• হরিদাস পাল  ভ্রমণ  দেখেছি পথে যেতে

  • দার্জিলিং ব্লুজ  - ভূমিকা, কৈফিয়ৎ এবং প্রস্তুতি 

    রৌহিন লেখকের গ্রাহক হোন
    ভ্রমণ | দেখেছি পথে যেতে | ০৬ এপ্রিল ২০২১ | ১৬৭ বার পঠিত | ২ জন)
  • পছন্দ
    জমিয়ে রাখুন পুনঃপ্রচার
  • বাঙালির দার্জিলিং প্রীতি সর্বজনবিদিত। এর মধ্যে একটা বিরাট ঔপনিবেশিক হ্যাং ওভার আছে নিঃসন্দেহে। ইংরেজদের প্রিয় জায়গা, কারণ এখানে নাকি তারা "লন্ডন ওয়েদার" পেত। সিমলা, দার্জিলিং, এসব জায়গার খ্যাতি সেই কারণেই। দার্জিলিং এর প্রায় সব হেরিটেজ বিল্ডিংগুলিই বৃটিশ আমলের। বাংলা লুটের টাকায় সাজানো তাদের সেকেন্ড হোম - যার ট্র‍্যাডিশন প্রায় সবটাই ইংলিশ। দোজ হু কল দেমসেলভস কালচার্ড অ্যান্ড ইয়েট হু ওয়ার মেয়ারলি রবারস - অ্যান্ড হার্ডলি কনফেসড, হার্ডলি রিগ্রীটেড।


    ব্যাপার হচ্ছে এসব জানা বোঝা সত্ত্বেও আমার একটা দার্জিলিং প্রীতি জোরদার রয়ে গেছে। তার কারণ, ছোটবেলায় দুই বছর বাবার কর্মসূত্রে ছিলাম এই শহরে। গভর্নমেন্ট হাই স্কুলে ফাইভ, সিক্স। খাদের ধারের রেলিং টা, টুং সোনাদা ঘুম পেরিয়ে। স্মৃতির শহর - বিস্মৃতিরও শহর - কারণ সেই ১৯৮৩ তে দার্জিলিং ছাড়ার পর ফিরে এসেছিলাম ২০০৫ এ - বাইশ বছর পর। তারপর আবার কেটে গেছে পনেরো বছর। হয়তো আরো যেত। কিন্তু আমার পুত্র বাদ সাধিল।


    তার বহুদিনের শখ দার্জিলিং দেখবে - তার ঠাকুর্দা, ঠাকুমার কাছে গল্প শুনেছে। ২০০৫ এ (ওর জন্মের আগের বছর) ঘুরে আসার পর ওর মা ও বলেছে গল্প আর আমিও বলেছি। ২০১৯ এ গেছিলাম ডুয়ার্স - সেবারে খুবই এনজয় করেছিল, কিন্তু দার্জিলিং সে আসবেই। আর আমাদেরও ইচ্ছেটা চাগাড় দিচ্ছিল। অতএব গতমাসে নেট ঘাঁটতে ঘাঁটতে যেই না দেখা, বড়সড় ছাড় পাওয়া যাচ্ছে হোটেলে - মার গুড় দিয়ে রুটি, ফুঁ দিয়ে চা। হোটেল বুকিং করে ফেলে ভাবলাম যাচ্ছিই যখন, আশেপাশেও একটু ঘুরে আসব না কেন? এদিকে আমার এক্সপিরিয়েন্স তো সেই মান্ধাতা আমলের - আউটডেটেড টু দি পাওয়ার ইনগিনিটি। কাজেই ফোন লাগালাম আমার এক পাহাড় বিশেষজ্ঞ ভাই কাম বন্ধু, দেবা (সঞ্জয় ভট্টাচার্য) কে। সে সাজেস্ট করল বড়া মাঙ্গওয়া আর তিনচুলে। দ্বিতীয়টা নাম শুনেছি, এখন অনেকেই যায়, প্রথমটা একেবারে শুনিনি এমন না - কিন্তু সে না শোনার মতই। যাই হোক তর্কে না গিয়ে তার ঘাড়েই চাপিয়ে দিলাম সমস্যাটা। সে অম্লানবদনে আমাকে দুই জায়গার আস্তানার খবর পাঠিয়ে দিল আর তার পাঠানো নম্বরে ফোন করে বুকিং ও হয়ে গেল। এবার বুকিং টুকিং হয়ে গেলে যাওয়া আসার ব্যবস্থাও করতেই হয় - অতএব টিকিট কাটো। যাওয়া ট্রেনে, ফেরা প্লেনে। মেঘ প্লেনে চড়েছে সেই ছোট্টবেলায় - তার এই অভিজ্ঞতাটুকুও হয়ে থাক।


    এসব ফেব্রুয়ারী মাসের ব্যাপার স্যাপার। যাত্রা তখনো একমাস দূরে। মাঝে মেঘের অ্যানুয়াল পরীক্ষা, খুশীর শুটিং, আমার কাজকম্ম। আর এসবের মাঝেই প্রহর গোনা। আসছে - আসছে - আসছে করতে করতে ফেব্রুয়ারী পেরিয়ে মার্চ। টুকিটাকি জিনিষের লিস্ট হল, সেসব প্রোকিওর করা হল, ব্যাগ গোছানো হল, একটা নতুন স্যুটকেসও কিনে ফেলা হল। তিনজনে মিলে এত লম্বা ট্যুরে বহুদিন যাইনি। এবং এইসব করতে করতেই পাঁচ তারীখ এসে গেল।


    *(পরের কিস্তি থেকে সঙ্গে ছবি থাকবে)


  • বিভাগ : ভ্রমণ | ০৬ এপ্রিল ২০২১ | ১৬৭ বার পঠিত | ২ জন)
  • পছন্দ
    জমিয়ে রাখুন গ্রাহক পুনঃপ্রচার
  • কোনোরকম কর্পোরেট ফান্ডিং ছাড়া সম্পূর্ণরূপে জনতার শ্রম ও অর্থে পরিচালিত এই নন-প্রফিট এবং স্বাধীন উদ্যোগটিকে বাঁচিয়ে রাখতে
    গুরুচণ্ডা৯-র গ্রাহক হোন
    গুরুচণ্ডা৯তে প্রকাশিত লেখাগুলি হোয়াটসঅ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে যুক্ত হোন। টেলিগ্রাম অ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলটির গ্রাহক হোন।
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • বিপ্লব রহমান | ০৬ এপ্রিল ২০২১ ২৩:৫৫104518
  • ভেরি গুড রৌহিন! ওপেনিং ইনিংস ভালোই হইছে। তারপর?  লাবিউ ইমো 

আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত


পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। আলোচনা করতে মতামত দিন