• বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়।
    বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে।
  • লাভ-জিহাদ

    দময়ন্তী
    বিভাগ : টাটকা খবর | ৩১ অক্টোবর ২০০৯ | ৩১ বার পঠিত
  • সারাদিন নেটের আনাচে-কানাচে ঘুরে অনেক খবরই তো অনেকে কুড়োই। চমকপ্রদ বা গুরুত্বপূর্ণ কোনো খবরের সন্ধান পেলে সেগুলো ভাটিয়া৯তে বা টইপত্তরে শুধুমাত্র লিংক না দিয়ে নিজেরা ওই নিয়ে দুকলম লিখে ফেলুন। লেখা হয়ে গেলে পাঠিয়ে দিন [email protected] এ। খবর পেলেই আপলোড করা হবে। সপ্তাহের মাঝখানেও।


    সন্ত্রাসের বিভিন্ন মুখ ও তার কার্যকারণ নিয়ে লেখালেখির কোন কমতি নেই, কমতি নেই আতঙ্ক ও ঘৃণারও। এরই অঙ্গ হিসেবে গত ক'বছরে আমাদের দৈনন্দিন জীবনে ঢুকে পড়েছে "জিহাদ' কিম্বা "ফিদায়েঁ' জাতীয় কিছু শব্দ। এই শব্দমালায় নতুন সংযোজন হল "লাভ-জিহাদ' অথবা "রোমিও-জিহাদ'। "জিহাদ' শব্দ থেকেই নিশ্চয় বোঝা যাচ্ছে যে এই শব্দযুগলের সাথে কোনওভাবে যুক্ত আছে একটি বিশেষ ধর্ম, মুসলিম ধর্ম। হ্যাঁ আবারও কাঠগড়ায় মুসলিম ধর্ম, এবার অভিযোগ "লাভ-জিহাদ'এর।

    বিভিন্ন ধর্মাবলম্বী কট্টর দলগুলি একে অপরের বিরুদ্ধে ধর্মান্তরকরণের অভিযোগ করেই থাকে, নতুন কিছু নয়। সংখ্যাগুরু ধর্মান্ধ দলগুলি সংখ্যালঘুদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করলে তা মিডিয়াতেও বেশী গুরুত্ব সহকারে প্রচার করা হয়, এও নতুন কিছু নয়। বিশ্বহিন্দু পরিষদ, শ্রীরামসেনা ইত্যাদিরা বহুদিন ধরেই বলে আসছে যে মুসলমানরা জোর করে ও খ্রীশ্চানরা টাকা ছড়িয়ে, সুযোগসুবিধা দিয়ে বহু হিন্দুকে ধর্মান্তরিত করে চলেছে। মাঝে মাঝে ঘটা করে কিছু লোককে হিন্দুধর্মে পুন:ধর্মান্তরকরণের অনুষ্ঠানের খবরও এরা প্রচার করে থাকে। অবশ্য হিন্দুধর্মের জাতিভেদপ্রথা নিয়ে এরা বিশেষ উচ্চবাচ্য করে না। তা সে যাই হোক, এই লাভ-জিহাদ নিয়ে হিন্দু ও খ্রীশ্চান দুই ধর্মের লোকজনই হঠাৎ একযোগে মুসলিম ধর্মের বিরুদ্ধে যথেষ্ট উচ্চকন্ঠে অভিযোগ জানাচ্ছে।

    হিন্দু ও খ্রীশ্চান সংগঠনগুলির অভিযোগের মূল বক্তব্য হল মুসলিম যুবকেরা হাজারে হাজারে হিন্দু ও খ্রীশ্চান মেয়েদের প্রেমের ফাঁদে ফেলে বিয়ে ও ধর্মান্তরকরণ করছে এবং এই সবই নাকি করাচ্ছে "লাভ-জিহাদ' নামে একটি মৌলবাদি মুসলিম সংগঠন। কেরালা ক্যাথ্‌লিক বিশপস কাউন্সিলস কমিশনের সেক্রেটারির বক্তব্য অনুযায়ী ২০০৫ সাল থেকে প্রায় ৪০০০ মেয়ে মুসলিম ধর্মে ধর্মান্তরিত হয়ে বিয়ে করেছে। মজা হল ইনি কিন্তু এই তথ্যের কোন উৎস জানান নি। শুধু বলেছেন "বিশেষ নির্ভরযোগ্য সূত্রে পাওয়া খবর'। শ্রীরামসেনাও কি আর পিছিয়ে থাকে? তারা আরও একটু এগিয়ে গিয়ে বলেছে হাজারে হাজারে মেয়েকে শুধু ধর্মান্তরিতই করা হয় নি, এই ধর্মান্তরিত মেয়েদের অন্তর্ঘাতমূলক কাজকর্মের ট্রেনিংও দেওয়া হচ্ছে। যথারীতি এদের তথ্যেরও উৎস জানা যায় নি, সেও "বিশেষ নির্ভরযোগ্য সূত্র' থেকেই পাওয়া।

    সম্প্রতি কর্ণাটকের এক মেয়ের বাবা হেবিয়াস কর্পাস ফাইল করেন যখন তাঁর মেয়ে ধর্মান্তরিত হয়ে এক মুসলিম যুবককে বিয়ে করে। মেয়েটি আদালতে জানায় সে স্বেচ্ছায় ভালবেসে ধর্মান্তরিত হয়েছে। আদালত কিন্তু এটিকে "জাতীয় নিরাপত্তার পরিপন্থী' ঘোষণা করে বিষয়টি নিয়ে রাজ্য সরকারকে বিস্তারিত তদন্ত করে দেখতে আদেশ দেন। কেরালা ও কর্ণাটক পুলিশ তদন্ত করে জানায় "লাভ-জিহাদ' বা "রোমিও-জিহাদ' নামে কোন সংগঠনের অস্তিত্বের কোন প্রমাণ তারা পায় নি, যদিও কেরালা পুলিশের বক্তব্য অনুযায়ী মুসলিম যুবকেরা অন্য ধর্মের মেয়েদের ফুসলে বিয়ে করার জন্য গভীর চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে। কেরালা ক্যাথলিক বিশপস কাউন্সিল লাভ-জিহাদ প্রতিরোধের উপায় নিয়ে একটি নির্দেশিকাও প্রকাশ করেছেন। অভিভাবক ও স্কুল কর্তৃপক্ষকে মেয়েদের উপর কড়া নজর রাখতে বলার সাথে সাথে মেয়েদের মোবাইল ব্যবহারের উপরে বাধানিষেধ আরোপের উপরও জোর দিয়েছেন। যে ভাবে চলছে, তাতে আশা করা যায় শীঘ্রই এঁরা মেয়েদের স্কুল যাওয়া বন্ধ করে ঘরে থাকার উপরেই জোর দেবেন।

    ভারতে শত শত বছর ধরে হিন্দুরা বৌদ্ধ, জৈন, শিখ, মুসলিম কিম্বা খ্রীশ্চান হয়ে এসেছে। কেউ হয়েছে অপর ধর্মটিকে ভালবেসে, বিশ্বাস করে, কেউ বা আবার জাতিভেদপ্রথা ও তজ্জনিত কুৎসিৎ ঘৃণা ও অত্যাচার থেকে বাঁচবার জন্য। এক ধর্ম অপরের বিরুদ্ধে "জোর করে ধর্মান্তরকরণ'এর অভিযোগ এনেছে, সাম্প্রতিক অতীতে মুসলিম কিম্বা খ্রীশ্চানদের উপর কিছু রক্তক্ষয়ী আক্রমণও করেছে কট্টর হিন্দুদলগুলি। কিন্তু এই লাভ-জিহাদের অভিযোগে যেভাবে হিন্দু ও খ্রীশ্চান দলগুলি এক হয়ে মুসলিমদের বিরুদ্ধে বিষোদ্‌গার করে চলেছে, তাতে স্বাভাবিকভাবেই মুসলিমরা আতঙ্কিত। হয়ত এই অজুহাতেই কেরালা কিম্বা কর্ণাটকে বা অন্য কোথায়ও আবারও শুরু হবে গণহত্যা। আরও একটি দিক ভাববার আছে। "বিয়ে'র নাম করে ভারত থেকে বহু মেয়ে স্রেফ পাচার হয়ে যায় মধ্যপ্রাচ্যের বিভিন্ন দেশে। প্রশাসন চোখ বুঁজে ঘুমায়। এই লাভ-জিহাদের আড়ালে এও কোনরকম নারী-পাচার চক্র কিনা তাও ভাল করে খতিয়ে দেখা ও ব্যবস্থা নেওয়া দরকার। নাহলে পাচার চলবে পাচারের মতই। দলে দলে মেয়েরা হারিয়ে যাবে অন্ধকারে আর ধর্মান্ধ কিছু লোক নিজেদের অ্যাজেন্ডা সফল করতে ছলেছুতোয় কচুকাটা করবে আরও কিছু লোককে।

    সূত্র:

    http://www.atimes.com/atimes/South_Asia/KJ28Df05.html

    http://timesofindia.indiatimes.com/india/Love-Jihad-racket-VHP-Christian-groups-find-common-cause/articleshow/5117548.cms

    ৩১ শে অক্টোবর, ২০০৯
  • বিভাগ : টাটকা খবর | ৩১ অক্টোবর ২০০৯ | ৩১ বার পঠিত
  • আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা ভাইরাস

  • করোনা ভাইরাস

  • গুরুর মোবাইল অ্যাপ চান? খুব সহজ, অ্যাপ ডাউনলোড/ইনস্টল কিস্যু করার দরকার নেই । ফোনের ব্রাউজারে সাইট খুলুন, Add to Home Screen করুন, ইন্সট্রাকশন ফলো করুন, অ্যাপ-এর আইকন তৈরী হবে । খেয়াল রাখবেন, গুরুর মোবাইল অ্যাপ ব্যবহার করতে হলে গুরুতে লগইন করা বাঞ্ছনীয়।
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত