• হরিদাস পাল
  • খুলে ফেলুন আপনার নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে... (হরিদাস পাল কী?)
  • অণুগল্প- ১,২,৩

    Indrani
    ব্লগ | ০১ মার্চ ২০১৭ | ২১৫ বার পঠিত

  • অণুগল্প # ১

    -‘এই লীলা, কাল ফোন করলি না তো ! রাতের দিকে একটা এস এম এস করলাম তোকে। পেন্ডিং দেখালো। মোবাইল অফ করে রেখেছিলি না কি?’
    -‘হুঁ। শুয়ে পড়েছিলাম আধখানা ভ্যালিয়াম খেয়ে।‘
    -‘মাথা ধরেছিল?’
    -‘সে তো আছেই। নিত্য সঙ্গী। আসলে কাল ও এমন অসভ্যতা করছিল-অসভ্যতাই আর কি বলব-‘
    -‘কেন কি হয়েছে?’
    -‘কিছুই না। কোনো ইস্যুই নয়। কোথায় কোন লকে চাবি লাগছে না, কোথায় কোন ক্যাবিনেটের হ্যান্ডেল খসে পড়ে গেছে, আমি তুলে রাখি নি তাই হারিয়ে গেছে-এই সব ফালতু ব্যাপার নিয়ে এমন বিশ্রী ভাবে বলল যে তুই ভাবতে পারবি না।‘
    - ‘সে তো আমাকেও, রোজই কিছু না কিছু , আর সবই নন ইস্যু। ইচ্ছে করে সংসারের মুখে ইয়ে দিয়ে চলে যাই। এই লোক গুলো যে কি। পুরুষ বিশেষ করে বাঙালী পুরুষ মানেই এই। সব বাড়িতেই তো এক প্রবলেম শুনি। সত্যি দেখবি একদিন চলে যাব সব ছেড়ে।‘
    -‘কাল বলে কি না-কি কর সারাদিন বাড়িতে, কিছু খেয়াল রাখতে পারো না? আঙুল নাচিয়ে নাচিয়ে বলল। আঙুল তুললে এমনিতেই আমার মাথায় রক্ত উঠে যায় তার ওপর এই বয়সে এখন যদি কি করি করেছি শুনতে হয়-রাগে মাথা ঝনঝন করছিল, ওষুধ খেয়ে শুয়ে পড়লাম।সেদিন বলল গেট আউট কি না এক কথা তিনবার বলেছি। তুই ভাবতে পারিস শম্পা? নিজের ওপরই রাগ হয় কেন পড়ে আছি এখানে। আর তুই বলিস শংকরের মেজাজ এর কথা। রূপকের আসল চেহারা যদি দেখতি। রেগে গেলে যা মনে হয় তাই বলে।ভাবতে পারবি না।‘
    -‘আরে গেট আউট মানে কি গেট আউট। আমাকে তো চুলের মুঠি ধরে চড়ও মেরেছিল শংকর। ‘
    -‘কি বলিস! মেরেছিল তোকে?’
    -‘হ্যাঁ, আমিও মুচড়ে দিয়েছিলাম হাত। ৬ মাস বাড়ি ছেড়ে , পুপুনের কাছে ছিলাম।‘
    -‘থাক থাক ওসব কথা। আর ভাবিস না।পরশু আসছিস তো রূপাইএর জন্মদিনে? এখন রাখলাম। বেরোবো। রাতে কথা হবে।‘

    শম্পা চিরকাল সেই রকম রয়ে গেল- কেমন একটা লো ক্লাস-মারামারি করে, আবার সে সব কথা হড়হড় করে বলে দেয়- ভাবতেই শিরশির করে আলতো একটা আনন্দ হ'ল লীলার। রূপকের নম্বর টিপল –‘শুনছ? ব্যস্ত নাকি?’

    অণুগল্প #২

    সুমির মা বাবা দুজনেরই খুব ভয়। মেয়ে বড় হতে থাকলে মা বাবার যেমন হয় আর কি। মেয়েকে ঘিরে তারা সুরক্ষাবলয় গড়ে তুলেছে দুজনে মিলে।
    এই সময় মানে ভোরের দিকেই সুমি টিউশনে যায় শ্যামলী দির কাছে -ফিরে এসে স্কুল। কোনো পুরুষ শিক্ষকের কাছে কোনদিন প্রাইভেটে পড়বে না সুমি-যা সব ঘটনা চারদিকে। উফ। সুমিকে বুক দিয়ে আগলে রাখবে ওরা-সুমির মা বাবা।
    সুমির হাত ধরে শ্যামলীদির বাড়ির পথটুকু পেরোয় প্রফুল্ল। মোটের ওপর নিরুপদ্রবেই। সাধারণতঃ এই সময় গান গাইতে গাইতে সাইকেলের চেনে তেল লাগায় গোপাল, সুমিকে দেখলেই গানের গলা চড়তে থাকে-প্রফুল্লর তো তাই মনে হয়। লালার দোকানের ফোঁটাকাটা অল্পবয়সী কর্মচারী দোকানের তালা খোলে, জুলজুল করে সুমিকে দেখে। গামছা পরা লোকটা কলতলায় সাবান ঘষে ঘষে স্নান করে । টেনশন হয় প্রফুল্লর। আজ শীতটা বেশি পড়ায় পথঘাট শুনশান। হাল্কা কুয়াশা। খুশি খুশি লাগে কেমন। শ্যামলীদির বাড়িতে সুমিকে পৌঁছে বাজারে যায় সে , বাজার সেরে মেয়েকে নিয়ে বাড়ি ফিরবে। স্কুলে নিয়ে যাবে গীতা, সুমির মা, সুমির স্কুলেই পড়ায়, একই সঙ্গে বাড়ি ফিরবে মা, মেয়ে। এভাবেই তৈরী হয়েছে সুমিকে ঘিরে তাদের সুরক্ষা বলয়।
    শ্যামলীদি রিটায়ার্ড টীচার। আজ সকালে উঠতে দেরি হয়েছে। এখনও বাথরুমেই। তাঁর ছেলের বৌ সুমিকে বসতে বলে রান্নাঘরে যায়। শ্যামলীদির পড়ানোর ঘরে চেয়ার টেবিল, পেন পেন্সিল রুলার, চার দেওয়ালে গম্ভীর মুখে মনীষীরা। সুরক্ষিত সুমি বসে বসে টেস্টপেপারের পাতা উল্টোয়। ঘুম থেকে উঠে আসে শ্যামলীদির চার বছরের নাতি । উস্কো চুল, লাল সোয়েটার- চকলেট আনলে হত ওর জন্য। আচ্ছা পরের সপ্তাহেই আনবে না হয়-শনিবার ক্রিসমাস। বাবাকে বলে একটা ফ্রুট কেক কিনে আনবে শ্যামলীদি আর নাতির জন্য। বাচ্চাটা টলটল পায়ে এসে দাঁড়ায় তার পাশে।বেবি পাউডার এর গন্ধ পায় সুমি। লাল সোয়েটার তার ছোটো ছোটো হাত সুমির বুকে দেয় সটান- ‘এখানে দুদু । দুদু খাবো।‘

    অণুগল্প #৩

    -বৌমা, সুখী কে?
    উফ এই শুরু হ'ল বুড়োর দর্শন কপচানো। প্রতিদিন এই এক। খেতে বসে যত পুরাণ ধর্ম দর্শনের কথা। ঠক করে ভাতের থালা নামিয়ে রাখে সুপ্তি । তারপর 'বাবা শব্দটা আগে গিলে নিয়ে ভাঙা গলায় বলে ,' আপনার ছেলের সঙ্গে বিয়ে হওয়ার পর থেকে ঐ শব্দটা আমার অভিধানে নেই।' তারপর মনে মনে চূড়ান্ত গালাগালি দেয়। জোরে জোরে বললেও বুড়ো শুনতে পাবে না। কানের যন্ত্রটা খুলে খেতে বসেছে। লেবু চিপছে ডালে, ভাত মাখছে।
    সুপ্তি বিজবিজ করে বলতে থাকে-'আমার মত মেয়ে বলে এখনও আছে, নইলে কবে চলে যেত সংসারের মাথায় ঝাঁটা মেরে। নোংরা জঘন্য শয়তান একটা। কেন যে আছি ওর সঙ্গে এখনও-নিজের ওপরই ঘেন্না হয় ।'
    সুপ্তির শ্বশুর ফোকলা দাঁতে হাসে। কনিষ্ঠা , অনামিকা আলতো চাটে। আবার হাসে।
    -'কুলের অম্বলের এমন চমৎকার স্বাদ হয়েছে আজ। ঠিক আমার মার মত। কি যেন বলছিলে বৌমা? হারামজাদা আবার ঝামেলা শুরু করেছে?'
    সুপ্তি চোখ তুলল। শ্বশুরের তোবড়ানো গালে, পিঠে কাঁধে শীতের রোদ। কাঁসার থালায় অবশিষ্ট অন্ন ব্যঞ্জন। লেবু নুন। মসৃণ লাল মেঝেয় দু ফোঁটা জল, একটা কালো পিঁপড়ে ঘুর ঘুর করছে।

    সুপ্তি মুখ নামালো-আঙুল দিয়ে জলের রেখা আঁকল পিঁপড়েকে ঘিরে। দুপুরের রোদটুকু মিলিয়ে যাচ্ছিল। সুপ্তি বলল- 'না বাবা, ভালই আছি।'
  • বিভাগ : ব্লগ | ০১ মার্চ ২০১৭ | ২১৫ বার পঠিত
আরও পড়ুন
মৃগদাব - Indrani
আরও পড়ুন
ক্ষমা - Rumela Saha
  • আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা

  • পাতা : 1
  • pi | 57.29.131.73 (*) | ০১ মার্চ ২০১৭ ০৩:১৯61024
  • ৩ নং টা কতবার যে পড়লাম। তোবড়ানো গাল থেকে দুপুরের রোদটুকু মিলিয়ে যাওয়া।

    ২ নং এ সুরক্ষার ঘেরাটোপে বিশাল চমকের জন্য অপেক্ষা ছিলই, অণুগল্প বলে আরোই, কিন্তু তাও চমকালাম, বিশাল।

    ১ নং এ আমি রূপকের সাথে শংকরকে গুলিয়েছিলাম। তাই শেষ লাইনে খুব বেশি চমকেছিলাম। কিন্তু চমক কম দিয়েও অভিঘাত বেশি দেওয়া যেতে পারে, বুঝলাম।
  • pi | 57.29.131.73 (*) | ০১ মার্চ ২০১৭ ০৩:২০61025
  • তবে, শেষ লাইনে রূপকের জায়গায় শঙ্কর সত্যিই হলে কেমন হত, ভাবছিলাম।
  • i | 147.157.8.253 (*) | ০১ মার্চ ২০১৭ ০৯:০৬61026
  • হে হে থ্যাঙ্কু। T20 আগে খেলি নি । চেষ্টা করলাম আর কি।
    ৫ মিনিটে একটা করে গল্প লেখা হয়ে যায়-দারুণ মজা লাগে । অদ্ভূত ভালো স্ট্রেসবাস্টার।
  • kumu | 37.56.130.222 (*) | ০১ মার্চ ২০১৭ ১২:০৮61023
  • খুব ভাল লাগল।সুন্দর পরিমিতি বোধ।
  • dd | 59.207.56.255 (*) | ০২ মার্চ ২০১৭ ০২:৪৪61027
  • বাঃ,বাঃ,বাঃ
  • Du | 57.184.7.45 (*) | ০২ মার্চ ২০১৭ ০৪:২৮61028
  • খুউব ভালো। পাই সবই বলে দিয়েছে আমার বলার ঃ)
  • d | 144.159.168.72 (*) | ০২ মার্চ ২০১৭ ০৪:৪২61029
  • ২ নং টা বেশ পছন্দ হয়েছে।
    ৩ নংটাও ভাল।

    ১ নংটা আমার ভাল্লাগেনি।
  • শঙ্খ | 203.29.76.37 (*) | ০২ মার্চ ২০১৭ ০৬:৫৪61030
  • বাঃ নতুন আঙ্গিক, নতুন ভাবনা। দারুন হয়েছে। 'স/শ' দিয়ে নামের ওপরে পক্ষপতিত্বটুকুও খুবই ভালো লাগলো (আমি নিজেও তাই)। তিনটে অণুগল্পে শম্পা, শংকর, সুমি, শ্যামলী, সুপ্তি আর নাম না করে শ্বশুর।
  • i | 213.158.53.235 (*) | ০৩ মার্চ ২০১৭ ০৯:২২61031
  • থ্যান্কু ম্যান্কু এগেইন। শঙ্খ স/শ এর ব্যাপারটা ভালো ধরেছে। ঃ))
    T 20 ইনিংস আরো খেলব মনে হয়।

    ইতি ছোটাই
  • Atoz | 161.141.85.8 (*) | ০৩ মার্চ ২০১৭ ১০:৫২61032
  • শ্বশুরের নাম শম্ভুনাথ হলে কেমন হয়? ঃ-)
  • cb | 83.197.188.200 (*) | ০৭ মার্চ ২০১৭ ০২:৩৬61033
  • হোয়াটসঅ্যাপে এইমাত্র পেলাম - অবশ্যই লেখিকার নাম ছাড়া :)
  • i | 147.157.8.253 (*) | ০৭ মার্চ ২০১৭ ০৩:২৭61034
  • হায় কপাল এ কি। নাম না দিলে বিখ্যাত হব ক্যামনে?
  • de | 24.139.119.171 (*) | ০৭ মার্চ ২০১৭ ০৬:০৬61035
  • আহা! ক্ষী ভালো! তিন নম্বরটা পড়ে কেমন মাঘের শীতে পিঠে রোদ্দুরের ওম লাগার মতো অনুভূতি হোলো!
  • reek | 94.246.168.11 (*) | ১০ মার্চ ২০১৭ ০৯:৩১61036
  • প্রথমটা ভালো লাগেনি , পরের দুটো বেশ লেগেছে :)
  • Binary | 208.169.6.50 (*) | ১০ মার্চ ২০১৭ ১০:০২61037
  • অনেক্দিন বদে গুরুতে এলাম । প্রথমেই অনুগল্প পড়ে বেশ লগলো
  • একলহমা | 162.158.186.155 | ১৭ মার্চ ২০২০ ০৬:০১91500
  • দমুদির দেয়া লিঙ্ক ধরে আপনার টল্প পড়তে চলে এলাম।
    ভালো লাগল।
    ২নংটা আমাদের কয়েকজন ছেলে-মেয়ে একসাথে স‍্যারের কাছে পড়ার সময় স‍্যারের বাড়ির এক হতচ্ছাড়া কুচো ছোঁড়া একজনের সাথে করেছিল বলে শুনেছিলাম‌। তার মানে অনেক মেয়েই এই ঝামেলায় পড়ে। :(
  • করোনা

  • পাতা : 1
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত