• হরিদাস পাল  ব্লগ

  • কাইট রানার ও তার বাপের গল্প

    Rouhin Banerjee লেখকের গ্রাহক হোন
    ব্লগ | ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ১৪০ বার পঠিত | জমিয়ে রাখুন পুনঃসম্প্রচার
  • গত তিন বছর ধরে ছেলের খুব ঘুড়ি ওড়ানোর শখ। গত দুবার আমাকে দিয়ে ঘুড়ি লাটাই কিনিয়েছে কিন্তু ওড়াতে পারেনা - কায়দা করার আগেই ঘুড়ি ছিঁড়ে যায়। গত বছর আমাকে নিয়ে ছাদে গেছিল কিন্তু এই ব্যপারে আমিও তথৈবচ - ছোটবেলায় মাথায় ঢুকিয়ে দেওয়া হয়েছিল ঘুড়ি ওড়ানো "বদ ছেলে" দের কাজ - অতএব গ্রাম / মফস্বলে ছেলেবেলা কাটিয়েও আমার ঘুড়ি ওড়ানো হয়নি - অন্যরা ওড়াতো, আমি সতৃষ্ণ নয়নে চেয়ে দেখে বোঝার চেষ্টা করতাম কেন এটা খারাপ কাজ। সে বোধ আজও হলনি আমার - এদিকে যারা এসব বলত, তারা দেখি কবে যেন পালটি খেয়ে গেছে - ঘুড়ি ওড়ানো নাকি খুবই ভাল, নস্টালজিক ইত্যাদি। মাঝখান থেকে আমি অশিক্ষিতই রয়ে গেলাম (কান্নার ইমোজি)।

    সে যাক গে - এ গল্প আমার নয়, আমার ছেলের। তা প্রথম বছর (২০১৭) সে ১৫ই আগস্ট থেকে ১৭ই সেপ্টেম্বর অবধি একাই চেষ্টা করে ব্যর্থ হবার পর দ্বিতীয় বছর (২০১৮) আমাকে মুরুব্বি ঠাওরালো - কারণ এতদিন অবধি তার সমাধান করতে না পারা সমস্যার হাল আমার হাতেই হয়ে এসেছে। কিন্তু এবারে বাবাও ফেল - দুজনেই একই ভাবে ধ্যাড়াচ্ছি। তাও দোকানদারের থেকে শিখে এসে কল কেটে সুতো বাঁধাটা গেল, ঘুড়ি উড়িয়ে তো আর দোকানদার দেবে না। অতএব চন্দ্রযান (আই মীন চন্দ্রায়ন - হাসতে হাসতে চোখ দিয়ে জল বেরোনোর ইমোজি দুবার) অভিযান দ্বিতীয়বারেও মুখ থুবড়ে পড়িল।

    পুত্র কিন্তু হাল ছাড়ার পাত্র নয়। তৃতীয় বছরে (২০১৯) সে বুঝে গেছে বাবা মোটেই সর্বকর্মা সর্বসমস্যার সমাধানকারী ওমনিপোটেন্ট শ্রীভৃগু ফিগু নয়। অতএব এবারে সে অন্য পথ ধরেছে। আগস্টের শেষাশেষি থেকেই দেখছি বিকালে ইস্কুল থেকে ফেরার সময়ে সঙ্গে আসে তিন চারজন পুঁচকে - তারা এ পাড়ারও নয়, পাশের পাড়ার। কোনমতে ইস্কুলের ব্যাগটা রেখেই ছাদে - দাপাদাপি চলতে থাকে যতক্ষণ অন্ধকার না হয়।

    দু-চারদিন পর্যবেক্ষণ করে বোঝা গেল এরা আসলে কোচিং স্টাফ - ট্রেনার। বাপের ওপর আর ভরসা না রেখে ছেলে নিজের কোচ নিজেই খুঁজে এনেছে। অবশ্য ছেলের ভূমিকা এখনো কাটা ঘুড়ি খুঁজে আনাতেই সীমাবদ্ধ - ওড়ানোর দায়ীত্ব কোচিং টীমের - কিন্তু ট্রেনিং তো রিগোরাস হবেই - শেখা অত সহজ? তাছাড়া কাইট রানার হওয়াও যথেষ্ট স্কিলের এবং কৃতিত্বের কাজ - খালেদ হোসেইনি শিখিয়েছেন।

    এদিকে বিল্ডিং তো ভদ্রলোকের - তায় আবার হিঁদু মধ্যবিত্ত - তাদের প্যালপিটিশন থামায় কে? অ্যাসোশিয়েশানের হোয়াটস্যাপ গ্রুপে খবর হয়ে গেছে মেঘ বারণ করা সত্ত্বেও রোজ বাইরের ছেলেদের এনে সাড়ে ছটা পর্যন্ত ছাদে ধুপধাপ করছে, ছেলেগুলো আবার এ পাড়ারও নয়, এবং "বস্তির"। এই মহাসংকটে মেঘের বাবা কিছু করুক এই তাদের চাহিদা। চাহিদা পুরণে অক্ষম মেঘের বাবা আপাততঃ হিরন্ময় নীরবতা পালন করছেন।

    বিল্ডিং এর মীটিং ডাকা হয়েছে আগামী সপ্তাহে - মেঘের বাপের হিসেব পুরো অমিত শাহের মত - বিশ্বকর্মা পুজো আজ, এরপরে আর ঘুড়ি ওড়ানোর সীজন নেই। অতএব সামনের সপ্তাহের মীটিং এ " সব বন্ধ হয়ে আচ্ছে দিন এসে গেছে" বলতে কোনই চাপ নেই। আপাততঃ লাটাইটা ভেঙে গেছে জানিয়ে সে স্কুলে গেছে - যাই, একটা লাটাই কিনে আনি। বোলো বিশ্বকর্মা মাই কী - ঝ্যায়
  • বিভাগ : ব্লগ | ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ | ১৪০ বার পঠিত | | জমিয়ে রাখুন পুনঃসম্প্রচার
আরও পড়ুন
খোপ - রৌহিন
আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • Rouhin Banerjee | 236712.158.895612.202 (*) | ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০৫:২১47757
  • আ মোলো যা!! তাই বলবে কেনে!?
  • Rouhin Banerjee | 236712.158.895612.138 (*) | ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০৭:২৭47754
  • Rouhin Banerjee | 236712.158.895612.138 (*) | ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০৭:২৭47753
  • কোচিং স্টাফ -

    https://postimg.cc/RqPZcQVn
  • Rouhin Banerjee | 236712.158.895612.138 (*) | ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ০৭:২৯47755
  • র২হ | 236712.158.895612.118 (*) | ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯ ১১:৩৩47756
  • হাহা চমৎকার ব্যাপার!
    আমিও মফস্বলে থেকেও ঘুড়ি ওড়াইনি, আমাদের বন্ধুরাও নয়, পাড়াভর্তি সব ভালো ছেলে, পাশের পাড়ার দুষ্টু ছেলেরা ওড়াতো, মা দুয়েকবার স্কুল ফেরত ঘুড়ি কিনে এনেছিল কিন্তু ওই, মেন্টরের অভাবে হয়নি - বাবা বয়েসকালে ভয়ানক ডানপিটে হয়েও আমাদের ঠিক যথোচিত আস্কারা কেন দেয়নি কে জানে, তাছাড়া মা বাবার ধারনা ছিল ছোটরা ছাতে গেলেই ধপ করে নিচে পড়ে যায়, তাই ছাতে যাওয়ারও নিষেধ ছিল। অবশ্য দুজনেই সারাদিন বাইরে, দুশ্চিন্তা স্বাভাবিক, এখন বুঝি। আর যতদিনে স্বাধীনতা আদায় হয়েছে ততদিন ঘুড়ি টুড়ির মত জাগতিক বিষয় থেকে মোহ শিফ্ট হয়ে গেছে।

    তবে কথা সেটা না। আমার এক বন্ধু সুপারি দিয়ে পাশের ফ্ল্যাটের প্রতিবেশীদের বাগান ভাঙিয়ে দিয়েছিল। তারপর ওই মিটিং, অভিযোগ, তস্য পিতার বারংবার ক্ষমাপ্রার্থনা এসবের পরেও যখন ধ্যারারারা রেকারিং ডেসিমেল চলছে, তখন ভদ্রলোক বিরক্ত হয়ে বলেছিলেন - দেখুন, আমাকে অনেকবার বলেছেন, আমিও ক্ষমা টমা চেয়েছি। আরো যদি কিছু বলার থাকে তবে সাহস করে আমার ছেলেকে গিয়ে বলুন।

    তারপর শান্তিকল্যান।

    যাইহোক, সুদর্শন ঠাকুর মিটিঙের শুভলাভালি রাখুন, বিশ্বকর্মা মাইকি জয়।
আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত