• হরিদাস পাল  ব্লগ

  • প্রতাপের বিরুদ্ধে প্রান্তিকতার জয়

    Soumya Kanti Pramanik লেখকের গ্রাহক হোন
    ব্লগ | ২৪ জুলাই ২০১৮ | ১২৯৪ বার পঠিত
  • " হ্যাঁ, অর্ক, কি চলছে রে তোদের কলেজে ? বাচ্চা গুলো এভাবে না খেয়ে আছে আজ দু দিন হলো ? কি দাবী ?"
    " ওদের হোস্টেল নেই ।। প্রিন্সিপাল কে বার বার বলা সত্ত্বেও কোন কর্ণপাত করেনি।।।পুলিশ ঢুকে ছত্রভঙ্গ করেছে ।।।আর কিছু ওদের করার ছিল না ।।তুমি কোথায় আছো ? আসবে ? তোমাদের দরকার ! "
    ।।।।
    ইতিহাস রচনার কোন ধারাবাহিক নিয়ম থাকেনা।।। আমাদের মুহুর্ত যাপন ইতিহাস রচনা করে।।। কিন্তু সবাই বলে, সে ইতিহাসের নাকি নানা রং হয়।।। বোধ হয় সেই রঙের বিকাশের উৎসব কেই ইতিহাস বলে।।।
    রং বলতে মনে পরে, ইতিহাসের পাতায় সবচেয়ে প্রস্ফুটিত রঙের নাম হলো লাল।।। বিশ্বাসের রং, মর্যাদার রং।।। আমার যৌবন কেটেছে পি জি হাসপাতালের চৌহদ্দির মধ্যে।।। কিন্তু প্রত্যেক বাঙালির যেমন এক পা কলকাতায় থাকে, তেমন প্রত্যেক ডাক্তারের মেডিক্যাল কলেজের আঙিনায়।।। রাওলিং ম্যাডামের বর্ণনায় হোগয়ার্ডসে যাবার চাবিকাঠি যেমন লন্ডন টিউবের নাইন এন্ড থ্রী এন্ড হাফ স্টেশন, তেমন আমার চোখে ইতিহাসের করিডোরে পৌঁছে যাবার লক্ষণ রেখা মেডিক্যালের প্রতিটি গেট ! ধাপে ধাপে উঠে যাওয়া সিঁড়ি উঁচিয়ে গর্বের সাথে দাঁড়িয়ে থাকা এম সি এইচ বিল্ডিং, লাল গথিকের এডমিনিষ্ট্রটিভ ব্লক।।। প্রতিবার মনে হয়েছে, যখনই এই রাস্তা দিয়ে হাঁটবো, ইতিহাস আমার পিছু ধাওয়া করছে।।।
    তাই সেদিন যখন কালো কাপড়ে লেখা 'আমরণ অনশন' নিশান নিয়ে অদ্মিনিস্ত্রতিভে ব্লো্ক অপেক্ষা করছিল কিছু দাবী মেটানোর জন্য , রাষ্ট্রশক্তির দাম্ভিকতার সামনে , নিশ্চুপ ভাবে, গুম মেরে।। সবার মতো আমার ও ভুল হয়েছিল, বাচ্চা গুলো কে ঠিক ভাবে চিনতে না পেরে।।।
    আসলে কে এই অনিকেত, কে এই দেবাশিস রা ?।।। এত গনগনে আঁচের ভেতরে লুকিয়ে রাখার নিরোলম্ব দক্ষতা এসেছে কি করে ?আজকের এই লাভা উদ্গীরণ কি কয়েক মাসের বঞ্চনার মাশুল।।। উত্তর টা হলো।।। না।।।
    "আমিও আসলে ঘর খুঁজে যায়
    খুঁজছো তুমিও, পাচ্ছি টের
    যদি পেয়ে যায় আমরা দুজনে
    ঘর যেন হয় সকলের।।"
    পুরুলিয়ার লাল মাটি বা জলপাইগুড়ির চা বাগান থেকে যে পথ গুলো কলকাতার রাজপথে মিশেছে, অনিকেত বা দেবাশিস দের যাত্রা শুরু বহুদিন আগেই সে পথে হয়েছে।।। একটা ছোট ট্রাঙ্ক নিয়ে প্রথম বার মহানগরের বুকে পা দেওয়া এই ছেলে গুলো তাই জানে হকের একটুকরা ছাদের কি মানে ! ওদের দাবী কিন্তু কোন এ সি ডিলাক্স রুমের জন্য ছিল না, ছিল সম্মানের সাথে এক একটুকরা বেড পাবার অধিকার আদায়ের।।।
    কিন্তু ইতিহাস জানে, গদির কদর্যতা কোথায় ! প্রান্তিকতার নিস্তব্ধতা কে সে দুর্বলতা মনে করে এসেছে বারে বারে।।। এবারেও সেই ভুল করেছে ।।।একটা 'ছোট' দাবী কে নস্যাৎ করার বড় ভুল।।। প্রিন্সিপাল অফিসের আভ্যন্তরীণ প্রশাসনিক বৈঠক কে তাই নিয়ে যেতে হয়েছে, ক্ষমতার অলিন্দে, অনুনয়ের বিচিত্র সুরে।।।।
    কিন্তু প্রান্তিকতা জানে এই অনুনয়ের সুরকে কিভাবে প্রতিবাদের বজ্রপাতে পরিণত করতে হয়।।। আর কোন ফ্যাসিস্ট নীতির মোকাবেলা গণতান্ত্রিক পথে কোন উপায়ে করতে হয়।।। শাণিত অস্ত্রের শেষ সম্বল ছিল ।।।ভুখা হরতাল।।।
    কিন্তু আমরা যারা একটু বড়, তারা তাদের উত্তর প্রজন্ম কে কিভাবে বলিপ্রদত্ত হতে দিতে পারি ??
    তাই বার বার কলেজ কাউন্সিলের মিটিং হয়েছে, আমরা অধীর আগ্রহে বসে শুনেছি, সমাধানের পথ কি হয় !।।। কমন রুমে বসে ঠিক হয়েছে পরবর্তী রণ কৌশল কী হবে।।।।অনিকেত, দেবাশিস, অর্ণব , হিল্লোলদের তরতাজা ছটফটে দামাল শরীর গুলো আসতে আসতে নিস্তেজ হয়ে পড়েছে।।। কিন্তু ওদের জ্বলন্ত দৃঢ়প্রতিজ্ঞ চোখের দীপ্তি প্রখর থেকে প্রখরতর হয়েছে।।।
    প্রথমে ছয়, অষ্টম দিন অনশনের মাথায় আরো পনেরো।।।
    আমার রাগ হয়েছে, চিৎকার করে বলতে চেয়েছি, আপনারা কি করছেন ? কেন এই ফুটফুটে প্রাণ গুলোকে শেষ করে দিচ্ছেন!
    তারপর হু হু করে ভেঙ্গে পরেছি।। মাথা মুড়ে নতজানু হয়ে আমরা ওদের পা আঁকড়ে বলেছি, ভাই রে, তোরা এভাবে তিলে তিলে নিজেদের শেষ করে দিস না!
    অশীতিপর বৃদ্ধ প্রফেস্যার বৈদ্যনাথ চক্রবর্তী ওদের দেখে শিশুর মতো কেঁদেছেন, কোন "হিঘের অউথোরিত্য" র কাছে ওদের প্রাণ ভিক্ষা চেয়েছেন, কিন্তু ক্ষমতা অলিন্দ বোধ করি এমনই, দক্ষিণে র জানলা খুলতে বড় দেরী করে ফেলে।।।
    শত শত ক্যামেরার আলোয় চত্বর মুড়ে গেছে।।।শত শত মানুষের ভিড়।।। বাইরে গণ সঙ্গীতের মাদকতা, স্লোগানে স্লোগানে চেয়ে যাওয়া হসপিটাল চত্বর।।। না , কোন উন্নাসিকতা, কোন অনুনয়, কোন পেশী শক্তি ওদের আদমনীয় স্থির চিত্ত কে স্পর্শ করতে পারেনি।।।।।
    ।।।।।।।।।
    ইতিহাসের জন্ম এভাবেই হয়।।। স্বপ্নের রঙ্গীন জগৎ থেকে যন্ত্রণার কালো রং পেরিয়ে জয়ের লাল রঙের অধ্যায় কে ইতিহাস বলে।।। সে ইতিহাস আগামীর ইতিহাস, প্রাক্তনের কোমল স্পর্শে উজ্জীবিত মহামিলনের ইতিহাস।।।
    আর এর মাঝে থেকে যায় কয়েকটা প্রতিশ্রুতি, পরবর্তী অন্যায় কে না মেনে নেবার অঙ্গীকার।।।
    তৈরি করে কিছু উদাহরণ।।। ন্যায্য দাবীর আদায়ের জন্য কোন গণতান্ত্রিক আন্দোলনের বিকল্প নেই।।।।
    আর কিছু মুহূর্ত, যাকে ঘিরে থাকে রোমান্টিকতা।।।।
    বৃষ্টির রাতে একটা সিগারেট নিয়ে পরবর্তী পদক্ষেপের জন্য গভীর আলোচনা, আর মাঝে মধ্যে বিছানার পাশে গিয়ে গোলা বারুদ গুলোকে এক বার করে দেখে আসা, তারা যেন নিভে না যায়।।।।
    রাজপথের মাঝে ওই বাচ্চা গুলোর দাবী নিয়ে সম্মিলিত মিছিলে দৃপ্ত পদচারণা।।।।।
    প্রফেস্যারের কম্পিত হাতে অনিকেত দের আশীর্বাদ।।।।
    মৌসুমী ভৌমিকের কণ্ঠে সুর মিলিয়ে গেয়ে ওঠা।।।।" আস্থা হারানো এই মন নিয়ে আমি আজ দুহাত পেতেছি"।।।।
    ৩৩৫ ঘন্টা অনশনের শেষে প্রিন্সিপালের হাত ধরে অনিকেত দের জল খাওয়া।।।।
    জয়।।।।
    লাল আবীর।।।
    স্পর্ধার উল্লাস।।।
    কৃষ্ণচূড়ার রঙে রঙ্গীন গোধূলির পড়ন্ত বিকেল।।।।
    ।।।।।।।।
    তবে একটা দৃশ্য বোধ করি কখনও ভুলবো না।।।।
    অশক্ত শরীরে ওরা ট্রলির ওপর বসে আছে।।। বিজয় মিছিল চলছে।।। রাজপথ।।। দূরে ওদের চোখ।।।।
    আচ্ছা, ওই রাস্তা দিয়ে কোন অপু এখনই কোলকাতায় পৌঁছল না তো ?
    কিংবা কোন অনিমেষের বাস এইমাত্র জলপাইগুড়ি ধর্মতলার মোড়ে।।।?

     

  • বিভাগ : ব্লগ | ২৪ জুলাই ২০১৮ | ১২৯৪ বার পঠিত
  • কোনোরকম কর্পোরেট ফান্ডিং ছাড়া সম্পূর্ণরূপে জনতার শ্রম ও অর্থে পরিচালিত এই নন-প্রফিট এবং স্বাধীন উদ্যোগটিকে বাঁচিয়ে রাখতে
    গুরুচণ্ডা৯-র গ্রাহক হোন
    গুরুচণ্ডা৯তে প্রকাশিত লেখাগুলি হোয়াটসঅ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে যুক্ত হোন। টেলিগ্রাম অ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলটির গ্রাহক হোন।
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • Soumya Kanti Pramanik | 7845.15.677812.17 (*) | ২৪ জুলাই ২০১৮ ০৭:০৬65117
  • লেখাটিতে কিছু জায়গায় অতিরিক্ত দাড়ি পরে গেছে, অনিচ্ছাকৃত এই ভুলের জন্য ক্ষমাপ্রার্থী ।
  • aranya | 3478.160.342312.238 (*) | ২৫ জুলাই ২০১৮ ০১:৩৩65118
  • ৩৩৫ ঘন্টা অনশন! খুবই গর্ব হয়, বাচ্চাগুলোর জন্য। অনেক মানুষ তাদের পাশে দাঁড়িয়েছেন, এটাও ভাল লাগে - সবাই এখনও বিকিয়ে যায় নি, ভয়ে কুঁকড়ে যাচ্ছে না, ন্যায়ের পক্ষে থাকছে

    কী যে ছিল শ্রীজাত-র লাইনটা -'তুমিও মানুষ, আমিও মানুষ, তফাৎ শুধু শিরদাঁড়ায়'
  • বিপ্লব রহমান | 9001212.30.8934.215 (*) | ২৫ জুলাই ২০১৮ ০৪:৪৮65119
  • "প্রান্তিকতা জানে এই অনুনয়ের সুরকে কিভাবে প্রতিবাদের বজ্রপাতে পরিণত করতে হয়।"

    ঠিক তাই, এভাবেই ইতিহাস লেখা হয়। লাল সালাম মেডিকেল!

    "সবার মতো আমার ও ভুল হয়েছিল, বাচ্চা গুলো কে ঠিক ভাবে চিনতে না পেরে।"

    ছাত্র আন্দোলনের কর্মীদের "বাচ্চা" বলাটা শ্রুতিকটু লেগেছে; খানিকটা বিপ্লবী শক্তির অঅবমূল্যায়ন হলো কী?যদিও লেখাটি জীবন্ত। উড়ুক।
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:

কুমুদি পুরস্কার   গুরুভারআমার গুরুবন্ধুদের জানান


  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত


পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। লাজুক না হয়ে মতামত দিন