• বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়।
    বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে।
  • ধেয়ে আসছে 'আমপান', সুন্দরবন জুড়ে আশঙ্কার প্রহর গুনছি আমরা

    বাপ্পা দাস
    বিভাগ : আলোচনা | ২০ মে ২০২০ | ৫৯৫ বার পঠিত
  • ২০০৯ সালের বিধ্বংসী আয়লা ঝড়ের স্মৃতি এখনো আমার কাছে টাটকা। সেবার নদীর জল গ্রামের মধ্যে ঢুকে প্রায় গলা সমান উচ্চতায় পৌঁছে গিয়েছিল। এই অবস্থায় ভেসে ছিলাম প্রায় ৩ ঘন্টা। সেই অভিজ্ঞতা সম্ভবত কখনোই ভোলা যাবে না।

    এবারও একই রকম আশঙ্কার মেঘ ক্রমশ ঘনীভূত হচ্ছে। খবর অনুযায়ী 'আমপান' নামক ঝড়টি আজ বিকেল সন্ধের পরেই আছড়ে পড়ার কথা আমাদের সুন্দরবনে। আমার বাড়ি গোসাবা থানার বালি এক নম্বর অঞ্চলের মথুরাখণ্ড মাঝেরপাড়া এলাকায়। এখনো পর্যন্ত অবশ্য স্থানীয় গ্রাম পঞ্চায়েত থেকে বাসিন্দাদের নিরাপদ স্থানের দিকে সরিয়ে নিয়ে যাওয়ার কোন উদ্যোগ খুব একটা চোখে পড়ছে না। আয়লার পরে সুন্দরবনের নদী বাঁধগুলো কংক্রিটে বাঁধানোর কাজ শুরু হলেও আমাদের গ্রামে বাঁধের কাজ এখনো পর্যন্ত অসম্পূর্ণই রয়ে গেছে।

    এই লেখা যখন পাঠাচ্ছি তখন সময় দুপুর আড়াইটা। এর মধ্যেই হাওয়ার দাপট ক্রমশ বাড়ছে। কাল রাত থেকে উত্তরমুখী বাতাস হলেও এখন আবার পূর্ব দিক মানে বঙ্গোপসাগরের দিক থেকে বাতাস বইছে। এটা ঘূর্ণিঝড় আসার আগের অবস্থা বলা চলে। নদী তীরবর্তী বাড়িগুলোর উঠোনে খড়ের গাদা থেকে খড় উড়ে গিয়ে নদীতে পড়ছে। পাল্লা দিয়ে বেড়ে চলেছে জলস্তর। সব মিলিয়ে একটা বিপদের আশঙ্কা বোধ করছি। আয়লা ঝড় হয়েছিল দিনের বেলায়, তাই সেবারে বহু মানুষের প্রাণ বেঁচে যায়। কিন্তু এবার ঝড় রাতের দিকে প্রচণ্ড তীব্র আকার নিলে কি হবে তা সত্যিই খুব চিন্তার বিষয়। এখানকার এই পঞ্চমুখী নদী এক অর্থে হাঙ্গরের মত। ঝড়ের সময় এর বড় বড় ঢেউ ঠেকানোর ক্ষমতা এই ভঙ্গুর বাঁধের নেই। এখনো পর্যন্ত মোবাইলের টাওয়ার আছে। ফলত বাইরের দুনিয়ার সঙ্গে যোগাযোগ রাখা সম্ভব হচ্ছে। তবে ঝড়ে টাওয়ার ভেঙে পড়াটা এখানে প্রচুর বার হয়েছে।

    সুন্দরবনের মানুষকে সবসময়ই কোন না কোন প্রাকৃতিক দুর্যোগের মধ্যে বাঁচতে হয়। এটাতে আমরা একরকম অভ্যস্ত হয়ে গেছি বলা চলে। এই লেখার শুরুতে বলেছিলাম প্রায় ঘন্টা তিনেক গলা সমান জলে ভেসে থাকার কথা। আয়লার সময়কার এইসব ঘটনা সেভাবে কোন মিডিয়ায় উঠে আসেনি। এবারে তার সঙ্গে যোগ হয়েছে আরও কিছু সমস্যা। যেমন, পরিযায়ী শ্রমিকেরা সবে কিছুসংখ্যক গ্রামে ফিরেছেন। এই ঝড়ের মোকাবিলা করার মত কোন রসদ তাঁদের কাছে অবশিষ্ট নেই। আবার অন্যদিকে করোনার দাপটে গ্রামের মানুষের তো এমনিতেই নাভিশ্বাস অবস্থা। সুন্দরবনের গ্রামীণ অর্থনীতি অনেকটাই দাঁড়িয়ে থাকে চাষাবাদের উপরে। এবারে বোরো ধানের ফলন ভালো হলেও প্রচুর পরিমাণ ধান বাড়িতেই মজুত অবস্থায় আছে। এমনিতেই ধানের দাম এবারে খুবই কম। তার উপর বাঁধ ভেঙে নোনা জল গ্রামে ঢুকলে সেই ধান নষ্ট হবার সম্ভাবনা প্রবল। সব মিলিয়ে গ্রামের মানুষ খুবই দুশ্চিন্তা ও আতংকগ্রস্ত হয়ে আছে।

    যেকোনো ধরনের বড় বিপর্যয়ের পরে যে সমস্যাটা হয় সেটা হল মানুষের স্বাস্থ্য সংক্রান্ত। আয়লার পরে সুন্দরবন শ্রমজীবী হসপিটাল এবং কলকাতার ডাক্তার বন্ধুরা নানান জায়গায় মেডিকেল ক্যাম্প করে স্বাস্থ্য পরিষেবা চালানোর উদ্যোগ নিয়েছিলেন। যদি এবারেও সমস্যা খুবই গুরুতর আকার ধারণ করে তাহলে হয়তো প্রচুর সংখ্যক সহৃদয় মানুষ এবং চিকিৎসা কর্মীরা এগিয়ে আসবেন ত্রাণকার্যে। আমাদের গ্রামের যোগাযোগ ব্যবস্থা সম্পূর্ণ বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়লে এই প্রতিবেদনের মাধ্যমে আমি আমাদের দ্বীপে আসার একটা রুট বলে দিচ্ছি। কলকাতা থেকে গাড়ি নিয়ে আসলে প্রথমে ক্যানিং স্টেশনে আসতে হবে। তারপর সেখান থেকে সড়ক পথে সুন্দরবনের শেষ ঝড়খালি দ্বীপ পর্যন্ত আসা যায়। আমার বাড়ি মথুরাখন্ড মাঝেরপাড়া গ্রাম একেবারে পঞ্চমুখী নদীর ধারেই পড়ে। ঝড়খালি দ্বীপ থেকে এই মথুরাখণ্ড দ্বীপে খেয়া চলাচল করে। এখানে কিশোরীদা বলে এক ভদ্রলোক খেয়া চালান। তাঁকে আমার কথা বললে তিনি নদী পারাপার করার ব্যবস্থা করে দেবেন।

    সুন্দরবন শ্রমজীবী হাসপাতালকে আন্তরিকভাবে কৃতজ্ঞতা জানাই। তাঁরা এবারেও আমাদের সাথে ঝড় আসার আগেই যোগাযোগ করেছেন। এছাড়াও আমি গুরুচণ্ডালি কে ধন্যবাদ জানাই আমার লেখা প্রকাশের সুযোগ করে দেবার জন্য। এছাড়াও আমি 'গানওয়ালা' নামের একটি গানের দলের সঙ্গে যুক্ত। আমার সঙ্গে কোন ভাবে যোগাযোগ করা সম্ভব না হলে আপনারা যেকোনো প্রয়োজনে এই দলের সদস্য রন্তিদেব রায় অথবা বিশ্বরূপ মিস্ত্রির সঙ্গে যোগাযোগ করতে পারেন।


    (ভিডিওটি সকালের দিকে তোলা)
  • বিভাগ : আলোচনা | ২০ মে ২০২০ | ৫৯৫ বার পঠিত
  • আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা ভাইরাস

  • পাতা : 1
  • তন্বী হালদার | 2409:4060:2081:2d0a:d150:a20a:16e1:7d0b | ২০ মে ২০২০ ১৮:৫৬93503
  • আয়লার সময় আমি বসিরহাট থাকতাম।বাজ পড়েই পাচ জন মারা গেছিল। বসিরহাটেও ইছামতী তে জলস্তর ছাপিয়ে গেছিল

  • Prativa Sarker | 182.66.37.219 | ২০ মে ২০২০ ১৯:০৩93504
  • আয়লার থেকেও ভয়ংকর দুর্যোগ চলছে বাইরে।জানি না কে কোথায় কী ভাবে রয়েছে! 

  • ঝর্না বিশ্বাস | 2405:204:24:d5b4:490c:76d:abd7:1e12 | ২০ মে ২০২০ ১৯:২৫93505
  • পড়েই অসম্ভব ভয় লাগছে। সবাই যেন নিরাপদে থাকেন এটুকুই চাই। 

  • বিপ্লব রহমান | 37.111.234.195 | ২০ মে ২০২০ ১৯:৩৪93507
  • বাংলাদেশের দক্ষিণ উপকূলে সুপার সাইক্লোন আঘাত হেনেছে।  প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেছেন, ঘূর্ণিঝড় মোকাবেলার প্রস্তুতি রয়েছে, বাকীটা আল্লাহ ভরসা!               

  • lcm | 99.0.80.158 | ২১ মে ২০২০ ০১:১২93514
  • এবারের ঝড় সাংঘাতিক বলছে।

    ঘূর্ণিঝড় উম্পুনের ধ্বংসলীলা চলছে গোটা বাংলাজুড়ে। আয়লার ক্ষেত্রে ঝড়ের সর্বোচ্চ গতিবেগ ছিল ঘণ্টায় ১১২ কিলোমিটার। অথচ বাংলার সুন্দরবন উপকূলে সর্বোচ্চ ১৮০ কিলোমিটার গতিতে ঝড় বইল। তবে, বেশ কয়েকঘণ্টা ধরে টানা ঝড় চলছে ১৫০-১৭০ কিলোমিটার। শুধু তাই নয়, কলকাতাতেও ঝড়ের সর্বোচ্চ গতি উঠল ১৩০ কিমি।
  • ন্যাশানাল ডিজাস্টার | 2402:3a80:a3e:685b:0:50:1a94:b801 | ২১ মে ২০২০ ০১:৩৫93515
  • শীঘ্র ঘোষণা করুক!  বহু মানুষের সব শেষ। 

  • বিপ্লব রহমান | 119.30.35.213 | ২১ মে ২০২০ ০৭:০২93519
  • এপারে ছয় জেলায় একজন উদ্ধারকর্মীসহ  অন্তত নয় জনের মৃত্যুর খবর মিলেছে। যশোরে তাণ্ডব চালিয়ে আমফান এখন অগ্রসর হচ্ছে রাজশাহী বিভাগের দিকে। দেশের দক্ষিণের উপকূলের অসংখ্য  গ্রাম  লণ্ডভণ্ড হয়ে গেছে।             

  • দেখবেন | 2409:4065:493:680f:4cae:372c:fb1a:57ed | ২১ মে ২০২০ ০৯:৩৭93523
  • *West Bengal State Emergency Relief Fund*

    *A/C No. 628005501339*
    *IFSC - ICIC0006280*
  • করোনা ভাইরাস

  • পাতা : 1
  • গুরুর মোবাইল অ্যাপ চান? খুব সহজ, অ্যাপ ডাউনলোড/ইনস্টল কিস্যু করার দরকার নেই । ফোনের ব্রাউজারে সাইট খুলুন, Add to Home Screen করুন, ইন্সট্রাকশন ফলো করুন, অ্যাপ-এর আইকন তৈরী হবে । খেয়াল রাখবেন, গুরুর মোবাইল অ্যাপ ব্যবহার করতে হলে গুরুতে লগইন করা বাঞ্ছনীয়।
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত