• মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • Amit | 121.200.237.26 | ২০ অক্টোবর ২০২১ ১০:০২499859
  • খুব ভালো লেখা। মেয়েদের যেটা হচ্ছে আজকাল - খুব ভালো হচ্ছে। আরো বেশি বেশি হোক। বাঙালি বা ভারতীয় ম্যাংগো পুরুষ এমনই আজব এবং ওভার-প্যাম্পার্ড জানোয়ার যে এদেরকে মিনিমাম একটা মানুষের পর্যায়ে তুলে আনতে গেলেও  সমস্ত মেয়েদের এই গল্পের মেয়েদের মতো পাল্টানো দরকার। 
     
  • dc | 27.57.30.118 | ২০ অক্টোবর ২০২১ ১০:০৭499860
  • দারুন লাগলো পড়তে।  
  • :|: | 174.255.131.132 | ২০ অক্টোবর ২০২১ ১১:৪১499866
  • ১৯৯৮ থেকে আজ অবধি অত্যন্ত দুঃখজনক ভাবে এই কনসেপ্টটা গল্পই থেকে গেলো। অপরার শাসনের ইচ্ছেটা এখনও অধরাই। 
  • অনি | 2405:201:9003:3060:c0a0:8de8:3da7:af46 | ২০ অক্টোবর ২০২১ ১৪:২১499878
  • ভালো লাগলো এই এক্টু  অন্যধরনের গল্প ,,,
  • dc | 27.57.30.118 | ২০ অক্টোবর ২০২১ ১৬:৫৬499885
  • "১৯৯৮ থেকে আজ অবধি অত্যন্ত দুঃখজনক ভাবে এই কনসেপ্টটা গল্পই থেকে গেলো। অপরার শাসনের ইচ্ছেটা এখনও অধরাই"
     
    অল্প একটু পাল্টেছে ​​​​​​​বোধায়, ​​​​​​​অন্তত ​​​​​​​চারপাশে ​​​​​​​যেরকম ​​​​​​​দেখি। অবশ্য ​​​​​​​আমি ভুলও ​​​​​​​হতে ​​​​​​​পারি। 
     
    তবে আমার ব্যক্তিগত মত - শাসনের ইচ্ছে কোনদিক থেকেই থাকা উচিত না। দুজন দুজনকে ভালোবাসলে আর সম্মান করলেই হলো। আমি যার সাথে আছি সে আমার স্বামী / স্ত্রী হোক বা পার্টনার, তার সাথে যদি আমি বন্ধুর মতো সময় কাটাতে পারি তো তার চেয়ে ভালো কিছু হয় না। বিএফএফ :-) 
  • m | 2620:7:6001::101 | ২০ অক্টোবর ২০২১ ১৯:৩৮499893
  • অতীব লাউড। ফেমিনিজম নিয়ে প্রবন্ধকে গল্পের আকার দিতে গিয়ে ঘেঁটে গেছে।
  • kk | 68.184.245.97 | ২০ অক্টোবর ২০২১ ২১:২৩499902
  • আমারও গল্পটার মধ্যে সাটলটির অভাব মনে হলো। আমি ভাবছিলাম হয়তো যে সময়ে এটা লেখা হয়েছে তার ২৩ বছর পরের প্রেক্ষিত মাথায় রেখে পড়ছি বলে আমার এমন মনে হচ্ছে।
    যদুবাবুর গ্রাফিক্স ভালো লেগেছে অবশ্য।

    আরো কিছু কথা আমার মনে আসছে। সেগুলো এই পার্টিকুলার লেখাটা নিয়ে নয়। তবে বিষয়টা একই বলে এখানেই বলছি। উইমেন এম্পাওয়ারমেন্ট নিয়ে লেখালেখি, আলোচনা, সিনেমা ইত্যাদি আজকাল বেশ অনেকই হয়। ভালো লাগে। কিন্তু আমার দেখা এর বেশির ভাগটাতেই কেমন করে নিজের অধিকার ছিনিয়ে নিতে হবে অথবা ছেলেরা কেমন আকাট দুষ্টু সেই নিয়েই বলা হয়। আরো একটা দিক আমার চোখে খুব পড়ে কিন্তু সে নিয়ে বেশি আলোচনা দেখিনি। সেই দিকটা হলো বাচ্চা মেয়েদের ইনসিকিউরিটি। আজকাল সমস্ত সোশাল মিডিয়াতে দেখি টীন বা টোয়েন্টিজ এর মেয়েরা নিজেদের ছবি লাগায় ফোটোশপ করে। নিজেদেরকে প্রবর বক্ষা- ক্ষীণকটি-গুরু নিতম্বিনী করে দেখানোর তাগিদে ছবিগুলো মাত্রাছাড়া ফেক বলে বোঝা যায়। কেউ ঠোঁটের, চোখের, দেহের এমন ভঙ্গী করে যে স্পষ্টই বোঝা যায় নিজেকে জাস্ট একটা সেক্স-অবজেক্ট হিসেবে দেখাতে ব্যগ্র। দেখে খুব কষ্ট লাগে। আবার দেখি ছোটছোট মেয়েগুলো কী ভীষণ দুঃখ পাচ্ছে। কেন? না অমুক ছেলে টেক্সটের উত্তর দেয়নি। বা অমুক ছেলে আমাকে প্রিন্সেস এর মত ট্রীট করেনি। বা অমুক ছেলে তার বন্ধুদের সামনে আমায় শো-অফ করেনি। বাচ্চা মেয়েগুলো প্রবল ইনসিকিউরিটি তো বটেই এমনকি ডিপ্রেশনেও ভুগছে। আমার মনে হয় এদের বুঝিয়ে বলা দরকার যে ছেলেদের মন ভোলানোটাই জীবনের উদ্দেশ্য নয়। সেল্ফ ওয়ার্থ বোঝার জন্য, জীবনে খুশি হবার জন্য ছেলেদের চোখে আকর্ষনীয় হওয়াটাই একমাত্র রাস্তা নয়। মুশকিল হলো, আমার জায়গা থেকে কাকে বোঝাবো, কী করে বোঝাবো তা জানিনা। কিন্তু উইমেন এম্পাওয়ারমেন্ট নিয়ে যাঁরা কাজ করছেন, লিখছেন, মুভি বানাচ্ছেন তাঁদের হয়তো এই দিক নিয়েও কিছু বলার সুযোগ আছে। বলেনও হয়তো কেউ। কিন্তু আমার চোখে পড়েনি।
  • জিৎ | 2409:4060:114:5c13:bfab:1368:decf:e8ec | ২১ অক্টোবর ২০২১ ০০:২৪499911
  • Women empowerment এর funda এতে আসছে না। পুরোপুরি misandrist, সমাজ বাস্তবতা থেকে বিচ্ছিন্ন একটা গল্প। 
    দুটো উদাহরণ দেই -  "পরস্পর পিঠ চুলকনো সমিতি দারুণ পটকা ফাটিয়েছে"। আসলে সামান্য একটা jokes - বন্ধু বান্ধবের মধ্যে এরকম ঠাট্টা ইয়ার্কি হয়ই।
     
    "তোমার কোর্টশিপ কেমন চলছে?"
    Divorce এর case নিয়ে এরকম বেয়াড়া ইয়ার্কি!
     
    আর feminism নয় এটা egotism এর গল্প:
     
    "At its core, feminism is the belief in full social, economic, and political equality for women."
     
    Egotism:
    "thinking only about yourself and considering yourself better and more important than other people"
     
  • বিপ্লব রহমান | ২১ অক্টোবর ২০২১ ০৭:২২499921
  • এই তো কেমন বেটাগিরি বেরিয়ে আসছে! দারুণ গপ্পো 
  • অনিন্দিতা | ২১ অক্টোবর ২০২১ ১২:২২499929
  • @ ম এবং কে কে 
    বহুদিনের অপমানিত অস্বীকৃত অস্তিত্বের ফলে মেয়েরা হয়তো এখন একটু বেশি লাউড। সেটা এন্টিথিসিস। তবে সেটা না হলে যে সিনথেসিস হওয়া মুশকিল। 
    ১৮-২৩ বছরের ছাত্রীদের পড়ানোর সুবাদে এইরকম মাথা খাবার চেষ্টা করি। এবারের শিক্ষক দিবসে এক পুরোনো ছাত্রী লিখেছিল সে আজও আমার এক প্রশ্ন নিয়ে ভাবছে। দিল্লির ধুম ঠান্ডায় ছোট জামা আর স্টিলেটো জুতো পরে বয়ফ্রয়েন্ডের সাথে নাচি কেন , সে তো দিব্যি কোট আর ফিতে বাঁধা জুতো পরে রয়েছে ! কে বলেছে এতে আমি 'সুন্দর' প্রমাণ হই! 
    বদল হচ্ছে , খুব ধীরে। 
    @যশোধরা 
    গল্পের প্রসঙ্গে একটি কথা। সেলিব্রিটি সঙ্গীত শিল্পী না হলেও একটি মেয়ে নিজ যোগ্যতায় একটা সম্মানের জায়গা পেতে পারে। একজন গৃহকর্মী মহিলা তাঁর সেই সাংসারিক অবদানের জন্য সম্মানের জায়গা পাওয়ার যোগ্য। সেই স্বীকৃতির দাবি উঠুক। মেয়েটির ক্যাসেট না বেরোলে মনে হয় গল্পটা আরো জোরালো হতো। 
  • | ২২ অক্টোবর ২০২১ ০৯:৩০500030
  • গল্পটা অল্প লাউড বটে তবে  এই জিৎ লোকটির মন্তব্য বুঝিয়ে দিচ্ছে লাউডনেসের যাথার্থ্যতা।
  • Mayukh Datta | ২৩ অক্টোবর ২০২১ ১২:১৯500097
  • একটু সরলিকরন হয়েছে হয়ত, তাও ভাল... সবথেকে বেশী যেটা মাথায় কুড়েকড়ে খাচ্ছে যে ১৯৯৮ সালের লেখা আজ ২০২১ সালেও আমদের ভাবতে বাধ্য করছে...চিন্তাধারা বদলিয়েছে নিশ্চই এই ২৩ বছরে, কিন্তু স্থবিরতা র পাহাড়টা বেশ বড়!!
  • :|: | 174.255.131.132 | ২৫ অক্টোবর ২০২১ ০৫:১৫500179
  • এই গল্পটা পড়ার পর মনে হলো হয়তো ১৯৯৮ থেকে ২০২১-এ পরিবর্তন হয়েছে। মেয়েদের সমস্যা থেকে মানুষের সমস্যার দিকে চিন্তাটা অগ্রসর হয়েছে। গুরুচণ্ডালীকে ধন্যবাদ বাইশ বছর আগের চিন্তাটাকে ফিরে দেখাবার জন্য। 
    বাইশের সঙ্গে মেয়েদের একটা যোগ আছে সেই রবীন্দ্রনাথের সময় থেকেই -- "বাইশ বছর এক চাকাতেই বাঁধা পাকের ঘোরে আধা" ইত্যাদি প্রভৃতি। কিন্তু সেটা অন্য প্রসঙ্গ। 
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:

কুমুদি পুরস্কার   গুরুভারআমার গুরুবন্ধুদের জানান


  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত


পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। ঠিক অথবা ভুল মতামত দিন