• হরিদাস পাল  আলোচনা  বিবিধ

  • করোনা কাল

    Prativa Sarker লেখকের গ্রাহক হোন
    আলোচনা | বিবিধ | ০৫ এপ্রিল ২০২০ | ৫৪৯ বার পঠিত
  • জমিয়ে রাখুন পুনঃসম্প্রচার
  • করোনা কাল -৪

    এক অদ্ভুত অতিথি সমাগমের কথা লিখছি। তল্পিতল্পা নিয়ে অতিথি আসে, তাই বলে ঘরবাড়ি সঙ্গে নিয়ে, তাও এই দুঃসময়ে !

    একটা দু ইঞ্চি ওল্টানো ঘটের মতো বাসা। তাতে কলসির মুখের মতো দরজা। প্রথমে দেখলাম ওপরে একটা দরজা, নীচে আর একটা। কিছুদিন বাদে দরজাদুটো সিল করে দেওয়া হল। বন্ধ মুখ কলসির ফোলা পেটের ভেতর কী আছে কেউ জানে না। যখের ধন লুকোনো গুহার মুখ যেমন বড় পাথরে আটকানো, তেমনি ছিদ্রহীন সিল দৃষ্টিপথ আটকে।

    শুধু হলুদ পর্দার ফাঁকে এক স্লিম ক্ষীণকটি পতঙ্গের ওড়াউড়ি। বাসা তৈরির সময় তীক্ষ্ণ সুরেলা গানের মতো আওয়াজ। শুনলেই বোঝা যায় কুমোরে পোকার কর্মশালা চলছে।

    সীল করা হয়ে গেছে মানেই বাড়ি তৈরি শেষ, তা কে বলল ! আবার দুদিনের মধ্যেই পুরোনো ঘটের গায়ে গজিয়ে উঠলো নতুন প্রকোষ্ঠ। সেটা ভর্তি হলো ছোট ছোট মাকড়সা, শুঁয়োপোকায়। জ্যান্ত, কিন্তু অসাড় তারা। একটি প্রকোষ্ঠে একটিই ডিম পাড়বে মা, খাবার ভর্তি সেই আঁতুড় ঘর সিল করে দেবে, লেগে পড়বে ওরই গায়ে নতুন কক্ষ তৈরির কাজে। ভেতরে নির্ধারিত সময়ে ডিম ফুটে বাচ্চা বেরোবে। আকারহীন শুককীট। জন্মেই ঘরভর্তি খাবার দেখে মহা আলহাদ। হাউ হাউ করে খেতে শুরু করবে, তারপর সব খেয়ে পেটের আগুন নিবলে মাথার দিকটা চক্রাকারে ঘুরিয়ে যাবে অনবরত। আসলে ঐ ঘূর্ণীপাকে ওর মুখ থেকে বেরিয়ে আসবে এক মসৃণ ফিনফিনে অচ্ছেদ্য তন্তু, যা দিয়ে শুককীট নিজেরই চারদিকে বুনে নেবে এক অদ্ভূত খোলস। দু চারদিন ঘুমুবে তারই মধ্যে। একেবারে যোগনিদ্রা। যখন খোলস কাটবে, বেরিয়ে আসবে এক উজ্জ্বল পতঙ্গ, হলুদ, নীল উজ্জ্বল রঙের আঁচড় থাকতে পারে, নাও পারে, কিন্তু কুমোরে-মায়ের প্রতিবিম্ব সে, ওমনই ক্ষীণকটি, উড়ানপ্রিয়, সঙ্গীতমুখর।

    প্রকৃতির এই খেলা দেখছি, অতিথিকে পর্যবেক্ষণ করছি আমার মেয়ের ফেলে যাওয়া ঘরে, সেখানে এক টুনি বালবের তারের সঙ্গে বাসা ঝুলছে এক কুমোরে পোকার। রোজ সকালে উঠে নন্দন আর আমি প্রত্যাশা আর আশঙ্কাভরা চোখে ওই ঘরের দিকে তাকাই, এই বুঝি মাকড়সা মুখে নিয়ে উড়ে এলো মা-টি, ভুলেও যেন সে কোনভাবে ভয় না পায়।

    বেলা বাড়লে বইয়ের তাক থেকে নেমে আসেন মরহুম গোপাল চন্দ্র ভট্টাচার্য। মোটাসোটা, শ্যামবর্ণের প্রথম বাঙালি পতঙ্গবিদ। চশমা এঁটে বসে যান আমার সঙ্গে লক্ষণ মেলাতে। আমার হাতে তাঁর বই," বাংলার কীটপতঙ্গ"। ৮২ পাতায় আঙুল রাখেন তিনি, বোঝান কী ভাবে কুমোরে পোকা বাচ্চাদের জন্য তাজা খাবারের ব্যবস্থা করে।

    হাতেনাতে প্রমাণও পেয়ে যাই। এক দীর্ঘকায় সুঁয়োপোকা আমার মেঝেতে। জ্যান্ত, কিন্তু অসাড়। ঝাঁটা দিয়ে সরাতে গেলে নড়ে, কিন্তু কোথাও যেতে পারবে না ও। কুমোরে পোকা প্রকৃতি থেকে অধীত বিদ্যার জেরে এমন বিষের অধিকারী, যে ঘাড়ে যখনই হুল ফোটায়, তখনই ওর শিকার জ্যান্ত মড়া বনে যায়। বেঁচে থাকবে, কিন্তু নড়তে চড়তে পারবে না, ছুটে পালাতে পারবে না, যতক্ষণ না পোকা- মা ওকে বাসায় ঠেসেঠুসে ঢোকাচ্ছে।

    প্রকোষ্ঠের সারা দেওয়ালে লালা মাখিয়ে চকচকে পেছল করে রাখা। অসাড় প্রাণীগুলোর মধ্যে তাগড়াই একটিকে বেছে নিয়ে তার পেটের একপাশে একটিই ডিম পাড়বে কুমোরে পোকা। সেখান থেকে বাচ্চা বেড়িয়ে শুধু তাগড়াইকে নয়, কক্ষ ভর্তি জ্যান্ত অসাড় খাবার খাবে। বাসি পচা খাবারে বাচ্চার যদি পেট খারাপ হয় !
    ঢোকাতে গিয়ে একটি লম্বা পোকা আমার মেঝেতে পড়ে গেছিল। তার ছবি দিলাম। হ্যাঁ, মুখ থেকে পড়ে গেলে সে খাবার ওরা আর সেটা বাসায় তুলবে না। ভাইরাসের ভয় ওদেরও আছে।

    একেবারে শুরু থেকে আজ অব্দি সব ছবি পর পর দিলাম। বোঝা যাবে কেমন গজিয়ে উঠছে একই ভিতের ওপর বিশাল কোঠাবাড়ি। শুধু মা টিকে দেখেও ক্যামেরাবন্দী করতে পারিনি। বড় ভয় পায় মানুষকে। রাক্ষস খোক্কসের চেয়ে আমরা কম কিসে !

    এবার যাই। আমার তো অন্য কাজ আছে, নাকি?

    ব্লগে ছবি দেওয়া আমার পক্ষে খুব কঠিন। তবে চেষ্টা করছি 'ক্রোনোলজি' বজায় রেখে ছবিগুলো দেবার।
  • বিভাগ : আলোচনা | ০৫ এপ্রিল ২০২০ | ৫৪৯ বার পঠিত
আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • Prativa Sarker | ০৫ এপ্রিল ২০২০ ১৪:০৫92030
  • Prativa Sarker | ০৫ এপ্রিল ২০২০ ১৪:০৭92031
  • Prativa Sarker | ০৫ এপ্রিল ২০২০ ১৪:০৯92032
  • Prativa Sarker | ০৫ এপ্রিল ২০২০ ১৪:১১92033
  • Prativa Sarker | ০৫ এপ্রিল ২০২০ ১৪:১৩92034
  • Prativa Sarker | ০৫ এপ্রিল ২০২০ ১৪:১৫92035
  • | ০৫ এপ্রিল ২০২০ ১৪:১৭92036
  • ও এইজন্য খুঁজছিলে।

    ছোটবেলায় আমাদের জানলার পাল্লায় এসে বানাত। আমরা কাঠি দিয়ে দিয়ে ওদের ঘর ভেঙে দিতাম নাহলেই কি বিরাট দুর্গ বানিয়ে ফেলত। তখন আমাদের নাগালের বাইরে গিয়ে লিন্টেলের উওরে বানাত। কিম্বা গোয়ালঘরে ঘরের ছিকায়।

    এই আরো ছবি দাও দিকি।
  • | ০৫ এপ্রিল ২০২০ ১৪:২০92037
  • আর কমেন্টে না ব্লগের সাথে অ্যাডাও ছবিগুলো। দেখো একটা কুট্টি ড্রপডাউন আসে "আপনার মন্তব্য" গ্যছের কি একটা। ওটা ক্লিকালে নীচে দেখবে আরেকটা অপশান আসে মূল লেখায় যোগ কিরুন। সেইটে সিলেক্ট করে নাও।
  • শিবাংশু | ০৫ এপ্রিল ২০২০ ১৪:৫৮92038
  • মরণের বিরুদ্ধে জীবনের গল্প ...
  • Prativa Sarker | ০৫ এপ্রিল ২০২০ ১৫:১০92039
  • দেখি দ পারি কিনা। আমাকে আবার সিলেক্ট করতে বললে হাত কাঁপতে শুরু করে।
  • বিপ্লব রহমান | ০৭ এপ্রিল ২০২০ ২১:১৭92102
  • বাপ্রে! কি বিচ্ছিরি চেহারা পোকাগুলোর! 

    তবে প্রতিভা দি,  তোমার দেখার চোখ আছে,  লেখার এলেম তো আছেই  

আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত


পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। যুদ্ধ চেয়ে মতামত দিন