• হরিদাস পাল
  • খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে... (হরিদাস পাল কী?)
  • কোয়াণ্টাম জগতে অধিকারের লড়াই – গুগুল (Google) ও আই বি এম (IBM) দ্বন্দ্ব (পর্ব ৪- শেষ পর্ব)

    Rajkumar Raychaudhuri
    বিভাগ : আলোচনা | ০১ এপ্রিল ২০২০ | ৩০৫ বার পঠিত
  • প্রথম পর্ব এখানে -     https://www.guruchandali.com/comment.php?topic=17281
    দ্বিতীয় পর্ব এখানে-   https://www.guruchandali.com/comment.php?topic=17291
    তৃতীয় পর্ব এখানে-    https://www.guruchandali.com/comment.php?topic=17298

    মূল প্রসঙ্গ- কোয়াণ্টাম আধিপত্য (Quantum Supremacy)

    সাল ২০১২। মার্কিন পদার্থবিজ্ঞানী জন পারস্কিল (John Perskill) যখন কোয়াণ্টাম সুপ্রিমেসি বা কোয়াণ্টাম আধিপত্য তত্ত্বের অবতারনা করলেন তখন সকলের মধ্যে একটা প্রশ্ন উঠেছিল কোয়াণ্টাম কম্পিউটার গড়ে তোলা আদৌ সম্ভবপর কিনা।

    কোয়াণ্টাম আধিপত্য (Quantum Supremacy) হল একটা লক্ষ্যমাত্রা যেখানে যেকোন কোয়াণ্টাম যন্ত্র সুপার কম্পিউটার দ্বারা অমীমাংসীত সমস্যার সমাধানে সক্ষম হবে। পারস্কিলের মত অনুযায়ী যদি এই ধরণের কোয়াণ্টাম যন্ত্র দ্বারা কোয়াণ্টাম আধিপত্য বা সুপ্রিমেসি লক্ষ্যমাত্রায় পৌঁছানো সম্ভবপর হয় তবে আমরা কোয়াণ্টাম কম্পিউটার গঠনে সক্ষম।

    সে দিক দিয়ে বিচার করলে কোয়াণ্টাম কম্পিউটারের সাহায্যে অতি দ্রুত গণণা কষতে (৩মিনিটে) সক্ষম হয়ে গুগল কোয়াণ্টাম আধিপত্যের  লক্ষ্যমাত্রা স্পর্শ করতে পেরেছে। অর্থাৎ, গুগুল এই পরীক্ষার মাধ্যমে প্রমাণ করতে পেরেছে, তত্ত্বজগতের বাইরে এসে ব্যবহারিক ক্ষেত্রেও কোয়াণ্টাম কম্পিউটার গড়ে তোলা সম্ভব। যদিও গুগুলের সিইও সুন্দর পিচাই এই ঘটনাকে রাইটস ভাইদের উড়ো জাহাজ আবিষ্কাররের সাথে তুলনা করে বলেছেন, ব্যবহারিক কম্পিউটার গড়ে তোলার ক্ষেত্রে এখন অনেক পথ অতিক্রম করা বাকি।

    প্রসঙ্গক্রমে এ কথা বলা যায়, কো্যাণ্টাম কম্পিউটার জগতে শুধুমাত্র গুগুল-ই নয়, আরো অনেক কোম্পানি জড়িত। তাদের মধ্যে মাইক্রোসফট (Microsoft), ইন্টেল (Intel), আই বি এম (IBM) এর নাম উল্লেখযোগ্য। এরা সকলেই ব্যবহারিক কোয়াণ্টাম কম্পিউটার গড়ে তোলার লক্ষ্যে এগিয়ে চলেছে।

    গুগুলের দাবী সম্পর্কে অন্যরা নিশ্চুপ থাকলেও, আই বি এম গবেষকদের মতে, নির্দিষ্ট গণণাটি (যেটি গুগুল কোয়াণ্টাম কম্পিউটার তিন মিনিটে সমাধান করেছে, এবং তাদের দাবী অনুযায়ী সুপার কম্পিউটারের ১০ হাজার বছর সময় লাগতে পারে) অন্য পদ্ধতিতে করলে সুপার কম্পিউটারের আড়াই দিনে সমাধান পাওয়া যেতে পারে। তাদের মতে, গুগুল শুধুমাত্র র‍্যামের (RAM) উপর নির্ভর করেছে। যদি তারা র‍্যাম (RAM) ও হার্ডডিক্স (HARD DISC) উভয়ের সহায়তা নিত, তবে সুপার কম্পিউটারের অত সময় লাগত না, ওই গণণায়। যদিও এই পদ্ধতি ল্যাবে আই বি এম পরীক্ষা করে নি।

    আই বি এম এর দাবী কম্পিউটার জগতে যথষ্ট গুরুত্বপূর্ন কারণ, কম্পিউটার জগতে আই বি এম যাত্রা শুরু ১৯১১ সাল থেকে। তখন এই কোম্পানি পাঞ্চ কার্ড (Punch Card) তৈরি করত। ১৯৪৪ সালে এই কোম্পানি হাভার্ড বিশ্ববিদ্যালয়ের সাথে প্রথম ‘মার্ক ১’  (MARK 1) নামে স্বয়ংক্রিয় লগ গণনার কম্পিউটার (Automatic log Computer) তৈরী করে। ১৯৮১ সালে আই বি এম সর্বপ্রথম ব্যবহারিক কম্পিউটারের  (Home PC) জন্ম দেয়। যেটা কম্পিটার জগতের একটা বড় কীর্তি হিসাবে ধরা হয়।

    এম আই টি টেকনোলজি রিভিউ এর প্রধান সম্পাদক (MIT Technological Review's editor in Chief)  গিডিওন লিচফিল্ডের (Gideon Lichfield) মতে, গুগুল এবং আই বি এম, দুটো বড় কোম্পানি-ই একই প্রকৌশলী ব্যবহার করছে এই কোয়াণ্টাম কম্পিউটার গঠনের ক্ষেত্রে। এবং যখন প্রেস কনফারেন্সে গুগুল কোয়াণ্টাম ল্যাব হেড হার্টমুট নেভেন (Hartmut Neven) এর কাছে আই বি এম এর টিপ্পনীর ব্যাপারে মতামত জানতে চাওয়া হয়, তখন তিনি সেই প্রশ্ন এড়িয়ে যান।

    আই বি এম এর দর্শন অনুযায়ী শুধুমাত্র একটি ছোট গণণা সমাধান করে কোয়াণ্টাম আধিপত্য লাভ- এই সিদ্ধান্তে উপনীত হওয়া অসমীচীন, কারণ এ দিয়ে কোন কিছু প্রমাণিত হয় না। কোয়াণ্টাম কম্পিউটার আক্ষরিক অর্থেই সুপার কম্পিউটার অপেক্ষা অনেক দ্রুতশীল- এটা বলার অপেক্ষা রাখে না। তাই আই বি এম এর লক্ষ্য এমন কিছু তৈরী করা যা সুপার কম্পিউটার ও কোয়াণ্টাম কম্পিউটারের মধ্যে সীমাহীন পার্থক্য গড়ে তোলে-যাকে কোয়াণ্টামের সুবিধা বা কোয়াণ্টাম অ্যাডভাণ্টেজ নামে অভিহিত করা যেতে পারে।

    উদাহরণ দেওয়া যাক। ১৯৯৭ সালে আই বি এম কম্পিউটার ডিপ ব্লু (Deep Blue) দাবা প্রতিযোগিতায় গ্যারি কাস্পারাভকে হারিয়েছিল। এটা সম্ভব হয়েছিল প্রতিযোগিতামূলক সুবিধা বা কম্পিটিটিভ অ্যডভাণ্টেজের (Competitive Advantage) কারণে। প্রতি সেকেণ্ডে কম্পিউটার ২০ কোটি সম্ভাব্য চাল বিবেচনা করত। সেক্ষেত্রে একটা কোয়াণ্টাম কম্পিউটার এক সেকেণ্ডে ১ লক্ষ কোটি চাল বিবেচনা করতে পারে!!

    ইতিমধ্যে গুগুল বলতে শুরু করেছে আগামী ৫ বছরের মধ্যে অর্থনৈতিকভাবে ব্যবহারযোগ্য কোয়াণ্টাম কম্পিউটার বাজারে আনবে এবং সেটা ৫০ কিউবিটস সম্পণ্ণ হবে। ভাল মাণের সুপার কম্পিউটার (Super Computer) ২০ কিউবিটস সম্পন্ন কোয়াণ্টাম কম্পিউটারের (Quantum Computer) সাথে পাল্লা দিতে সক্ষম। সেক্ষেত্রে কম্পিউটার জগতে ৫০ কিউবিটস সম্পন্ন কোয়াণ্টাম কম্পিউটার সেরা হিসাবে ধরা যেতেই পারে। এই ঘোষণার পরমুহুর্তেই আই বি এম জানিয়ে দিয়েছে, আর এক বছরের মধ্যেই ব্যবহারিক কোয়াণ্টাম কম্পিউটার বাজারে আনবে। অর্থাৎ কোয়াণ্টাম জগতে অধিকার স্থাপনের প্রস্তুতি তুঙ্গে।

    পরিশেষে এটা বলা যেতে পারে, আই বি এম এর দাবী অনুযায়ী, যদিও গুগুল- এর সঠিক সময়ে পৌঁছাতে দেরী থাকতে পারে, কিন্ত কোয়াণ্টাম জগতের অধিকার লড়াইয়ে আমাদের সভ্যতা আর বেশি পিছিয়ে নেই। অদূর ভবিষ্যতে কোয়াণ্টাম কম্পিউটার গড়ে তোলা সম্ভব হবে।

    তথ্যসূচী 

     ইউটিউব (Youtube)

     অন্যান্য (Others)
    https://www.technologyreview.com/s/615268/podcast-google-ibm-quantum-supremacy-computing-feud/?fbclid=IwAR2Z_YKAULlAbl0iNa0yb3z85NkOthtvYf_Syi7MpQD4V6t0B3TqOUuH3tE

    https://www.rfwireless-world.com/Terminology/Difference-between-Bit-and-Qubit.html

    Elements of chemistry by Maity and Ganguly

    https://physicsabout.com/plancks-radiation-law/

    https://roar.media/bangla/main/biography/the-boy-who-beat-up-wicked-boys-to-correct-also-corrected-the-atomic-model/

    http://bn.vikaspedia.in/education/9b69bf9b69c1-9859999cd9979a8/9959be9a89cd99f9be9ae-9ab9bf99c9bf9959cd9b8-9e89eb-9ac9be9ae9be9b0-9b89bf9b09bf99c-993-9a89c09b29b8-9ac9b0

    http://openspace.org.bd/%E0%A6%86%E0%A6%B2%E0%A7%8B-%E0%A6%95%E0%A6%A3%E0%A6%BE-%E0%A6%A8%E0%A6%BE%E0%A6%95%E0%A6%BF-%E0%A6%A4%E0%A6%B0%E0%A6%99%E0%A7%8D%E0%A6%97%E0%A7%87%E0%A6%B0/

    https://www.facebook.com/RajukCollegeWritersClub.RCWC/photos/a.917908834905627/1045553752141134/?type=1&theater

    https://blog.mukto-mona.com/2010/10/20/11188/

    http://curious7.com/2017/06/14/%E0%A6%A1%E0%A6%BE%E0%A6%AC%E0%A6%B2-%E0%A6%B8%E0%A7%8D%E0%A6%B2%E0%A6%BF%E0%A6%9F-%E0%A6%8F%E0%A6%95%E0%A7%8D%E0%A6%B8%E0%A6%AA%E0%A7%87%E0%A6%B0%E0%A6%BF%E0%A6%AE%E0%A7%87%E0%A6%A8%E0%A7%8D%E0%A6%9F/

    https://www.ias.edu/ideas/2014/ambainis-quantum-computing

    https://www.bernardmarr.com/default.asp?contentID=1193
    https://www.thoughtco.com/the-ibm-701-1991406

     উইকিপিডিয়া (Wikipedia)

    https://en.wikipedia.org/wiki/Polarization_(waves)

    https://en.wikipedia.org/wiki/Quantum_entanglement

    https://en.wikipedia.org/wiki/Quantum_superposition

    https://en.wikipedia.org/wiki/Paul_Benioff

    https://en.wikipedia.org/wiki/Quantum_computing

    https://en.wikipedia.org/wiki/Quantum_information

    https://en.wikipedia.org/wiki/Introduction_to_quantum_mechanics

    https://www.charpoka.org/2018/09/02/birth-of-quantum-theory/

    https://en.wikipedia.org/wiki/Photoelectric_effect

    https://en.wikipedia.org/wiki/Heinrich_Hertz

    https://en.wikipedia.org/wiki/Turing_machine

    https://en.wikipedia.org/wiki/Waveparticle_duality

  • বিভাগ : আলোচনা | ০১ এপ্রিল ২০২০ | ৩০৫ বার পঠিত
  • আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা ভাইরাস

  • পাতা : 1
  • একলহমা | 108.162.237.111 | ০১ এপ্রিল ২০২০ ১১:৪১91932
  • শেষ করেছি, শেষ করেছি, সব কটা পর্ব পড়া শেষ করেছি। কঠিন অধ্যবসায়ে আপনি লিখেছেন এক লম্বা অগ্রগতির কাহিনী। অনেক সময় এই নাদান পাঠক সেখানে খেই হারিয়ে ফেললেও লেখার গুণে আগ্রহ হারায়নি।

    কোয়ান্টাম কম্পিউটার এসে গেলে, সে যে কি বস্তু হবে ভাবলেই গায়ে কাঁটা দেয়। তবে তার আগে করোনা আর তার সাঙ্গপাঙ্গরা না আমাদের দফারফা ঘটিয়ে দ্যায়।
  • Rajkumar Raychaudhuri | 162.158.166.136 | ০১ এপ্রিল ২০২০ ১১:৪৮91933
  • একলহমা কটা প্রশ্ন- লেখার মাঝে অনেকগুলো সমীকরণ এসেছে। সেগুলো কি মন দিয়ে পড়েছেন? নাকি পড়তে পড়তে বিরক্তি এসেছে? কোনটা? 

  • করোনা ভাইরাস

  • পাতা : 1
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত