• বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়।
    বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে।
  • NRC-NPR-CAA -- বিদ্রোহের অষ্টম দিন, আসাম এবং বাংলা

    admin
    বিভাগ : টুকরো খবর | ২৩ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২৫ বার পঠিত
  • আজকের গোলমাল যাদবপুরে। এন-আর-সি বিরোধী সভা ডাকলেই বিপুল ভিড় হচ্ছে। এমনকি যে সমস্ত সংগঠনরা এতদিন মাছি তাড়াতেন, এন-আর-সির বিরুদ্ধে মাইক নিয়ে বলতে উঠলেই তাঁদের জমায়েত শুনতেও লোকে হাজির, অনেকেই একে মোদী সরকারের কৃতিত্ব বলছেন। উল্টোদিকে হিন্দুত্ববাদী জমায়েতে লোকজন দেখতে পাওয়া যাচ্ছেনা। তাই তাঁরা গেরিলা টেকনিক নিয়েছেন।  যাদবপুরের কাছে একটি নারীবাদী গোষ্ঠীর এন-আর-সি বিরোধী সভা ছিল। সভার শেষে বাঘাযতীনে একটি চায়ের দোকানে তাঁরা চা খাচ্ছিলেন। ভিড় কম ও মহিলা, সম্ভবত এই যুগলবন্দী থেকে কয়েকজন হিন্দু বীর মুখোশ এঁটে 'জয় শ্রীরাম' ধ্বনি দিতে-দিতে তাঁদের আক্রমন করেন। পরিকল্পনা ছিল আক্রমন করেই গেরিলা কায়দায় পশ্চাদপসরণ করার। কিন্তু, এমনকি ফাঁকা জায়গায়ও আজকাল 'জয় শ্রীরাম' ধ্বনি শুনলেই প্রতিরোধ তৈরি হয়ে যাচ্ছে। ফলে একজন ধরা পড়েন। তাঁকে পুলিশের হাতে তুলে দেওয়া হয়েছে। 

    প্রধানমন্ত্রী, শোনা যাচ্ছে, এক কথায় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী এবং রাষ্ট্রপতিকে মিথ্যেবাদী বলেছেন। দিল্লিতে এক জনসভায় প্রধানমন্ত্রী কাল বলেছেন, এন-আর-সি নিয়ে ২০১৪ সাল থেকে কোথাও কোনো কথাই হয়নি। ওদিকে কদিন আগেই তাঁর স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী ওর গলায় বলেছিলেন, এন-আর-সি করেই ছাড়বেন। তার কদিন আগে রাষ্ট্রপতিও সংসদে একি কথা বলেছিলেন। অবশ্য এও হতে পারে, প্রধানমন্ত্রী বিদেশ সফর বা নিজের সুট নিয়ে চিন্তায় বিভোর থাকায় শুনতে পাননি। অথবা রাষ্ট্রপতি বা স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী, প্রধানমন্ত্রীকে কিছু বলার প্রয়োজন মনে করেন না। কোনটা ঠিক জানা যায়নি।

    উত্তরপ্রদেশে হিংসা অব্যাহত। মার ধোর, গুলিগোলা তো ছিলই, শোনা যাচ্ছে মুখ্যমন্ত্রী যোগি এখন 'শিক্ষা' দেবার পদ্ধতি নিয়েছেন। এন-আর-সি-বিরোধী জানলেই দোকানদারদের দোকানে ঝুলিয়ে দেওয়া হচ্ছে তালা। এ কাজ আইন বা সংবিধান সম্মত কিনা সে প্রশ্ন কেউ অবশ্য আর তুলছেন না। এই সময়ে প্রশ্নটাই অর্থহীন। 

    এসবের মধ্যেই পূর্ব ভারতের কেষ্টবিষ্টুদের বাঙালিবিরোধী কর্মপদ্ধতি অটুট। রাজ্যপাল ধনখড় বনহুগলীতে একটি সভায় বলেছেন, 'সংবিধানে বলা হয়েছে হিন্দিই আমাদের ভাষা। তাই ইংরেজির পাশপাশি হিন্দিতেও কথা বলার জন্য নিরন্তন প্রয়াস চালানো উচিত। সংবিধান অনুযায়ী হিন্দি আমাদের ভাষা।' সভাটি ছিল 'রাষ্ট্রীয় গতিশীল দিব্যাঙ্গ জন সংস্থা'র। কোনো বাঙালি যে এর অর্থ বলতে পারবেন না, এ মোটামুটি নিশ্চিত।

    আসামে মন্ত্রী হিমন্ত বিশ্বশর্মা জানিয়েছেন, রাজ্য ভাষা হিসেবে অসমিয়াকেই স্বীকৃতি দেওয়ার কথা ভাবছেন অমিত শাহরা। এমনকী অসম বিধানসভার আগামী অধিবেশনে সেই বিষয়টি পাশ করিয়ে অসমের সব স্কুলে বাধ্যতামূলক অসমিয়া ভাষা রাখা হবে। শুধু তাই নয়, আনা হচ্ছে আরও একটি নতুন আইন। নতুন এই আইন অনুযায়ী অসমিয়া ছাড়া আর কেউ রাজ্যে জমি কিনতে পারবেন না।

    এই আইন পাশ হলে, নিঃসন্দেহে আসামের বাঙালিদের উপর তা বিরাট আঘাত। এবং ভারতীয় যুক্তরাষ্ট্রের কাঠামো নিয়েই পুনর্বিবেচনা প্রয়োজন, মনে করছেন অনেকে। এ নিয়ে তেমন হেলদোল অবশ্য দেখা যাচ্ছেনা। উত্তরপ্রদেশের অবস্থা এবং ঝাড়খন্ডের নির্বাচনের ফল, এ নিশ্চয়ই আসামের চেয়ে অনেক বড় খবর। আসমুদ্র হিমাচল তাই নিয়েই ব্যস্ত।

  • বিভাগ : টুকরো খবর | ২৩ ডিসেম্বর ২০১৯ | ২৫ বার পঠিত
  • আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা ভাইরাস

  • পাতা : 1
  • | 236712.158.786712.53 (*) | ২৩ ডিসেম্বর ২০১৯ ০৪:২২79695
  • রামলীলা ময়দানে ফেকুর মিথ্যেকথাটা ও ডকুমেন্টেড থাকুক

  • | 237812.69.453412.38 (*) | ২৩ ডিসেম্বর ২০১৯ ১১:৩১79697
  • আসামের বিজেপী সরকার বিল আনছে যাতে অসমিয়া না হলে আসামে আর কেউ জমি কিনতে পারবে না। তো
    ১) কাশ্মীরে জমি কিনতে চাওয়া গোসন্তানদের কোন বক্তপব্য এখনো দেখি নি। (গুরুতেও দু একটা হাম্বা হাম্বা করছিল সেই সময়)
    ২) রামদেবের বোধয় বেশ বড়সড় জমি আছে আসামে।

    আর আমরা অনেকে ঠিক করেছি কোন ডকুমেন্ট দেব না। তো সেটাও একটা প্রতিবাদের লাইন।
  • করোনা ভাইরাস

  • পাতা : 1
  • গুরুর মোবাইল অ্যাপ চান? খুব সহজ, অ্যাপ ডাউনলোড/ইনস্টল কিস্যু করার দরকার নেই । ফোনের ব্রাউজারে সাইট খুলুন, Add to Home Screen করুন, ইন্সট্রাকশন ফলো করুন, অ্যাপ-এর আইকন তৈরী হবে । খেয়াল রাখবেন, গুরুর মোবাইল অ্যাপ ব্যবহার করতে হলে গুরুতে লগইন করা বাঞ্ছনীয়।
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত