• মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • sm | 52.110.134.149 (*) | ০৭ সেপ্টেম্বর ২০১৭ ০১:৫০82024
  • আমার কাছের একজন, কেজিপি খড়্গপুরের ফি জমা দেবার অপশন দেখছিলো।মূলত এস বি আই অনলাইন দিয়ে ফি ট্রান্সফার।
    এসবিআই এর একাউন্ট থেকে বা কার্ড থেকে পেমেন্ট করলে ৫৭ টাকা মতন লাগছে।
    অন্য ব্যাংকের কার্ডে পেমেন্ট করলে ১০৯০ টাকা!
    প্রদেয় ফি এর পরিমান এক লক্ষ টাকার মতন।
    কেউ ক্যাশ দিতে চাইতেই পারে।
  • 2>&1 | 113.252.26.99 (*) | ০৭ সেপ্টেম্বর ২০১৭ ০১:৫৭82025
  • অনলাইন বা ডিজিটাল পেমেন্ট সিস্টেমের পেছনে বেশ ভালোমতো ইনফ্রাস্ট্রাকচারের খরচ আছে যেটা ক্রেডিট/ডেবিট কার্ড প্রোভাইডার বা ই-ওয়ালেট কোং গুলো মার্চেন্টের থেকে আদায় করে। অনেকক্ষেত্রেই মার্চেন্ট এটা কাস্টমারের ঘাড়ে চাপায় - অনেক দোকানে কার্ডে দিলে 1/1.5% বেশী দিতে হয়।
  • sm | 52.110.134.149 (*) | ০৭ সেপ্টেম্বর ২০১৭ ০১:৫৮82026
  • আগেও বলেছি ডিজিটাল পেমেন্ট সবচেয়ে ভালো পন্থা।কিন্তু সরকারকে নেট কানেকশন আরো বেশি মজবুত ও সস্তা করতে হবে।
    দুই, ডিজিটাল পেমেন্ট করলে ইনসেনটিভ এর ব্যাবস্থা রাখতে হবে। কারণ সরকার ও জনসাধারণ জানে দেশে ক্যাশ লেনদেন এর পরিমান কয়েক লক্ষ কোটি টাকা।
    ডিজিটাল পেমেন্ট সিস্টেম এর আওতায় এলে সরকারের লক্ষ কোটি টাকা এক্সট্রা ট্যাক্স মেলা উচিত ।
    সেটার এক অংশই ইনসেনটিভ দেওয়া যেতে পারে।
  • nabanita | 162.79.255.200 (*) | ০৭ সেপ্টেম্বর ২০১৭ ০৪:১৮82027
  • ডিজিটাল পেমেন্টে খরচ বাড়ে কথাটা শুনলে মনে হয় কেন বাড়বে? আমি যদি নিজে হিসাব করে চলি ইত্যাদি... কিন্তু এটা অনেকখানি সাইকোলজিকাল ব্যাপার। ফাইনান্সিয়াল কোম্পানীরা বহুদিনের রিসার্চে জানে মানুষকে কি করে খরচা করিয়ে দেওয়া যায়।
    ধরুন দোকানে টিভি কিনতে গেছেন বাজেট ২৫০০০ টাকা। যদি ক্যাশ বা চেক ব্যবহার করেন তাহলে ঐ ২৫০০০ এর মধ্যেই টিভি কিনতে হবে, যে মডেল যা ফীচার পাবেন তাই। কিন্তু দোকানে গেলে সব সময়েই দেখা যায় যে আমার বাজেটের একটু উপরে গেলেই অনেকটা বেটার ফীচার্সের মডেল। হয়তো দেখলেন আজ ১০০০০ টাকা বেশি খরচ করলে অনেক বেশি ভাল টিভি পাবেন। ক্রেডিট কার্ড থেকে ঐ দশ হাজার দিয়ে দেওয়া কোনো ব্যাপার নয়- এখানেই বাজেটের থেকে ১০০০০ টাকা খরচ বেড়ে গেল। সেই মাসেই না দিলে গুণতে হবে সুদও।
    শুধু তাই নয় ক্রেডিট কার্ডরা নানা রকমের অফার দিয়ে থাকে বিভিন্ন দোকানের সঙ্গে মিলে। যে জিনিস হয়তো দরকার নেই বা তিন মাস বাদে কিনলেও চলে আজকেই তা কিনে নিলেন - সুদ কিন্তু আপনাকেই গুণতে হবে।
    ভার্চুয়াল এই টাকার গুঁতোয় বহু আমেরিকান পরিবারের রোজগারের বেশিটাই চলে যায় ক্রেডিট কার্ডের সুদ মেটাতে। ডিজিটাল পেমেন্ট need vs. want এই গ্যাপ টা ভুলিয়ে দেয়। সঙ্গের টাকা শেষ হয়ে যাওয়া এক বিরা খরচ কন্ট্রোল, ক্রেডিট বা ডেবিট কার্ডে সেই কন্ট্রোলটা থাকে না।
  • ddt | 24.139.196.6 (*) | ০৭ সেপ্টেম্বর ২০১৭ ০৮:৩৬82028
  • প্রতিভাদেবী, একদম হক কথা বলেছেন, তথ্যগুলোর সোর্স দেওয়া হয় নি। ডিজিটাল বেচাকেনা বাড়া কমার সূত্র এখানে পাওয়া যেতে পারে

    (১) http://www.ndtv.com/india-news/did-demonetisation-help-digital-payments-back-to-pre-notes-ban-levels-1744688

    (২) http://www.moneycontrol.com/news/business/economy/digital-payments-growth-dips-27-in-aug-from-peak-bhim-upi-to-take-charge-2380617.html

    শেষমেশ বেড়েছে বটে। কিন্তু কতখানি ডিমনির জন্য সন্দেহের।

    অ, ২&১ উত্তরটা দিয়ে দিয়েছেন। পিওএস মেশিন ব্যবহার করলে যে ব্যাঙ্কের পিওএস ব্যবহার করা হচ্ছে সে দোকানদারের থেকে একটা চার্জ কেটে নেয়। চার্জ বেচাকেনার পরিমানের ১% - ২%-এর কাছাকাছি। দোকানদার সেটা খদ্দেরের বিলে ওপর ট্রান্সফার করে দেয়। ফলে খরচ বাড়ে। আবার, অনলাইন গ্যাস বুক করলে বা ট্রেনের টিকিট কাটলেও চার্জ কাটে।
    সব সময় ট্রান্সফার করা হয় এমনটা নয় যদিও। বড় ব্যবসায়ীরা ওইটুকু হজম করে নিতে পারে।
    নবনীতাদেবী একখানা মনস্তাত্ত্বিক কারণ দিয়েছেন। এটা ভেবে দেখি নি।

    এস এম, একমত। ডিজিটালে যদি বিল না বাড়ে (আমরা বীভৎস মূল্য-সংবেদনশীল, যারে কয়, প্রাইস সেন্সিটিভ), যদি ইনফ্রাস্ট্রাকচার থাকে (বিদ্যুৎ, ইন্টারনেট স্পীড, পিওএসের যোগান, কাস্টমার সাপোর্ট, ইত্যাদি) তা'লে লোকে নিজে থেকে ডিজিটালে চলে যাবে। উদাঃ কী সুন্দর মোবাইলে চলে গেছে। ঘটনা হচ্ছে অনেক জায়গায় লাইন থাকে না। ইন্টারনেট কানেকশন শামুকগতি।
  • Prativa Sarker | 37.5.132.185 (*) | ০৭ সেপ্টেম্বর ২০১৭ ১২:১৮82022
  • শৌভিক ঘোষাল লিখেছেন ডিজিটাল ব্যবসা বাড়ানো মোদীর মূল উদ্দেশ্যের মধ্যে একটা। আর তা বেড়েওছে। এখানে পড়লাম বেড়ে কমেছে। ব্যক্তিগত অভিজ্ঞতা পরেরটাই বলছে। কিন্তু লেখকদ্বয় স্ব সস্ব প্রমাণ করার জন্য কোন অথেনটিক সোর্সের লিনক ইত্যাদি ব্যবহার করলে কনফিউশন হতো না।
    যাই হোক একটা বড় সর্বনাশের মাত্রা দেখতে সাহায্য করল লেখাদুটো।
  • a | 213.111.93.76 (*) | ০৭ সেপ্টেম্বর ২০১৭ ১২:৪৪82023
  • ডিজিটাল পেমেন্টে খরচ বাড়ে কিভাবে?
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:

কুমুদি পুরস্কার   গুরুভারআমার গুরুবন্ধুদের জানান


  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত


পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। ঠিক অথবা ভুল মতামত দিন