ভাটিয়ালি | টইপত্তর | বুলবুলভাজা | হরিদাস পাল | খেরোর খাতা | বই
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • পাতা :
  • S | 2405:8100:8000:5ca1::20b:94d4 | ০২ মে ২০২২ ২১:২০507125
  • সিনেমার কথা বললে হিন্দুস্তানি ভাষার অবস্থাও বেশ শোচনীয়। এক্দল সেখান থেকে উর্দু শব্দ বাদ দিয়ে ভারতীয় (মানে হিন্দুদের ভাষা) করতে ব্যস্ত। অন্যদিকে হিন্দি-পান্জাব-্হরিয়ানায় চালানোর জন্য গানে সিনেমায় ঐ অন্চলের একগাদা শব্দ অহেতুক ঢোকানো হচ্ছে। সেদিন নওয়াজ ভাই বলছিলেন যে বলিউডে সিনেমার স্ক্রিপ্ট আসে রোমান হরফে, দেবনাগরিতে পেলে ভালো হত। হিন্দি সিনেমার সেটে নাকি সবাই ইংরেজীতেই কথা বলে। এরকমও শুনেছি যে বলিউডের বহু অ্যাক্টর হিন্দি পড়তে পারে না। সেটা অবশ্য বাংলা ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রিতেও শুনেছি।
  • sm | 2402:3a80:1cd1:a729:278:5634:1232:5476 | ০২ মে ২০২২ ২১:৩৮507127
  • সেদিন কে কোন একটা পেপারে লিখেছে দেখলাম ,কিছু কিছু বাংলা সিরিয়াল  নাকি সাউথে নকল করছে। খুব ভালো খবর।পটল কুমার সিরিয়ালের বিষয় বস্তু তো খুব ভালো লেগেছিলো, আমার।
    বাংলা সিরিয়াল গুলো দীর্ঘসূত্রিতায় ভুগছে।প্রথম দিকে ঠিক ঠাক চলছে, তার পর রাবার ব্যান্ড টানছে তো টানছে ই। লোকজনের মাইগ্রেন বৃদ্ধি পাচ্ছে।তারপর একদিন দুম করে,রাবার ব্যান্ড ছিঁড়ছে আর দর্শক সংখ্যা অক্কা পাচ্ছে।
  • sm | 2402:3a80:1cd1:a729:278:5634:1232:5476 | ০২ মে ২০২২ ২১:৪৫507128
  • বাংলা সিরিয়ালের আর একটা অসহ্য ব্যাপার হলো,দুম করে মাঝখানে হিন্দি গণ ঢুকিয়ে দেওয়া।অসম্ভব শ্রুতিকটূ ব্যাপার! কি আর করা। পয়সা তো ঢালছেন,সুভাষচন্দ্র!
  • sm | 2402:3a80:1cd1:a729:278:5634:1232:5476 | ০২ মে ২০২২ ২১:৪৫507129
  • #গান
  • যোষিতা | ০৩ মে ২০২২ ০০:৩৫507134
  • আমি কোলকাতায় গিয়ে কয়েকটি জায়গায় বাংলা টিভি সিরিয়ালপ্রেমীদের দেখলাম। তাদের জীবন একটাই বোরিং এবং সমস্যাময়, যে তারা ভারচুয়াল এসকেপরুট খোঁজার জন্য সিরিয়ালের জগতে পড়ে থাকে বলে আমার মনে হলো। ভয়ঙ্কর সব রঙের ব্যবহার, গল্প গুলো অলীক এবং কুৎসিত, বাস্তবের সঙ্গে যোজন দূরত্ব, কুটিলতা নোংরামি মাত্রাহীন, অভিনয়ের কোনও স্কোপ নেই, লাউড, তবু সিরিয়ালপ্রেমীরা নিয়ম করে দেখেই চলেছে। কী সাংঘাতিক সামাজিক অবক্ষয় তা চোখে না দেখলে বিশ্বাস করা যায় না।
  • যোষিতা | ০৩ মে ২০২২ ০০:৩৬507135
  • একটাই এতটাই
  • যোষিতা | ০৩ মে ২০২২ ০০:৪৪507136
  • আরও আশঙ্কার ব্যাপার হচ্ছে যে এরা সিরিয়াল দেখে দেখে নিজ নিজ জীবনেও অনুপ্রেরণা পাচ্ছে। zee বাংলার একটা সিরিয়ালে তান্ত্রিক মহিলা আছে। সেটা দেখে কিছু কিছু মহিলা তান্ত্রিক বনে গেছে। এদের কয়েকজনকে দেখলাম। তুকতাক তো করেই, সঙ্গে তান্ত্রিক কীর্তিকলাপও আছে। পাড়াপড়শি ও আত্মীয়কুটুম্বের ক্ষতিসাধন করবার জন্য এরা তন্ত্রের সাহায্য নিচ্ছে। অথচ ঘরে রোজগার নেই, মাসে পাঁচশো টাকার ভাতা, বাকি সময়ে সিরিয়াল আর তান্ত্রিক ব্যাপার স্যাপার।
  • একক | 1.39.162.0 | ০৩ মে ২০২২ ০১:৪১507138
  • হে হে হো হো,  সে দি কদিনের জন্যে এসব দেকে ঘেবড়ে গ্যাচে ঃ))))) 
     
    আমি একবার একটানা এরকম বিষন্ন পরিবার ও রাদ্দিন উৎকট সিরিয়ালস্পৃহার মধ্যে কাটিয়েছিলুম। সে কী চ্যাটচেটে ফীলিং ঃ(((  ঈশেনবাবুর নেশা লিকে ব্যাপারটা মাথা থেকে বের করে দি। বাপ্প।
  • &/ | 151.141.85.8 | ০৩ মে ২০২২ ০২:০৬507140
  • একবার ফেবুতে খুব আলোচনা হচ্ছিল সিরিয়াল নিয়ে। এক মহিলাকে গলা ঘ্যাচাং করে বলি দেওয়া হল। কিন্তু তাতে কিছুই হল না, তান্ত্রিক ব্যাপার বাবা হুঁ হুঁ। সেই মহিলা গলায় স্কচটেপ লাগিয়ে ঘুরে ফিরে বেড়াচ্ছে। দেখে একজন বলল, এতো ফরাসী বিপ্লবের আমলের ভূতেরা এরকম হত। গিলোটিনে মুন্ডু যাওয়া ভূতেরা মুন্ডু কুড়িয়ে এনে গলায় ভেলেভেটের ফিতে দিয়ে বেঁধে দিব্যি ঘুরত। অনেক ভূতসুন্দরী এইভাবে প্রেমও করেছে। কিন্তু যেই না প্রেমিক ভালোবেসে গলার ফিতেটি খুলেচে, ব্যস, হয়ে গেল!
  • &/ | 151.141.85.8 | ০৩ মে ২০২২ ০২:০৮507141
  • এই ফরাসী ভূতের কাহিনি রেডিওতে নাটকে শুনেছি। ভিসুয়াল ভূতের জিনিস শুধুমাত্র অডিওতে আনা খুব কঠিন। তবু ওঁরা খুব ভালোভাবেই করতেন সেই আমলে। নানা সাউন্ড এফেক্টের সহায়তা নিতেন অবশ্য।
  • Amit | 220.253.101.45 | ০৩ মে ২০২২ ০২:২৫507142
  • সিরিয়াসলি ? বলি দেওয়ার পরে স্কচ টেপ ? সেটা কি হরর গল্প ছিল নাকি দিন আনি দিন খাই সিরিয়াল ? 
  • Amit | 220.253.101.45 | ০৩ মে ২০২২ ০২:২৯507143
  • কদিন আগে এমনই একখান বাংলা সিরিয়েল এ হসপিটাল এ স্কচ ব্রাইট দিয়ে কার্ডিও শক দিচ্ছিল বটে। 
     
    এসব খাজা মালকে এতো টিকিয়ে রাখার বাসনা কেন রে ভাই ? লুপ্ত হলে দুনিয়ার কিছু ক্ষতি হবে বলে তো মনে হয়না। 
  • &/ | 151.141.85.8 | ০৩ মে ২০২২ ০৩:০১507144
  • আরে অমিত, শুধু সিরিয়ালের দোষ দিয়েই বা কী হবে? কলকাতা-বেসড বাংলাসাহিত্যের বাজার এখন ভূত প্রেত তন্ত্র মন্ত্র নরবলি কন্ধকাটা ডাকিনী কামরূপ-কামাখ্যা মায়াং গ্রামের কালাজাদু এইসবে ভরে গেছে। এমনকি কল্পবিজ্ঞানের নাম করে পর্যন্ত এইসব ভূতপ্রেততন্ত্রমন্ত্র চালিয়ে দিচ্ছে।
  • &/ | 151.141.85.8 | ০৩ মে ২০২২ ০৩:০৬507145
  • দশকের পর দশক ধরে ভালো ভালো লেখকের সযত্ন পরিশ্রমে গড়ে তোলা বাংলা সাহিত্যের মাঠ এখন ভূতপ্রেততন্ত্রমন্ত্রওয়ালাদের দখলে। আগেও এইসব বটতলামার্কা জিনিস, স্বপনকুমারীয় দুইহাতে উদ্যত রিভলভার ডানহাতে টর্চ মার্কা জিনিস ছিল, তবে ওসব ছিল কোণে কোণে। মূল মাঠে ওসবের উৎপাত তত ছিল না।
  • s | 100.36.157.137 | ০৩ মে ২০২২ ০৭:৫৮507147
  • আমি বাংলা হিন্দি সিনেমা সিরিয়াল অনেকদিন হল দেখিনি। এসব পড়ে শুনে বেশ অবাক লাগছে। মানে হাসি পাচ্ছে কিন্তু ব্যাপারটা মজার কিনা ঠিক বুঝতে পারছি না।
    আর স্কচ ব্রাইট মানে যেটা দিয়ে বাসন মাজা হয় সেই স্কচ ব্রাইট দিয়ে কার্ডিও শক? ব্যাপারটা ঠিক কলপনাও করতে পারছি না। কি করে দেওয়া হল?
  • s | 100.36.157.137 | ০৩ মে ২০২২ ০৮:০২507148
  • আর এই মুণ্ড কেটে তারপর অন্য মুণ্ড জোড়া দেওয়া নিয়ে পরশুরামের দারুণ একটা গল্প আছে। মহিলা আর পুরুষের মুন্ডু উল্টোপাল্টা হয়ে গিয়েছিল। সেই গল্প থেকেই অনুপ্রেরণা পেয়েছে মনে হয়।
  • Amit | 121.200.237.26 | ০৩ মে ২০২২ ০৯:৫৩507149
  • স্কচ ব্রাইট দিয়ে কার্ডিও শক দেওয়ার গপ্পোটা আবাপতে এসেছিলো- ওই জন্যে মনে আছে। এখন লিংক খুঁজে পাচ্ছিনা।  কেউ সেসব মাস্টারপিস দেখে থাকলে বলতে পারবেন হয়তো। মাগনায় প্রপ র কাজ চালিয়েছে  আর কি। তাপ্পর তিন অবস্থা যেমন হয়। :) :) 
  • dc | 171.60.249.198 | ০৩ মে ২০২২ ১২:১৫507155
  • এমনও হতে পারে যে ট্রাম্প লিকুয়ে লুকিয়ে স্কচ ব্রাইটের সিরিয়ালটা দেখেছিল আর সেখান থেকেই কার্বলিক অ্যাসিড খেয়ে করোনা সাফ করার আইডিয়াটা পেয়েছিল। 
  • &/ | 151.141.85.8 | ০৩ মে ২০২২ ১৯:৫৯507179
  • এটা হতেই পারে। কিন্তু ট্রাম্পকে অনুবাদ করে দিল কে? বাংলা থেকে ইংরেজী করে দিল কে? কমলা?
  • যোষিতা | ০৩ মে ২০২২ ২০:১৬507181
  • খবরের কাগজে সব খবরই ক্রাইমের। আনন্দবাজারেও। খেলার পাতাটুকু বাদ দিয়ে। আগাগোড়া সব খবর ক্রাইম। তোলাবাজি, খুন, রেপ, তদন্ত, প্রভৃতি। রোববারে পাতা বেশি, ক্রাইমের খবর আরও বেশি, দামও বেশি।
  • যোষিতা | ০৩ মে ২০২২ ২০:২৬507182
  • দুজন ভ্যানচালকের সঙ্গে গল্প করছিলাম রাস্তার ধারে বসে সিগারেট খেতে খেতে। হঠাৎ এক বুড়োর উদয়। আমাকে ফুঁকতে দেখে জ্ঞান দিতে শুরু করতেই চল-হ্যাট-হ্যাট করে ভাগিয়ে দিয়েছি। ভ্যানচালকদ্বয় তাই দেখে আমাকে সাপোর্ট করল। বলল বাঙালিরা ঐ অঞ্চলে কাজকর্ম করে না, ফ্রিতে রেশন পাচ্ছে (পচা চাল, ডাল, চিনি, তেল) এবং মাসিক পাঁচশো করে পায় মেয়েরা, ছেলেরা কাজ করে না, সামনেই মন্দির সেখানে সারা সন্ধে মাইক লাগিয়ে তারস্বরে বেসুরো ভজন ও নাম সংকীর্তন হয়, পুরোটা বসে শুনলে প্রসাদের লাইনে দাঁড়িয়ে প্রাসাদ পায় মহিলারা। এসব নিজের চোখে দেখলামও। তবে সিরিয়াল বাদ যায় না সকলের। প্রচুর এরকম মন্দির। সেইরকম নয়েজ পলিউশন। প্রত্যেকেই কম বেশি কালা।
  • dc | 122.174.71.173 | ০৩ মে ২০২২ ২০:৩৫507186
  • ট্রাম্পের একটা ব্যবেল ফিশ আছে। 
  • Amit | 220.253.101.45 | ০৪ মে ২০২২ ০১:৪৬507202
  • তাহলে তো একদম ঠিক রাস্তাতেই যাচ্ছে। লোকে বোবা আর কালা হলেই এখনকার  নেতাদের সুবিধা। তার সাথে আছে বাঙালির আকাশছোঁয়া ইগো -  এখন তালপুকুরে ঘটি ডোবে না কিন্তু পূর্বপুরুষ নাকি সোনার থালায় খেত সেই দেমাক। এক্কেরে সুপারহিট কম্বো। 
  • S | 2405:8100:8000:5ca1::2fb:7d | ০৪ মে ২০২২ ০৪:২৪507207
  • এসব ব্যাপারে বাংলা সিরিয়াল এখনও হিন্দি সিরিয়ালের থেকে অনেক অনেক পিছিয়ে আছে। এই নিয়ে খিল্লি করে ইউটিউবে প্রচুর ভিডিও আছে। এই দুটো দেখতে পারেন।



  • রমিত চট্টোপাধ্যায় | ২৩ মে ২০২২ ১৩:৩৬507998
  • হিন্দি সিরিয়াল গুলো আরো রিগ্রেসিভ। এখনো নাগিন, চুরেইল এসব ধরে পড়ে আছে। বাংলা তবু বেটার।
     
    এবার সাপোজ, আমরা us uk korea japan aus esp এসব টিভি সিরিজ, সিনেমা দেখে থাকি। আমরা এই সব বাংলা সিরিয়ালের টার্গেট অডিয়েন্সই নই। 
     
    তবে সিরিয়াল গুলোর একটা জিনিস খুব খারাপ লাগে, কুসংস্কার এর চাষ। (যদিও হিন্দির থেকে কম)। নায়িকা ঠিক কোনো না কোনো দেবদেবীর নাম সারাক্ষন কপচে চলে
  • রমিত চট্টোপাধ্যায় | ২৩ মে ২০২২ ১৩:৫২508000
  • হয় রকুপীর (রঘুবীর), বজরংবলী, কালী, কৃষ্ণ নয় আরো অন্য কিছু। নায়িকা কে পুরোনো পন্থী হতেই হবে, মডার্ন হওয়া যাবে না। তার শত্রু যে সে হবে আধুনিক, আধুনিক পোশাক পড়বে, ইংরেজি মেশানো বাংলায় কথা বলবে , কথায় কথায় ভগবান কে ডাকবে না ও নায়িকার থেকে উচ্চবিত্ত হবে। মানে লোকের মনে গেঁথে দেওয়া হচ্ছে আধুনিকতাই আসল শত্রু।

    প্রায় প্রত্যেক সিরিয়ালে নায়িকা গরিব, নায়ক বড়লোক (এক্সসেপসন এক আঙুলে গোনা যায় )। তাদের বিয়ে হবে আকস্মিক ভাবে। তারা বিয়ের আগে প্রেম করবে না বা এরেঞ্জড ম্যারেজ ও হবে না। হয় বর পালিয়ে গেছে নায়ক তাকে বিয়ে করে লগ্ন ভ্রষ্ট হওয়ার থেকে বাঁচাতে, বা নায়কের বিয়ে তে জোর করে নায়িকাকে পাত্রী করে দেওয়া হয়। বা কোথাও ঘুরতে গিয়ে গ্রামের লোক মন্দিরে জোর করে বিয়ে দিয়ে দেয়  মানে  মোট কথা স্বাভাবিক বিয়ে একটাও নয়। 
    বিয়ের পর নায়িকা নায়ক কে চার অক্ষর বলে ডাকে। না যেটা ভাবছেন সেটা নয়, দাদাবাবু, বাঁধ বাবু, ছোটবাবু, বইবাবু, স্যার বাবু, উচ্ছে বাবু এইসব নামে। সাথে তুমি কখনো বলে না, সব সময় আপনি আজ্ঞে করে কথা।

    স্টার জলসার দু একটি সিরিয়াল কয়েকটি স্টিরিও টাইপ ভেঙেছিল কিন্তু আগে টি আর পি উঠলেও তা ধরে রাখতে না পারায় এখন আবার আগের খাপে ঢুকে গেছে।
     
  • একক  | 103.76.82.249 | ২৩ মে ২০২২ ১৫:২২508005
  • এগুলো ইল্লিটারেসি পর্ন। 
     
    পর্নোগ্রাফি মানে শুধু শরীরে ন্যাংটো কেস না।  পর্নের মুল কথা হলো এনজয়িং আদার্স  ভালনারেবিলিটি। সেটা সেক্সুয়াল মেন্টাল অনেক ফর্মে আস্তে পারে। অশিক্ষিত লোকজন কতটা পিছিয়ে আছে , তারা আমাদের প্রবল পরাক্রম শিক্ষা স্টাটাস এগুলোর সামনে কতটা ভালনারেবল এগুলো এন্টারটেইনিং উপায়ে তুলে ধরাই ইল্লিটারেসি পর্নের উদ্দেশ্যে। 
     
    খেয়াল করে দেখুন ওগো বধূ সুন্দরী কেমনপপুলার হয়েছিলো। ইল্লিটারেসি পর্ণে ট্রেণ্ড সেটার মুভি। এই পুঁথিবাবু - উচ্ছেবাবু এসব ডাক অসম্ভব সেক্সুয়াল প্লেজার দেয় দৰ্শক কে। 
     
    আধুনিক মানুষের যৌনতা গোদা শরীরকেন্দ্রীক নয়। তারা নিজেদের স্যাপিওসেক্সুয়াল ভাবতে ,এটলিস্ট, ভালোবাসে।  নিজের জীবনে বুদ্ধিমান ( কিন্তু ডোসাইল ) সঙ্গী খোঁজে।  ঠিক যেমন কবি এক্কালে কমিটেড হোর খুঁজতেন। এই আধুনিক বৌদ্ধিক আইকোনাইজেশনের -ই ম্যানিফেস্টেশন হচ্চে ইল্লিটারেসি পর্ন দেখা।
     
    আমরা যে ভাবি  ,  শুধু আমরাই বুদ্ধিমান আর বাকিরা ওঁচা সিরিয়ালে অশিক্ষিত গ্রাম্য বালিকার দাদাবাবু মার্কা প্যানপ্যানানিতে ডুবে আচে , ওরা অশিক্ষিত , ব্যাপারটা অত লিনিয়ার না। ব্যাটারা জমিয়ে পানু দেখছে :))))আমাদেরই তৈরী করা শিক্ষা -অশিক্ষার আইকন গুলো ইউজ করে।
  • যোষিতা | ২৩ মে ২০২২ ১৫:৩৫508007
  • গুড অ্যানালিসিস।
  • পাতা :
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]


মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত
পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। খারাপ-ভাল মতামত দিন