• হরিদাস পাল  আলোচনা  বিবিধ

  • সলিলদা ও অন্যান্য স্মৃতি

    Kallol Dasgupta লেখকের গ্রাহক হোন
    আলোচনা | বিবিধ | ২২ মে ২০২১ | ৩৫৫ বার পঠিত | ১ জন
  • পছন্দ
    জমিয়ে রাখুন পুনঃপ্রচার
  • ১৯৭৪। এপিডিআর থেকে মিছিল করে এসেছি এসপ্ল্যানেড ইস্টে, রাজনৈতিক বন্দিমুক্তির দাবিতে। মনে আছে, হাওড়ার ছেলে, বনবিহারীবাবুদের গ্রুপে ছিল সঞ্জীবদা, একটা বাসের মাথায় চড়ে বক্তৃতা করছিল। আমি আর জয় কৌটো ঝাঁকিয়ে পয়সা তুলছিলাম। সেদিন ওখানে ওয়েবকিউটার জমায়েতও ছিল। কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের বাম মনোভাবাপন্ন মাস্টারমশাইরা ওঁদের নানান দাবি দাওয়া নিয়ে রাস্তায় নেমেছিলেন। আমিই প্রথম দেখি আমাদের কলেজের সলিলদা (ইংরাজি পড়াতেন) আর হিতেনদা (বাংলা পড়াতেন) দাঁড়িয়ে আছেন। সদ্য কৈশোরের অ্যাডভেঞ্চার পোকা নেচে উঠল। জয়কে বললাম - চল যাই। ওঁরা সেই আমলে দশ টাকা দিয়েছিলেন। আর সলিলদা বলেছিলেন কলেজে দেখা করতে।
    পরদিন সলিলদার সাথে দেখা ও কথা বলার আগে পর্যন্ত হৃদপিণ্ড হাতের মুঠোয় নিয়ে অপেক্ষা করছিলাম। সলিলদা পার্ক সার্কাস ট্রাম ডিপোয় দেখা করতে বললেন।
    আমরা একটা পাঞ্জাবি ঢাবায় বসেছিলাম। কথা শুরু হতেই সলিলদা হঠাৎ কিছু দেখে বা ভেবে, আসছি বলে একটা চলন্ত ট্রামে উঠে হাওয়া। আমরা খুব ভ্যাবাচ্যাকা খেয়ে রুটি তড়কার দাম দিতে দিতে, সলিলদার মুণ্ডপাত করতে করতে ফিরলাম।
    পরদিন কলেজে সলিলদা খুব লজ্জা-লজ্জা করে বললেন আর একবার দেখা করতে। আবারও ঐ পার্ক সার্কাস। এবার, এখন অতীত হয়ে যাওয়া এক চীনা রেস্তোঁরায়। কথা কী হয়েছিল আজ আর মনে নেই। কিন্তু সলিলদা আমাদের ফর্ক দিয়ে চাউ খেতে শিখিয়েছিলেন। সেটা আজও মনে রেখেছি, বহু ক্ষেত্রে অন্যকে শিখিয়েছি।

    আজও সলিলদার সাথে দেখা হলে সেইদিনের কথা ওঠে, আর আমরা প্রচুর মজা করি তাই নিয়ে। পরে সলিলদা বলেছিলেন, উনি তখন বিড়ি শ্রমিকদের মধ্যে ইউনিয়ন গড়ে তোলার কাজ করছিলেন। ফলে ওনার ওপর নজর ছিল পুলিশের। সেদিন কথা বলতে বলতে সন্দেহজনক কাউকে দেখে ওভাবে হাওয়া হয়ে গেছিলেন। সলিলদা, সলিল বিশ্বাস, এখন দারুণ সব অনুবাদ করেন। ‘বারবিয়ানা স্কুল থেকে'র বাংলা অনুবাদ ওনারই করা। ঐ সময় আমরা হিতেনদার বাড়িতেও অনেক মিটিং করেছি। উনি তখন থাকতেন বৌবাজার মোড়ে ছানাপট্টির পাশে, রূপম সিনেমার বাড়িটার দোতলায়। রূপম সিনেমা তো এখন আর নেই, নেই হিতেনদাও। ছানাপট্টি রয়ে গেছে। আর রয়ে গেছে বৌবাজার মোড়ের কাটাকুটি খেলার ছকের মতো ট্রামলাইন আর মাথার উপর ট্রামেরই তারে ঢেকে যাওয়া বৌবাজারি আকাশ।


  • বিভাগ : আলোচনা | ২২ মে ২০২১ | ৩৫৫ বার পঠিত | ১ জন
  • পছন্দ
    জমিয়ে রাখুন গ্রাহক পুনঃপ্রচার
  • কোনোরকম কর্পোরেট ফান্ডিং ছাড়া সম্পূর্ণরূপে জনতার শ্রম ও অর্থে পরিচালিত এই নন-প্রফিট এবং স্বাধীন উদ্যোগটিকে বাঁচিয়ে রাখতে
    গুরুচণ্ডা৯-র গ্রাহক হোন
    গুরুচণ্ডা৯তে প্রকাশিত লেখাগুলি হোয়াটসঅ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে যুক্ত হোন। টেলিগ্রাম অ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলটির গ্রাহক হোন।
আরও পড়ুন
বাবা  - Mousumi GhoshDas
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • Ranjan Roy | ২২ মে ২০২১ ১৬:২৭106285
  • সলিলদাকে নিয়ে আর একটু হোক। ওঁর পাওলো ফ্রেইরির 'পেডাগগি অফ দ্য অপ্রেসড' ের শুধু অনুবাদ নয়, হাতে কলমে করে দেখার প্রয়াস, কসবার স্কুল এবং গঙ্গার ধারের স্কুল, তার ভালোমন্দ হারজিতের অভিজ্ঞতা-- এ নিয়ে যাঁরা জানেন তাঁরা কেউ যদি লেখেন?

  • π | ২২ মে ২০২১ ১৭:৪৩106289
  • উনি নিজেই তো লিখে গেছেন, রঞ্জনদা।

  • b | 14.139.196.12 | ২২ মে ২০২১ ১৮:১৬106294
  • সলিলবাবুর কথা বাবার মুখে অনেক শুনেছি, সুজিৎ ঘোষের (কল্লোলদা চিনলেও চিনতে পারেন ) সূত্রে। 

  • Kallol Dasgupta | ২৩ মে ২০২১ ০৮:৩৬106333
  • বি। সুজিতদা মানে চেতলায় থাকতেন? মাওএর কবিতা অনুবাদ করেছিলেন। চিনতাম। খুব ভালো আলাপ ছিলো। 

  • Ranjan Roy | ২৩ মে ২০২১ ০৯:৪৯106337
  • পাই


    ঠিক। গুরুতে ওঁর লেখা পড়েই ওঁকে জেনেছিলাম,  ফোনে আলাপ করেছিলাম।  দেখা করে কথা বলার প্ল্যান হয়়েছিল।  কোলকাতা ছেড়ে আসায় হয়ে উঠল না। আর তো হবে না।


    তাই ভাবলাম কেউ যদি আর একটু ---

  • π | ২৯ মে ২০২১ ১৫:৩৭106572
  • রঞ্জনদা,  এরকম অনেক লেখা নিয়ে বইয়ের কাজ চলছিল। কল্লোলদার সঙ্গে। শেষ কিছু সংশোধন আর দেখিয়ে নেওয়া গেলনা। গত প্রায় বেশ কিছুদিব ধরে হাস্পাতালে ছিলেন। এর আগেও এতবার ছিলেন, ফিরে এসেছিলেন। কেমোর তারিখ থাকলে আমাকে আগে থেকে হিসেব কিরে বলে দিতেন অমুক তারিখের পর যোগাযোগ করিস বা করতে বলিস, তদ্দিনে আমি আবার কথা বলার জায়গায় চলে আসব! 


    এবারেও তাই ভেবেছিলাম। আর ফিরবেন না ভাবিনি।  জানতাম, কোভিড নেগেটিভ হতে দেরি হচ্ছে। অক্সিজেন সমস্যা থেকেই যাচ্ছে। তাও ভাবিইনি,  ফিরবেন না।  

  • π | ২৯ মে ২০২১ ১৫:৩৮106573
  • আজ।


    "সলিলদার স্মরণ অনুষ্ঠান! আজ, ২৯ মে, শনিবার সন্ধ্যে ৭টায় Google Meet-এ। link পাঠালাম। সবাই উপস্থিত থাকুন।


    Boichitra: To join the meeting on Google Meet, click this link: 


    https://meet.google.com/gha-yfet-jdd 


    Or open Meet and enter this code: gha-yfet-jdd

আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত


পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। মন শক্ত করে মতামত দিন