• হরিদাস পাল  বইপত্তর

    Share
  • দেবেশ রায়কে যেভাবে পড়েছি

    সিএস লেখকের গ্রাহক হোন
    বইপত্তর | ১৫ মে ২০২০ | ৫৯১ বার পঠিত | | জমিয়ে রাখুন পুনঃসম্প্রচার
  • এই লেখাটা খুব সাজিয়ে গুছিয়ে বিশেষ লেখা হবে না, যখন যেমন মনে হবে সেরকমই লিখে ফেলব হয়ত -

    যেমন, আজকের আনন্দবাজারে প্রথম পতায় বাঁ দিকে ছোট করে এক প্যারাগ্রাফের একটি খবর দেখছি। বড় লেখা দেখছি না, ভবিষ্যতে সেরকম কোন লেখা ছাপা হলে অবাকই হব, কারণ দেবেশ রায় আনন্দবাজারের লেখক ছিল না। যদিও সেই ১৯৫৫-৫৬ লেখা প্রথম গল্পটি দেশ পত্রিকাতেই পাঠিয়েছিলেন, ছাপাও হয়েছিল কিন্তু তারপর থেকে দেবেশ রায় পরিচয়েরই লেখক। দীর্ঘদিন ধরে আনন্দবাজারের সাথে লেখা নিয়ে সংঘাতময় সম্পর্ক ছিল এবং সত্তর দশকের কোন এক সময়ে কতিপয় অন্য লেখকের সাথে এই ঘোষিত অবস্থান ছিল যে আনন্দবাজারে কোন লেখা ছাপাবেন না। এর অন্যথা হয়নি, সাহিত্য সংক্রান্ত কোন লেখাই মনে হয় না ঐ গোষ্ঠীর কাগজে ছাপা হয়েছে, একমাত্র সাগরময় ঘোষের মারা যাওয়ার আগে ওনার দ্বারা করা একটি গল্প সংকলনের ওনার অনুরোধে দেবেশ রায় নিজের গল্প অন্তর্ভুক্ত করতে দিয়েছিলেন। আর লেখা বলতে খবরের কাগজে রাজনীতি সংক্রান্ত কিছু লেখা, ২০০৫-এর পরে। ফলে মনে করি যে আনিসুজ্জামানকে নিয়ে ভেতরের পাতায় একটি লেখা ছাপা হয় কারণ আনিসুজ্জামান আনন্দবাজার দ্বারা পুরস্কৃত কিন্তু দেবেশ রায়ের ক্ষেত্রে সেরকম কিছু ঘটবে না কারণ তিনি সচেতনভাবে ঐ কাগজকে প্রত্যাখান করেছিলেন।
  • বিভাগ : বইপত্তর | ১৫ মে ২০২০ | ৫৯১ বার পঠিত | | জমিয়ে রাখুন পুনঃসম্প্রচার
    Share
আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • বিপ্লব রহমান | 162.158.179.93 | ১৫ মে ২০২০ ১৭:২৫93355
  • মানলাম সব। 

    কিন্তু এবিপির অনলাইনে "সম্পাদকের পছন্দ" খোপে গুরুত্ব দিয়েই দেবেশ রায়ের মৃত্যুর সংবাদ প্রকাশ হয়েছে,  শিরোনাম - "তিস্তা পারের বৃত্যান্ত রেখে চলে গেলেন দেবেশ রায়"।            

    এটি কী ভ্রম সংশোধনের চেষ্টা? এপিবির নানা চাতুরী অবশ্য মাঝে মধ্যেই ধরা পড়ে।        

  • অর্জুন | 162.158.118.111 | ১৬ মে ২০২০ ০১:০৭93373
  • 'তিস্তাপারের বৃত্তান্ত' খুব যন্ত্রণাদায়ক পাঠ । লাইব্রেরী থেকে বইটি ১০ মাস রেখেছিলাম। ১০ না ১১ বারের বার লাইব্রেরীর এক কর্মীর ধাতানি খেয়ে অবশেষ সারেন্ডার করে ফেরত দিই । ৪০ পাতার বেশী এগোতে পারিনি । :-(

    বইটি নাকি বাংলা গদ্য সাহিত্যে যারে কয় paradigm shift । হবেও বা । 

  • অর্জুন | 162.158.118.143 | ১৬ মে ২০২০ ০১:১১93374
  • আনন্দবাজারে লেখা ছাপাননি সেটা সত্যিই একটা বড় কৃতিত্ব । ইতিহাসও বলা যেতে পারে । 

    ইনফ্যাক্ট সেটাই দেবেশ বাবুর সবচেয়ে বড় অ্যাচিভমেন্ট, এবার বুঝলাম । ক্ল্যাপ ।  

  • lcm | 172.69.22.73 | ১৬ মে ২০২০ ০১:১৬93375
  • অর্জুনের মতন অভিজ্ঞতা আমারও অনেক সময় হয়েছে - ডাইলেক্টের জন্য - যে কলকাতার বাংলা বা শহুরে বাংলার সঙ্গে আমরা পরিচিত - তা বাদে অন্য কোনো রকমের কথিত বাংলায় লেখা পড়তে গেলে অসুবিধে হয় - যেমন, অদ্বৈত মল্লবর্মের লেখা, বা সতীনাথ ভাদুড়ীর কিছু লেখা।
  • অর্জুন | 162.158.119.10 | ১৬ মে ২০২০ ০১:৫৪93376
  • বিপরীত মুখী সাহিত্যের সঙ্গে যুক্ত, লিটল ম্যাগাজিন সম্পাদনা করেন এরকম আরো কয়েকজনের কাছে শুনেছি এক রকম অভিজ্ঞতার কথা । একজন বলেছিলেন তাঁর দায়িত্ব পড়েছিল বইটির রিভিউ করা । লেখা জমা দেওয়ার ডেডলাইন আসে, আবার বাড়ান । এভাবে কয়েকটা ডেডলাইন পেরোনোর পরে হঠাৎ শোনেন 'তিস্তাপারের......' নাটকটি মঞ্চস্থ হচ্ছে। নাটক দেখে এসে নাকি রিভিউ লিখেছিলেন এবং পরে যে পত্রিকার জন্যে রিভিউ লেখেন, সেই সম্পাদকের কাছে তা স্বীকারও  করেন । 

    আমার মনে হয় উপন্যাসটির সঙ্গে লেখকের একটি বড়সড় ভূমিকা কিছুটা সাহায্য করত  । 

    অর্থ না বুঝলে পাতার পর পাতা পড়া সত্যিই যন্ত্রণাদায়ক ও অসম্ভব । 

    @Icm, কমলকুমার (মজুমদার) ও কঠিন । 

  • Atoz | 162.158.187.170 | ১৬ মে ২০২০ ০১:৫৫93377
  • কিন্তু আমার কেমন যেন মনে হচ্ছে ১৯৯৮ বা ১৯৯৯ বা ২০০০ সালে আমি ওঁর লেখা আনন্দবাজারের রবিবাসরীয়তে দেখেছি।
  • অর্জুন | 113.21.69.205 | ১৬ মে ২০২০ ০২:০৪93378
  • আনন্দবাজারে কেউ ইচ্ছে না হলে লিখবেন না। চুকে গেল । কিন্তু আনন্দবাজারকে কেউ লেখেননি এটা বিশেষত্ব হয়ে দাঁড়ালে তার থেকে 'আনন্দবাজার' বিশেষ মর্যাদা পেয়ে যায় । 

    আমার এক পরিচিত সম্পাদক আছেন । তিনি সুলেখক এবং আনন্দবাজারের চাট্টি নিন্দে করে ও তাচ্ছিল্য প্রকাশ করে, তিনি যে আনন্দবাজারে কোনোদিন লেখেননি এই খবরটি প্রায় প্রতি আড্ডায় একবার তোলেন । আবার তাঁর পত্রিকায় লিখে যাদের লেখালেখির সূচনা  হয়েছে এবং পরে 'দেশ' , 'আনন্দমেলা' ও 'রবিবাসরীয়' তারা লিখেছে এ খবর খুব গর্বের সঙ্গেই বলে থাকেন । 

    ব্যাপারটা আমার কাছে পরিষ্কার হয় না। 

  • অর্জুন | 113.21.69.205 | ১৬ মে ২০২০ ০২:০৬93379
  • *আনন্দবাজারে 

  • Atoz | 151.141.85.8 | ১৬ মে ২০২০ ০২:১৬93380
  • এঁরা কি বোঝেন না যে এতে নিন্দাচ্ছলে স্তুতিই হয়ে যায় ?
  • বিপ্লব রহমান | 37.111.201.117 | ১৬ মে ২০২০ ০৪:১৬93381
  • প্রসংগত,  তসলিমা নাসরিন আনন্দবাজার পুরস্কার পেয়েছেন।  এর আগে ও পরে দীর্ঘদিন তিনি দেশ ও আনন্দবাজারে গুচ্ছের লেখা লিখেছেন। কিন্তু উভয়ের এই সোনার সংসার ভাংলো কীভাবে, কেউ বলতে পারেন?  এখন দেখি সুযোগ পেলেই তসলিমা আনন্দবাজারকে ধুয়ে দেন! 

    কতই রংগ দেখি দুনিয়ায়!  :পি                 

  • Atoz | 151.141.85.8 | ১৬ মে ২০২০ ০৫:১১93383
  • তিনি গুরুচন্ডালিকেও ধুয়ে দেন। সেই মহিলা। একবার ফেবুতে দিয়েছিলেন, গুরুচন্ডালি নামক মূর্খদের সাইটে নাকি একদল মূর্খ পশ্চিমবঙ্গবাসী সারাদিন ধরে মূর্খামি করে।
  • বিপ্লব রহমান | 37.111.201.117 | ১৬ মে ২০২০ ০৬:৪৮93384
  • তাই নাকি? অমন হলে আশ্চর্যের কিছু নয়। আসলে "ওরা ভয় পেয়েছে রবসন"!  

  • বিপ্লব রহমান | 37.111.201.117 | ১৬ মে ২০২০ ০৭:২৯93385
  • কলেজে পড়ার সময় ঢাউস "তিস্তা পারের বৃত্তান্ত" পড়েছি।  বোধহয় পড়তে মাসখানেক সময় লেগেছিল।  তিস্তার সেই প্রবল বানের বর্ণনা খুব মনে দাগ কেটেছে।  পুরো কাহিনী ভাল মনে নেই, আবার পড়তে হবে।    

    এখন এপারে তিস্তায় পানির অভাবে উত্তরবংগের কয়েকটি জেলা মরুভূমি হতে বসেছে।  কে যে হিরক রাণীর নাম "মমতা" রেখেছিলেন, সেটাই ভাবি,  তিনি আসলে স্বার্থক  ক্ষমতা ব্যানার্জি।  অথবা এরই নাম রাজনীতি।                       

  • বিপ্লব রহমান | 37.111.201.117 | ১৬ মে ২০২০ ০৮:২৩93386
  • পুনশ্চঃ "তিস্তাপারের বৃত্তান্ত" বোধহয় এখন এপারের তিস্তা অঞ্চলের উত্তরবংগের মানুষের কাছে অলীক স্বপ্ন মনে হবে। 

     

  • | 2401:4900:1886:aa4c:ab90:5ac4:7035:dd6a | ১৬ মে ২০২০ ১০:৪০93387
  • কিসব চাট্টি অপ্রাসঙ্গিক মন্তব্য, ধুসস।

    দেবেশ রায় পাঠ সম্পর্কে আমার একটা খুব ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা আছে। তখন শারদীয়া আজকাল বেশ ভাল হোত। তখনো আমি তিস্তাপারের বৃত্তান্ত পড়ি নি। তা শারদীয়া আজকালেই দেবেশ রায়ের একটা নভেলা পড়েছিলাম। এক সাংবাদিক মুর্শিদা না বহরমপুর কোথায় যেন গেছেন একটা গণধর্ষণের ঘটনার রিপোর্ট করতে, সারাদিন সেসব করেটরে রাতের ট্রেনে ফিরছেন। চিত্র সাংবাদিক সম্ভবত পাশের কামরায়। এইবার খালি হতে থাকা মহিলা কামরায় বসে সাংবাদিক আস্তে আস্তে অনুভব করতে থাকেন যে তিনি, তিনিও আসলে একটি ধর্ষণযোগ্য দেহ বহন করে চলেছেন। সেই অনুভবে পৌঁছানোর পুরো প্রক্রিয়ায় দেবেশ রায়ের আশ্চর্য্য লেখনী আমাকে গল্পটার সাথে একাত্ম করে বেঁধে ফেলেছিল। শেষ হবার পরেও অনেকক্ষণ থম ধরে বসেছিলাম। হাড়হিম হয়ে অন্ধকারে তলিয়ে যাবার সেই অনুভূতি আজও মাঝে মাঝে হন্ট করে।

    আমি, যে আমি রাত সাড়ে দশটার ডানকুনি লোকাল ধরে রাত বারটার আগেপরে একা একা ফিরতাম, যে আমি কানের কাছে নোংরা কথা বলায় একজনকে ছাতা দিয়ে পিটিয়ে ছাতা ভেঙে ফেলেছিলাম, সেই আমি এই গল্প পড়ার পরে দীর্ঘদিন অদ্ভুত বিপন্ন অসহায়তায় ভুগেছি।

    এর পরে তিস্তাপারের বৃত্তান্ত, বরিশালের যোগেন মন্ডল মফস্বল ইত্যাদি যাই পেয়েছি গোগ্রাসে গিলে ফেলেছি।
  • b | 14.139.196.11 | ১৬ মে ২০২০ ১১:৪২93390
  • একটু কষ্ট করে, হোমওয়ার্ক করে তো পড়তে হবে। দাদু কবি কইসেন, ভালো জিনিসকে ভালো লাগানোও একটা সাধনা।
  • সম্বিৎ | 71.202.35.85 | ১৬ মে ২০২০ ১১:৫২93391
  • তিস্তা বড় হয়ে পড়ব।

  • অর্জুন | 223.223.144.177 | ১৬ মে ২০২০ ১৩:১৫93394
  • 'তিস্তাপার......' সাহিত্য অকাদেমী না পেলে বাঙালি হৃদয়ে না মস্তিস্কে জায়গা পেত ?

    বাংলা গদ্য নিয়ে যাদের এত চিন্তা তারা সুন্দরবনের 'আবাদ সাহিত্য' বীরভূমের আদিবাসীদের লেখা পত্র পত্রিকা পড়েন ? 

    দেবেশ রায়কে ভাল বলার মধ্যেও সেই শহুরে পনা আর পুরষ্কার সর্বস্ব মানসিকতা ! 

    তসলিমার বর্তমান রাজনৈতিক অবস্থান  গণ্ডগোলে হলেও তাঁর আগের লেখা, মানে বাছাই করা বেশ কিছু লেখা আমার এখনো খুব প্রিয় ।  

আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত