• বুলবুলভাজা  আলোচনা  রাজনীতি

  • রক্তরাঙা লখিমপুর ও কিছু প্রশ্ন

    প্রতিভা সরকার
    আলোচনা | রাজনীতি | ০৭ অক্টোবর ২০২১ | ১০৬৮ বার পঠিত | রেটিং ৫ (২ জন)
  • গত মঙ্গলবার, পাঁচই অক্টোবর, দুহাজার একুশ, আমাদের প্রধানমন্ত্রী 'আজাদির অমৃত মহোৎসবে' এই দেশের সর্ববৃহৎ রাজ্য উত্তর প্রদেশের ন' লক্ষ অধিবাসীকে ভগবান রামের প্রীত্যর্থে দ্বারের সামনে দুটি করে প্রদীপ জ্বালানোর অনুরোধ করেছেন। কারা এই আঠারো লক্ষ দিয়া জ্বালাবার সৌভাগ্যবান ন' লক্ষ অধিকারী, কী কারণেই বা তাদের এই সৌভাগ্য? লখনৌতে খোলা ময়দানে দাঁড়িয়ে প্রধানমন্ত্রীজীর ভাষণে পরিষ্কার জানা গেল যে এই দেওয়ালিতে অযোধ্যায় সাড়ে সাত লাখ দিয়া তো জ্বলবেই, উপরন্তু যে ন' লক্ষ গরীব মানুষ প্রধানমন্ত্রী আবাস যোজনার কল্যাণে নিজস্ব গৃহ পেয়েছে, তারা প্রত্যেকেই দুটি করে প্রদীপ জ্বাললে, রামজী বড়ই খুশি হবেন।

    মহামতি রামজীর খুশির কথা কীভাবে মর্তে তার প্রধান প্রচারকদের কাছে এসে পৌঁছায়, জানা নেই, কিন্তু লখনৌ থেকে মাত্র ১২৯ কিলোমিটার দূরে লখিমপুর-খেরিতে যে কান্নার রোল উঠেছে তা শুনতে দরকার হয় কেবল একটি সংবেদনশীল মন, এ দেশের রাজনীতিকদের মধ্যে যার অভাব বড়ই তীব্র ও প্রকট। নাহলে অভিযোগ মোতাবেক আন্দোলনরত কৃষকদের ওপর দিয়ে কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী অজয় মিশ্রের সুপুত্র আশিস মিশ্র নিজের ঢাউস এসইউভি কনভয় চালিয়ে দেবার সাহস পায় কী করে? এই ঘটনার বলি চার কৃষকসহ মোট আটজন। যেখানে কান্ডটি ঘটে সেখানে রক্তের দাগ এখনো স্পষ্ট, কিন্তু সেই ঘটনার বিন্দুমাত্র উল্লেখ না করে আমাদের 'সন্তপ্রতিম' প্রধানমন্ত্রী মানুষজনকে দিয়া জ্বালাবার সুপরামর্শ দিচ্ছেন! মানুষের প্রাণ কি তবে এদেশে এতোই খেলো, এতোই খোলামকুচি ? শুধু প্রধানমন্ত্রীই নয় দেশের স্বরাষ্ট্র মন্ত্রীও এই নৃশংস হত্যাকান্ডের বিরুদ্ধে কোনো বিবৃতি দেননি। উপরন্তু জানিয়ে দেওয়া হয়েছে এই হত্যাকাণ্ডের নায়ক বাহুবলী 'টেনি' অজয় মিশ্রের বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা এখনই নেওয়া হবে না। তার মন্ত্রীত্বও অটুট থাকবে।

    প্রথমে এই ঘটনার দায় চাপিয়ে দেওয়ার চেষ্টা হয়েছিল কৃষকদের ওপরেই। তারাই নাকি রে রে করে পাথর ছুঁড়েছে আশিস মিশ্রের কনভয়ের ওপরে, তাতেই বেসামাল এসইউভি, তাতেই এ-ই 'দুর্ঘটনা'। বলা হচ্ছে আশিস মিশ্র তো সেদিন ঐ কনভয়ে ছিলই না, তাজ্জব কি বাত, সেদিন তো সে গোটা দিনই কাটিয়েছে বাপ ঠাকুরদার স্মৃতি বিজড়িত গ্রামে, যেখানে তার ঠাকুর্দার নামাঙ্কিত কুস্তি প্রতিযোগিতা চলছিলো সেদিন! মুশকিল হলো, টেকনোলজি কেড়ে তো নিয়েইছে অনেক কিছু, কিন্তু তার বদলে কিছু তো দিয়েওছে। এবার এই ঘটনার ভিডিও ক্লিপিংসে ছেয়ে গেল সোশ্যাল মিডিয়া, তাতে দেখা যাচ্ছে রাস্তার ওপর কিছু কৃষক একত্রিত হয়েছেন। তাদের পেছনে দাঁড়িয়ে অন্যান্যদের সঙ্গে এক বয়স্ক পাগড়িধারী। তাদের সবার দৃষ্টি সামনে নিবদ্ধ। হঠাৎ সাক্ষাৎ কালান্তক যমের মতো ধেয়ে আসে গাড়ির কনভয়। বয়স্ক সর্দারজী পেছন থেকে প্রবল ধাক্কায় সোজা আছড়ে পড়েন প্রথম গাড়িটির বনেটে। অন্যান্য কৃষকরাও ছিটকে পড়ে চারপাশে। আর একটি ছবিতে দেখা যাচ্ছে একজন এক এসইউভি-এর দরজা খুলে পালাচ্ছে, আর তার পেছনের চাকায় জড়িয়ে আছে এক থ্যাঁতলানো মৃতদেহ। অভিযোগ, এই কনভয় শ্রীমান আশিসের, দরজা খুলে পলায়নপর মূর্তিটিও তার, সে নাকি গন্না খেতে লুকিয়ে নিজের প্রাণ বাঁচায়। কিন্তু ভিড়ের মধ্যে গাড়ি উলটে মারা যায় এক সাংবাদিক, দুই বিজেপি কার্যকর্তা এবং গাড়িটির ড্রাইভার। আশিস মিশ্রকে যে সেদিন ঐ কনভয়ের প্রথম গাড়িটিতে দেখা গিয়েছিল, একথা মায়ের নামে কসম খেয়ে বলছেন ঘটনাস্থলে উপস্থিত সব কৃষক। তারা যে মিথ্যে বলছেন না, সে সাক্ষ্য দিচ্ছে ভিডিও ক্লিপিংসগুলো। এবার দুইয়ে দুইয়ে কতো হবে ঠিক করার ভার গোটা দেশের মানুষের।

    এর সঙ্গে জোড়া যাক পুর্বাপরের কিছু তথ্য। "হাম উনহে সুধার দেঙ্গে", আমরা ওদেরকে শুধরে দেব ( পড়ুন কড়কে দেব ), কৃষকদের উদ্দেশ্যে এই রণহুংকার কয়েকদিন আগেই শোনা গেছিলো মন্ত্রী অজয় মিশ্রের কন্ঠে। একে সে কুলশ্রেষ্ঠ ব্রাহ্মণ-সন্তান, তার ওপর ধনাঢ্য, প্রবল প্রতাপান্বিত কেন্দ্রীয় মন্ত্রী। বোঝার ওপর শাকের আঁটির মতো এ লোকটি লখিমপুর-খেরির বিজেপি সাংসদও বটে। তার মুখের ভাষা এমনটা হওয়াই স্বাভাবিক, কিন্তু ভাইরাল বক্তব্যে কৃষকদের মধ্যে প্রবল অসন্তোষ দানা বাঁধে। প্রতিবাদে ফেটে পড়ে তারা। এরই মধ্যে গত তেসরা অক্টোবর উত্তর প্রদেশের ডেপুটি চিফ মিনিস্টার কেশব প্রসাদ মৌর্য লখিমপুর-খেরিতে কিছু উন্নয়নমূলক ঘোষণা করার জন্য আসবেন বলে জানানো হয়। ঘোষণা টোষণা হয়ে গেলে তিনি বনবীরপুরে অজয় মিশ্রের পৈতৃক গ্রাম পরিদর্শনে যাবেন, তাও ঠিক হয়ে যায়।

    কিন্তু ঐ দিনই বেলা ২ টো নাগাদ তেকুনিয়াতে নানা জেলা থেকে আগত আন্দোলনকারী কৃষকরা বিজেপি সরকারের বিরুদ্ধে জমায়েতে সামিল হন। মৌর্য হেলিকপ্টারে আসবে জেনে তারা হেলিপ্যাড ঘিরে বিক্ষোভ দেখাতে থাকেন। তাদের হাতে ছিলো কালো পতাকা। একথা জানতে পেরে মৌর্য তার প্রোগ্রাম বাতিল করে এবং অন্য রাস্তা দিয়ে গাড়িতে করে গন্তব্যে চলে যায়। আশিস মিশ্র তার পিতার হয়ে ডেপুটি সিএমকে স্বাগত জানাতে সদলবলে রওনা হয়ে যায় এবং অভিযোগ, ফিরতি পথ ধরা কৃষকদের মধ্য দিয়ে নিজের কনভয় ছুটিয়ে দেয়। এইভাবেই বোধহয় সে কৃষকদের শোধরাবার চেষ্টা করেছে। যে মূহুর্তে কৃষক মৃত্যুর খবর চাউর হয়ে যায়, তখন থেকেই দলে দলে আরো কৃষকেরা বিভিন্ন জেলা থেকে আসতে শুরু করেন তিকুনিয়াতে। শুরু হয় ন্যায় বিচারের দাবীতে মৃত সহযাত্রীদের দেহ নিয়ে ধর্ণা।

    কৃষকদের আরও অভিযোগ, এই সশস্ত্র হামলাকারীরা ভিড়ের ওপর গুলিও চালায়। একটি ভিডিওতে নাকি তাদের একজনকে রিভলবার তুলে শাসাতেও দেখা গেছে। স্থানীয় একটি চ্যানেলের হয়ে কৃষক বিদ্রোহের খবর করতে গিয়ে নিহত হয়েছেন আর এক সাংবাদিক। তার দেহে নাকি দুটি গুলির ক্ষত আছে। অথচ স্থানীয় হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ জানিয়ে দিয়েছে গুলির কোনো দাগ তারা খুঁজে পায়নি। দ্বিতীয় বার ময়না তদন্তের দাবী উঠেছে খুব সঙ্গতভাবেই।

    লখিমপুর-খেরি বিজেপির গলায় কাঁটা হয়ে খচখচ করছে। তার কারণ দুটো। প্রথমত বিধানসভা নির্বাচন ঘাড়ের ওপর। এখন এই গন্ডগোল খুনখারাপির কারণে বিজেপি-বিরোধী জনমত আরও না দানা বাঁধে। দ্বিতীয় কারণটিও খুব গুরুতর। লখিমপুর-খেরি উত্তর প্রদেশের সবচেয়ে বড় জেলা, এর অবস্থান রাজ্যের পূর্বদিকে। অতীতে এখানে কৃষক আন্দোলনের অতো বাড়বাড়ন্ত ছিল না, কিন্তু এখন হচ্ছে, তার মানে নতুন নতুন জায়গায় এই আন্দোলন ছড়িয়ে পড়ছে। এতোদিন উত্তর প্রদেশের পশ্চিমাংশে ৩০টি জেলায় আন্দোলনটি সীমাবদ্ধ ছিল। এখন পূবেও তা যদি ছড়িয়ে পড়ে, সে দাবানল নেভাবে কে? অতএব সামনের কয়েকটি দিন লখিমপুর-খেরি বিজেপির শিরঃপীড়ার কারণ হয়ে থাকবে এটা একেবারে নিশ্চিত।

    এমনিতেই যোগীরাজ্য সবসময় সংবাদের শিরোনামে। কখনো শিশুমৃত্যু, কখনো অতিমারির শিকার শবের সৎকার না করা স্তূপ, ধর্ষণ, নারীলাঞ্ছনা, খুন, রাহাজানি, সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা, কারণের কোনো অভাব নেই। বেপরোয়া কৃষক হত্যা আবার তাকে লাইম লাইটে নিয়ে এসেছে। বিরোধী নেতা নেত্রী সবাই এখন লখিমপুর চলো মোডে। প্রিয়াঙ্কা গান্ধী বা অখিলেশ যাদব, সবাইকে পুলিশ আটকে দিচ্ছে, শুধু আশিস মিশ্রকে জেলে ঢোকানো হলো, এইরকম কোন ঘোষণা এখন অব্দি নেই। আর নেই বিরোধী ঐক্য, যা এই মূহুর্তে সময়ের দাবি। অখিলেশ প্রিয়াঙ্কা মায়াবতী কখনো এক হবেন না, তৃণমূল আর জাতীয় কংগ্রেস কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে লড়াই করবে না। বামশক্তি কৃষক আন্দোলনের সমর্থক, কিন্তু এদেশে এখন সেই সমর্থন কতটা ফলপ্রসূ জানা নেই। তবে মৌখিক বাগাড়ম্বর শেষ হলে যেই বিরোধী ঐক্যের দাবি ওঠে, অমনি বোঝা যায় সমস্ত রাজনৈতিক দলের কাছেই তাদের নিজস্ব সমীকরণ ভয়ানক গুরুত্বপূর্ণ। ফলে দীর্ঘদিন ধরে চলা কৃষক আন্দোলন এখনও একলা চলো রে নীতিতেই স্থিত থাকতে বাধ্য হয়েছে। তার নবতম উদাহরণ গত সাতাশে সেপ্টেম্বরে তাদের ডাকা ভারত বনধ। যেখানে শাসককে জোর ধাক্কা দিতে দরকার ছিলো একটি সার্বিক বনধ সেখানে আংশিক সাফল্য নিয়েই তাদের সন্তুষ্ট থাকতে হয়েছে।

    ধুরন্ধর শাসকও জানে ঐক্য নেই, ঐক্যের ছিটেফোঁটারও আভাস কোথাও নেই। ফলে অকুতোভয়ে সে যা খুশি তাই করে পার পেয়ে যাচ্ছে। শুধু লখিমপুরে নয়, আসামেও কৃষক হত্যায় মেতেছে হিমন্তবিশ্বের পুলিশ। অবৈধ উচ্ছেদের নামে খুন জখম রাহাজানি চালাবে বলে গ্রামে ঢোকার আগে পুলিশ সমস্ত রাস্তা কেটেছে, ঘরে আগুন দিয়েছে, মৃতদেহের ওপর পৈশাচিক আনন্দে লম্ফঝম্প করেছে। এখনও অগুনতি মানুষ খোলা আকাশের নিচে কিন্তু কড়া প্রহরায় দিন কাটাচ্ছে। যেন নব্য কনসেনট্রেশান ক্যাম্প। অথচ এদের সবার নাগরিকত্বের বৈধ কাগজপত্র আছে।



  • আজাদির অমৃত মহোৎসবে প্রধানমন্ত্রী 'আজাদি ৭৫' নামে এক্সপো উদবোধন করেন, আগের সরকার কোনো উন্নয়ন করেনি বলে গাল পাড়েন, আবাস যোজনার টাকায় যাদের তিনি 'লাখপতি' বানিয়েছেন বলে দাবি করেন, তাদেরকে দুটি করে দিয়া জ্বালাতে বলেন। কিন্তু ধিক্কার জানাতে ভুলে যান আসামের মৃত কৃষকের ওপর লাথি মারতে থাকা বর্বর জাতিবিদ্বেষীকে।

    কথায় কথায় আমাদের প্রধানমন্ত্রীর চোখে জল আসে। কিন্তু সে চোখ খটখটে শুকনো থাকে লভপ্রীতের খবরের কাগজে ধূলিধূসরিত বিমুক্ত-কেশ মৃতদেহের দিকে তাকিয়ে। পাগড়ি খুলে কোথায় চলে গেছে, হাসপাতালের বেডে বিছিয়ে আছে তার রক্তমাখা দীর্ঘ কেশ, পিষ্ট অঙ্গপ্রত্যঙ্গ। শিখ পাগড়িতে ঢাকে লম্বা চুল, কারণ গুরু গোবিন্দ সিংহের নির্দেশ ছিলো তাই, যাতে লক্ষ মানুষের ভিড়েও একজন শিখকে তার স্বাতন্ত্র‍্যের কারণে চিনে নেওয়া যায়। কোথায় সেই স্বাতন্ত্র্য! নিষ্ঠুরভাবে পিষে ফেলা হচ্ছে তাকে, দেখলে না জানি গুরুদের প্রতিক্রিয়া কী হতো!

    হ্যাঁ,লভপ্রীত সেই উনিশ বছরের কৃষক সন্তান, যাকে নির্দয় ভাবে গাড়ির চাকায় পিষে দেওয়া হয়েছে লখিমপুরে।

    মাননীয় প্রধানমন্ত্রী, আপনাকে অশ্রু বিসর্জন থেকে বিরত থাকতে বলার ধৃষ্টতা কে দেখাবে! আপনি শুধু দয়া করে এইটুকু সুনিশ্চিত করুন যে মানুষ বেঁচে থাকতে এবং মৃত্যুর পরও আপনার রাজত্বে যেন এইরকম বর্বরতা ও নির্মমতার শিকার না হয়।

    আর রইল কিছু প্রশ্ন। আজাদির পঁচাত্তরে এ প্রশ্নগুলি তোলা অত্যন্ত জায়েজ। স্বাধীনতা পাবার পর কবে এদেশের সংখ্যলঘু সম্প্রদায়কে এবং কৃষক কুলকে এইরকম টানা নৃশংস অত্যাচার সহ্য করে যেতে হয়েছে? স্বাধীনতার ভগীরথ কি এদেশের কৃষকেরাও নন? তাদের সন্তানরা কি আজও সব প্রতিকূলতার মধ্যে দেশের সীমান্ত রক্ষায় অনলস প্রহরী হয়ে দাঁড়িয়ে নেই?

    প্রশ্নগুলো সহজ, তাই উত্তর তো জানা !




    লখিমপুর খেরির ভিডিও-ক্লিপ। সতর্কীকরণঃ ভিডিওটি অত্যন্ত ডিস্টার্বিং।

  • বিভাগ : আলোচনা | ০৭ অক্টোবর ২০২১ | ১০৬৮ বার পঠিত | রেটিং ৫ (২ জন)
  • কোনোরকম কর্পোরেট ফান্ডিং ছাড়া সম্পূর্ণরূপে জনতার শ্রম ও অর্থে পরিচালিত এই নন-প্রফিট এবং স্বাধীন উদ্যোগটিকে বাঁচিয়ে রাখতে
    গুরুচণ্ডা৯-র গ্রাহক হোন
    গুরুচণ্ডা৯তে প্রকাশিত লেখাগুলি হোয়াটসঅ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে যুক্ত হোন। টেলিগ্রাম অ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলটির গ্রাহক হোন।
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • বিপ্লব রহমান | ০৭ অক্টোবর ২০২১ ২২:১৪499285
  • স্বৈরাচার নিপাত যাক! গণতন্ত্র মুক্তি পাক!  
    লখিমপুর-খেরি, লাল সেলাম  
  • santosh banerjee | ০৭ অক্টোবর ২০২১ ২২:৩৬499287
  • "মাননীয় প্রধানমন্ত্রী" ??? একজন সুচতুর, কুটিল আর দাঙ্গাবাজকে মাননীয় সম্বোধন?? ভদ্রতা, শালীনতা, মানবিকতা যে পাপীর মধ্যে নেই তাকে ভদ্র ভাষায় সম্বোধন করা? প্রতিবেদক পারেন, আমি না। কি ঘৃন্য কৌশল !! কি কুচক্রী মন ! তাঁর দেশের কিছু নিরীহ মানুষ কে তার দলের এক ঘোষিত গুনডা গাড়ীর তলায় পিষ্ট করে, আর উনি বা ওনার সাকরেদ নিশ্চুপ??? তাই, এই জঘন্য হত্যা কান্ডের দায়িত্ব ওনার, ওনার পার্টির!! মুখ খুললে NIA , UAPA তে চালান ?? সেই ভয়ে আমরাও মুখ বন্ধ করবো? না!!! এই খুনী নেতা আর তার ফ্যাসী বাদী দলকে এখনি চোখে চোখ রেখে কথা ‌‌‌‌‌‌‌বলা সুরু হোক!! সুরু হোক জিগ্যেস করা ... দেশের গৃহ মন্ত্রী কোথায়? মে রাজ্যে ঘটনা হলো, সেখানের পুলিশ বাহিনী কি চুড়ী পরে রয়েছে? ঘটনার দু'দিন তিন দিন পরেও কেন ঐ শুয়োরের বাচ্চা দের গ্রেফতার করা হয় না? দেশ জানতে চায়। সুপ্রীমকোর্ট না! দেশের মানুষ জানতে চায়!!!
  • Mousumi Banerjee | ০৭ অক্টোবর ২০২১ ২২:৪৫499288
  • একতার অভাবই সবকিছু র মূলে
  • প্রতিভা | 115.96.151.40 | ০৭ অক্টোবর ২০২১ ২৩:৪০499291
  • সন্তোষ ব্যানার্জি মহাশয়, শ্লেষ বলিয়া একটি বস্তু বাংলা রহিয়াছে। আমি তাহার বহুল ব্যবহার করিয়াছি মাত্র।
  • প্রতিভা | 115.96.151.40 | ০৭ অক্টোবর ২০২১ ২৩:৫০499292
  • সন্তোষ ব্যানার্জি মহাশয়, শ্লেষ বলিয়া একটি বস্তু বাংলা ভাষায় রহিয়া গিয়াছে। আমি উপরিউক্ত লেখাটিতে তাহার বহুল ব্যবহার করিয়াছি মাত্র।
  • রীতা ব্যানার্জী। | 2409:4060:31e:6693:9d40:b6bb:f9d6:904b | ০৮ অক্টোবর ২০২১ ০০:৪৩499295
  • সব অত্যাচারী আর শোষকদের একদিন এই অন্যায় এর উত্তর একদিন দিতেই হবে।
  • Rabindranath Majimdar | ০৮ অক্টোবর ২০২১ ০৯:৩৫499297
  • লখিমপুর খেরিতে ও কিসের শব্দ? 
    ও কিছু না সোনা, সাম্রাজ্যের পতনের পদধ্বনি।
  • dc | 122.174.173.73 | ০৮ অক্টোবর ২০২১ ০৯:৪৯499298
  • আমাদের সবার প্রিয় প্রধানসেবক কি তৃতীয়বারের জন্য নির্বাচিত হবেন না? আমার মনে হয় নিশ্চয়ই হবেন। শ্রী রাহুল গান্ধীর মতো অপোজিশান লিডার যাঁর সহায়, তাঁর প্রধানমন্ত্রী হওয়া ঠেকায় কে? 
  • santosh banerjee | ০৮ অক্টোবর ২০২১ ১৩:২৩499302
  • প্রতিভা দিদি, আপনি যেটা ‌‌‌‌‌‌বলেছেন আমি তার চাঁচাছোলা রুপটাই প্রকাশ করেছি।তার জন্য আমি গর্বিত। একটা অসভ্য বর্বর পার্টির ও প্রধানমন্ত্রী।এর সমন্ধে ভদ্র ভাষায় কিছু বলা যাচ্ছে না। মনমোহন সিং এ জায়গায় হলে ভাষা টা একটু মার্জিত হতো।এটাই পার্থক্য দুজনের। আমার মনে হয়, অনেক ভদ্রতা শিষটতার পরিচয় আমরা দিচ্ছি... কিন্তু এরা তার বিপরীত।তাই এদের আগাপাশতলা ধোলাই দিতে হবে।
  • dc | 122.174.173.73 | ০৮ অক্টোবর ২০২১ ১৩:২৮499303
  • হ্যাঁ, যা বলার গর্বিত ভাবে বলাই ভালো। 
  • আচ্ছা | 45.141.56.7 | ০৮ অক্টোবর ২০২১ ১৪:১৩499304
  • তা বাওয়া অসন্তোষ বাঁড়ুজ্জে গর্ভিত খিস্তি ছাড়া আর কী করেচো এদের বিরুদ্ধে শুনি একটু? শুদু খিস্তির স্বমেহনের সুখ?
  • ইউপি | 2405:201:9002:30a1:d0d0:bf86:777d:ea77 | ০৮ অক্টোবর ২০২১ ১৫:০৮499308
  • বাল হবে !!!
     
    যতো আবালের দল ফুটেজ খাওয়ার জন্য এইসব কাণ্ড করিস, মাঝখান থেকে ৯টা লোককে মেরে ফেললি, এইসব হত্যার রাজনীতি আর চলবে না সেকু মাকুর দল। তোদের চাঁটি বাটি ইউপির ভোটের পরেই গুটোবে, ২০২৪ অব্দি আর অপেক্ষা করতে হবে না!!!
  • Ranjan Roy | ০৮ অক্টোবর ২০২১ ১৭:০৫499310
  • সুপ্রীম কোর্টের চিফ জাস্টিস আজ ইউপি সরকারকে কড়কে দিয়ে বলেছেন --ধারা ৩০২  এর এফ আই আর করার পরও কেন মূল অভিযুক্তকে কেবল ডেকে পাঠানো হয়েছে? তার দুই সহযোগীকে গ্রেফতার করয়া হয়েছে, তাকে কেন নয়? আইন কি সবার জন্য এক নয় ? 
    ইউপি সরকার আশ্বাসন দিয়েছে সুপ্রীন কোর্ট তাদের কাজে যা যা ত্রুটি পেয়েছে সব ২৪ ঘন্টার মধ্যে শুধরে দেওয়া হবে।
    বলা বাহুল্য, আশীষ মিশ্র মনু পুলিশের অফিসে আজ তার 'নির্দোষিতা'র পক্ষে প্রমাণ ট্রমাণ নিয়ে ডিজি অফিসে হাজির হয়নি। 
     ছ'জনের বিরুদ্ধে হত্যার মামলা দর্জ হয়েছে--আশীষ মিশ্র, তার চার সহযোগী এবং ওই বিজেপি কার্যকর্তা  এবং সাংবাদিক যে অজ্ঞাত নামা কৃষকদের বিরুদ্ধে দাঙ্গা ভড়কানোর এফ আই আর করেছে।
    কৃষকদের করা এফ আই আর,  কিছু ভিডিও এবং প্রত্যক্ষদর্শীদের বয়ানের ভিত্তিতে দুই সহযোগীকে গ্রেফতার করা হয়েছে; , বাকি দু'জন মৃত এবং আশীষ  ও সেই সাংবাদিক আপাততঃ গায়েব।
    সুপ্রীম কোর্টের মতে এই ঘটনার সঠিক তদন্ত ইউপি সরকারের গঠিত স্পেশাল টিম ঠিকমত করতে পারবে না। বিকল্প এজেন্সি ভাবতে হবে।
  • সুদেষ্ণা মৈত্র | 2409:4061:519:9d95:d2af:9f00:81d3:d3a7 | ০৮ অক্টোবর ২০২১ ১৭:১৯499314
  • 'বৃথা গঞ্জ দশাননে তুমি বিধুমুখী'
    আমরা যতোক্ষণ না সকলে একসাথে দেশের সবপ্রান্ত থেকে একইরবে কথা বলবো,ভারতের কোনো নৃশংসতা তার যোগ্য শাস্তি পাবে না।
  • স্বাতী রায় | ০৮ অক্টোবর ২০২১ ১৭:৩৩499315
  • মর্মান্তিক ঘটনা। শুধু ভয় লাগে যে এদেশে ক্ষমতার রূপটাই কি এমন নয়?  শুধু নির্দিষ্ট দলই কি এরকম সন্ত্রাস করে , নাকি আমরা আপামর দেশবাসী যখন বিনা বিচারে  এনকাউন্টার কে সাপোর্ট করি তখন আমরাও এই একই উত্তরাধিকার বয়ে চলি? শুধু কেন্দ্রে থাকা দলকে সরালেই এই পিষে দেওয়ার রাজনীতির শেষ হবে কি ? 
  • aranya | 2601:84:4600:5410:8175:5212:62cb:94ad | ০৮ অক্টোবর ২০২১ ১৯:২৬499316
  • রাজনীতিবিদ কাম মস্তানরা প্রকাশ্যে প্রতিবাদীদের গাড়ির তলায় পিষে দিচ্ছে, এ জিনিষ কি দেশে আগে ঘটেছে? ভারতবর্ষের মুকুটে এক নতুন পালক যোগ হল 
    প্রায় এক বছর ধরে কৃষক বিক্ষোভ চলছে, দিল্লীর প্রান্তে। আমাদের অতি ব্যস্ত প্রধান মন্ত্রী, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রী এখনও তাদের সাথে কথা  বলার সময় পান নি 
  • শামীম আহমেদ | 49.37.38.128 | ০৯ অক্টোবর ২০২১ ০১:৫৪499325
  • লেখা পড়ে যারপরনাই মাথা-গরম হল। এমনিতেই চারপাশে নির্লজ্জ আস্ফালন করছে এতদিন ভালমানুষির মুখোশ পরা কুটিল-কদর্য সহপাঠী,সহকর্মীরা। সাইকোলজিক্যালি এতটা হেনস্তার পর এবার দূরদর্শন যোগেও আরেকদফা অন্যায়-অবিচার দেখছি,হজম করছি। সিস্টেম যেন কোনও অত্যাধুনিক সফটওয়্যার যোগে জেনে যাচ্ছে জনমানসে প্রতিক্রিয়ার পূর্বাভাস আর সে অনুযায়ী দিচ্ছে দাওয়াই। নেটফ্লিক্সের সাইফাই কি বাস্তব হয়ে গেল? 
    তীক্ষ্ণ শ্লেষ এবং ঘৃণায় বিবমিষু রচনা। ফের এড়িয়ে যাওয়ার মর্বিডিটি ভেদ করে লেখাটা মর্মে ভেদ করেছে। কিন্তু ভোগবাদের নয়া খরিদ্দার ভারতবাসীদের শোকের আয়ু বড়ই অল্প। 'কিছু করতে পারব না' বোধে অনেকেই রিমোট ঘুরিয়ে মনোযোগ দিয়েছেন অভিনেতা-পুত্রের গঞ্জিকা সহ আটক হওয়ার খবরে। প্রধান সেবকের স্ট্র্যাটেজি সাকসেসফুল। টেলিভিশন-মিডিয়ার শক্তি অবাক করার মত।
    হতাশার,শতশত মরে যাওয়ায় বিপ্লবী চেতনার এই সময়। সাবেক চা-ওলা,হালের প্রধানসেবকের কাছে পৌঁছাক আমাদের এই অসহায়তার কথা।

     

  • জয়তী সিংহ | 2409:4060:2d86:32bf:913:ad0c:ac3c:d689 | ০৯ অক্টোবর ২০২১ ০৫:০৭499326
  • লখিমপুর খেরি ফুটছে ! সমস্ত দেশও  ফুটছে 
  • শিবাংশু | ০৯ অক্টোবর ২০২১ ১৪:৪৫499338
  • কী বলি?  কী  লিখি? 
  • guru | 103.135.229.133 | ০৯ অক্টোবর ২০২১ ২০:৩২499363
  • বিপ্লববাবু আজকে শুধু ভারত নয় সমগ্র উপমহাদেশেই এই এক অবস্থা | গণতন্ত্র এখন দক্ষিণ এশিয়ার কোনো দেশেই খুব ভালো জায়গায় নেই |
     
    আপনার নিজের দেশেও তো তথাকথিত মুক্তমনাদের সত্য কথা বলার সাহস নেই | আল-জাজিরার ২০২১ জানুয়ারী মাসের "অল the প্রাইম মিনিস্টার'স মেন্ " যেইখানে বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রী ও সেনাপ্রধানের প্রকাশ্যে নিজেদের পদকে অন্যায় ভাবে কাজে লাগিয়ে স্বজনপোষণের অভিযোগ উঠেছিলো সেই বিষয়ে বাংলাদেশের গণমাধ্যম দূরে থাকুক কোনো বাংলাদেশী তথাকথিত মুক্তমনার এই গুরুর মতো ফোরামের ক্ষেত্রেও কোন বক্তব্য দেখা যায়নি |  
     
    এইতো কয়েকদিন আগেই অসমে একজন নিরীহ বাঙালী মানুষকে অসমের পুলিশ ও journalistra মিলে যথেষ্ট নিন্দনীয় ভাবে খুন করেছে তার প্রতিবাদ বাংলাদেশের থেকে বেশি পাকিস্তান করেছে | 
     
    গণতন্ত্রকে ভারত বা বাংলাদেশ কেউই বাঁচিয়ে rakhte পারেনি | আজকে ২০২১ সালে দাঁড়িয়ে বলতেই হচ্ছে যে মুক্তিযুদ্ধের চেতনা সম্পূর্ণভাবেই পরাজিত ও নিহত বাংলাদেশ ও ভারত দু দেশেই | বাংলাদেশে তো সত্যি কথা বলতে গেলে কে মুক্তমনা কে মৌলবাদী , কেই বা রাজাকার আর কেই বা মুক্তিযোদ্ধা এখন আর বোঝার কোনো উপায় নেই |
     
    তাই শুধু ভারতের বর্তমান  প্রধানমন্ত্রীর নিন্দা করে কোন লাভ নেই | সমগ্র রাষ্ট্র ব্যবস্থাটি ভারত ও বাংলাদেশে আজকে বিপদগ্রস্থ |
     
    আপনার মতামত এর অপেক্ষায় রইলাম |
  • aranya | 2601:84:4600:5410:50b:458d:ca4d:7332 | ০৯ অক্টোবর ২০২১ ২৩:১০499374
  • ভিডিও দেখলাম। পিছন থেকে গাড়ির কনভয় এসে মিছিলের উপর দিয়ে চলে যাচ্ছে, চাকার নিচে পিষে যাচ্ছে মানুষ, এদিক ওদিক ছিটকে পড়ছে - ভয়াবহ বললে কম বলা হয় 
  • Ranjan Roy | ০৯ অক্টোবর ২০২১ ২৩:৩৬499377
  • সুপ্রীম কোর্ট কড়া হওয়ায় বা নিজেদের সঠিক ভূমিকা পালন করায় আজ গ্রেফতার হোল প্রধান অভিযুক্ত মন্ত্রীপুত্র আশীষ ওরফে মনু।
     দেখা যাক।
  • জয়ন্ত সেনগুপ্ত | 2401:4900:16c1:43e6:1:2:d6e2:9322 | ১২ অক্টোবর ২০২১ ০৭:১৬499446
  • হিটলারের কথা নতুন করে ভাবার প্রয়োজন নেই৷ মোদী— অমিত শাহ — অজয় বিস্ত তিনজনে মিলে দেশটাকে বিভীষিকাময় এক নরক বানিয়ে তুলেছে৷ কিন্তু জাতপাত আর ধর্মীয় বিভাজনে ভরা এই দেশে এখনোতো অধিকাংশ মানুষ রামলালার আফিমে আচ্ছন্ন ! আর আছে বহুধাবিভক্ত ধান্দাবাজ বিরোধীদলগুলো৷  কাজেই  চরম রাষ্ট্রীয় সন্ত্রাস আর সাম্প্রদায়িকতার    হাত থেকে দেশের মানুষের মুক্তি পাবার কোনো আশার আলো দেখা যাচ্ছে বলে মনে হচ্ছেনা! একজন কালো মানুষকে নৃশসংভাবে পুলিশ খুন করায় গোটা আমেরিকা উত্ত৷ল হয়ে উঠেছিল৷ লছিমপুরের এই নারকীয়    ঘটনার পরেে আমাদের দেশে সেভাবে জনতার আন্দোলন গড়ে উঠলোনা, নিজেরাই আমরা দ৷য়ী তাারজন্য
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:

কুমুদি পুরস্কার   গুরুভারআমার গুরুবন্ধুদের জানান


  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত


পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। দ্বিধা না করে মতামত দিন