এই সাইটটি বার পঠিত
ভাটিয়ালি | টইপত্তর | বুলবুলভাজা | হরিদাস পাল | খেরোর খাতা | বই
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • পাতা :
  • প্যাটেল | 117.194.213.82 | ১২ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ০৯:২০523551
  • "তড়িঘড়ি নেহরু এবং প্যাটেল নতুন অন্ধ্র রাজ্যের ঘোষণা করেন"
     
    প্যাটেল ১৯৫০ সালে গতাসু .
     
     
  • dc | 2401:4900:1cd1:a15d:7c2b:dabf:272e:4050 | ১২ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ০৯:৫৩523557
  • হিস্টরি জিনিসটা কি বোরিং রে বাবা! :-(
  • debajyoti bhattacharyya | ১২ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ১১:৩৬523559
  • এ সমস্ত না পড়া, না জানা  তো অপরাধ!
    আপনাকে কুর্নিশ! 
  • দীপ | 42.110.147.232 | ১২ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ১১:৪৯523560
  • তা লেখক কি বলতে চাইছেন? ভারতীয় উপমহাদেশ খণ্ড খণ্ড থাকলেই ভালো হতো? যাতে ব্রিটিশদের পর আবার অন্য কেউ দখল করতে পারে?
    চমৎকার ইতিহাস জ্ঞান!
    অর্থাৎ লেখকের মতে বিসমার্ক জার্মানিকে ঐক্যবদ্ধ করে ঘোর অন্যায় করেছিলেন! 
    প্রতিভা আর চেপে রাখা যাচ্ছেনা!
  • দীপ | 42.110.147.232 | ১২ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ১১:৫৪523561
  • তা বামপন্থীরা তো এখন সেই কংগ্রেসের ল্যাজ ধরে ঝুলছেন! কেউ কংগ্রেসের সমালোচনা করলেই সে নাকি বিজেপির লোক!
     
  • দীপ | 42.110.138.92 | ১২ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ১২:১৮523563
  • কংগ্রেসের সমর্থক কোনো কালেই ন‌ই, কিন্তু একটা কথা স্বীকার করতে বাধ্য। বর্তমান ভারত যে মোটামুটি ঐক্যবদ্ধ আছে, সেটা অবশ্য‌ই কংগ্রেসের অবদান। নেহেরু ভারতকে একটা ঐক্যবদ্ধ দেশের রূপ দিয়েছিলেন, একটা গণতান্ত্রিক কাঠামো তৈরি করতে পেরেছিলেন। অবশ্য‌ই সেই গণতন্ত্রে অনেক ত্রুটিবিচ্যুতি আছে।
    কিন্তু ভারত পাকিস্তান বা আফগানিস্তানের মতো ধর্মোন্মাদ দেশে পরিণত হয়নি।
    সেটা অবশ্য‌ই নেহেরুর অবদান। এই ঐতিহাসিক সত্য স্বীকার করতে বাধ্য।
  • দীপ | 2402:3a80:1968:9196:578:5634:1232:5476 | ১২ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ১৪:৪৪523565
  • এইসময় আরো বেশকিছু ঘটনা ঘটে। দেশভাগের পর‌ও পূর্বপাকিস্তানে দাঙ্গাহাঙ্গামা চলতে থাকে। ১৯৪৯-৫০ সালে চট্টগ্রাম, বরিশাল অঞ্চলে দাঙ্গাহাঙ্গামা শুরু হয়। ফলে দলে দলে হিন্দুরা পূর্বপাকিস্তান থেকে চলে আসতে থাকেন। তীব্র প্রতিবাদ জানান বিবেকানন্দ মুখোপাধ্যায়। সংসদে সরব হন মেঘনাদ সাহা, হীরেন মুখোপাধ্যায়। আম্বেদকর এর বিরুদ্ধে প্রস্তাব এনে বলেন, এর চেয়ে জনবিনিময় করে নেওয়া অনেক বাস্তবসম্মত।
    লেখক অবশ্য এবিষয়ে কিছুই লেখেননি।
  • ধোরবা | 2405:8100:8000:5ca1::c8:64f2 | ১২ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ১৪:৫৪523566
  • ব্যাস এবার এখানে আমাশার হাগা শুরু হল। আজকাল টই খুলতে শিখেছিস ত সেখানে গিয়ে হাগতে থাক না চাড্ডিচো। ভাল টইগুলো নোংরা না করলে তোর বাপেরা পয়সা  দেয় না নিকি।
  • দীপ | 2401:4900:3bd7:7c93:18e3:a6ee:28a7:145f | ১২ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ১৪:৫৮523567
  • পোষ্য সারমেয় হাজির!
  • হে হে | 2405:8100:8000:5ca1::42e:1f5b | ১২ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ১৫:২৬523568
  • এ মালটার টইতে ত লোকে মুততেও যায় না। নিজেই কমেন করে করে ওঠায় কেউ ফিরেও দ্যাকে না laugh
    কি আর করবে লাথখোর ইদিক সিদিক নেদে বেড়ায়।
  • এলেবেলে | ১২ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ১৭:০২523570
  • // নেহরু ছিলেন ঘোষিত বামপন্থী। এতটাই, যে, একটা সময় সুভাষের চেয়েও বেশি বাম দিকে ধরা হত তাঁকে।//
     
    আহা, সত্যিই যদি এমনটা হত! কিন্তু এই নেহরু-সুভাষকে বামপন্থী হিসেবে চালানোর লব্জটা আর কদ্দিন ধরে চলবে? প্রথম জন ভারত শাসন আইনকে 'বন্ডেজ অফ স্লেভারি' বলে-টলে ১৯৩৭-এর নির্বাচনে বীর বিক্রমে ঝাঁপিয়ে পড়েন! তিনি নিজেই লিখে গেছেন যে কংগ্রেস যাতে ১৯৩৫-এর ভারত শাসনের আইনের প্রাদেশিক অংশকে মেনে নেয়, সেই কারণে গান্ধী তাঁকে ১৯৩৬ সালে কংগ্রেস সভাপতি করেছিলেন। আর আইনটা যখন পার্লামেন্টে লেখা হচ্ছিল তখন বিড়লা (গান্ধীর অনুমতি নিয়ে) ব্রিটিশ মন্ত্রীদের জানান যে, কংগ্রেস এই আইনকে কার্যকরী করবে। কী চমৎকার বামপন্থা মাইরি!
     
    দ্বিতীয় জন আরও এক কাঠি সরেস! ১৯৩৮ সালে তিনি যখন কংগ্রেস সভাপতি, তখন তাঁর নাকের ডগা দিয়ে পাস হয়ে যায় ট্রেড ডিসপিউটস অ্যাক্ট!!
  • এলেবেলে | 202.142.71.17 | ১২ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ১৮:৩০523576
  • 'বন্ডেজ অফ স্লেভারি' 'চার্টার অফ বন্ডেজ'। 
  • guru | 103.170.182.50 | ১২ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ২০:১৩523581
  • @দীপ 
     
    "ভারতীয় উপমহাদেশ খণ্ড খণ্ড থাকলেই ভালো হতো? যাতে ব্রিটিশদের পর আবার অন্য কেউ দখল করতে পারে?"
     
    ১৯৪৭ সালে ভারত ভাগ হয়নি পাঞ্জাব আর বাংলা খন্ড খণ্ড হয়েছিল | তা পাঞ্জাব তো এখনো  খণ্ড খণ্ড হয়েই আছে |
     
    ব্রিটিশদের পরে মাড়োয়ারি আর গুজরাটি ব্যবসায়ীরাই তো আবার দখল করেছে | লেখক তো ঠিক কথাই বলেছেন |
     
    তাহলে ব্রিটিশদের হাত থেকে যদি মাড়োয়ারি আর গুজরাটি ব্যবসায়ীরাই ক্ষমতা দখল করে তাহলে স্বাধীনতা এলো কোথা থেকে ? একজন প্রভুর বদলে আরেকজন প্রভু | তো এটাই কি আপনারা যারা "অখণ্ড ভারত" চান তাদের ইচ্ছা ?
  • এলেবেলে | 202.142.71.17 | ১২ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ২০:১৭523582
  • //১৯৪৭ সালে ভারত ভাগ হয়নি পাঞ্জাব আর বাংলা খন্ড খণ্ড হয়েছিল | তা পাঞ্জাব তো এখনো  খণ্ড খণ্ড হয়েই আছে |//
     
    গুরু, অসমকে বাদ দিচ্ছেন কেন? বিশেষত যে অসমের গোপীনাথ বরদলৈ-র কারণে গোটা ক্যাবিনেট মিশনটাই বানচাল হয়ে যায় এবং দেশভাগ আবশ্যক হয়ে ওঠে?
  • দীপ | 42.110.139.5 | ১২ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ২০:৫২523585
  • পণ্ডিতদের কথা শুনে মনে হচ্ছে বাংলা আর পাঞ্জাব বোধহয় ভারতীয় উপমহাদেশের বাইরে।
  • হেহে | 65.49.68.96 | ১২ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ২১:০১523586
  • দীপচাড্ডির হোয়া ইউনির সিলেবাসের বাইরে প্রশ্ন পড়েছে।  
  • দীপ | 42.110.139.5 | ১২ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ২১:১১523587
  • গান্ধী, সুভাষচন্দ্র, মৌলানা আজাদ, জয়প্রকাশ নারায়ণ প্রমুখ ব্যক্তিত্ব অবিভক্ত ভারতের কথাই সবসময় ভেবেছেন। দেশভাগ কখনোই তাঁরা চাননি। 
    তা আপনারা ঠিক কি চাইছেন বলুন তো?
  • দীপ | 42.110.139.5 | ১২ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ২১:১৪523588
  • কংগ্রেসের অসংখ্য ত্রুটিবিচ্যুতি আছে, কোনো সন্দেহ নেই। কিন্তু কংগ্রেস মোটামুটি একটা গণতান্ত্রিক কাঠামো খাড়া করতে পেরেছে, ভারতকে ধর্মোন্মাদের দেশে পরিণত করতে দেয়নি।
    ইতিহাস নিয়ে আলোচনা করলে এই কথাগুলো বলতে হবে।
     
  • দীপ | 42.110.139.5 | ১২ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ২১:১৯523589
  • মাড়োয়ারী ব্যবসায়ীরা একসময় কংগ্রেসকে সাহায্য করেছে, এখন বিজেপিকে সাহায্য করেছে। কিন্তু তারপর‌ও দক্ষিণ ভারত নিজস্ব ব্যবসা তৈরি করতে পেরেছে, যেটা বাঙালী আস্তে আস্তে করছে। দেশভাগ বাঙালীর অর্থনীতিকে চূড়ান্ত আঘাত করেছে, তারজন্য দেরী হচ্ছে।
  • হোয়া | 64.62.219.16 | ১২ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ২১:২০523590
  • এই টইটা গেল। দীপশুয়োর তেড়ে নাদি ফেলতে শুরু করেছে।  
  • দীপ | 42.110.139.5 | ১২ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ২১:২৪523591
  • এখানে মাড়োয়ারী ব্যবসায়ীদের নিয়ে অজস্র কান্নাকাটি হচ্ছে, কিন্তু পূর্বপাকিস্তান থেকে এক কোটিরও বেশী মানুষ চলে আসতে বাধ্য হয়েছেন। তা নিয়ে কোনো আলোচনা অবশ্য কাউকে করতে দেখছি না! 
    সবাই চুপ! 
    ঋত্বিক কি সাধে বলতেন অনাদ্যন্ত শুয়োরের বাচ্চা!
  • এলেবেলে | ১২ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ২১:২৭523592
  • শখের ইতিহাস চর্চাকারীদের দু-চারটে তথ্য জেনে রাখা ভালো। প্রথম তথ্যটা হল, তৎকালীন বার্মা ভারতীয় উপমহাদেশেরই অঙ্গ ছিল যা ভারতবর্ষ থেকে খণ্ডিত হয়। এর থেকেও গুরুত্বপূর্ণ দ্বিতীয় তথ্যটি হল অবিভক্ত বাংলা, পাঞ্জাব ও অসম ভারতীয় উপমহাদেশের অঙ্গ ছিল। যেমন ছিল সিন্ধু কিংবা উত্তর-পশ্চিম সীমান্ত প্রদেশ। পশ্চিমবঙ্গ এবং পূর্ব পাঞ্জাব আসলে স্বাধীন ভারতের অংশ, ভারতীয় উপমহাদেশের নয়। 
  • দীপ | 42.110.139.5 | ১২ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ২১:৩০523593
  • অ, স্বাধীন‌ ভারত ভারতীয় উপমহাদেশের অংশ নয়! 
    তা কোথাকার? আফ্রিকার না ইউরোপের?
  • এলেবেলে | ১২ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ২১:৩৯523595
  • তাহলে পাকিস্তান কিংবা বাংলাদেশ এমনকি মায়ানমারও ভারতীয় উপমহাদেশের অংশ হওয়া উচিত। এতক্ষণ সে সম্পর্কে একটি শব্দও দেখা যায়নি! বরং পূর্ব পাকিস্তান নিয়ে কাঁদুনি দেখা গেছে!!
  • দীপ | 42.110.139.5 | ১২ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ২১:৪৪523596
  • হুম, পূর্ব পাকিস্তানের উদ্বাস্তুদের নিয়ে কথা বলা মানে কাঁদুনি গাওয়া! 
    এক কোটিরও বেশি মানুষ উদ্বাস্তু হয়েছেন। আর তথাকথিত শিক্ষিতরা সে নিয়ে চুপ হয়ে থাকে! তা নিয়ে আলোচনা করলে কাঁদুনি গাওয়া হয়! 
    গত শতাব্দীর অন্যতম ভয়াবহ ঘটনা দেশভাগ ও উদ্বাস্তু সমস্যা! 
    আর তা নিয়ে আলোচনা করলে অনেকের সমস্যা হয়!
     
  • দীপ | 42.110.139.5 | ১২ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ২১:৪৯523597
  • guru | 2409:4060:e99:4647:c4f7:de72:b93:44cd | ১২ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ২১:৪৯523598
  • ভারতীয় উপমহাদেশ ?? সেটা কি ? অখণ্ড ভারতের ভায়রাভাই নাকি ?  দক্ষিণ এশিয়া হচ্ছে সঠিক শব্দ l আমি তো চীনকেও দক্ষিণ এশিয়ার অংশ বলে মনে করি l
  • দীপ | 42.110.139.5 | ১২ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ২১:৫০523599
  • এগুলোর জন্য কে দায়ী, পণ্ডিত মহোদয়? 
    নেহেরু না মাড়োয়ারী ব্যবসায়ী?
  • এলেবেলে | ১২ সেপ্টেম্বর ২০২৩ ২১:৫২523600
  • মূল আলোচনাটার প্রেক্ষিত কংগ্রেসের একচ্ছত্র ক্ষমতা দখলের লোভ, স্বাধীনতার আগে গুজরাতি-মাড়োয়ারি বানিয়া গোষ্ঠীর বশংবদ পুতুলে পরিণত হওয়া (ভারত শাসন আইন কংগ্রেস মেনে নেবে এ আশ্বাস দিচ্ছেন এক পুঁজিপতি যাঁঁর সঙ্গে বাপুর বিশাল আশনাই) এবং বিধান রায় যে সেই মুৎসুদ্দি গোষ্ঠীর পুতুল সে ব্যাপারে ডায়াকভের মন্তব্য। কাজেই সব জায়গায় গরুর রচনা গুঁজে লাভ নেই।
     
    আর বাঙালি উদ্বাস্তুদের পুনর্বাসন নিয়ে কংগ্রেস কী বিশাল বাঙি ফাটিয়েছিল, সেই নিয়ে নেহরুকে লেখা বিধান রায়ের চিঠিপত্তর আছে। খুঁজলে নেটেই পাওয়া যায়।
  • পাতা :
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]


মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত
পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। বুদ্ধি করে মতামত দিন