এই সাইটটি বার পঠিত
ভাটিয়ালি | টইপত্তর | বুলবুলভাজা | হরিদাস পাল | খেরোর খাতা | বই
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • যোষিতা | ১৭ জানুয়ারি ২০২৪ ০৩:২৮527686
  • সাদেক,
    এই ছবিগুলোও কি আপনার বন্ধুর আঁকা?
    গুণি মানুষ ছিলেন।
  • Muhammad Sadequzzaman Sharif | ১৭ জানুয়ারি ২০২৪ ১০:৩৪527694
  • হ্যাঁ দিদি, ওর আঁকা এবং লেখা। খুব খুব গুণী ছিল। রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ে চারুকলায় পড়ত। শেষ বর্ষে এসে দুম করে মারা যায় ও।  এগুলা আঁকছে ২০১৩ সালে, মানে এইটা প্রকাশিত হয়েছিল ২০১৩ সালের জুনে আর ও মারা যায় সেপ্টেম্বরের ২৫ তারিখ। যখন প্রযুক্তির আধুনিকতা আমাদের হাতে আসেনি। ওর একটা মোটামুটি কম্পিউটার ছিল, বেসিক সফটওয়ার ছিল। এগুলা দিয়াই ও ওই সময় অনলাইনে বিভিন্ন জায়গায় লোগো করে ডলার কামাই করত। আমরা ওই টাকায় ফুর্তি করতাম। ছিল ভাস্কর কিন্তু শিল্পের সব মাধ্যমে অবাদ বিচরণ ছিল ওর। পেইন্টিং যখন করত তখন ওইটাতেই ও সেরা, ওয়াটার কালারে ও সেরা, ওয়েল পেইন্টিং- এ ও সেরা। আমি ওর ভার্সিটিতে ঘুরতে গিয়ে দেখছি সবাই, সিনিয়র জুনিয়র সবাই ওর কাছে আসত নিজের কাজ দেখানোর জন্য, ও কি বলে শোনার জন্য। ওর মৃত্যুর পরে কয়েকবার গেছি তখন শুনছি ওর শিক্ষকরাও একই কাজ করত। ওর কাজ গুলা আনার জন্য শেষবার যখন যাই আমি, ২০১৫/১৬ হবে হয়ত, তখনও রাজশাহী চারুকলার শিক্ষকরা আমাকে বলছে যে আমরা এখন যখন বড় কোন কাজের দায়িত্ব পাই, যেমন বিশ্ববিদ্যালয়ের গেটে বিশাল বড় একটা মুরাল বানানো হবে মুক্তিযুদ্ধের উপরে, কে করবে? তখনই মনে হয় যে আজকে রনি থাকলে চিন্তা থাকত না একাই নামিয়ে ফেলত এই কাজ!  ওর যত সম্ভাবনা ছিল তার ছিটেফোঁটাও দিয়ে যেতে পারেনি। এইটাই সবচেয়ে বেশি আফসোসের। 
  • guru | 103.211.20.55 | ১৭ জানুয়ারি ২০২৪ ১২:৩৮527698
  • অনেক ধন্যবাদ সাদেক | খুবই দুঃখজনক ব্যাপার | এতো অল্প বয়সে এতো তাড়াতাড়ি চলে গেলেন | কি হয়েছিল ? যদি কিছু মনে না করেন জানানো যাবে কি ?
  • Muhammad Sadequzzaman Sharif | ১৮ জানুয়ারি ২০২৪ ০০:০২527714
  • guru,  একদম দুম করেই। কী যে হল আমরা বুঝতেই পারিনি। কয়েকদিন ধরে বলতেছিল যে ওর বুকে ব্যথা করছে। ছাত্র মানুষ, সবাই এমন কী ওর নিজের আপন মামা যিনি শেরপুরের বড় ডাক্তার তিনি পর্যন্ত ওকে ফোন গ্যাসের ওষুধ খাওয়ার পরামর্শ দিয়েছিলেন। আগের দিন রাতেও বলল রাজশাহীর একজন ডাক্তারের অ্যাপয়েন্টমেন্ট নিয়েছে, তাঁকে দেখাবে। সকালে বলল একটু ভাল লাগছে একটা পরীক্ষা আছে দিয়া আসি। আমার সাথে ওইটাই শেষ কথা। পরীক্ষা শেষ করে রাজশাহী চারুকলার প্রাঙ্গণে ঢলে পরে যায় ও। সবাই ধরে রাজশাহী মেডিকেলে নিয়ে যায়। শ্বাস নিতে পারছে এমন বলতেছিল শুধু। ডাক্তাররা অক্সিজেন দেওয়ার চেষ্টা করে। দুই একবার শ্বাস নেয় তারপরেই শেষ। আমরা এখনও অজানাতেই আছি যে আসলে ওর কী হয়েছিল। আমাদের এদিকে মারা যাওয়ার পরে কাটাকাটি না করার ব্যাপারে উৎসাহ দেওয়া হয়। ফলে আর জানা যায় না আসলে কী হয়েছিল। আমি দুপুর একটার দিকে খবর পাই অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে নিয়ে যাচ্ছে ওকে। একটু পরেই আবার ফোন নাই যে ও আর নাই! 
  • guru | 115.187.51.154 | ১৮ জানুয়ারি ২০২৪ ১৪:২৭527729
  • সাদেক খুবই দুঃখজনক ব্যাপার | যদিও বয়েস খুবই কম মনে হচ্ছে হয়তো হার্টের সমস্যা ছিল ওনার | আসলে এরকম সৃষ্টিশীল মানুষেরা খুবই আবেগীও হন | উনি কি খুব রেগে যেতেন হঠাৎ করেই ? তা ওনার বাড়ির লোকেরা কি মৃত্যুর চব্বিশ ঘন্টার পরেই দাফন করে দেন ? 
  • r2h | 192.139.20.199 | ১৮ জানুয়ারি ২০২৪ ২০:৪৫527742
  • শরীফ,
    রনির প্রসঙ্গ অনেক বার পড়েছি, বুঝতে পারতাম কোন গভীর দুঃখময় বিষয়, না জেনে আঘাত দিয়ে ফেলার ভয়ে জিজ্ঞেস করিনি কখনো।

    কিছু বলার নেই, এসবের কোন সান্ত্বনা হয় না।
    রনি তার কাজে, বন্ধুদের, গুণগ্রাহীদের স্মৃতিতে বেঁচে থাকুক চিরকাল।
    কমিকসটা দেওয়ার জন্য ধন্যবাদ জানাই। কী সুন্দর আঁকা, রঙের ব্যবহার।
    কী অপূরনীয় ক্ষতি...
  • kk | 2607:fb91:87a:52eb:184a:8a01:dfbc:7879 | ১৯ জানুয়ারি ২০২৪ ০১:১৮527749
  • খুব ভালো লেগেছে আমার এই কমিকস। রনিকে আমি আমার বন্ধু করে নিলাম (আর তার জন্য তাঁকে এখানে প্রেজেন্ট থাকতে হবেনা)। তার চিহ্ণ হিসেবে আমি ঐ "দেখো দিকিন" কথাটা নিজের লব্জে ঢুকিয়ে নিলাম।
  • | ১৯ জানুয়ারি ২০২৪ ১০:২৪527757
  • খুবই ভাল লাগল এই কমিকস। রণিরকথাপড়েছি মাঝে মাঝেই আপনার লেখায় আন্দাজ করতাম কিছু একটা দু:খজনক অধ্যায়। ইশ! জীবনেরকি অপচয়!  
  • রমিত চট্টোপাধ্যায় | ১৯ জানুয়ারি ২০২৪ ১২:০৬527765
  • দারুন লাগলো কমিক্সটা। সাদেকভাইকে অনেক অনেক ধন্যবাদ আমাদের একবার দেখার সুযোগ করে দেওয়ার জন্য।  তারারা এরকম অকালে চলে গেলে ভিতরটা কেমন ফাঁকাটে হয়ে যায়।
  • Muhammad Sadequzzaman Sharif | ১৯ জানুয়ারি ২০২৪ ১৮:৫৬527773
  • ধন্যবাদ সবাইকে। আমার জীবনে আসলে রনির প্রভাব খুব বেশি। ওর চলে যাওয়াটা আমার জন্য খুব খুব বেশি কষ্টকর ছিল। দুইজনের মতের মিল, পছন্দের মিল এত বেশি ছিল যে এখন আমি নিজেই অবাক হই। ওর জিনিসপত্র আনার জন্য আমি রাজশাহী গিয়েছিলাম। তখন দেখি আমার জুতা আমার শার্ট টি শার্ট অনেক গুলা। ঠিক যেমন ওর কতগুলা আমার কাছে। এইটা বললাম সম্পর্কটা বুঝানোর জন্য। 
    যাই হোক, এই কমিক্সটা লেখার আগে আমি আর ও দুইজনে প্ল্যান করতেছিলাম যে আমি লিখব আর ও আঁকাবে। মুশকিল হচ্ছে শিশুতোষ কিছুই আমার মাথায় আসছিল না। জটিল সব গল্প আসে, ভৌতিক গা ছমছম ইত্যাদি। আমার নিজেরই পছন্দ হয় নাই। ও বলতেছিল একদম সহজ সরল কিছু। এরপরে ও এইটা নিজেই লিখে বানাল। আমি দেখে তো অবাক! 
    ওর রঙের সেন্স দারুণ ছিল। আঁকার হাত তো ছিলই। ওর স্কেচবুক গুলা যদি কোনদিন স্ক্যান করতে পারি তাহলে হয়ত সবাই দেখতে পারত যে ও কত দুর্দান্ত ছিল। মুশকিল হচ্ছে ওর পরিবার সব ট্রাংকে তালা মেরে রেখে দিছে। আগুনে পুড়িয়ে ফেলার প্ল্যান ছিল, সেই তুলনায় ট্র্যাঙ্কে আছে এইটা অনেক বড় শান্তনা। ও যাওয়ার পরে ওই পরিবারটাই ইউ ট্রান নিয়েছে। সবাই কট্টর হুজুর হয়ে গেছে। এখন বিশ্বাসই হয় না এই পরিবারের ছেলে চারুকলায় পড়তে গিয়েছিল। 
     
    kk, দেখো দিকিন আমারও পছন্দের ডায়লগ। আমার কাছে আরেকটা দারুণ লাগে, ফিরিন গ্রামে ঢুকেই যখন কাওকে না পেয়ে ডাক দেয়! হ্যালো, কেউ কি আছেন? ইজ অ্যানিবডি হেয়ার? কোয়ি হে কি নেহি?! এইটা পড়লেই আমি যেন ওর গলার স্বর শুনতে পাই, ওইটা এত ওর মত যে মনে হয় ওই ডাক দিচ্ছে অমন করে। 
    ওর জগৎবিখ্যাত হিউমারটাকে মিস করি। 
    ধন্যবাদ সবাইকে।  
     
  • aranya | 2601:84:4600:5410:84e6:7055:4c91:66a | ২০ জানুয়ারি ২০২৪ ০৭:২০527797
  • সুন্দর ছবিতে গল্প। 'দেখো দিকিনি' ভাল, তাছাড়া শরীফ যেটা বললে, গ্রামে কাউকে দেখতে না পেয়ে ফিরিনের ডাক গুলো, বিশেষতঃ হিন্দীতে 'আরে কোয়ি হ্যায় কি নেহি ' :-)
     
    খুবই প্রতিভাবান একটি ছেলেকে আমরা হারিয়েছি 
  • aranya | 2601:84:4600:5410:84e6:7055:4c91:66a | ২০ জানুয়ারি ২০২৪ ০৮:২৪527799
  • ছবিগুলো জাস্ট টু গুড 
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]


মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত
পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। আদরবাসামূলক মতামত দিন