• হরিদাস পাল  আলোচনা  বিবিধ

  • আইসিইউতে অর্থনীতি

    কুশান গুপ্ত লেখকের গ্রাহক হোন
    আলোচনা | বিবিধ | ১৭ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২১৯ বার পঠিত
  • পছন্দ
    জমিয়ে রাখুন পুনঃপ্রচার
  • বন্ধুরা, রাগ করবেন না, এমন উত্তাল সময়ে ঠাট্টা করছি ভেবে। যথেষ্ট চিন্তার মধ্যেও, টেনশনের মধ্যেও, চিরকাল ঠাট্টা করতে করতেই বড়ো হয়েছি। তাই এই দুঃসময়ে এই পোস্ট দেখে মনে হবে ঠাট্টা। কিন্তু পড়ুন, যদি ধৈর্যে কুলোয়। ব্যাপারটা হলো– অনেকদিন অর্থমন্ত্রকের সংবাদ পাচ্ছি না। নানা বিশিষ্ট জনের লেখা, ট্যুইট ইত্যাদি পড়ে জানতে পারা যাচ্ছে, তিনি, অর্থাৎ এই ভারতীয় অর্থনীতি, এখন নাকি আই সিএইউ তে। ফলে দুশ্চিন্তা ব্যাপারটা বেড়ে গেলো।

    ফলে কেসটা ঠাট্টা নয়। আমরা এক সময়ে অর্থমন্ত্রক বলতে একটা জটিল ব্যাপার বুঝতাম―ফিসকাল ডেফিসিট, জিডিপি, যোজনা কমিশন, রেভিনিউ জেনারেশন–কতশত হযবরল। প্রতিবারে বাজেট অধিবেশনের পরে ছোটবেলায় ভাবতাম ঘাটতিশূন্য বাজেটের সুবিধে অসুবিধে, একদিন সূর্যের ভোরে, নিশ্চয় বুঝে নেবো, একদিন। জলবৎ তরল করে বুঝে নেব অর্থনীতির জটিল সূত্রগুলি।

    যাই হোক, এই সাতচল্লিশ বছর বয়সে এসে দেখলাম, অর্থনীতি ব্যাপারটা অতি সহজ এবং সোজা। প্রায় আবোল তাবোল লেভেলের মজাদারও। যেমন ধরুন, সেই রোদঝলমল যুগের রোববারে যেন ফিরিওলা হেঁকে যাচ্ছে, টিনভাঙ্গা আ আ লোহা ভাঙা আ আ। ফিরিওলা কিনতে ইচ্ছুক। আপনি যদি বেচতে ইচ্ছুক হোন ঘটে গেল অর্থনৈতিক আশু-যোগাযোগ। সে দুটো পয়সা পেলো। আপনিও বাড়ির পুরনো লোহালক্কড় বেচে বাঁচলেন। এইভাবেই পুরনো বাতিল কাগজ বেচেও আপনার অর্থনীতি কিছুটা হলেও চাঙ্গা হয়।

    এখনকার শ্রীমতী অর্থমন্ত্রীও তেমনি। মাঝে মধ্যে প্রেস কনফারেন্স করেন। মিডিয়ার সামনে জাতির উদ্দেশ্যে জানান সামনে কী কী বাসন কোসন ও ঘটি বাটি বিক্রি হবে। কেউ কিছু প্রশ্ন করলে হেবি চটে যান। বাসন কোসন অর্থাৎ, এয়ার ইন্ডিয়া বিক্রি হবে, বিপিসিএল বিক্রি হবে 2020 র মার্চের মধ্যে। একলক্ষ কোটি টাকার ওপর আয় হবে। অবশ্য কে কোন ব্যাংক থেকে সেসব ঝেড়ে নিয়ে কবে বৈধ ভিসা নিয়ে বিজনেস ক্লাসের টিকিট কেটে, এয়ার হোস্টেসের হাত থেকে শ্যাম্পেন নিয়ে খেতে খেতে, কোন সাত সাগর তেরো নদীর পারে পালাবেন কেউ জানতে পারবে না। শ্যামল মিত্রও না। উত্তমকুমারও না।

    যাই হোক বাধ্য হয়ে বাড়ির এটা সেটা বেচে দেশের সর্বোচ্চ মান্যগণ্য ব্যক্তি যখন কাঁড়ি কাঁড়ি টাকার শ্রাদ্ধ করে এই দেশ ওই দেশ সফর করে বেড়ান তখন সাধারণ রিক্সাওয়ালার মত বলতে ইচ্ছে করে–রাজার ব্যাটা কেরাসিনতেলঅলা। নীরেন চক্কত্তি হলে রাজা তোর কাপড় কোথায় বলতেন নিশ্চিত।

    তাছাড়া দেখুন, এই যে কৃষকের আত্মহত্যা, চাষি ফসলের দাম পাচ্ছে না, পেঁয়াজের দাম কেন বাড়ছে, এইসব প্রশ্নেও আমরা শ্রীমতী অর্থমন্ত্রীর থেকে যেমন যেমন জবাব পাই তাতেও বুঝেছি অর্থনীতি আসলে মায়াবী সারল্যে ভরা। মানে, যাকে বলে, সরল অর্থনীতি। অর্থনীতি সবাই পড়ো― গোছের। মাননীয়া পেঁয়াজের লাগামছাড়া মূল্যবৃদ্ধি ইস্যুতে সাফসাফ জানিয়েছেন―'আমি বা আমার পরিবার কেউ কোনোদিন পেঁয়াজ খাই নি। ফলে পেঁয়াজের ব্যাপারটা আমার কাছে ইস্যু নয়।' এমন অপার সরলতার সামনে দাঁড়িয়ে অর্থনীতির নোবেল প্রাপকদের, কুটিল অর্থনীতির জটিল সমস্ত বিষয় কেমন অনর্থক, অপ্রাসঙ্গিক মনে হতে থাকে। এমন অপার্থিব, মায়াময় সারল্য ডেভিড ধাওয়ান নির্মিত গোবিন্দার সঙ্গেই বরং তুলনীয় হতে পারতো।

    অনেকেই বলছে অর্থনীতি আই সি ইউ তে শুয়ে আছে। ক্যাব নিয়ে এত তড়িঘড়ির মূল কারণ কী তবে এটাই, কেননা গন্ধটা তেমনই সন্দেহজনক লাগলো। কী কী বিক্রি আছে তার ফর্দ মাননীয়ার কাছে আছে। কিন্তু, এখন সেগুলো ব্যাকগ্রাউন্ডে। ক্যাব পেশ করলেই দেশ জুড়ে অস্থিরতা হবে শাসকদল ভালো করেই জানত। কৃষকদের ইস্যু, অর্থনৈতিক ইস্যুগুলি নিয়ে এখন আমরা ভাবছি না। কেননা ক্যাব ইস্যু বড়ো।

    আর ওনারা মস্তিতে―সংখ্যা আমাদের আছে, গরিষ্ঠতা। আরো আরো আইন পাশ করব। ক্যাবের পরে এনপিআর, তারপরে এনার্সি। তোরা নিজেদের অধিকার নিয়ে লড়ে মর, মাঝে মধ্যে পুলিশ দিয়ে ঠেঙ্গাব, মিলিটারি দিয়ে গুলি মারব, কারফিউ করে দেব, যত্রতত্র ইন্টারনেট বন্ধ করে দেব, তারপর তোরা ফেসবুকে গরম গরম পোস্ট দে, আমাদের আইটি সেল তার যথোচিত জবাব দেবে। বিভাজন চাই, বিভাজন। দাঙ্গা লেগে গেলেও আমাদেরই পক্ষে পয়েন্ট যাবে।

    ততোদিন আইসিইউতে বেচারা মুখেনল-অর্থনীতি ঘুমোক।
  • বিভাগ : আলোচনা | ১৭ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২১৯ বার পঠিত
  • পছন্দ
    জমিয়ে রাখুন গ্রাহক পুনঃপ্রচার
আরও পড়ুন
গল্প - Mahua Dasgupta
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • Apu | 237812.68.674512.169 (*) | ১৭ ডিসেম্বর ২০১৯ ০৮:৪২50949
  • রেলের বেসরকারীকরণ ।

    ১৩ লাখ কর্মী র মধ্যে ৩ লাখ কর্মী যাদের Pink Slip কাটা হয়ে গেছে।
    ক্রাইটেরিয়া হল ২০ বছর সার্ভিস বা ৫৫ বছর বয়েস যেটা মিট করবে
আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত


পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। দ্বিধা না করে প্রতিক্রিয়া দিন