকশ এ রোস্তমের হিদুস শব্দ।
  • বিভাগ : আলোচনা | ১০ মে ২০২০ | ১৮২৭ বার পঠিত | | জমিয়ে রাখুন পুনঃসম্প্রচার
আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • বিপ্লব রহমান | ১১ মে ২০২০ ০৯:০৫93174
  • আরে দারুণ তো! 

    ওদিকে,  যতদূর মনে পড়ে,  "ভোলগা থেকে গংগা" বইতে    পণ্ডিত রাহুল সাংকৃত্যায়ন  এমত জানাচ্ছেন,  সিন্ধু নদের পাড়ে গড়ে ওঠা প্রাচীন সভ্যতাকে আর্যরা "হিন্দু" বলে চিহ্নিত করেছিলেন,  আর্যগণ "দন্তস্য" উচ্চারণ করতে পারেতেন না বলে "স" বদলে "হ" উচ্চারণ করতেন।            

  • Sudipto Pal | ১২ মে ২০২০ ১০:১৩93204
  • বিপ্লববাবু, আর্যদের ভারতীয় শাখা স কে স বলত, ইরানীয় শাখা স কে হ। ইরানীয় শাখাতেই নামটি হিন্দু বা হিন্দ হয়ে যায়, সেখান থেকে গ্ৰীক ভাষায় ইন্ডিয়া হয়

  • পিনাকী ভট্টাচার্য | 172.68.146.205 | ১২ মে ২০২০ ১২:০৬93208
  • সুন্দর লেখা,  প্রয়োজনীয় লেখা

  • তাপস | 162.158.207.135 | ১৩ মে ২০২০ ০৮:৫০93260
  • "ভোলগা থেকে গংগা" এই বইটি আমার কাছে আছে।

  • ডা রুমী আলম, মিরপুর, ঢাকা। | 162.158.165.67 | ১৪ মে ২০২০ ২৩:৩৭93326
  • সপ্তম শতাব্দীর প্রথম দিকে মহানবী হজরত মুহাম্মদ সল্লাল্লাহু আলাইহি ওয়াসাল্লামের  হাদিসেও হিন্দ শব্দ আছে। ভারতে ইসলাম ধর্মের  প্রসার বিষয়ে এ হাদিস পাওয়া যায়। হিন্দ শব্দ দিয়ে হিন্দুস্তান বা ভারতবর্ষ বুঝানো হয়েছে।                    

  • ar | 162.158.63.53 | ১৫ মে ২০২০ ০২:১০93329
  • ডাঃ রুমী আলম, অনুগ্রহ করে এর তথ্য সূত্র দেবেন? নেহাতই অ্যাকাডেমিক প্রশ্ন।
  • রঞ্জন | 162.158.165.25 | ১৫ মে ২০২০ ০৭:৪৬93336
  • ্সাভারকরও তাঁর "হিন্দুত্ব" বইয়ে পারসিক ইরাণীয়দের স কে হ উচ্চারণ এবং সপ্তসিন্ধুকে হপ্তহিন্দু এই উদাহরণ দিয়েছেন। অবশ্য তাতে এটাই প্রমাণিত হয় --সুদীপ্ত পাল যেমন বলেছেন-- হিন্দু অভিধাটি প্রতিবেশীদের দেওয়া। ভারতের অধিবাসীরা কখনই নিজেদের ,বৈদিক বা প্রাক বৈদিক যুগে , হিন্দু বলত না ।

  • ডা. রুমী আলম, ঢাকা। | 162.158.179.13 | ১৫ মে ২০২০ ২০:০৬93362
  • হিন্দ শব্দের তথ্যসূত্র ঃঃ

     http://ihadis.com/books/nasayi/hadis/3175

    এছাড়া গুগুলে 'গাজওয়াতুল হিন্দ' লিখে সার্চ করে দেখতে পারেন। অনেক ধন্যবাদ। 

  • | 141.101.98.133 | ১৬ মে ২০২০ ০০:২০93371
  • রাসুলুল্লাহ (সাল্লাল্লাহু ‘আলাইহি ওয়া সাল্লাম) বলেছেন: আমার উম্মতের দুটি দল, আল্লাহ্ তা‘আলা তাদেরকে জাহান্নাম হতে পরিত্রাণ দান করবেন। একদল যারা হিন্দুস্থানের জিহাদ করবে, আর একদল যারা ঈসা ইব্‌ন মারিয়াম (আঃ)-এর সঙ্গে থাকবে।

  • ar | 108.162.219.53 | ১৬ মে ২০২০ ০০:৪৪93372
  • ডাঃ রুমী আলম,

    আপনাকে অনেক ধন্যবাদ।
    সাইটে দেখব।
  • D. Prasad Sarkar | 141.0.9.247 | ১৭ মে ২০২০ ১৩:৪৬93420
  • লেখার মধ্যে বলা হল, বিভিন্ন জাতির সৈনিকদের নাম লেখা ছিল। সেখানে হিদস জাতির নাম ছিল। প্রশ্ন হল, কেউ যদি কোন স্থান ঘুরে কিছু লেখে তবে সেখানকার মানুষের কাছ থেকে জেনেই তবে লেখে। তার ইচ্ছে মত লেখে না। ফলে ওই নামটা এখানকার মানুষেরই দেওয়া। যদি না হয়, তবে শুধু হিদস নামটা ওরা দিল কিন্তু অন্য জাতির নামগুলো সে দিল না। এ কেমন যুক্তি? আবার, ভাষ্যমতে তারা স. উচ্চারণ করতে পারা সত্তেও ভারতের ক্ষেত্রে স টা হ হয়ে গেল। যুক্তি বড় অদ্ভুত! সেখানে পারসিক পারহিক এবং পারস্য পারহ্য হওয়ার কথা। সেটা তাদের কোন লেখায় কি পাওয়া গেছে? যদি না যায় তো এ ধরনের অপযুক্তি না দেখানোই ভাল। এছাড়া হিন্দুকুশ পর্বত আর হিন্দুমহাসাগরের (ভারত মহাসাগর) নাম কি ওদের দেওয়?

  • b | 14.139.196.11 | ১৭ মে ২০২০ ২৩:৪৭93426
  • " কেউ যদি কোন স্থান ঘুরে কিছু লেখে তবে সেখানকার মানুষের কাছ থেকে জেনেই তবে লেখে। তার ইচ্ছে মত লেখে না"
    হতে পারে, তবে সব সময়ে সত্যি না। ফরাসীরা জার্মানিকে বলে অ্যালেমাঁ (যদিও জার্মানরা নিজেদের বলে ডয়েশ), চিনেরা রাশিয়াকে বলে য়েগুও, আবার রাশিয়ানরা চিনকে বলে কিতেই। (উচ্চারণ গুলো ঠিক হলো না, কেউ ঠিক করে দিলে বাধিত হবো)। এরকম আরো উদাহরণ দেওয়া যায়।
  • শুদ্ধসত্ত্ব দাস | 2607:fb90:7d9:82c8:56ca:5776:1bb9:b488 | ১৫ জুন ২০২০ ০৭:৩৭94341
  • সুন্দর গবেষণা। একটা আলাদা কিন্তু প্রাসঙ্গিক প্রশ্ন হলো যে বাইরের দেওয়া নামকরণ, যার উদ্দেশ্যটা শুধু ভৌগলিক নামকরণ, সেটা কি করে একটা পরিচিতি বানিয়ে ফেলা হলো?  অর্থাত হিন্দু শব্দটার ব্যুতপত্তিগত আলোচনাও যেমন করা যায়, হিন্দু পরিচিতিটার সৃষ্টির ইতিহাসও আলোচনা করা যায়। নিঃসন্দেহে অনেক রাজনীতি জড়িয়ে আছে।  

আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত