• হরিদাস পাল  ব্লগ

  • শ্রীজা ইন্ডিয়ার মুকুটে বাহারী পালক

    Sutapa Das লেখকের গ্রাহক হোন
    ব্লগ | ৩০ জুন ২০১৮ | ৫৬৯ বার পঠিত
  • পছন্দ
    জমিয়ে রাখুন পুনঃপ্রচার
  • শেফালী দেসরা, সীমা মারান্ডি, পূর্নিমা টুডু কোন বহু আলোচিত নাম নয়। কিন্তু সংবাদপত্রের পাতায় এই উপজাতি মেয়েগুলির নাম থাকা উচিত ছিলো, ওদের সাফল্যের নিরিখে। বীরভূম জেলার রাজনগর ব্লকের মাদারপুর গ্রামটি উপজাতি অধ্যুষিত, দারিদ্র্য আর অশিক্ষার আঁধারে মোড়া। সেই প্রত্যন্ত পিছিয়ে পড়া গ্রামটির প্রথম প্রজন্মের পড়ুয়া হিসেবে শেফালী, সীমা আর পূর্নিমার সাফল্যের সঙ্গে প্রথমবারেই মাধ্যমিকের গন্ডী পার করা নিঃসন্দেহে একটি মাইলস্টোন আর এই সাফল্যের দোড়গোড়ায় ওদের পৌঁছে দিতে নিরলস প্রচেষ্টা চালিয়েছে শ্রীজা ইন্ডিয়া ।

    শ্রীজা ইন্ডিয়া, একটি বেসরকারী সংগঠন, যাদবপুর বিশ্ববিদ্যালয়ের ইঞ্জিনিয়ার ও বর্তমানে আমেরিকা যুক্তরাষ্ট্রে বসবাসরত শ্রী শিবশঙ্কর দাশগুপ্তের নিরলস প্রচেষ্টার ফসল, যে সংগঠনের মুখ্য উদ্দেশ্য হলো দুঃস্হ , পিছিয়ে পড়া শ্রেণীর কিশোরী মেয়েদের আত্মপ্রত্যয়ী করে তোলা, যার মাধ্যম হিসেবে বেছে নেওয়া হয়েছে এক দলগত খেলা,গ্রামীন মেয়েদের মধ্যে যা তেমন বহুল প্রচলিত নয় বরং ছেলেদের খেলা হিসেবেই চিহ্ণিত.. ফুটবল।
    শ্রীজা ইন্ডিয়া 2017 তে বীরভূমে এক ফুটবল কোচিং ক্যাম্প আয়োজন করে এই মেয়েগুলির জন্যে, এবং অচিরেই গ্রামের অন্য মেয়েরাও বেশ উতসাহ নিয়ে যোগদান করে। শ্রীমতী বুলাকি এবং সুস্মিতা চক্রবর্তী, শ্রীজা ইন্ডিয়ার দুই সম্পদ , এদের প্রশিক্ষনের কাজ শুরু করেন, যা মেয়েদের পারস্পরিক সহযোগিতার মনোভাবকে উদ্দীপনা যোগায়। সাথেই শুরু হয় পড়াশুনার জন্যেও বিশেষ সহায়তাকরন কর্মসূচী, যে উদ্যোগে তারাপদ মান্ডি, স্হানীয় যুবক যিনি নিজে তৈরী হচ্ছেন পশ্চিমবঙ্গ প্রশাসনিক চাকুরীর পরীক্ষার জন্যে, মেয়েদের অঙ্কের জন্যে সাহায্য করতেন। শ্রীমতী চক্রবর্তী ইংরাজী ও অন্যান্য বিষয়গুলিতে সাহায্য করতেন। সর্বোপরি স্হানীয় স্কুলের সহায়তা উল্লেখ না করা অন্যায় হবে, যারা প্রতি সোম ও মঙ্গলবার এই মেয়েদের কোচিংক্লাসে যোগদানের জন্যে তাদের বিদ্যালয়ে অনুপস্হিতি মঞ্জুর করেছিলো। শ্রীজা সংগঠক শ্রী তপন রায় স্কুল কর্তৃপক্ষকে প্রস্তাবটি রাখতে তারা সানন্দে মেনে নিয়েছিলেন, কারন সবারই লক্ষ্য ছিলো মেয়েদের মাধ্যমিক উত্তীর্ন হতে সহায়তা করা।

    মেয়েদের সাফল্য শ্রীজার মুকুটে বাহারী পালক জুড়লেও শ্রীজা ইন্ডিয়া কিন্তু আত্মসন্তুষ্টিতে মশগুল নয়। নিজ লক্ষ্যে অবিচল শ্রীজা তার কর্মক্ষেত্রের গন্ডী ক্রমাগত বিস্তৃত করে চলেছে নিবেদিত প্রাণ কিছু সংগঠক নিয়ে, কর্নধার শ্রী শিবশঙ্কর দাশগুপ্তের স্বপ্নকে বাস্তবায়িত করতে। এই উদ্দেশ্যে উত্তর কোলকাতা আর পার্কসার্কাসে কোলকাতা পুলিসের সহায়তায় ‘দামিনী’ প্রকল্পে চালু হয়েছে দুটি ফুটবল কোচিং সেন্টার। খেলতে আসছে যে মেয়েরা, তারা প্রথাগত শিক্ষাসহায়তা পাবে, আত্মপ্রত্যয়ী হবে, কুন্ঠা ঝেড়ে ফেলে ভবিষ্যতের দিকে পা বাড়াবে, শ্রীজা ইন্ডিয়া সেই প্রতিজ্ঞাপালনে ব্রতী।
  • বিভাগ : ব্লগ | ৩০ জুন ২০১৮ | ৫৬৯ বার পঠিত
  • পছন্দ
    জমিয়ে রাখুন গ্রাহক পুনঃপ্রচার
  • কোনোরকম কর্পোরেট ফান্ডিং ছাড়া সম্পূর্ণরূপে জনতার শ্রম ও অর্থে পরিচালিত এই নন-প্রফিট এবং স্বাধীন উদ্যোগটিকে বাঁচিয়ে রাখতে
    গুরুচণ্ডা৯-র গ্রাহক হোন
    গুরুচণ্ডা৯তে প্রকাশিত লেখাগুলি হোয়াটসঅ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে যুক্ত হোন। টেলিগ্রাম অ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলটির গ্রাহক হোন।
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • aranya | 3478.160.342312.238 (*) | ৩০ জুন ২০১৮ ০৪:৪৪63611
  • বাঃ, খুব ভাল লাগল। স্বপ্নের উড়ান হোক - শ্রীজা-র, মেয়েদের
  • Rumpa Banerjee | 89.37.343423.40 (*) | ৩০ জুন ২০১৮ ০৬:৩১63612
  • অনেক শুভেচ্ছা সৃজা।
  • Tim | 89900.228.0167.253 (*) | ৩০ জুন ২০১৮ ০৯:৫৪63613
  • এটা খুবই ভালো উদ্যোগ। মেয়েদের ফুটবল সুশীল ভট্টাচার্য্যের হাতে খুব ভালোভাবে শুরু করেও এখন একটু থিতিয়ে গেছে। আবার ফিরে আসুক সেই সাফল্য, শুভেচ্ছা রইলো।
  • | 2345.108.784523.67 (*) | ৩০ জুন ২০১৮ ১০:০৮63609
  • শ্রীজা ও সর্বোপরি মেয়েগুলির সর্বাঙ্গীন সাফল্য কামনা করি।
  • একক | 3445.224.9002312.46 (*) | ৩০ জুন ২০১৮ ১০:৩৯63614
  • মেয়েদের ফুটবল কে দরকারমত পাল্টে নেওয়া যায়না ? মানে মেয়েরা যে খেল্ছেনে সে কি পুরুষের কাছে কিছু প্রমান ফমান করার জন্যে ? তা যদি হয় মাথা গলাব না .। যদি ব্যাপারটা আদৌ তা না হয় , তাহলে মেয়েদের শারীরিক বৈশিষ্ট বুঝে খেলার নিয়মকানুন - মাঠের আয়তন -গোলের ধরন এসব এ পরিবর্তন এনে খেলাটাকে আরও আকর্ষনীয় করতে ক্ষতি কী ?

    দেখুন , দর্শকের যদি খেলা দেখে আকর্ষণ না জন্মায় তাহলে প্রবন্ধ আর বাহবা দিয়ে কোনকালেই স্পন্সর আসবে না । দর্শকের ভালোলাগার প্যারামিটার হলো গতি -ছন্দ -কৌশল এরকম অনেক কিছু । কাজেই সেই উত্কর্ষের প্যারামিটার গুলো মাথায় রেখে মেয়েদের ফুটবল পাল্টে ফ্যালা হলে সাফল্য আসবে আশা করি । কিছু আবোদা ছেলে হয়ত তখন তথাকথিত "তুলনা" করে হ্যাটা দেওয়ার চেষ্টা করবে , কিন্তু যে কোনো ক্রীড়ামোদী জানেন , ঐভাবে তুলনা হয়না , ওসব বালখিল্যামো । সমস্ত উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েই আর্জি রাখছি যে মেয়েদের ফুটবল মেয়েদের শারীরিক বৈশিষ্ট্য -প্রকৌশল ভেবে নতুন করে ডিফাইন করা হোক । শুভেচ্ছা রইলো।
  • বিপ্লব রহমান | 342312.108.674523.222 (*) | ৩০ জুন ২০১৮ ১১:১৫63615
  • "মেয়েদের শারীরিক বৈশিষ্ট বুঝে খেলার নিয়মকানুন - মাঠের আয়তন -গোলের ধরন এসব এ পরিবর্তন এনে খেলাটাকে আরও আকর্ষনীয় করতে ক্ষতি কী ?"

    এবং

    "সমস্ত উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েই আর্জি রাখছি যে মেয়েদের ফুটবল মেয়েদের শারীরিক বৈশিষ্ট্য -প্রকৌশল ভেবে নতুন করে ডিফাইন করা হোক । "

    ইয়ার্কি নাকি? আঁ?
  • বিপ্লব রহমান | 9001212.30.2334.60 (*) | ৩০ জুন ২০১৮ ১২:৫৬63610
  • শ্রীজা ইন্ডিয়ার সাফল্য কামনা, সেল্যুট বীরভূমের সান্তাল মেয়েরা।
  • একক | 3445.224.9002312.46 (*) | ০১ জুলাই ২০১৮ ০২:২৮63616
  • যেটা চালানোর চেষ্টা হয় সেটাই ইয়ার্কি । স্পোর্টস এন্ড এন্টারটেইন্মেন্ট এর দুনিয়াতে পারিশ্রমিক নির্ধারিত হয় দর্শকের এক্সেপ্টেন্স এর ওপর দাঁড়িয়ে । এটা ভূগোল বা বিজ্ঞান পরীক্ষা নয় যে একটা জেন্ডার এগ্নসটিক মাপকাঠি থাকা সম্ভব আর তাই সবাইকে সমান পরীক্ষা দিয়ে নিজেকে প্রমান করতে হবে ।

    দ্বিতীয়ত : ক্রিকেট -ফুটবল এসব খেলা শয়ে শয়ে বছর ধরে ছেলেদের অধীনে আছে । পুরুষতান্ত্রিক পথে এদের উদ্বর্তন ঘটেছে । খুব স্বাভাবিক ভাবেই এগুলো উওম্যান ফ্রেন্ডলি খেলা নয় । আপনাকে এখানে শরীর দিয়ে খেলতে হয় -বেসিক মোটর স্কিল ব্যবহার করতে হয় যেগুলো অন্য জেন্ডারের লোকেরা তাদের পক্ষে যেটা বেস্ট সেইভাবে সেট করে রেখেছে ।

    তাহলে কেন পরিবর্তন করা হবে না ?? এত শুধু মেধা বা পড়াশোনার বুদ্ধির জায়গা নয় যে সাবজেক্ট এর স্বাপেক্ষে নিজেকে প্রমান করার দায় আছে । এখানে দায় হলো মেয়েরা যেন তাঁদের শারীরিক ক্ষমতা -স্কিল অনুযায়ী সেরা টা দিতে পারেন এবং খেলাটা একইসঙ্গে মনোরঞ্জক হয় । কাজেই বাজার এর দিক দিয়েই দেখি বা হিস্টরিসিস্ট লজিকে , মেয়েরা খেলাকে বদলে নিয়ে খেললে সেটা দর্শকের ভালো লাগলে সেটাই শেষ কথা । এর বাইরে কোথাও কিছু প্রমান করার নেই তো ।

    আসলে , ছেলেদের মনের গভীরে একটা "এমাআআ আমাদের মত খেলতে পারেনা " কাজ করে তাই তথাকথিত ইকুয়ালিটির মোড়কে মেয়েদের খেলায় বিশাল কিছু পরিবর্তন আনার বিরোধিতা করে । এগুলো একদম ই বাচ্চামো :):) পরস্পর পাল্লা দিতে হয় তো মিক্সড জেন্ডার গেম ও চালু হোক । কিন্তু আলাদা জেন্ডার দের আলাদা প্রকরণে খেলার দরজা খোলা থাকুক ।
  • বিপ্লব রহমান | 342312.108.674523.222 (*) | ০১ জুলাই ২০১৮ ০৩:১০63617
  • "আলাদা জেন্ডার দের আলাদা প্রকরণে খেলার দরজা খোলা থাকুক ।"

    কেন? চলতি রীতির ফুটবলে মেয়েদের আটকাচ্ছে কোথায়? নাকি আপনার "মনোরঞ্জন" হচ্ছে না?

    অনুগ্রহ করে বুঝিয়ে বলবেন?
  • | 670112.210.126712.245 (*) | ০১ জুলাই ২০১৮ ০৩:৪৩63618
  • এককের পয়েন্ট বুঝেছি। এটাও ঐ ইক্যুয়ালিটি আর ইক্যুইটির চক্কর। ইক্যুয়ালিটি মানেই ইক্যুইটি নয় তো। যেটা ডেস্কজবের ক্ষেত্রেও বলেছিলাম যে অফিস কাছারিগুলো পুরুষের জন্য শ'য়ে শ'য়ে বছর ধরে ডিফাইন ও রিফাইনমেন্টের ফলে যা দাঁড়িয়েছে তা ম্যক্সিমামই উয়োম্যান ফ্রেন্ডলি নয়। একক সেটাই খেলাধুলো বিশেষত ফুটবলে বলছে। এটা যারা ফুটবল খেলেছে/খেলে টিমি, রোবু ইত্যাদি আরো ভাল বলতে পারবে, এসপেশ্যালি মোটর স্কিলের ব্যবহারটা। আমি নীতিগতভাবে, জেন্ডার স্টাডিজের দিকি থেকেও একমত হলাম।

    কথা হল একক, এই পুরো মাপকাঠি, ওয়ে অব প্লেয়িঙ্গ বদলাতে গেলে যে সার্বিক বদল দরকার সেটা এই শ্রীজা ইন্ডিয়া বা এঁরা কী পারবেন? যখনই এঁরা রুলস রিডিফাইন করতে যাবেন তক্ষুণি কথা হবে ওহ ইটস সামথিঙ্গ ডিফারেন্ট! ওয়েল আয়া'ম নট কমফোর্টেবল অন দিস।' প্রচলিত গোটা ব্যবস্থা পালটাতে গেলে যে ড্রাইভটা দরকার সেটা এরকম একটা সংস্থার পক্ষে কতটুকু নেওয়া সম্ভব?
  • বিপ্লব রহমান | 342312.108.674523.222 (*) | ০১ জুলাই ২০১৮ ০৩:৫০63619
  • "পরস্পর পাল্লা দিতে হয় তো মিক্সড জেন্ডার গেম ও চালু হোক"

    সেটা হতেই পারে। কিন্তু " মনোরঞ্জনের " প্রশ্নে "আলাদা জেন্ডার দের আলাদা প্রকরণে খেলার" প্রস্তাব একটি "অবলা" জনিত ভ্রান্ত ধারণা। এককের কাছে বিতর্ক আশাকরি।
  • বিপ্লব রহমান | 7834.111.343423.24 (*) | ০১ জুলাই ২০১৮ ০৪:৪০63620
  • পুনশ্চ:

    ভাই একক,

    আপনার কথার কোন বিন্দু- বিসর্গ বুঝি নাই, স্বীকার করি, আমাদের উত্তরবংগের লোকের নাকি ঘিলু কম, তায় মোষের মতো গোঁয়ার। তবে কিউরিয়াস মাইন্ড ওয়ান্না নো! হি হি হি :ডি

    এদিকে, আমার কর্মস্থল টিভি চ্যানেলের স্পোর্টস এডিটর আপনার মন্তব্য দেখে মুচকি হেসে বললেন, সারা পৃথিবীতে নাকি ক্রিকেট- ফুটবল ছেলেমেয়ে একই রীতিতে খেলছে, দেশ ও ম্যাচ ভেদে সময়ের তারতম্যটুকু বাদে, এছাড়া আর কোনো ফারাক নাই!

    এখন #মনোরঞ্জনের প্রশ্নে "আলাদা জেন্ডারদের আলাদা প্রকরণে খেলার" যে প্রস্তাব আপনি পেশ করেছেন, তা বাস্তবায়িত হলে শুধু ভারতবর্ষে নয়, তা নাকি সারাবিশ্বে হবে একটি ঐতিহাসিক ঘটনা হবে! আসলে কী তাই? :পি
  • সুতপা | 7845.11.014512.87 (*) | ০২ জুলাই ২০১৮ ০২:১০63623
  • বিপ্লব রহমান দাদা, আদিবাসী / উপজাতি বিভাগটি জানা ছিলো না, প্রসাশনিক কাজে ST , অনুসূচিত উপজাতি হিসেবে এদের তালিকাভুক্ত হতে দেখি কিনা! অজ্ঞতা মেনে নিচ্ছি।
    'মেয়েদের খেলা', 'ছেলেদের খেলা' এই ভাগগুলোতে আমার আপত্তি আছে। খেলাটা কে খেলা হিসেবেই নেয়া হোক না কেন! যে আর্থ সামাজিক স্তর থেকে আমাদের মেয়েরা উঠে আসছে, তারা ইতিমধ্যেই জানে 'লড়তে' হয় সমানে সমানে! মেয়েদের বলে দেগে দেওয়া খেলা, শ্রীজার মেয়েদের ভোট নিলে, আমি নিশ্চিত জানি, তাচ্ছিল্যের হাসি হেসে ওরা উড়িয়ে দেবে। মেয়েদের খেলা বরং 'ললিতলবঙ্গলতিকা'রা খেলুক, মনোরঞ্জন হোক পুরুষের।
    আরেকটা কথা, শ্রীজার মেয়েরা ফুটবল খেলে ঠিকই, কিন্তু নিছক খেলার জন্যে নয়। একটি দলগত খেলার যে স্কিল গুলো ভবিষ্যতে জীবনে প্রয়োগ করা যেতে পারে, ( শিক্ষার বৃহত্তর উদ্দেশ্য যদি আমরা এক ক্ষেত্রে অর্জিত জ্ঞান অন্য ক্ষেত্রে সঠিক প্রয়োগের মাধ্যমে সাফল্য অর্জন করা বলে ধরে নেই), দলগত ঐক্য, পারস্পরিক সহায়তা, লক্ষ্যপূরণের জন্যে পদ্ধতিগত পরিকল্পনা (strategic planning)আর তার দ্রুত রূপায়ন এই সব মেয়েদের মধ্যে চারিয়ে দেওয়াই কিন্তু শ্রীজা/সৃজার রূপকারের আসল লক্ষ্য। তারই অংশ হিসেবেই কিন্তু প্রথম প্রজন্ম শিক্ষার্থীর পিছিয়ে পড়া অবস্হান থেকেই লড়ে পরীক্ষায় সাফল্য অর্জনও এসেছে। শ্রীজা তাই সংস্হা নয়, এক প্রোজ্জ্বল জীবনবোধ।
  • সুতপা | 7845.11.014512.87 (*) | ০২ জুলাই ২০১৮ ০২:১৮63624
  • শ্রীজাকে জেনে নিয়ে বরং আমরা পরের আলোচনায় অংশগ্রহন করি! সেখানে কিন্তু মেয়েদের খেলোয়াড় হিসেবে বিশ্বে তুলে ধরা মুখ্য উদ্দেশ্য নয়!
    https://www.facebook.com/groups/ShreejaIndia/
  • বিপ্লব রহমান | 340112.231.126712.74 (*) | ০২ জুলাই ২০১৮ ০৪:২৪63625
  • চোখে আংগুল দাদা টিমকে ধন্যবাদ, সহজ কথাকে সহজ করে বলার জন্য!

    নইলে রোদ্দুর রায়ের আল জিহ্বাসহ কঠিন "আমারও পরানো যাহা চায়" মেকি বাজার দর তৈরি করে বৈকি! যুক্তি কী? কপিরাইট নেই, তাই!
  • বিপ্লব রহমান | 340112.231.126712.74 (*) | ০২ জুলাই ২০১৮ ০৪:৩২63626
  • সুতপা,

    #মনোরঞ্জন ও #মেয়েদের খেলার প্রশ্নে আপনার মূল সুরের সংগে এ ক ম ত।

    আর #উপজাতি অভিধাটি নৃতাত্ত্বিক বিষয়, এপারে রাজনৈতিক। এইটুকু মাত্র।

    শ্রীজা ও সান্তাল ফুটবলার দের অনেক শুভেচ্ছা । আর গুরুতর খবরটি জানানোর জন্য আপনাকে ধন্যবাদ দিয়ে খাটো করবো? নাহ থাক!
  • প্রতিভা | 340123.212.124523.195 (*) | ০২ জুলাই ২০১৮ ০৫:৩১63627
  • আরেব্বা, এতো দারুণ খবর।!
  • Tim | 89900.228.0167.253 (*) | ০২ জুলাই ২০১৮ ১১:১৪63621
  • আপাতত এই লিংকদুটো, আর প্রথম লিংকের কমেন্ট সেকশনের আলোচনাটা রাখা থাক।

    এককের যুক্তিটা দাঁড়াচ্ছেনা বলেই আমার মনে হয়, কারণ সেক্ষেত্রে প্রশ্ন উঠবে, ভারত বা পাকিস্তানের পুরুষ ফুটবল দলের জন্যও কি আলাদা নিয়ম হওয়া উচিত? কারণ গ্লোবাল এরিনায় তাদের খেলাও একেবারেই দৃষ্টিনন্দন নয়, প্রচুর ফিজিকাল/টেকনিকাল খামতিও আছে। এই বিষয়ে চালু মত, একটা ছেলের সাথে একটা মেয়ের ফিজিক্যাল এবিলিটির যে তফাৎ আছে বলে আমাদের মনে হয়, সেইটা একজন ছেলের সাথে আরেকজন ছেলেরও হতে পারে। সর্বোচ্চ পর্যায়েও সেটা সহজেই আমাদের চোখে পড়বে, ব্রাজিলের গড়পড়তা গায়ের জোর রাশিয়ার থেকে অনেক কম, বা অন্য অনেক দলের থেকে দমে হয়ত তারা পিছিয়ে আছে। প্রশ্ন হলো সেই খামতি স্কিলে পুষিয়ে নেওয়া যায় কিনা। মেয়েদের ফুটবলে স্কিলের তফাৎ আছে কিনা সেটা একটা প্রশ্ন হতে পারে। ছেলেদের ফুটবলও তো একদিন স্লো ছিলো, সেদিন কি সেটা দর্শকের মনোরঞ্জন করেনি? করেছে, বিশুদ্ধ স্কিল দিয়ে। আজকের যুগে মারাদোনা বা বাজ্জিও'র মত গোল দেখতে পাওয়া অসম্ভব না হলেও বিরলতম ঘটনা। কিন্তু সেই "স্লো" যুগে তো এগুলো দেখা যেত প্রায়শই। গোলগুলো দেখতে দেখতে আমার অমিলের থেকে মিলই বেশি লাগলো।



    <
  • Tim | 89900.228.0167.253 (*) | ০২ জুলাই ২০১৮ ১১:১৫63622
  • সেকেন লিংক আসেনি

  • Swati Ray | 781212.194.90067.9 (*) | ০৩ জুলাই ২০১৮ ০৭:০২63628
  • বাঃ ভাল লাগল.
আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত


পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। চটপট মতামত দিন