• হরিদাস পাল  ব্লগ

  • ভগীরথ

    Vikram Pakrashi লেখকের গ্রাহক হোন
    ব্লগ | ০১ ডিসেম্বর ২০২০ | ৩২৮ বার পঠিত
  • পছন্দ
    জমিয়ে রাখুন পুনঃপ্রচার
  • মানিকতলা বাজার থেকে কঞ্চির তৈরি একটি সুদৃশ্য ঝুড়ি আমরা মুটের মাথায় চাপিয়ে দিলাম। তার নাম জিজ্ঞাসা করার জবাব এলো ভগীরথ। তত্ববাড়ির ঝুড়ি - যারা যারা বিবেকানন্দ রোডে দোতলায় সেসময় ছিল তারা যদি নিচে তাকাতো, যদি তারা লক্ষ্য করতো, তবে সেই ঝুড়ির মধ্যে শীতের মরশুমি সবজির বাজার দেখতে পেত। লাল লাল টমেটো, কচি সবুজ কড়াইশুঁটি, বেগুন, ফুলকপি, বাঁধাকপি, গাজর ইত্যাদি। বিয়ে বাড়ি বলে কার কথায় যেন লঙ্কা নেওয়া হলো না যদিও তার রঙ ছিল সবচেয়ে আকর্ষণীয় ।

    ফলের বাজার থেকে ভগীরথ এর ঝুড়িতে এনে রাখা হলো আপেল, ডালিম, সবেদা, কলা, নারকেল, এই সমস্ত ফল - এছাড়া পান মশলা, জোয়ান, মৌরি, ধনের চাল, আখরোট, পেস্তা, শোলার প্লেট, চা-খাবার কাগজের কাপ। ভগীরথ এই সমস্ত মাথায় করে সামনে সামনে চলতে লাগলো আমরা তার পেছনে পেছনে। বাঁ দিক ঘুরে, চালতাবাগান লোহাপট্টির সামনে - আমরা তখন বিয়েবাড়ি দেখতে পাচ্ছি, এমন সময় ভগীরথের এর চটি রাস্তার পীচে আটকে গেল, ওর চলার গতি শ্লথ হয়ে এল। এরপর ওর দুটি পা রাস্তার মধ্যে বসে যেতে লাগল।

    আমরা চিৎকার করে বললাম - ভগীরথ, আমরা কি দুটো ফুলকপি তুলে নিলে তোমার সুবিধা হয়? কিন্তু ভগীরথ বোধহয় কিছু শুনতে পেল না। সে সেই পীচ, কাদা, মাটি, জল আর গুয়ের লাইন ঠেলে, ভেঙে বিয়েবাড়ির দিকে এগিয়ে যেতে লাগল আর ডুবে যেতে লাগল। আমরা হায় হায় করে উঠলাম।

    বিয়েবাড়ির সামনে যেখানে জ্বলানেভা তেরঙ্গা আলো ঝোলানো হয়েছিল, সেই চৌকাঠে ভগীরথ তার শীর্ণ, বুড়ো ও পেশীবহুল হাতে ধরা ঝুড়িসুদ্ধ মাটির নিচে ঢুকে গেল। আশা ছেড়ে আমরা বিয়েবাড়ি ঢোকার পরেও উঠোনের মেঝের কাঁপুনি থেকে বুঝতে পারলাম যে সে ক্রমাগত নিচে নেমে যাচ্ছে। এমনকি জল খেয়ে কুলকুচি করার পরে যখন পাইপের মধ্যে গবগব করে শব্দ হতে আরম্ভ হলো, আমাদের মনে হচ্ছিল যে ভগীরথ বোধহয় পাতাল থেকে আমাদের সাথে কথা বলার চেষ্টা করছে।
  • বিভাগ : ব্লগ | ০১ ডিসেম্বর ২০২০ | ৩২৮ বার পঠিত
  • পছন্দ
    জমিয়ে রাখুন গ্রাহক পুনঃপ্রচার
আরও পড়ুন
hok kolorob - Vikram Pakrashi
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • Vikram Pakrashi | ০২ ডিসেম্বর ২০২০ ০৩:৪৯100838
  • পরিমিতি

আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত


পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। মন শক্ত করে মতামত দিন