• হরিদাস পাল  ব্লগ

  • ভারত নামে পুরোনো দেশ। নতুন সঙ্কট, নতুন সংগ্রাম।

    Partha Banerjee লেখকের গ্রাহক হোন
    ব্লগ | ৩১ আগস্ট ২০২১ | ২৫৯ বার পঠিত | রেটিং ৩.৫ (২ জন)
  • কৃষক আন্দোলন সম্পর্কে মিডিয়া আর বেশি কিছু কথা বলে না। মানুষকে ভুলিয়ে দেওয়ার খেলা, দৃষ্টি সরিয়ে দেওয়ার খেলা চলেছে নিরন্তর।

    কৃষকরাও দেশদ্রোহী? কারণ তারা তাদের ফসল ও জমি বাঁচানোর তাগিদে মরিয়া হয়ে ঝাঁপিয়ে পড়েছে দিল্লি, পাঞ্জাব, হরিয়ানার রাস্তায় রাস্তায়? এই ঐতিহাসিক আন্দোলনের পিছনেও রাজনৈতিক চক্রান্ত খুঁজছে শাসকদল ও তাদের প্রোপাগাণ্ডা মেশিন?

    তাঁদের অনুপম খের, তাঁদের পরেশ রাওয়াল, তাঁদের কঙ্গনা রানাওয়াত -- এঁরাই দেশপ্রেমী, আর নাসিরুদ্দিন শাহ, শাবানা আজমি, জাভেদ আখতার -- এঁরা সবাই দেশদ্রোহী? এমনকি, বোধহয় আধুনিক ভারতের ইতিহাসে প্রথম -- একজন বিশাল জনপ্রিয় ক্রিকেট প্লেয়ার যুবরাজ সিং এগিয়ে এসেছেন কৃষকদের সমর্থনে। দীপিকা পাডুকোন এগিয়ে এসেছেন দিল্লির জওহরলাল নেহেরু বিশ্ববিদ্যালয়ে আন্দোলনরত ছাত্রছাত্রীদের সমর্থনে। না, শচীন তেন্ডুলকার, বিরাট কোহলি, সৌরভ গাঙ্গুলি আসেন নি। শাহরুখ খান আসেন নি। ভবিষ্যতে আসবেন, সে সম্ভাবনা আমার মতে খুব বেশি নেই।

    "কৃষকদের নিয়ে রাজনীতি করা হচ্ছে", বলেছেন নরেন্দ্র মোদী। বলেছেন অমিত শাহ, স্মৃতি ইরানি এবং উত্তরপ্রদেশের মুসলিম-বিদ্বেষী যোগী। উক্তিটাই অদ্ভুত। আপনারা নোটবন্দী করে মানুষের জীবন বিপন্ন করে ফেলতে পারেন, হাজার বছরের পরীক্ষিত অর্থনৈতিক ব্যবস্থা ধ্বংস করে ফেলতে পারেন কলমের এক খোঁচায়। তার বিরুদ্ধে মানুষের প্রতিবাদ হলে তা রাজনীতি?

    আপনারা সিএএ, এনপিআর, এনআরসি করে লক্ষ লক্ষ নিরীহ মানুষকে রাতারাতি অ-নাগরিক বলে ঘোষণা করে দিতে পারেন, এবং তাঁদের ভয়াবহ অনিশ্চিত অবস্থার মধ্যে ছুঁড়ে দিতে পারেন। ইচ্ছেমতো তাঁদের নতুন তৈরী হওয়া জেলে নিক্ষেপ করতে পারেন। তার বিরুদ্ধে মানুষ আন্দোলন করলে তা হয়ে যাবে রাজনীতি?

    আপনারা করোনাভাইরাস মোকাবিলার জন্যে মাত্র কয়েক ঘন্টার নোটিসে সারা দেশ জুড়ে লকডাউন ঘোষণা করতে পারেন, এবং কোটি কোটি পরিযায়ী শ্রমিকদের রাস্তায়, দূরদেশে, ঘর থেকে বহুদূরে আটকে রাখতে পারেন -- সম্বলহীন, আশ্রয়হীন, খাদ্যহীন অবস্থায় -- যাতে তারা খালি পায়ে জীবন বিপন্ন করে হেঁটে ফিরতে বাধ্য হয়। তার বিরুদ্ধে সোচ্চার হলে তা রাজনীতি?

    আপনারা নতুন নতুন শ্রম আইন জারি করতে পারেন, শিক্ষা আইন জারি করতে পারেন, এবং লোকসভাকে সম্পূর্ণ অগ্রাহ্য করে কোনোরকম সংসদীয় আলোচনাকে বৃদ্ধাঙ্গুষ্ঠ দেখিয়ে অতি গুরুত্বপূর্ণ বিল পাশ করে ফেলতে পারেন ধ্বনি ভোটে, কিন্তু তার বিরুদ্ধে মানুষ গর্জে উঠলে তা হয়ে যাবে রাজনীতি?

    সাধারণ মানুষের ব্যাঙ্কে জমানো খুদকুঁড়ো সুদ কমানোর নাম করে হঠাৎ কমিয়ে দিলে, পেনশন কেড়ে নিলে মানুষ যদি সংগঠিতভাবে প্রতিরোধ করে, তা হয়ে যাবে রাজনীতি?

    সম্পূর্ণ বেসরকারিকরণ করে বহুকালের রাষ্ট্রীয় অর্থনৈতিক ব্যবস্থা আম্বানি, আদানির হাতে তুলে দেওয়ার বিরুদ্ধে, বহুজাতিক মার্কিন কর্পোরেশনের হাতে তুলে দেওয়ার বিরুদ্ধে মানুষ যদি স্লোগান দেয়, তা হয়ে যাবে রাজনৈতিক চক্রান্ত?

    পিএম কেয়ার্সের নামে লক্ষ কোটি টাকার বেহিসেব হলো দেশপ্রেম, আর তার হিসেবে জানতে চাওয়া মানুষগুলো দেশদ্রোহী?
    আরও পড়ুন
    মালিক - Chayan Samaddar



    আপনারা বিশ্ববিদ্যালয়ের লাইব্রেরির মধ্যে ঢুকে রাইফেল বেয়নেটের মুখে ছাত্রছাত্রীদের টেনে হিঁচড়ে বের করে নিয়ে আসতে পারেন, নাগরিক স্বাধীনতার পক্ষে লড়াই করা সম্পূর্ণ অহিংস মানুষদের ওপরে সশস্ত্র পুলিশ ও গুণ্ডা লেলিয়ে দিতে পারেন। গর্ভবতী মহিলাদের অনির্দিষ্টকাল জেলে বন্দী করে রাখতে পারেন। কিন্তু তার বিরুদ্ধে মানুষ রাস্তায় নেমে এসে প্রতিরোধ আন্দোলন গড়ে তুললে তা হয়ে যাবে রাজনৈতিক চক্রান্ত?

    চীন সীমান্তে বারবার অস্থিরতা, এবং মিডিয়ার সাহায্যে আমাদের মগজধোলাই। পাকিস্তান, কাশ্মীরে নানা কৌশল, প্রচার, পুলওয়ামা, বালাকোট, ইত্যাদি ইত্যাদি ইত্যাদি। গরিব ঘরের ছেলেগুলো যুদ্ধ করতে গিয়ে মৃত। সন্ত্রাসের শিকার। ভারতীয় নাগরিকদের করের টাকাতেই সৈন্যবাহিনী। অস্ত্রশস্ত্র। আমদানি রফতানি। প্লেন, ড্রোন, মানচিত্র তৈরী। ভারতের মানুষের কি কোনো ভূমিকা আছে আলোচনায় অংশ নেওয়ার? না কি, বিরোধী জনপ্রতিনিধিদের কথা বলার, সমালোচনার অধিকার কেড়ে নেওয়ার নামই গণতন্ত্র?

    তাহলে গণতন্ত্র ব্যাপারটার আর কী বাকী রইলো? এবার তো তাহলে মনে হচ্ছে আপনারা একেবারে বেআব্রুভাবে গণতন্ত্র শেষ করে দিতেই চলেছেন। এবারে আপনারা একেবারেই নিয়ন্ত্রণহীন, বেপরোয়া। আপনাদের হাতে আছে লক্ষ কোটি টাকা, আপনাদের হাতে আছে সংসদীয় নিরঙ্কুশ গরিষ্ঠতা। আপনাদের হাতে আছে আপনাদের ক্যাডার বাহিনী, আই টি সেল, হোয়াটস্যাপ ইউনিভার্সিটি, এবং ছোটবড় হাজার মিডিয়ার গোয়েবলস নেটওয়ার্ক। আপনাদের হাতে আছে এমন সব "জনপ্রিয়" সাংবাদিক, যারা দেশে বিদেশে ঘৃণা ছড়ানোর দায়ে এই সেদিন গ্রেফতার হয়েছেন, এবং ব্রিটেনে কুড়ি হাজার পাউণ্ড জরিমানা এবং মুচলেকা দিতে বাধ্য হয়েছেন।

    এরাই আপনাদের নব্য-গণতন্ত্রের ধারক ও বাহক আজ তাহলে?

    ভারতীয় সংবিধান কি আদৌ নিরাপদ আপনাদের হাতে?

    না কি, আরএসএস হেডকোয়ার্টারের নির্দেশে গণতান্ত্রিক, ধর্মনিরপেক্ষ, সমাজতান্ত্রিক পবিত্র সংবিধান নতুন করে লিখছেন আপনারা? যেখানে ভারতবর্ষকে হিন্দুরাষ্ট্র বলে ঘোষণা করা হবে, যেখানে রবীন্দ্রনাথের ভাষা কেড়ে নিয়ে নতুন এক হিন্দুত্ববাদী জাতীয় সঙ্গীত আমাদের গাইতে বাধ্য করা হবে?

    যেখানে হিন্দিকে একমাত্র জাতীয় ভাষা বলে ঘোষণা করা হবে এবং বহুদলীয় নির্বাচনপদ্ধতি চিরকালের মতো ধ্বংস করে ধাপে ধাপে একদলীয় ফ্যাসিস্ট রাষ্ট্র কায়েম করা হবে?

    বিজেপি, এবিভিপি, বিশ্ব হিন্দু পরিষদ, বিএমএসের নেপথ্যে আসল চালিকাশক্তি রাষ্ট্রীয় স্বয়ংসেবক সঙ্ঘ কিন্তু তাই চায়। চিরকাল চেয়ে এসেছে। যে আরএসএস হিটলারের উপাসনা করেছে, এবং মুসলমান, খৃষ্টান ও সোশ্যালিস্টদের জাতীয় শত্রু বলে চিহ্নিত করেছে।

    আরএসএসের গোলওয়ালকার থেকে হিন্দু মহাসভার সাভারকার তাই চেয়েছিলেন। আজকের আরএসএস সরসঙ্ঘচালক মোহন ভাগবত কিন্তু এখনো অখণ্ড ভারতের কথা সোচ্চারে বলে আসছেন, যেখানে আরএসএসের সাংগঠনিক মানচিত্রে পাকিস্তান এবং বাংলাদেশের কোনো অস্তিত্ব নেই, এবং যেখানে তাদের অফিসিয়াল ক্যালেণ্ডারে পনেরোই আগস্ট এবং ছাব্বিশে জানুয়ারী উৎসব বা ছুটির দিন বলে গণ্য করা হয়না। যেখানে দেশের বীর শহীদদের তালিকায়, অথবা স্মরণীয় পুরুষ বা মহিলাদের তালিকায় একজনও মুসলমান বা খৃষ্টানের নাম নেই।

    সেই ভারতই কি আপনারা উপহার দিতে চলেছেন আমাদের?
  • বিভাগ : ব্লগ | ৩১ আগস্ট ২০২১ | ২৫৯ বার পঠিত | রেটিং ৩.৫ (২ জন)
  • কোনোরকম কর্পোরেট ফান্ডিং ছাড়া সম্পূর্ণরূপে জনতার শ্রম ও অর্থে পরিচালিত এই নন-প্রফিট এবং স্বাধীন উদ্যোগটিকে বাঁচিয়ে রাখতে
    গুরুচণ্ডা৯-র গ্রাহক হোন
    গুরুচণ্ডা৯তে প্রকাশিত লেখাগুলি হোয়াটসঅ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে যুক্ত হোন। টেলিগ্রাম অ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলটির গ্রাহক হোন।
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • Indian | 2405:201:9002:30a1:fc4d:1a99:f814:6b9c | ০৪ সেপ্টেম্বর ২০২১ ২২:৩৬497615
  • হ্যাঁ, সেই ভারত ই আসছে, হবেই !
     
    যা করার করে লে পচা :))))))))
  • সন্তোষ বন্দোপাধ্যায় | 2401:4900:314e:3d74:0:64:be5:5001 | ১৩ সেপ্টেম্বর ২০২১ ১৯:৪৪498076
  • ইন্ডিয়ান কে বলি, গুরু চনডালী মানে এ নয় চনডালের মতো ভাষা বা অভিব্যক্তি প্রকাশ।এটা আলোচনা সমালোচনার মঞ্চ, খেউড় গান এর নয়।এখন বলি, এই সরকার একটা টার্গেট নিয়ে চলছে, তা হলো , মার্কিন পুঁজি বাদ কে সাহায্য করা এবং তার প্রসার করা।তাই করতে গিয়ে ঐ ধর্মের আখাড়া, জাতপাত, মনুবাদী তত্ব, বামপন্থী দের আরবান নকশাল, টুকড়ে টুকড়ে গ্যাঙ... এসবের অবতারণা। কখনো রাম মন্দির, কখনো কখনো চীন পাকিস্তান , কখনও বা জাতপাত.. মোদ্দা কথা গদী বাঁচাতে হবে, বাঁচাতে হবে উপমহাদেশের ওপর আমেরিকার দাদা গিরি র ভারসাম্য বজায় রাখতে। এরা হিন্দু ধর্মের কথা বলতে পারে, কিন্তু তার হলো বুজরুকি, এরা গুজরাটী বানিয়া, কোন মহৎ উদ্দেশ্য এদের নেই ।এরা মানুষ কে ধর্মের নামে হাইজ্যাক করেছে, তারপর দেখাচ্ছে ভয় ,ফ্যাসিসট কায়দায়। আমরা কেউ এদের তালে তাল মেলাই আর পাশের মুসলমান ভাইদের শ্রাদ্ধ করি।কেন গ্যাসের দাম বাড়লো, কেন ব্যাঙকের সুদ কমছে, কেন জিনিস পত্রের দাম অকারনে আকাশছোঁয়া,কেন প্রতিবাদ করলেই নকশাল, পাকিস্তান পন্থী... তাই আমাদের উর্বর মস্তিষ্কের অন্দরে পশিল না।
আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত


পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। লুকিয়ে না থেকে মতামত দিন