• হরিদাস পাল  আলোচনা  বিবিধ

  • ধারাবাহিক ধারাবাহিক

    Guruchandali লেখকের গ্রাহক হোন
    আলোচনা | বিবিধ | ০৮ আগস্ট ২০২০ | ২৫৮ বার পঠিত
  • জমিয়ে রাখুন পুনঃসম্প্রচার
  • দাগ কাটতে গেলে চকচকে হবার প্রয়োজন নেই। আশির বা নব্বইয়ের দশকে যাঁরা রেডিও শুনেছেন, গায়ে ক্রিটটিম ঘষার আগে অব্যর্থভাবেই তাঁদের সেই ম্যাড়ম্যাড়ে গান মনে পড়ে যায়। 'সুরভিত অ্যান্টিসেপ্টিক ক্রিম বোরোলিন'। এখনও। আশি বা নব্বইয়ের এমন কোনো বেটাবেটি নেই, 'মাথার ঘনচুল যখন /মরুভূমি হয়ে যায় / ওয়েসিস নিয়ে আসে মরুদ্যান / মেঘের ছায়ায় ছায়ায়' শুনলে বুকের ভিতরটা কুলকুল করে ওঠেনা। এখনও। দরজা ক্যাঁচ করে শব্দ করে উঠলে, এমন বুকের পাটা কার আছে, যার ঝপ করে 'শনিবারের বাআরবেলাআয়' এর অদ্ভুতুড়ে অপর্থিব নিশিডাকের কথা মনে করে বুকের ভিতরটা ছ্যাঁত করে ওঠেনা? এসব আজকের কথা নয়, সেই বেতার আমলের কিস্যা, যখন এফএম এসে সব গিলে ফেলেনি। রেডিওর নাম ছিল আকাশবাণী, দিয়েছিলেন রবীন্দ্রনাথ। নাইন্টিঅমুক পয়েন্ট তমুক নয়, কেন্দ্রের নাম হত ক-খ দিয়ে। কলকাতা ক, কলকাতা খ। বললে বিশ্বাস হবেনা, অন্য এক কেন্দ্রের নাম ছিল বিবিধভারতী। দিল্লি থেকে ব্যারিটোনে বাংলায় খবর পড়া হত তখন। আর ছিল স্থানীয় সংবাদ। কৃষিকথার আসরের আলু চাষের গোপন গহীন রহস্য। এ সেই সময়ের গপ্পো।

    তারপর কুড়ি কুড়ি বছর পেরিয়ে গেছে। এ চাট্টিখানি কথা নয়, যে, তবুও লোকে যে ওইসব ম্যাড়ম্যাড়ে গান মনে রেখেছে। এবং মনে রাখার কারণ ঠিক নস্টালজিয়া নয়। কারণ একটাই, যে, সংযোগ স্থাপনের জন্য ঝা চকচকে ঠোঙার প্রয়োজন নেই। ঠোঙার ভিতরের বাদামভাজাটি সুস্বাদু হওয়া চাই। তা না হলে হাইপের চোটে লোকে খেয়ে নেবে ঠিকই, দু-পয়সার বিক্রিবাটাও হবে, কিন্তু তারপর ছ্যাছ্যা করবে এবং কালক্রমে ভুলে যাবে। অনেক বছর আগে যখন আমরা হোঁতকা সুদৃশ্য মলাটের বইয়ের বদলে চটি বই চালু করি, এই কথাটাই আমাদের মাথায় ছিল। আর আজ এই করোনাক্রান্ত সময়ে অডিও ভিশুয়ালে ফেটে যাচ্ছে চারদিক, দুনিয়ার যাবতীয় স্থানীয় ও অস্থানিক গ্লোবাল ও লোকাল স্বঘোষিত ও মিডিয়াঘোষিত সেলিব্রিটি ও পারফর্মার, সবাই হামলে পড়েছেন ফেবু এবং ইনস্টাগ্রামের অডিও ভিশুয়ালে, তখন সেই কথাই আবার মনে পড়ছে। দৃশ্য শ্রাব্য মাধ্যমে দোষের কিছু নেই। কিন্তু যা চকচকে, যা নড়েচড়ে ও বেজে চলে, তাই সোনাটা নয়। এই সময়ে, যখন দিগ্বিদিকে ঝা চকচকে নিয়ন-লিখনেরা গ্রহরত্ন সহযোগে ভবিষ্যদ্বাণী করছে, যে, এ যুগ স্রেফ অডিও ভিশুয়ালের, যখন জগৎজোড়া জালে থইথই করছে ওয়েবসিরিজের বান্ডিল, তখন সেটা আরও বেশি করে বোঝা যাচ্ছে। চকচকে ঠোঙার যা মহিমা, বেশিরভাগ সিরিজ লোকে দেখছেনা, যেকটা দেখছে তার বেশিরভাগই মনে রাখছেনা। তবুও শোনা যাচ্ছে, ওটাই ভবিষ্যৎ।

    তা, কথা হল, দাগ কাটতে গেলে ঝকমক করার দরকার নেই। একথা বিশ্বাস করি বলে আমরা ওসবের কারবারে নেই। ফলে জগৎ জোড়া জালে যখন গিজগিজ করছে জাল-সিরিজ, তখন আমরা, আমরা, গুরুচণ্ডা৯ সদলবলে ও সগর্বে হাঁটছি উল্টো-পাল্টা দিকে। উল্টো দিকে নয়, উল্টোপাল্টা দিকে। দৃশ্যশ্রাব্য আমাদের ভালই লাগে। ঝিম মেরে সিনেমা টিনেমা দেখি, পারলে দু-একটা বানিয়েও ফেলি। কিন্তু আমরা ঋত্বিক ঘটকও নই, যে, পুরোনো জিনিসকে লাথি মেরে "উন্নততর" মাধ্যমে চলে যাবার তাড়া আছে। আমরা উন্নততর বা ওটিটি প্লাটফর্ম কিসুই নই, নিজেদের তালে চলি। আমরা তাই সিরিজ বা সিরিয়াল নয়, নিয়ে এসেছি চিত্ররূপ ও অক্ষরে বাঙ্ময় কিছু ধারাবাহিককে। স্রেফ অক্ষরে। প্রকাশিত হচ্ছে প্রতি শনিবার। আমাদের ওয়েবসাইটে।

    এই লেখাকে সেইসব ধারাবাহিকের বিজ্ঞাপন হিসেবে ধরতে পারেন। নাও পারেন। যা খুশি। কিন্তু কথা হল, অডিও-ভিশুয়ালের জালে না জড়িয়ে আমরা তৈরি করতে চাইছি অক্ষরের সৌধ। চটজলদি দমাদ্দ্ম খেয়ে ফেলা নয়, আমরা বুনতে চাইছি অক্ষরের এক জগৎ যার জন্য মানুষ অপেক্ষা করবেন প্রতি শনিবার। আনতে চাইছি সেই দিন, যখন শনিবার দুপুরে ইশকুল-ফেরত বিনুনি বালিকারা হুড়মুড়িয়ে ফিরে আসবে ধারাবাহিকের টানে। সদর দরজা দিয়ে ঢোকার আগেই শোনা যাবে ক্যাঁচ শব্দ, সুর করা টানা উচ্চারণ শুনে ছ্যাঁত করে উঠবে তাদের বুক। তৈরি হবে এক অদ্ভুত জগৎ। শনিবারের বারবেলায়।

    অক্ষর দিয়েই এ জগৎ তৈরি সম্ভব। কারণ দাগ কাটতে গেলে ঝকমকে অডিও ভিশুয়াল হবার প্রয়োজন নেই।

    পুঃ ধারাবাহিকগুলি বেরোচ্ছে প্রতি শনিবারই। নতুন জগৎ তৈরি হচ্ছে কিনা বলা কঠিন। তবে চেখে দেখতেই পারে। আলাদা করে লিংক দিলামনা। সাইটের প্রথম পাতায় গেলে এমনিই দেখতে পাবেন।
  • বিভাগ : আলোচনা | ০৮ আগস্ট ২০২০ | ২৫৮ বার পঠিত
  • জমিয়ে রাখুন পুনঃসম্প্রচার
আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • π | ০৮ আগস্ট ২০২০ ১১:৪৬96051
  • গুরুর ব্লগের আপডেট টইতে আসেনা কেন!
  • গুরুচণ্ডা৯ | 136.228.209.49 | ০৮ আগস্ট ২০২০ ১৯:৩৪96063
  • ইতিমধ্যে চলতে থাকা ধারাবাহিকগুলোর সাথে চালু হল দুটি নতুন ধারাবাহিকঃ

    ১) লাস্ট কয়েকবছরে সাম্প্রদায়িক সংঘর্ষে একাধিকবার শিরোনামে উঠে এসেছে ভাটপাড়া। আলোচিত হয়েছে দোর্দণ্ডপ্রতাপ অর্জুন সিং-এর ভূমিকা। ভাটপাড়া আমাদের দেখিয়েছে কীভাবে অতি দ্রুত বদলে যাচ্ছে বাংলার মফঃস্বলের চরিত্র, আমাদের বুঝে ওঠার আগেই। সেই ভাটপাড়ায় সাম্প্রদায়িক দাঙ্গার কারণ অনুসন্ধানে দীর্ঘদিন ধরে তথ্য সংগ্রহের কাজ করেছেন 'আমরা এক সচেতন প্রয়াস' নামের একটি সংগঠন। সম্প্রতি তাঁরা তাঁদের পূর্ণাঙ্গ ইংরিজি রিপোর্টটি প্রকাশ করেছেন তাঁদের ওয়েবসাইটে, আর আমাদের দায়িত্ব দিয়েছেন সেই রিপোর্টের বাংলা অনুবাদ করে তা প্রকাশ করার। তারই প্রথম পর্ব প্রকাশিত হল আজ।
    https://www.guruchandali.com/comment.php?topic=18400

    ২) নিউজিল্যান্ড নিয়ে আমাদের কৌতূহলের শেষ নেই। এই ছোট্ট দ্বীপরাষ্ট্র শুধু যে করোনাকে নির্মূল করার কারণেই আলোচনায় এসেছে, তা নয়। প্রাকৃতিক সৌন্দর্য্য, জীববৈচিত্র‌্য, জনস্বাস্থ্য, সব মিলিয়ে তা চিরকালের আগ্রহ-জাগানিয়া। তবে পর্যটক নয়, এবার নিউজিল্যান্ডের কথা শুনুন একদম ঘোড়ার মুখ থেকে। শুরু হল নতুন ধারাবাহিক 'দখিন হাওয়ার দেশ', লিখছেন দীর্ঘদিনের নিউজিল্যান্ডবাসী অরিন বসু।
    https://www.guruchandali.com/comment.php?topic=18399
আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত