• হরিদাস পাল  ব্লগ

  • ভাষা

    Prativa Sarker লেখকের গ্রাহক হোন
    ব্লগ | ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮ | ৫৭৮ বার পঠিত
  • পছন্দ
    জমিয়ে রাখুন পুনঃপ্রচার
  • এত্তো ভুলভাল শব্দ ব্যবহার করি আমরা যে তা আর বলার নয়।

    সর্বস্ব হারিয়ে বা যন্ত্রণা সহ্য করতে না পেরে যে প্রাণপণ চিৎকার করছে, তাকে সপাটে বলে বসি - নাটক করবেন না তো মশাই।
    বর্ধমান স্টেশনের ঘটনায় হাহাকার করি - উফ একেবারে পাশবিক।
    ভুলে যাই পশুদের মধ্যে মা বোনের বাছাবাছি আছে। মা বলে ডেকে ভুলিয়েভালিয়ে অন্ধকার কোণে ফুসলে নিয়ে যাওয়া নেই।

    বাগড়ি মার্কেটের সবহারা ব্যবসায়ীর কান্না দেখে আমাদের নিজস্ব মন্ত্রীমশাইয়ের প্রতিক্রিয়া শুধু নয়, উত্তর প্রদেশের সবার বড় মুখিয়াও একই কথা বলেছিলেন হাউ হাউ করে কাঁদা সন্তানহারা মা- বাপেদের - 'নৌটঙ্কি মত কিজিয়ে।'

    কান্না শোনা যাচ্ছিল, কারণ লেভেল ক্রসিংয়ে দুর্ঘটনায় ধ্বস্ত স্কুলবাসের মৃত বাচ্চাদের শব ব্যবচ্ছেদের পর দেহগুলিকে ঠিক মতো না জুড়েই তুলে দেওয়া হয়েছিল পরিবারের হাতে। শেষকৃত্য করতে গিয়ে দেখা যায় কারো ছোট্ট খুলির ওপড়ানো অংশ কোনমতে বসানো, কারো তুলতুলে পেট অর্ধেক সেলাই করা, বাকি অর্ধেক থেকে উঁকি দিচ্ছে গজ তুলো।

    সর্বত্র ভাষা যেন এখন দড়িতে ঝোলানো পুতুল, তাকে যেমন চালায় আধিপত্যকামীরা সে তেমনি চলে। নতুন অর্থবহ প্রয়োগ নেই, বিকৃত মোচড় আছে। বা বহুযুগ ধরে ব্যবহারের কাছে প্রশ্নহীন নতিস্বীকার। প্রাধান্য প্রতিষ্ঠার হাতিয়ার হওয়া ছাড়া আর কোনো কাজে সে তেমন লাগে না। সন্ত্রাসী, জাতীয়তাবাদী, দেশপ্রেম, নেতা এইসব কথার অর্থ তাই উলটেপালটে গেছে।

    এরপর কোন হাহাকারে ফেটে পড়া মানুষকে যখন নাটক থামাতে হুকুম দেব তীব্র শ্লেষাত্মকভাবে, তখন যেন মনে রাখি ঐ অর্থে নাটকের প্রয়োজন সাধারণ মানুষের কম। বড়মানুষদের বেশি। তাদের ক্যামেরার সামনে হরবখত মিথ্যে বলতে হয়, আবেগ চেপে নিরাসক্তির মুখোশ আঁটতে হয়। আমরা অল্পেই কাঁদি, অল্পেই হাসি, পুজোর আগে দোকান পুড়ে ছাই হলে ছেলেমেয়ের পাতে কি দেব সেই ভাবনায় চিৎকার করে কাঁদি। কিন্তু মন্ত্রীমশাইরা যে অর্থে বলেন সে অর্থে নাটক করি না।

    দুজন খেটে খাওয়া মানুষের কথোপকথন কানে আসছিল সেদিন। রাজমিস্ত্রি আর তার যোগাড়ে। পাশের বাড়িতে ভাড়া বেঁধে কাজ হচ্ছিল। একঘেয়েভাবে সিমেন্টের প্রলেপ চালাচালি করতে করতে ওরা গল্প করে নিজেদের ভুলিয়ে রাখছিল। বিষয় হয়তো কোন পৌরাণিক কাহিনী বা টিভি সিরিয়ালও হতে পারে। কিন্ত ওদের ব্যবহৃত ভাষা ছিল অদ্ভুত নতুন আর টাটকা, যেন সদ্য গাছ থেকে পাড়া সবুজ কামরাঙা।

    একটা উদাহরণ দিই।
    একজন আর একজনকে বলছে - বুঝলেন না কত্তা, পেত্থমবার দেখা। সে বাঁশঝাড়ে না গুলবাগে তাতে কি আসে যায়। মোদ্দা কথাটা হলো কি ? না, সেই পেত্থম দেখাতেই তাদের মদ্দি প্রেম ভূমিষ্ঠ হই গেল।

    শব্দের এই সুচিন্তিত অথচ স্বতস্ফূর্ত প্রয়োগ মন্ত্রী, সান্ত্রী, সাধারণ মানুষ সকলের আয়ত্বে আসুক।

    সকলের মধ্যে প্রেম ভূমিষ্ঠ হোক ! আদরের সন্তানের মতোই হোক তার বাড়বাড়ন্ত !
  • বিভাগ : ব্লগ | ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮ | ৫৭৮ বার পঠিত
  • পছন্দ
    জমিয়ে রাখুন গ্রাহক পুনঃপ্রচার
  • কোনোরকম কর্পোরেট ফান্ডিং ছাড়া সম্পূর্ণরূপে জনতার শ্রম ও অর্থে পরিচালিত এই নন-প্রফিট এবং স্বাধীন উদ্যোগটিকে বাঁচিয়ে রাখতে
    গুরুচণ্ডা৯-র গ্রাহক হোন
    গুরুচণ্ডা৯তে প্রকাশিত লেখাগুলি হোয়াটসঅ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে যুক্ত হোন। টেলিগ্রাম অ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলটির গ্রাহক হোন।
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • Prativa Sarker | 671212.72.892312.239 (*) | ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ১০:২২62102
  • বিপ্লব রহমান | 340112.231.126712.74 (*) | ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ১১:২২62104
  • কসাইয়ের নির্লিপ্ততা মগজে সেঁটে আছি। কান্না বা প্রেম নাটকই বটে।...
  • | 453412.159.896712.72 (*) | ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ১১:৩৬62103
  • বিদ্বেষই এখন এক সর্বব্যপী ব্যবহার।
  • Du | 237812.58.450112.36 (*) | ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮ ০৮:১৪62105
  • ওটা গাম্বাটপনা মাত্র।
আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত


পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। খারাপ-ভাল মতামত দিন