• বুলবুলভাজা  খবর  টুকরো খবর  বুলবুলভাজা

  • ফেসবুক নিয়ে গুরুচণ্ডা৯-র বইপ্রকাশ

    গুরুচণ্ডা৯
    খবর | টুকরো খবর | ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১ | ৪৫৩ বার পঠিত | ২ জন)
  • পছন্দ
    জমিয়ে রাখুন পুনঃপ্রচার
  • ধুলাগড়ে দাঙ্গা আটকাতে রাফ নেমেছিল। কিন্তু ২৫ কিলোমিটার দূরের কলকাতা শহর বা ধুলাগড় সংলগ্ন অন্যান্য জনপদে ফেসবুক হয়ে ‘খবর’, ছবি ছড়িয়ে বলা হচ্ছিল মুসলমানরা এলাকার দখল নিয়েছে। হিন্দু দোকানপাট ভাঙচুর করা হচ্ছে। হিন্দু মন্দির জ্বালিয়ে-পুড়িয়ে খাক করে দেওয়া হয়েছে। প্রাথমিক ভাবে এই পোস্টগুলির বিরুদ্ধে কোনো ব্যবস্থা নেয়নি ফেসবুক। সত্যাসত্য যাচাই করার কোনো পথ খোলা ছিল না, সুপরিকল্পিত ভাবেই উদাসীনতাকে হাতিয়ার করেছিল মৌলবাদীরা। (সদ্যপ্রকাশিত বই থেকে উদ্ধৃত)

    ১৩ ফেব্রুয়ারি বেলা ৩টেয় কলকাতা প্রেস ক্লাব লনে গ্রন্থপ্রকাশ অনুষ্ঠানে ফেসবুক : মুখ ও মুখোশ বইটি জনসমক্ষে আত্মপ্রকাশ করল। লেখক অর্ক দেব, পরঞ্জয় গুহঠাকুরতা এবং সিরিল স্যাম। স্বাধীন সাংবাদিকতা জগতের দুই নক্ষত্র পরঞ্জয় গুহঠাকুরতা এবং সিরিল স্যামের ইংরেজি বই 'দ্য রিয়েল ফেস অব ফেসবুক'-এর সঙ্গে আরো নতুন দশটি অধ্যায় জুড়ে এই বইটি, যার আনুষ্ঠানিক প্রকাশে মুখ্য অতিথি হিসেবে এসেছিলেন জহর সরকার। অন্যান্য বিশিষ্ট অতিথিদের মধ্যে ছিলেন সাংবাদিক সুদীপ্ত সেনগুপ্ত, অধ্যাপক সঞ্জয় মুখোপাধ্যায় ও সমাজবিজ্ঞানী কুমার রাণা। সভায় উপস্থিত ছিলেন পরঞ্জয় গুহঠাকুরতা ও অর্ক দেব।

    জহর সরকার শুরুতেই ট্রাম্প অনুপ্রাণিত ক্যাপিটল- কাণ্ড ও তাতে সোশ্যাল মিডিয়ার ভূমিকার কথা মনে করিয়ে দেন। মিথ্যা প্রচারের হাতিয়ার হয়ে ওঠার প্রসঙ্গে ধুলাগড়, তেলেনিপাড়ার দাঙ্গার কথাও আসে। টুইটারে সরকারি নজরদারি, নিয়ন্ত্রিত ট্রোল, মগজধোলাই সমস্ত বিষয়গুলিকে আলোচনায় এনে তাঁর হুঁশিয়ারি, রাষ্ট্রযন্ত্রের এই খেলা থেকে প্রত্যেকে যেন সাবধান থাকেন।

    সঞ্জয় মুখোপাধ্যায়ের প্রশ্ন, সামাজিক মাধ্যম ব্যক্তিস্বাধীনতার চূড়ান্ত রূপ, নাকি বৃহত্তর একটি ছলনাজাল, যেখানে আন্তরিক গোষ্ঠীবদ্ধতার পরিবর্তে মেলে কেবল একাকীত্ব। সত্যিই কি বিশুদ্ধ টেকনোলোজি বলে কিছু হয়?

    সুদীপ্ত সেনগুপ্তের মতে ফেসবুক একটি নৈতিকতা-নিরপেক্ষ "টুল"বা হাতিয়ারবিশেষ। অর্থ চিন্তাই এখানে চমৎকার যা প্রত্যেক ব্যবহারকারীকেই শেষকালে পণ্যে রূপান্তরিত করে। বহুত্ববাদী ভারতে সুস্থ চিন্তাতর্কের খাতিরে একে ব্যবহার করতে হবে অত্যন্ত সাবধানতার সঙ্গে।

    কুমার রাণা জোর দেন ভাষাসাম্যের ওপর। সমাজমাধ্যমে হামেশা যে তীব্র আক্রমণাত্মক এবং সহিংস ভাষাদূষণ চোখে পড়ে, তার মূল অনেক গভীরে প্রোথিত। সত্তার আমরা-ওরা বিভাজন কাটাতে হলে ভাষাসংস্কারকে শিক্ষার অপরিহার্য অঙ্গ করে তুলতে হবে, তবেই সামাজিক মাধ্যমে বিষাক্ত হিংসার চর্চা কিছুটা হলেও কমতে পারে।

    অর্ক দেব সামাজিক মাধ্যম কাভাবে ভুয়ো খবরকে যাথার্থ্য দেয় তা তথ্যপ্রমাণ দিয়ে দেখান। গুজব এবং ভুয়ো খবর আর তাকে গণমাধ্যমে দ্রুত ছড়িয়ে দেওয়া, এই নীল নকশাই রয়েছে ইদানিংকালের সমস্ত দাঙ্গার পেছনে।

    পরঞ্জয় গুহঠাকুরতার বক্তব্যেও প্রাধান্য পায় এই দাঙ্গা এবং সাম্প্রদায়িক বিভাজনের ক্ষেত্রে গণমাধ্যমের ভূমিকার কথা। এই দেশের রাজনৈতিক সামাজিক প্রেক্ষিতে গণমাধ্যমের সচেতন ব্যবহার যে কতটা জরুরি এবং সেই সচেতনতা সৃষ্টির ক্ষেত্রে সৎ স্বাধীন সাংবাদিকতাকে কতটা প্রতিকূলতার মধ্য দিয়ে যেতে হয় সে প্রসঙ্গও উঠে আসে।

    গুরুচণ্ডা৯-র পক্ষ থেকে বইটি এবং প্রকাশন সংস্থার কাজকর্ম নিয়ে বিশদ বক্তব্য রাখেন কল্লোল ও অয়ন।

    অনুষ্ঠান শেষ হয় ধন্যবাদজ্ঞাপনের মাধ্যমে। সমগ্র অনুষ্ঠানটি পরিচালনা করেন প্রতিভা সরকার। প্রশ্নোত্তর পর্বে ছিল দর্শক-শ্রোতাদের উৎসাহ ছিল চোখে পড়ার মত।

  • বিভাগ : খবর | ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০২১ | ৪৫৩ বার পঠিত | ২ জন)
  • পছন্দ
    জমিয়ে রাখুন পুনঃপ্রচার
আরও পড়ুন
ছায়া - Debayan Chatterjee
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • বিপ্লব রহমান | ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২১ ১২:১২103009
  • অভিনন্দন ও শুভেচ্ছা সকলের প্রতি। 

আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:

Facebook, Facebook Riot, Communal Riot, Dhulagarh Riot, Communal Riot in Bengal, West Bengal Communal Riot, Paranjoy Guhathakurta, Newsclick, Ambani, Adani, Modi-Shah Riot, Communal Force, BJP
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত


পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। যুদ্ধ চেয়ে মতামত দিন