ভাটিয়ালি | টইপত্তর | বুলবুলভাজা | হরিদাস পাল | খেরোর খাতা | বই
  • বুলবুলভাজা  আলোচনা  রাজনীতি

  • বিজেপির সাময়িক পশ্চাদপসরণ, সংখ্যালঘু-নিপীড়ন চলবে

    সোমনাথ গুহ
    আলোচনা | রাজনীতি | ১০ জুন ২০২২ | ৩১৪৯ বার পঠিত | রেটিং ৫ (১ জন)

  • মহানবী সম্পর্কে অবমাননামূলক মন্তব্যর জন্য বিজেপির জাতীয় মুখপাত্র নূপুর শর্মাকে দল থেকে বরখাস্ত করা হয়েছে। একই বক্তব্য টুইট করার জন্য দলের দিল্লি শাখার নবীন জিন্দালকে বহিষ্কার করা হয়েছে। বোঝাই যায় দলে নূপুর যথেষ্ট ওজনদার নেত্রী যে কারণে মূল বক্তব্যটি তাঁর হওয়া সত্ত্বেও তাঁকে শুধুমাত্র সাসপেন্ড করা হয়েছে। অনেকের প্রশ্ন কে এই নূপুর শর্মা? আশি নব্বইয়ের দশকে বিজেপির অতি পরিচিত মুখ ছিলেন বিজয়রাজে সিন্ধিয়া, গোয়ালিয়রের রাজমাতা। ১৯৮৭ সালে রাজস্থানে রূপ কানোয়ার যখন তাঁর স্বামীর চিতায় আত্মাহুতি দিয়েছিলেন তখন তিনি তাঁকে সমর্থন করেছিলেন। সতীদাহ ফিরিয়ে আনার তাঁর এই প্রচেষ্টাকে সারা দেশ ধিক্কার জানিয়েছিল। তাঁর যোগ্য দুই উত্তরসূরি ছিলেন উমা ভারতী ও সাধ্বি রিতাম্ভারা। এঁরা ধর্মীয় বাতাবরণে, ধর্মীয় শিক্ষায় ও ধর্মগুরুদের আশ্রয়ে লালিত পালিত হয়েছেন। এঁদের বেশভূষা ছিল সাবেকি সাধ্বীদের মত, আদবকায়দা আটপৌরে, ভাষা কর্কশ, বিষময়, বেলাগাম ঘৃণা বিদ্বেষ ছড়ানোয় এঁদের জুড়ি মেলা ছিল ভার।

    একবিংশ শতাব্দীর বিজেপিতে উপরোক্ত ধরণের নেত্রীরা পিছনে চলে গেছে। এখন তাঁদের পোস্টার গার্ল নূপুর শর্মা, মনিকা অরোরা, সোনালি চিতলকার, প্রেরণা মালহোত্রা। এঁরা উচ্চ শিক্ষিতা। মনিকা সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী, সোনালি ও প্রেরণা দিল্লির মিরান্ডা হাউস এবং রামলাল আনন্দ কলেজের অধ্যাপিকা। বিশ বছর আগেও বিজেপিকে মনে করা হতো একটা বানিয়াদের দল, দূরবীন দিয়ে খুঁজেও তাঁরা তাঁদের হয়ে বলার মত কোন বুদ্ধিজীবী পেতেন না। যুগ আমূল পাল্টে গেছে। ২০২০র দিল্লি ‘দাঙ্গা’র একটি তাৎপর্যপূর্ণ দিক হল এই প্রথম শাসক তাঁর পেটোয়া লোকজনদের দিয়ে একটি তথ্যানুসন্ধান রিপোর্ট তৈরি করে ফেলে। মনিকা, সোনালি ও প্রেরণা ছিল সেই রিপোর্টের কারিগর যাতে তাঁরা সিএএ-এনআরসি বিরোধী আন্দোলন থেকে শুরু করে, শাহীনবাগ, জামিয়া-জেএনইউতে প্রতিবাদ এবং অবশেষে ‘দাঙ্গা’, পুরোটাকেই একটা আর্বান নকশাল-জিহাদি চক্রান্ত হিসাবে সাব্যস্ত করে। ব্লুমসবেরি থেকে তাঁরা এই রিপোর্টটিকে বই হিসাবে প্রকাশিত করারও চেষ্টা করে। বইটির মোড়ক উন্মোচন অনুষ্ঠানে অন্যতম গেস্ট অফ অনার ছিলেন এই নূপুর শর্মা।

    তিনি নিজে বই লিখেছেন ‘দিল্লি এন্টি-হিন্দু রায়টস, ২০২০, দ্য ম্যাকাবার ড্যান্স’ যেখানে তিনি একই নকশাল-জিহাদি তত্ত্ব আউরেছেন। তিনি নতুন শতাব্দীর এই নতুন নেতা নেত্রীদের মধ্যে অন্যতম উজ্জ্বল তারকা। নূপুর শর্মা উচ্চ শিক্ষিতা তো বটেই, বিদেশী ডিগ্রির তকমাও তাঁর আছে। আগেকার নেত্রীদের মত ইংরাজি বলতে গিয়ে তাঁকে বারবার ঢোক গিলতে হয় না। হিন্দি ইংরাজি দুটোতেই তিনি তুখোড়। তাঁর বেশভূষা ঝকঝকে, স্মার্ট; ঠাটবাট, আদবকায়দা রীতিমতো চমকপ্রদ। রোজ সন্ধ্যায় তিনি টিভি চ্যানেল আলোকিত করেন। গোদি মিডিয়ার সঞ্চালক/সঞ্চালিকাদের সাহায্যে যে কোন বিতর্কে তিনি বিরোধীদের নাস্তানাবুদ করে দেন, অনায়াসে গালি দিয়ে তাঁদের চুপ করিয়ে দিতে পারেন। ভক্তরা তাঁর ক্ষমতায় অভিভূত, তাঁকে সিংহী, বাঘিনী নামে ভূষিত করেন। দলের সর্বোচ্চ ব্যক্তি থেকে শুরু করে প্রত্যেকে তাঁর বাকপটুতা, বাকচাতুর্যে মন্ত্রমুগ্ধ। তাঁরা তাঁর টুইটার নিয়মিত অনুসরণ করেন। এহেন এক নেত্রী যিনি দলের মুখপাত্র বিজেপি তাঁকে নিছকই একজন ‘ফ্রিঞ্জ এলিমেন্ট’, নগণ্য ব্যক্তি, বলে ঝেড়ে ফেলতে চাইছে, বলছে তাঁর বক্তব্য সরকার বা দলের মতামত নয়।

    নূপুর ২৬শে মে একটি টিভি চ্যানেলে বিতর্কিত মন্তব্যটি করেছিলেন। তারপর এক সপ্তাহ কেটে গেছে কেন্দ্রীয় সরকার বা বিজেপির তরফ থেকে তাঁর বিরুদ্ধে কোনও পদক্ষেপ নেওয়া হয়নি। ইতিমধ্যে কানপুরে হিংসা ছড়িয়েছে তবুও নেতারা মৌনব্রত পালন করেছে। আরব ও ইসলামিক দেশ যখন প্রতিবাদে মুখর হয়েছে, ভারতীয় পণ্য বয়কট করা শুরু করেছে, ভারতের রাষ্ট্রদূতদের ডেকে কড়কানো শুরু করেছে, তখন বিজেপি নড়েচড়ে বসেছে। পত্রপাঠ দু’জনকে বিদায় করে ড্যামেজ কন্ট্রোল করার চেষ্টা করেছে।

    প্রশ্ন হল বিজেপি কি আদৌ অনুতপ্ত? অন্য ধর্মের সাথে আমার হাজার বিবাদ থাকলেও তাঁদের পয়গম্বরকে অপমান করা যে অপরাধ এই বোধ কি আদৌ বিজেপি নেতৃত্বের আছে? নাকি মুসলিম সমাজকে হেনস্থা ও কোণঠাসা করার যে সীমারেখা যা তাঁরা প্রতিনিয়ত প্রসারিত করছে, নূপুর শর্মার মন্তব্য সেরকমই একটি প্রয়াস? বিশেষ করে ২০১৯ এর পর থেকে তাঁরা একটা করে লক্ষণ-রেখা তৈরি করেছে এবং সেটাকে লঙ্ঘন করেছে, আবার নতুন লক্ষণ-রেখা সৃষ্টি করেছে। বারবার পরীক্ষা করেছে মুসলিম সমাজ কতটা কড়া দাওয়াই সহ্য করতে পারে। সিএএ-এনআরসির বিরুদ্ধে, হিজাব বিতর্কের সময়, মুসলিম সমাজ ক্ষোভে ফেটে পড়েছে। কিন্তু প্রবল সরকারি দমন-পীড়ন, বিচিত্র নামধারী হিন্দু সেনাদের সন্ত্রাস এবং উগ্র ধর্মান্ধতায় বুঁদ হয়ে থাকা বিপুল হিন্দু জনতার নিস্তব্ধতা বা নীরব সমর্থন তাঁদের অবস্থা ক্রমশ আরও অসহায় করে তুলছিল। সুতরাং দাওয়াইটা আরও কড়া কর, খোদ পয়গম্বরকে আক্রমণ কর।

    এবারও কিছু বিক্ষোভের পর হয়তো মুসলিমরা ঘরে ফিরে যেতেন, নেহাত আরব দুনিয়া প্রতিবাদে সরব হল বলে বিজেপি দুঃখপ্রকাশ করতে বাধ্য হল। আরেসেস-বিজেপি নেতৃত্ব অনুতপ্ত নন, যদি হতেন তাহলে ঘটনার পরে এতদিন তাঁরা নীরব থাকতেন না। তাঁরা কেউ ঘটনার নিন্দা করেননি। নূপুর শর্মার দুঃখপ্রকাশও লোক-দেখান; তিনি জানিয়ে দিয়েছেন হিন্দু দেবতাকে ক্রমাগত অপদস্থ করার (জ্ঞানব্যাপী মসজিদে খুঁজে পাওয়া কাঠামোটিকে ফোয়ারা বলা তাঁর মতে শিবলিঙ্গকে হেয় করা) কারণেই তিনি পয়গম্বরকে আক্রমণ করতে বাধ্য হয়েছেন।

    প্রথমে কেন্দ্রীয় সরকার আরব দেশগুলির ক্ষোভ প্রশমিত করবে, সেটা খুব কঠিন হবে না কারণ নিজেদের অর্থনৈতিক স্বার্থের কারণে তারাও চাইবে না যে এই ঘটনা বেশিদূর গড়াক। সেটা হয়ে যাওয়ার পরেই তাঁরা এই ঘটনার ফয়দা তোলার চেষ্টা করবে। তাঁরা জানেন নূপুরের বহিষ্কার ভক্তদের মধ্যে বিরূপ প্রতিক্রিয়া সৃষ্টি করেছে। তাঁরা বলবেন হিন্দু ধর্ম আক্রান্ত, আমাদের দেবতাকে কটু কথা বললে কোনও প্রতিবাদ হয় না অথচ মুসলিমদের ক্ষেত্রে নিন্দার ঝড় ওঠে! তাঁরা এটাও বলবেন আমরা নিজেদের লোককে কী ভাবে শাস্তি দিয়েছি সেটা তো বিশ্ব দেখেছে, এবার কোনও মসজিদের তলায় কী পাওয়া গেছে সেটা নিয়ে কোনও সন্দেহ প্রকাশ করলে, কোনও ‘কটূক্তি’ করলে কিন্তু কেউ পার পাবে না। সেটা পয়গম্বরকে অপমান করার সমতুল্য অপরাধ হিসাবে গণ্য হবে। অতএব মোহন ভাগবত মিষ্টি কথায় যেটা বলেছেন মসজিদের তলায় শিবলিঙ্গ না পাওয়া গেলেও কিছু যায় আসে না, আসলে সংখ্যাগরিষ্ঠ মানুষের বিশ্বাসটাই সার কথা, সেটাই মসজিদ ভেঙে মন্দির করার রাস্তা সুগম করে দেবে। অত খোঁড়াখুঁড়ি, প্রমাণ ইত্যাদির বাপু আর কোনও দরকার নেই।

    অতএব মসজিদ ভেঙে মন্দির গড়ার কাজ ত্বরান্বিত হবে। ১৯৯১ সালে সংসদে আইন পাস হয়েছিল যে বাবরি মসজিদ ছাড়া দেশের আর কোনও ধর্মস্থানের স্টেটাস পরিবর্তন করা যাবে না। বিজেপি সেই আইনের তোয়াক্কা করে না। তাঁদের গেরুয়াবাহিনীর সামনে মুসলিমরা গুটিয়ে যাবে; দেশজুড়ে শত শত মসজিদ লাইন দিয়ে তাঁদের হাতে শহীদ হওয়ার জন্য প্রস্তুত হয়ে আছে। জ্ঞানব্যাপীর পর মথুরার শাহি ইদ্গাহ, তারপর কুতুব মিনার, তাজমহল... আরও কত; মধ্যপ্রদেশের কমল মৌলা মসজিদ, কর্ণাটকের বাবা বুদান দরগা, সীরঙ্গপাটনার মসজিদ-ই-আলা, খোদ টিপু সুলতানের প্রাসাদ, সেটাও নাকি হিন্দুদের জমির ওপর নির্মিত হয়েছে। এক কর্ণাটকেই নাকি ১০০০০ ধর্মস্থান আছে যা হিন্দু মন্দির ভেঙে তৈরি হয়েছে।

    এরপর তাঁরা বলবেন নূপুর শর্মাকে যখন শাস্তি দেওয়া হয়েছে তখন কানপুরে যাঁরা ঝামেলা করেছেন তাঁদেরও উপযুক্ত শাস্তি দিতে হবে। সেখানকার পুলিশ প্রশাসনের প্রতিক্রিয়া একদম প্রত্যাশিত। তাঁরা বলেছেন ‘দাঙ্গা’ পূর্ব পরিকল্পিত, পপুলার ফ্রন্ট অফ ইন্ডিয়ার সাথে দাঙ্গাকারীদের যোগাযোগ আছে, বিদেশী পয়সা এসেছে, হোয়াটস অ্যাপে চক্রান্ত নিয়ে কথোপকথন হয়েছে, একেবারে ডিটো দিল্লি ‘দাঙ্গা’, ২০২০ নিয়ে সঙ্ঘীদের যা বয়ান ছিল তাই। যাঁদের গ্রেপ্তার করা হয়েছে, তাঁরা প্রায় সবাই মুসলিম। ইসলামিক দুনিয়ায় হৈ চৈ হওয়ার পরে এক বিজেপি আধিকারিককে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। এইসব হট্টগোলের মধ্যে টুক করে নূপুর শর্মার বরখাস্ত রদ করে দেওয়া হবে।

    একটা উল্টো সম্ভাবনাও আছে। এক জঙ্গি গোষ্ঠী ফ্রান্সের কার্টুন পত্রিকা চার্লি হেবদোর অফিসে আক্রমণ করে যে ভাবে বারো জনকে হত্যা করেছিল, ঠিক একই ভাবে এখানে যে কোনও উন্মাদ প্রত্যাঘাত করবে না তা কে বলতে পারে? সেটা হলে তা হবে ভয়ঙ্কর! এক মৌলবাদ আরেক মৌলবাদকে পুষ্ট করে। সেটা হলে হিন্দু মৌলবাদীদের দাপট যে কয়েক গুণ বৃদ্ধি পাবে তাতে কোনও সন্দেহ নেই। আরেসেস-বিজেপির ক্ষমতা এখন সর্বব্যাপী। প্রায় সব প্রতিষ্ঠান তাঁদের তাঁবেদারে পরিণত হয়েছে। বিরোধীরা মূক। এই ঘটনা নিয়ে তাঁদের কোনও জোরাল প্রতিবাদ নেই। তাই নূপুর শর্মার ঘটনা সাময়িক ভাবে গেরুয়াবাহিনীকে ব্যাকফুটে ঠেলে দিলেও, আদপে এই সংকট তাঁদের পক্ষে আরও অনুকূল পরিস্থিতি তৈরি করবে।

  • আলোচনা | ১০ জুন ২০২২ | ৩১৪৯ বার পঠিত
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • দীপ | 42.110.138.226 | ১১ জুন ২০২২ ২২:৪৬508831
  • দীপ | 42.110.138.226 | ১১ জুন ২০২২ ২২:৪৮508832
  • বাংলাদেশে সংখ্যালঘুদের উপর নির্যাতন নিয়ে মহাবিপ্লবীর বক্তব্য, আর গত দুইদিন নিয়ে বক্তব্য! এদের ঘৃণা করতেও ঘৃণাবোধ‌ হয়!
  • দীপ | 42.110.138.226 | ১১ জুন ২০২২ ২২:৫৯508836
  • আবার বলছি, একটি মৌলবাদী শক্তিকে তোষণ করে অপর মৌলবাদী শক্তির বিরোধিতা করা যায়না! বামপন্থীরা যদি এটা বোঝেন তো ভালো! নাহলে তাঁদের বিলুপ্তি সময়ের অপেক্ষা মাত্র!
  • হেহে | 2a03:e600:100::82 | ১১ জুন ২০২২ ২৩:৩৩508837
  • দুজ্ঞাপুজোয় হনুমান এগজ্যাক্টলি কোথায় লাগে? চাড্ডিদের হনুমান চালিশা  মুখস্থ না বললে  দুটাকা দেয় না বটে কিন্তু দুজ্ঞাপুজোয় হনুমান কবে থেকে বসছে? 
  • r2h | 134.238.14.27 | ১১ জুন ২০২২ ২৩:৩৭508838
  • আরবিট লোকজনের ফেবু ওয়াল বা চ্যাটের স্ক্রিনশট দেওয়া নিয়ে সংযত হোন। এসব কথা গুরুতে হয়েছে, না ইনি গুরুতে লেখেন?
  • :) | 2605:6400:30:f63d:a9:a9:a9:1 | ১১ জুন ২০২২ ২৩:৪৬508839
  • দীপবাবু, এসব অপ্রিয় এবং গুরুবহির্ভূত প্রসঙ্গ তুলবেন না। নূপুর শর্মা গুরুতে বাইট দিয়েছে, তাই শুধু সেটুকু নিয়েই আলোচনা হবে। মূর্তি ভাঙা, অবরোধ কি গুরুতে হয়েছে, বলুন?
  • r2h | 134.238.14.27 | ১১ জুন ২০২২ ২৩:৫৮508841
  • রসিকতাটা ভালো হয়েছে।

    তবে ঐ চ্যাট ট্যাটগুলিতো বোধহয় লোকজনের ব্যক্তিগত আলাপচারিতা, মতামত, মন্তব্যকারী এমন কিছু পরিচিত কেউ বলেও জানি না। উনি কোন জায়গার কোন দলের বিপ্লবী গুরুর কেউ জানেন কিনা তাও জানি না। কাদের ব্যক্তিগত খারাখারিতে গুরু মাঝখান থেকে খিস্তি খাবে কে জানে।
    এসব আলোচনার কন্টেক্সট কী, তাও কেউ জানে না এখানে বলেই মনে হয়।

    যাগ্গে, কী আর করা।
  • দীপ | 42.110.136.177 | ১২ জুন ২০২২ ০১:২৪508852
  • দীপ | 42.110.136.177 | ১২ জুন ২০২২ ০১:২৭508853
  • চিন্তা নেই, একের পর এক অসামান্য বিশ্লেষণ চলে আসছে! 
    ঠিক, সংযম খুব দরকার! সেটা ছিলনা বলেই তো তসলিমাকে তাড়ানো হলো!
  • সত্যি | 2405:8100:8000:5ca1::b7:67e7 | ১২ জুন ২০২২ ০৯:৩৮508876
  • গুরুরা বিকাশরঞ্জন ভট্টাচার্য, দেবরায়া মুখার্জিদের নাম শোনেননি, কোন পার্টি জানেন না !! গুরু কি এতটাই গজদন্তমিনার ?
  • দীপঙ্কর কুন্ডু | 42.110.145.101 | ১২ জুন ২০২২ ১০:০২508877
  • সঠিক বিশ্লেষন।
  • দীপ | 42.110.138.135 | ১২ জুন ২০২২ ১২:১১508878
  • আবার বলছি। আটের দশকেও ভারতীয় রাজনীতিতে বিজেপির কোনো গুরুত্ব ছিলনা, কিন্তু আজ সেই দল দেশ শাসন করছে। কারণগুলো ভাবার চেষ্টা করেছেন? আপনারা খালি বড়ো বড়ো কথা বলে গেছেন, ভেবেছেন এতেই বাজিমাত করবেন। সাধারণ মানুষ থেকে আপনারা চূড়ান্ত বিচ্ছিন্ন, সেটাই বুঝতে পারেননি! 
    এবারো তাই করেছেন। আব্বাসের সঙ্গে জোট নিয়ে বিরোধিতা করলেই তাকে হিন্দুত্ববাদী বলে দেগে দিয়েছেন! ফল তো চোখের সামনে!
  • দীপ | 42.110.138.135 | ১২ জুন ২০২২ ১২:১৭508879
  • কখনো শিবরাত্রি নিয়ে, কখনো রামকৃষ্ণ-বিবেকানন্দ নিয়ে কুৎসিত লেখা নামিয়েছেন! হুদুড়-বাদুড়ের গল্প লিখেছেন! সেগুলো কোনো তথ্যনিষ্ঠ আলোচনা ছিলনা! এমনকি বিদ্যাসাগর‌ও যে ভয়ঙ্কর হিন্দুত্ববাদী, ইসলামবিদ্বেষী সে নিয়েও বড়ো থান‌ইঁট লেখা হয়েছে! এইসব লিখে নিজেকে বিপ্লবী দেখিয়েছেন, আর লাভ হয়েছে বিজেপির!
  • r2h | 2405:201:8005:9947:f121:5cdc:5c54:591b | ১২ জুন ২০২২ ১২:১৯508880
  • ওহো বিকশবাবুর পোস্টও ছিল আগের পাতায়, দেখিনি।

    সে দিন, কী আর করা। কিন্তু মহাবিপ্লবী অমুক বলেছেন বলে ঘ্যানঘ্যান করে গুরুর পাতায় সিপিআইএম নেতা কর্মী সমর্থকদের পোস্টের স্ক্রিনশট দিয়ে কী হবে, সিপিআইএমের ভোকাল সমর্থকরা তো পানের থেকে চুন না খসলেও গুরুকে গাল দিয়ে ধুয়ে দেন। তাই বলছিলাম আরকি। আমাদের পোস্টের স্ক্রিনশট কেন গুরুর পাতায়, এই মর্মে আবার না গুরু দুটো গাল খায়। যেখানকার ঝগড়া সেখানে মিটিয়ে নিলেই তো হয়।
  • দীপ | 42.110.138.135 | ১২ জুন ২০২২ ১২:২৫508882
  • আপনারা তো আরব দেশের রাজনীতি নিয়ে ভয়ঙ্কর চিন্তিত; কিন্তু বাংলাদেশের রাজনীতি, সমাজ নিয়ে কথা বলতে আসলেই সেটা অন্যদেশের ব্যাপার হয়ে যায়! মার্কিন সাম্রাজ্যবাদ, তালিবান, সবকিছু নিয়েই আলোচনা করা যাবে, খালি বাংলাদেশ নিয়ে নয়! সেটা নিয়ে কথা বললেই অভিসন্ধি চলে আসবে! আসল অভিসন্ধি তো স্পষ্ট!
    আর তসলিমার কথা বারবার বলা হবে! যা করার করে নিন!
  • দীপ | 42.110.138.135 | ১২ জুন ২০২২ ১২:৩৫508884
  • সমস্ত রকমের অত্যাচার ও নির্যাতন চূড়ান্ত ঘৃণ্য ! উত্তর ও মধ্য ভারতে দলিত, মুসলিমদের উপর অত্যাচার যেমন ঘৃণ্য, বাংলাদেশে হিন্দুদের উপর নির্যাতন তেমনি ঘৃণ্য! কিন্তু সেটা নিয়ে কথা বললেই সাম্প্রদায়িকতা চলে আসে! তসলিমার ব‌ই নিষিদ্ধ করে তসলিমাকে তাড়ানো হয়! 
    একটি মৌলবাদী শক্তিকে তোষণ করে অপর মৌলবাদী শক্তির বিরোধিতা করা যায়না! 
    আশা করি একটু ভেবে দেখবেন!
  • r2h | 2405:201:8005:9947:f121:5cdc:5c54:591b | ১২ জুন ২০২২ ১৩:০১508891
  • করা আবার কী হবে। আপনি বলুন না।
    বুদ্ধবাবু গুরুর সঙ্গে আলোচনা করে তবেই না তসলিমা নাসরিনের নেমন্তন্ন ক্যানসেল করেছিলেন।
  • sm | 2402:3a80:1964:6c74:378:5634:1232:5476 | ১২ জুন ২০২২ ১৩:৩১508900
  • এতো আশ্চর্যের ব্যাপার দেখছি।গুরু কে নিয়ে কেউ কিছু বলুক না বলুক হুতো বাবু দূদ্দুর করে তেড়ে আসছেন।
    লোকে কিছু বলার থাকলে বলুক না। এতো হাইপারসেন্সিটিভ  হবার কি আছে?
  • dc | 2a02:26f7:d6c1:6807:0:43ee:fa8:2720 | ১২ জুন ২০২২ ১৪:০৭508910
  • ইয়ে, দীপ যেহেতু "আপনারা" লিখেছেন তাই ডিসক্লেমার দিয়ে দি। আফটার অল এ হলো ডিসক্লেমারের যুগ। আমি আরব দেশের রাজনীতি নিয়ে বিদুমাত্রও চিন্তিত নই। ওখানে যেতেও চাই না, কারন জায়গাটা ভয়ানক গরম। যদিও দেখার মতো অনেক কিছু আছে, যেমন বুর্জ খলিফা। যেখানে মিয়া খলিফা যান। 
  • | ১২ জুন ২০২২ ১৪:০৯508911
  • এহ হুতো মাইরি বাজে বকছ! আরে দেবরায়া বিকাশবাবু দুটোই পাবলিক স্ট্যাটাস। ফেসবুকের পাবলিক স্ট্যাটাস মঙ্গলগ্রহে নিয়েও শেয়ার করা যায়। ফ্রেন্ডস অনলি বা কাস্টমাইজড হলে  সম্মতি না নিয়ে শেয়ার করা আনএথিকাল। 
    তা চুকলিপ্রিয় লোকজন পাবলিক স্ট্যাটাস নিয়ে এদিক ওদিক চুকলি মেরে বেড়াবে এটা স্ট্যাটাসদাতারা জানেন। ​​​​​smiley
     
    আর  দেখো পাইও অনেকসময় ফেসবুকের স্ট্যাটাস বা কমেন্ট কপি করে দেয় তো, ওই পাবলিক বলেই। 
     
     
  • বাণী | 172.107.241.110 | ১২ জুন ২০২২ ১৪:৩১508913
  • people get the governemnt they deserve
  • @dc | 2405:8100:8000:5ca1::e5:d037 | ১২ জুন ২০২২ ১৪:৪২508916
  • মিয়া খলিফা হল বিবি খলিফা
  • r2h | 2405:201:8005:9947:f121:5cdc:5c54:591b | ১২ জুন ২০২২ ১৪:৪৭508917
    •  | ১২ জুন ২০২২ ১৪:০৯
    • এহ হুতো মাইরি বাজে বকছ! আরে দেবরায়া বিকাশবাবু দুটোই পাবলিক স্ট্যাটাস। ফেসবুকের পাবলিক স্ট্যাটাস মঙ্গলগ্রহে নিয়েও শেয়ার করা যায়। 
     
    হ্যাঁ, ফর্মালি আপত্তি করার কিছু তো নেই ঠিকই, তবে দগ্ধ এপিসোডে যা গালমন্দ হলো, তাতে মনে হয় আবার কী বেকার ক্যাচাল শুরু হয়! :)
  • dc | 2401:4900:1cd1:4107:d93d:f6a1:f920:6d64 | ১২ জুন ২০২২ ১৪:৫১508918
  • সে তো গান আছে, য়ুটুবে শুনতে পাওয়া ​​​​​​​যায়। ​​​​​​​শুনুন ​​​​​​​তাহলে 
     
  • দীপ | 2402:3a80:196f:c6c7:e7dd:e9fd:5cc3:b0ab | ১৩ জুন ২০২২ ২৩:৩০508981
  • যথারীতি চুকলি পার্টি বলা শুরু হয়েছে।
    কয়েকটি প্রশ্ন রাখতে চাই।
     
    মহাবিপ্লবী বিকাশের মতে মহিষাসুর অনার্য নৃপতি, মূলনিবাসী দের প্রতিনিধি। তাঁকে ছলনার মাধ্যমে হত্যা করা হয়। এই বক্তব্যের তথ্যসূত্র কি?
    মহিষাসুর কোন সময় রাজত্ব করতেন? কোথায় ছিল তাঁর রাজধানী? 
    একবার বলা হল দুর্গা পারস্যের বারাঙ্গনা, আরেকবার বলা হল ভীলকন্যা । কোনটা ঠিক?
     
    হোলিকা দহন অনার্যদের পুড়িয়ে মারার উৎসব। এর তথ্যসূত্র কি? 
    এই দাবীগুলির সপক্ষে তথ্যনিষ্ঠ প্রমাণ চাইছি! 
    যিনি বিকাশের দুঃখে কাতর হয়েছেন, আশা করি তিনি এর সপক্ষে প্রামাণ্য তথ্য দেবেন। নয়তো বলব নির্লজ্জ মিথ্যাবাদী!
  • দীপ | 2402:3a80:196f:c6c7:e7dd:e9fd:5cc3:b0ab | ১৩ জুন ২০২২ ২৩:৩৪508984
  • আজ যদি গোশাবকেরা এই লেখাগুলো নিয়ে ধর্ম অবমাননার অভিযোগে পশ্চিমবঙ্গে ‌নানা জায়গায় অবরোধ, ভাংচুর করে; তখন কি একে সমর্থন জানাবেন?
    আশা করি উত্তর দেবেন। 
    তবে মনে হয় পশ্চিমবঙ্গে একটা গণ্ডগোল লাগানোই এই শূকরশাবকের উদ্দেশ্য!
  • দীপ | 2402:3a80:196f:c6c7:e7dd:e9fd:5cc3:b0ab | ১৩ জুন ২০২২ ২৩:৩৪508983
  • আজ যদি গোশাবকেরা এই লেখাগুলো নিয়ে ধর্ম অবমাননার অভিযোগে পশ্চিমবঙ্গে ‌নানা জায়গায় অবরোধ, ভাংচুর করে; তখন কি একে সমর্থন জানাবেন?
    আশা করি উত্তর দেবেন। 
    তবে মনে হয় পশ্চিমবঙ্গে একটা গণ্ডগোল লাগানোই এই শূকরশাবকের উদ্দেশ্য!
  • দীপ | 2402:3a80:196f:c6c7:e7dd:e9fd:5cc3:b0ab | ১৩ জুন ২০২২ ২৩:৪১508985
  • আসলে শূকরশাবকটি স্রেফ ধান্দাবাজি মারতে এসেছে। কোনো কিছু পড়েনি! শাম্ব , পৃথা উপন্যাস লেখার সময় সমরেশ বসু রীতিমত শ্রীজীব ন্যায়তীর্থের কাছে গিয়ে মহাভারত, পুরাণ নিয়ে পড়াশোনা করেছেন। আর এই পাঁঠা কিছু না পড়েই ছ্যাবলামো মারতে এসেছে! 
    আসলে ধান্দাবাজি করাই এর মূল উদ্দেশ্য! 
    পঞ্চানন তর্করত্ন, শ্রীজীব ন্যায়তীর্থ প্রমুখ বরেণ্য পণ্ডিতদের সামনে এইরকম ছ্যাবলামো মারলে খড়ম দিয়ে পিঠের চামড়া তুলে দিতেন! সারাজীবনের জন্য ছ্যাবলামো মারার ইচ্ছা ঘুচে যেত!
  • দীপ | 2402:3a80:196b:f84d:30ce:54d8:9bf0:11b0 | ১৪ জুন ২০২২ ০০:১০508987
  • দীপ | 42.110.147.163 | ১৪ জুন ২০২২ ০০:১৩508988
  • আরেক মহাবিপ্লবী র লেখা। আগুন না নিভিয়ে এরা বরং আগুনে ঘি ঢালছে! একটা গণ্ডগোল লাগানোই এদের আসল উদ্দেশ্য! 
    ধান্দাবাজি তে পিসির পাঁঠা, বামের পাঁঠা, রামের পাঁঠা- সবকটা সমান!
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]


মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত
পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। দ্বিধা না করে মতামত দিন