• হরিদাস পাল
  • খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে... (হরিদাস পাল কী?)
  • করোনা এবং নজরদারি

    Sabyasachi Mukherjee
    বিভাগ : আলোচনা | ০৫ এপ্রিল ২০২০ | ৪০১ বার পঠিত
  • আরোগ্য সেতু নামে একটি অ্যাপ কেন্দ্রীয় সরকারের তরফে করোনা মোকাবিলায় বানানো হয়েছে। এই অ্যাপ ইন্সটল করা হয়ে গেলে সর্বক্ষণ জিপিএস এবং ব্লুটুথ অন করে রাখতে হবে। এই অ্যাপ জানান দেবে উক্ত ব্যক্তির করোনা হওয়ার সম্ভাবনা কতটা। কী করে জানান দেবে? এই অ্যাপ ইন্সটল করলে উক্ত মোবাইলের ব্যবহারকারীর ফোন নম্বর চেয়ে ভেরিফিকেশন করা হবে। তারপর জানতে চাওয়া হবে শারীরিক অবস্থা, জ্বর, সর্দি আছে কিনা, বিদেশ যাত্রার ইতিহাস রয়েছে কিনা। সর্বক্ষণ মোবাইলের জিপিএস অন থাকবে। অন্য সমস্ত মোবাইল যাতে এই অ্যাপ ডাউনলোড করা আছে; সেটাও একইভাবে কাজ করবে। ফলে যখনই এই অ্যাপ ইন্সটল করা একটি মোবাইল অন্য একটি আরোগ্য সেতু অ্যাপ ইন্সটল করা মোবাইলের কাছে আসবে; ওই অ্যাপ জানান দিয়ে দেবে যে করোনা হওয়ার কতটা রিস্ক রয়েছে।
    দ্য ইন্ডিয়ান এক্সপ্রেসের রিপোর্ট অনুযায়ী অ্যাপটির প্রাইভেসি পলিসি দাবী করছে,"Any personal information uploaded to the cloud will only be used for the purpose of informing you, or those you have come in contact with, of possible infection. Such personal information may also be shared with such other necessary and relevant persons as may be required in order to carry out necessary medical and administrative reasons". অর্থাৎ, যে কোনও ব্যক্তিগত তথ্য যেটা এই অ্যাপের মাধ্যমে সংগ্রহ করা হবে সেটা আপনাকে এবং অন্য অ্যাপ ব্যবহারকারীকে করোনা ইনফেকশনের রিস্ক জানাতে ব্যবহৃত হবে। এইরকম ব্যক্তিগত তথ্য চিকিৎসা বা প্রশাসনিক কারণে অন্য "প্রয়োজনীয় এবং প্রাসঙ্গিক" ব্যক্তির সঙ্গেও
    শেয়ার করা হতে পারে।
    এবারে পরপর কতগুলো প্রশ্ন আস্তে বাধ্য।
    ১) এই অ্যাপে ঠিক কোন কোন তথ্য সংগ্রহ করা হবে?
    ২) ঠিক কতদিন পর্যন্ত এই তথ্যগুলো সংগ্রহে রাখা হবে?
    ৩) অ্যাপ ডিলিট করে দেওয়ার পরেও তথ্যগুলো কি সার্ভারে থেকে যাবে?
    ৪) সরকারকে এই তথ্য দিলে সরকার ঠিক কোন কোন কাজে সেগুলো ব্যবহার করতে পারবে?

    মাথায় এক ছটাক ঘিলু থাকলেই এটা বুঝতে অসুবিধা হওয়ার কথা নয় যে করোনা সংক্রমণ ঠেকানোর নামে কী ভয়াবহ রাষ্ট্রীয় নজরদারি নেমে আসতে পারে। সরকার এবং বিভিন্ন সরকারি সংস্থার কাছে থাকা প্রত্যেক ভারতবাসীর তথ্য নিয়ে আধার যোগ করে ন্যাশনাল সোশ্যাল রেজিস্ট্রি বানানোর কাজ প্রায় সম্পূর্ণ হওয়ার মুখে; যা ভয়াবহ রাষ্ট্রীয় নজরদারির প্রচেষ্টা ছাড়া কিছু নয়। এই অ্যাপ থেকে সংগৃহীত তথ্য ন্যাশনাল সোশ্যাল রেজিস্ট্রি তৈরিতে ব্যবহৃত হবে না তো? সরকারের কাছে থাকা সমস্ত তথ্যই কিন্তু ন্যাশনাল সোশ্যাল রেজিস্ট্রিতে ব্যবহৃত হতে পারে। এই অ্যাপ মাস সার্ভাইলেন্স চালাবে। এটুকু বুঝে নেওয়ার দরকার আছে।
  • বিভাগ : আলোচনা | ০৫ এপ্রিল ২০২০ | ৪০১ বার পঠিত
  • আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা ভাইরাস

  • পাতা : 1
  • গবু | 172.69.34.67 | ০৯ এপ্রিল ২০২০ ১৮:৩৯92122
  • এইটা নিয়ে আলোচনা শুরু হয়েছে। যেমন এই প্রযুক্তি দিয়ে অনেক ধরণের ডাটা/ইনফরমাসন পাওয়া সম্ভব - তেমনি সরকারি নজরদারির ভয়টাও খুব প্রাসঙ্গিক।

    এই লেখাটা ভালো লাগলো - https://www.ft.com/content/7cfad020-78c4-11ea-9840-1b8019d9a987
  • | 162.158.50.247 | ০৬ মে ২০২০ ২৩:১৫93076
  • ট্যুইটারে  Elliot Alderson এই অ্যাপটার পুরো নাড়িভুড়ি টেনে বের করছ্রে। রবিশঙ্কর প্রসাদ  যেই বলেছে অ্যাপে কোন সিকিউরিটি গলতা নেই। অমনি পিএমও মিলিটারি হেড কোয়ার্টারের কতজনএর কিরকম শরীর খারাপ সব ডিটেল দিয়ে দিয়েছে।

  • করোনা ভাইরাস

  • পাতা : 1
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত