• হরিদাস পাল  ব্লগ

  • অনুভবে...

    Sutapa Das লেখকের গ্রাহক হোন
    ব্লগ | ০৯ মে ২০১৮ | ২৯৬ বার পঠিত
  • পছন্দ
    জমিয়ে রাখুন পুনঃপ্রচার
  • অনুভবে...

    সকালবেলায় আমার সেই (নাম) 'বলা বারণ' অসীম গুনবতী পরানসখী খালিগলায় 'দুখজাগানিয়া' গেয়ে ঘুম ভাঙ্গিয়েছে।

    কোথাও তোলপাড় হলো, অভাববোধ জেগে উঠলো নতুন করে, তাঁর জন্যে, যিনি আনন্দে-আবেগে-বিষাদে-বিচ্ছেদে এক‌লব্য-নিষ্ঠায় আঁকড়ে থাকতেন কবিগুরুকে, তাঁর গানের ডালিসহ, যার রেডিও, পরে টেপরেকর্ডারে সময় পেলেই বেজে চলা গীতমাল্যের মাধ্যমে আমার সুচিত্রা-কনিকা-দেবব্রত-দ্বিজেন নামের তারকা পরিচিতি।

    যেবছর বাবা ছেড়ে যান আমাদের, ঠিক তার পরের দোল পূর্নিমা। আবীরসঙ্গত্যাগ করেছি সেই স্কুলবেলায়, পরবর্তীতে অনিচ্ছাপ্রকাশ সত্ত্বেও রঙ লাগানোয় বন্ধু এবং আত্মীয়বিচ্ছেদও ঘটেছে দু চারটি, কোল্যাটারাল ড্যামেজ আর কি, নিজের অপছন্দকে অন্যের পছন্দের সমান মর্যাদা দেওয়ায়। সুতরাং রঙীন হবার প্রশ্ন নেই, আর স্কুলছুটি হওয়ায় কাজে নিজেকে ভুলিয়ে রাখবার অবকাশও নেই। দিনমানে যা ঘরের কাজ, গুছিয়ে ফেলে বড়ই বিপাকে! কবির আক্ষেপ ছিলো 'যতবার আলো জ্বালাতে ‍চাই, নিভে যায় বারে বারে', তার বিপ্রতীপে দাঁড়িয়ে যতবার ভুলতে চাইছি প্রয়াত বাবার ঊনকোটি ছত্তিরিশ, তত্তোবার যেন সামনে আসছে ঢেউয়ের মতো, স্মৃতির বারিশবুন্দ। চোখেও নাম, তা নয় ! চোখের খরায় আক্ষরিকার্থেই ছটফট করছে অন্তরমহল, কি শাস্তি! সেই নিদারুন দশা আজ ভবিতব্য, যখন অতল ঘুমে তলিয়ে যাওয়ামাত্র শ্বাসবন্ধ হয়ে ছটফট করে উঠে বসতে হয় রাতের পর রাত, যখন ঘুমোতে চাওয়াও বিভীষিকা হয়ে দাঁড়ায় একেকদিন!

    ডেক্সটপ চালু করলাম রাতের খাবার খেয়ে। তখনো স্মার্ট হয়নি আমার ফোন, একটু আন্তর্জালে বিচরন করে নিজেকে যদি ব্যস্ত করে দেওয়া যায়। বেসিক ফোনটারই মিউজিক প্লেয়ার অন করে ইয়ারফোনে হাল্কা কোন গান ... একের পর এক.. শুনছি কিন্তু বুঝছি না...চোখের সামনে সাঁতরাচ্ছে শব্দেরা, দেখছি কিন্তু পড়ছি না.. শান্ত চরাচর, জোছনাস্নাতা... চলমান সময় যে দিশায় নিয়ে যাক আজ, শুধু শয্যাগ্রহন করা চলবে না!

    ঐ অতল জলের আহ্বান বড় বিভীষিকা যে!

    মাঝবয়েসী রাত যে ভেল্কি দেখাতে পারে, থোড়াই বুঝেছি তখন।

    নিশ্চুপ দুপ'র রাতে , বাজতে বাজতে মোবাইলি সম্ভার, পালা এসেছে 'আজ বিজন ঘরে... নিশীথ রাতে, আসবে যদি, শূন্য হাতে...'। ঘটনাচক্রে, 'কৃষ্ণকলি'র পর যে গান বাবা সবচে' বেশী শুনতেন, তাঁর বড় প্রিয় যে গান! ইন্দ্রানী সেনের গাওয়া সে রবীন্দ্রসঙ্গীত, অবিশ্বাস্যভাবেই, এক বোধ জন্ম দিলো আমার মধ্যে! আমার অনুভবের এ প্রকাশভঙ্গী সহজ ও সুচারু নাই ঠেকতে পারে আপনার কাছে, কিন্তু আমার অনুভবে সে বোধ সূর্যালোকের মতোই সত্য, বাস্তব ও জীবনদায়ী।

    সমস্যাজর্জরিত জীবনে একমাত্র ও নিঃস্বার্থ সঙ্গী ও পরামর্শদাতা ছিলেন বাবা, যার হঠাত চলে যাওয়া আমায় যতখানি দিশাহারা করেছিলো, তার চেয়ে বেশী করেছিলো অভিমানে স্তব্ধ। সব যুক্তি, বিবেচনাবোধ সরিয়ে রেখে মন ভাবতো, বাবা আরেকটু লড়াই করলেই বোধহয়... নিদেন আমার জন্যে আরেকটু অপেক্ষা করলেই... কিংবা জরুরী তলব পাঠালেও... কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে লড়ে শমনকে ভূমিচুম্বন করাতাম না সেযাত্রা!! এ বোধ কি প্রকারে এক অভিমানী অসহায় নিরাপত্তাহীনতা জন্ম দেয় আমার মধ্যে, অতল জলের আহ্বান তারই ফসল!
    কিন্তু সে চরাচরভাসা পূর্নিমায়, জীবনকবির পূর্ণবিশ্বাসে বাঁধা শব্দবন্ধ যখন ইন্দ্রানী সেন কানে ঢেলে দিলেন..'জানি বন্ধু জানি, তোমার আছে তো হাতখানি...' কোন অলৌকিক উপায়েই হয়তো,আমার সত্তার সে অভিমানিনী শিশু , মাথায় হাত রেখে দাঁড়ানো বাবাকে অনুভব করে আশ্বস্ত হলো, নিরাপত্তা পেলো ফিরে, অনুচ্চারিত প্রতিশ্রতি প্রতিধ্বনিত হলো কোথাও, 'শুন্য' হলেও সে হাতখানি , 'হামেশা'ই থাকবে আমার মাথায় আশির্বানী হয়ে , অথবা হাতে , লড়াইয়ের দুর্দম জেদ হয়ে, 'তোমার পরশ' থাকবে, 'আমার হৃদয়ভরা', 'জীবন দোলায় দুলে দুলে আপনারে' ভুলে থাকলে আমার চলবে না, কারন আমার অস্ত্বিত্বের মধ্যেই রইলেন আমার জন্মদাতা, আমি-তুমির বিভেদ স্পষ্ট না করেই, কিন্তু থাকাটুকু ঐ অ‌পার্থিব জোছনা-রাতে জানান দিলেন স্পষ্ট!

    অভিমান ভেসে গেলো চোখের হড়পা বানে, বাবাকে জাগতিক বিচারে হারাবার পাঁচমাস পর সেই প্রথম আমার নিজের ওপর নিয়ন্ত্রন হারানো!
    অভিমানের মেঘ ,বর্ষনে নিঃশেষিত হওয়ায়, দৈত্যের বাগানে বসন্ত ফেরার মত, আমার নির্বিঘ্ন ঘুমও এলো ফিরে , সে রাতের শেষে।

    সে রাতে পরমপিতার আশীর্বাদ হয়ে আপনার গান এক পিতা-পুত্রীকে অবিচ্ছেদ্য বন্ধনে বেঁধে দিয়েছিলো, আমায় নতুন করে বাঁচতে শিখিয়েছিলো। আমার অসহায়তা, আমার একাকীত্ব তাই আপনাকেই উতসর্গ করলাম গুরুদেব, আর আমার অপারগতাকেও, ভাবনাকে সঠিক শব্দে প্রকাশের যে অক্ষমতা আমার সহজাত।

    কিছুই যে হারায় না, আপনি ছাড়া কে আর প্রত্যয়িত করতো?!
  • বিভাগ : ব্লগ | ০৯ মে ২০১৮ | ২৯৬ বার পঠিত
  • পছন্দ
    জমিয়ে রাখুন গ্রাহক পুনঃপ্রচার
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • স্বাতী রায় | 113.197.83.122 (*) | ০৯ মে ২০১৮ ০১:০৬62439
  • আজকেই আমার এক বন্ধু বলেছে রবীন্দ্রনাথ শেষ পর্যন্ত আমাদের সুখ দুঃখের ব্লটিং পেপার - আপনার লেখাটা পড়ে সেটাই আবার অনুভব করলাম।
  • prativa | 213.163.242.174 (*) | ০৯ মে ২০১৮ ১২:৫৯62438
  • লাইজা আহমদ লিজার গানের মতো সুন্দর লেখা!
আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত


পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। না ঘাবড়ে মতামত দিন