• বুলবুলভাজা  খবর  খবর্নয়

  • কামদুনি থেকে

    দীপাঞ্জন লেখকের গ্রাহক হোন
    খবর | খবর্নয় | ১৯ জুন ২০১৩ | ৪২৯ বার পঠিত
  • পছন্দ
    জমিয়ে রাখুন পুনঃপ্রচার
  • বারাসাতের কামদুনি গ্রামটিতে গণধর্ষণ আর হত্যা ঘটনা ঘটে যাওয়ার পর, কলকাতার কিছু রাজনৈতিক কর্মী, আর অন্যান্য ব্যক্তিদের সঙ্গে স্থানীয় মানুষদের আন্দোলনের সংহতিতে গ্রামটিতে গিয়েছিলাম গত ১৬ জুন। মমতার কামদুনি সফরের ঠিক একদিন আগে। নিচের লেখায় তারই একটা সংক্ষিপ্ত বিবরণ ধরা থাকলঃ

    আমি এর আগে কোন ধর্ষিতার পরিবারের মুখোমুখি হইনি। তাই যখন মধ্যমগ্রাম  স্টেশন থেকে ‘ম্যাজিক’ করে আমরা রওনা দিলাম কামদুনি গ্রামের দিকে, ঠিক তখন আমার মনে হল — ঠিক কী বলব সেই মেয়েটির বাবার কিংবা ভাইয়ের সামনে দাঁড়িয়ে, যে মেয়েটিকে ধর্ষণ করে মেরে ফেলার আগে দুই পায়ের উরু ভেঙ্গে ফেলা হয়েছে ঠিক ৯ দিন আগে? যে কোন কথা, এমনকি সহানুভূতির কথাও কি অতিরিক্ত হয়ে যাবে না সেখানে? কিম্বা সেইসব গ্রামবাসীদের কাছেই বা আমরা কতটা গ্রহণীয় হব, যাদের চেনা মেয়েটি, যার সঙ্গে তাদের অনেকে বড় হয়ে উঠেছে, একসঙ্গে খেলা করেছে, গল্প করেছে প্রাণ খুলে, এক একদিন কিংবা হয়তো একটু অভিমানী ঝগড়াও, সে একদিন ফিরে এলো বস্তাবন্দী লাশ হয়ে? এরকম ভাবতে ভাবতেই পৌছলাম কামদুনি গ্রামটাতে।

    কোনো কারণে গ্রামটা তখন সাংবাদিক আর মিডিয়া ভ্যানএ ভর্তি ছিল না। প্রাক্তন ও বর্তমান শাসকদলের রাজনৈতিক নেতানেত্রীর ভিড় ছিল না, যে নেতাদের অনেকের বিরুদ্ধেই আছে সরাসরি যৌন হেনস্থা কিংবা নারী নির্যাতন করার কিংবা তাকে প্রশ্রয় দেওয়ার অভিযোগ। আশ্চর্য ভাবেই সেদিন গ্রামটা ছিল তুলনায় নিশ্চুপ। ছিলেন দু’একজন সাংবাদিক আর কলকাতা থেকে দেখা করতে আসা নাট্যকর্মীদের একটি ছোট দল।

    আরো নিশ্চুপ ছিল মেয়েটির বাড়ি। বাবা এলেন দেখা করতে, ভায়েরাও, সবারই চোখ মুখে এক ধরনের বিহ্বলভাব। ‘শোকে পাথর হয়ে যাওয়া’, ক্লিশে হয়ে যাওয়া এই বাংলা বাক্যবন্ধের মানে যেন আরও খানিকটা স্পষ্ট করে বুঝতে পারলাম। সেই মুহূর্তে খুব বেশি  কিছু বলার ছিল না। প্রথামাফিক সমবেদনা জানানোও হলো। সামান্য দুচার কথাও বলা হলো। তারপর আস্তে আস্তে বেরিয়ে এলাম সবাই...

    কিন্তু কামদুনি তো শুধু শোকের, শুধু যন্ত্রণার নাম নয়, আজ কামদুনি মানে প্রতিবাদ, কামদুনি মানে রাষ্ট্রের গালে একটা বড় থাপ্পড়। গোটা সমাজ জুড়ে চলতে থাকা (বাড়তে থাকা?) যৌন-হিংসার প্রবণতার বিরুদ্ধে কোনো কার্যকরী পদক্ষেপ না নিয়ে, বরং সুযোগ পেলে ধর্ষণ আর যৌন-হিংসার মাধ্যমে মানুষের প্রতিবাদের টুঁটি টিপে ধরতে চায় যে রাষ্ট্র— সেই ধর্ষণের ঘটনাগুলোকে ধামাচাপা দিতে চায় চাকরি আর টাকার প্রলোভন দেখিয়ে। ব্যবস্থাটার জন্য ওটাই একমাত্র “ড্যামেজ কন্ট্রোল মেকানিজম”।আর তাই কামদুনির মানুষদের ক্ষোভের  স্বতস্ফূর্ত বিস্ফোরণটা এতো গুরুত্বপূর্ণ। ঐ মুহূর্তটায় তারা একটা জোরালো ‘না’ বলেছেন টাকার থলেকে, রিফিউজ করেছেন রাষ্ট্রের প্রলেপ লাগানোর কৌশলকে। তার কিছুটা পরিচয় পেলাম গ্রামের বাকিদের সঙ্গে কথা বলতে গিয়ে। তাদের কারো সঙ্গে কথা হলো বাড়ির উঠোনে, কারো সঙ্গে কলতলায়, ক্লাবের সামনে, রাস্তার মোড়-এ, যেসব জায়গার কোথাও কোথাও  হয়তো সেই মেয়েটির স্পর্শ আজো লেগে আছে। সেই সংলাপেরই কিছু টুকরো এরকম—

    “এ আজকের ঘটনা নয় , অনেক দিন ধরেই চলছে”

    “এই রাস্তায় কোন গাড়ি চলেনা , স্কুলে পড়তে গেলে বাচ্চাদের কম করে আধ ঘন্টা হেঁটে যেতে হয়”

    “রাস্তায় আলো নেই অনেক জায়গায়, আলো চাই”

    “মেয়েরা তো স্কুল কলেজে যেতে ভয় পাচ্ছে, এরকম চললে তো মেয়েদের পড়াশোনা বন্ধ হয়ে যাবে”

    “আমরা শেষ দেখে ছাড়ব, টাকা-চাকরি কিছুই নিইনি, নেবও না”

    “দিদি যদি আসে তাহলে তাঁকে অনেক কথা শুনতে হবে”

    “যেখানে হয়েছে ঘটনাটা সেখানকার পাঁচিলটা ভেঙ্গে দিতে হবে, জায়গাটা সমাজবিরোধীদের আড্ডা, সরকার না ভাঙ্গলে আমরাই ভেঙ্গে দেবো”

    “এরকম ঘটনা কিন্তু আগেই ঘটেছে, এ পাড়ারই একজন বৃদ্ধাকে ধর্ষণ করে দুষ্কৃতিরা, কিন্তু ২০০০টাকা পেয়ে তিনি আর পুলিশে অভিযোগ জানাননি। কিন্তু আর এরকম হবে না”

    “আমরা ১৮ তারিখ পর্যন্ত সময় দিয়েছি, তারপর যা করার করবো”

    “আমরা চাই আন্দোলনটা ছড়িয়ে পড়ুক সব জায়গায়, আপনারা যদি কলকাতায় কিছু করেন আমাদের ডাকবেন আমরা সবাই মিলে যাবো”

    আবার এর মাঝেই শোনা  গেল একটু অন্য স্বরও যেটা বেশ চিন্তার বিষয়

    “আমরা চারিদিক থেকে ঘিরে বসে আছি, অন্য ধর্মের লোকেরা সীমান্ত পেরিয়ে আসছে, তাদের হাতে আক্রান্ত আমাদের মা বোনেরা”

    যখন জিগ্গেস করা হলো কেন মনে হচ্ছে এই কথা, উত্তরে শোনা  গেলো আবার একই কথার পুনরাবৃত্তি—

    “আমরা চারিদিক থেকে ঘিরে বসে আছি, অন্য ধর্মের লোকেরা.........”

    চোখমুখ দেখেও বোঝা গেলো কথাগুলো মুখস্ত করানো হয়েছে , এখনো আত্মস্থ হয়েনি ........

    পরিচিত লোকেদের কাছ থেকে শোনা গেল হিন্দু সংহতি মঞ্চ দুদিন আগেই একটা সভা করেছে বারাসাতে , গ্রামে ঢুকে নিয়মিত প্রচার চালাচ্ছে, প্রচারপত্র বিলি  চলছে, পোস্টারও মেরেছে।

    এ এক ভয়াবহ বিপদ, যে স্পর্ধায় কামদুনির মানুষ ক্ষতিপূরণের টাকা অস্বীকার করেছে, সেই সাহসেই, আন্দোলনের পক্ষে বিপদজনক এই প্রবনতার বিরুদ্ধেও লড়বেন আশা  করা যায়।

    সবার শেষে একটা মিছিল বেরোলো। মিছিলটা শুরু হলো জনা চল্লিশ আমাদের মতো “বহিরাগত” মানুষ নিয়ে, আর শেষ হলো শ’দেড়েক মানুষের মিলিত ক্রোধ, শোক আর প্রতিবাদে। মিছিলের ভেতরে থাকা গ্রামের মানুষরা ডাক দিয়ে, হাত ধরে ডেকে নিয়ে এলেন রাস্তার পাশে দাঁড়িয়ে থাকা অন্যান্য গ্রামবাসীকে— “আরে এই মিছিলে তো আসতেই হবে”। এও একটা অন্য মিছিলের  অভিজ্ঞতা।

    ফিরে আসার সময় একটা কথা মনে হচ্ছিলো। আমরা কজন বহিরাগত যদি আজ থেকে দুমাস আগে কামদুনি গ্রামে গিয়ে একটা মিছিল করতাম তাহলে কী হত? তাও আবার ধর্ষণের মতো একটা স্পর্শকাতর বিষয় নিয়ে? একটা ঘটনা, তার প্রতিবাদ, আন্দোলন কতটা পরিবর্তন করে দিতে পারে দৃশ্যপট? কীভাবে একজন হতদরিদ্র বাবা চাকরি আর ক্ষতিপূরণের প্রস্তাব অস্বীকার করে রাষ্ট্রের গালে সপাটে থাপ্পড় কষান? কী করে পান এই স্পর্ধা? কী করে স্পর্ধা পান কামদুনি গ্রামের সাধারণ বাসিন্দারা ক্ষমতার রাজনীতির বিরুদ্ধে দাঁড়াতে, হয়তো সাময়িকভাবে হলেও? নিশ্চই তার একাধিক কারণ আছে। কিন্তু আমার মনে হলো দিল্লির দামিনীর ঘটনাটি আর তার পর দেশ জোড়া প্রতিবাদও কি তার একটা কারণ নয়? আর এইভাবেই কি দিল্লির দামিনী আর কামদুনির অপরাজিতা, মৃত্যুর পরে হলেও, একে অপরের সঙ্গে একসূত্রে গাঁথা পড়ে যান?

    আমাদের কামদুনি সফরের কিছু ছবি --

     

     

     

    সঙ্গে রইল আমাদের কামদুনি সফরকে ঘিরে তোলা একটা ছোট্ট ভিডিও --

    http://www.youtube.com/watch?feature=player_embedded&v=9UkUAzYKHDs

  • বিভাগ : খবর | ১৯ জুন ২০১৩ | ৪২৯ বার পঠিত
  • পছন্দ
    জমিয়ে রাখুন গ্রাহক পুনঃপ্রচার
  • কোনোরকম কর্পোরেট ফান্ডিং ছাড়া সম্পূর্ণরূপে জনতার শ্রম ও অর্থে পরিচালিত এই নন-প্রফিট এবং স্বাধীন উদ্যোগটিকে বাঁচিয়ে রাখতে
    গুরুচণ্ডা৯-র গ্রাহক হোন
    গুরুচণ্ডা৯তে প্রকাশিত লেখাগুলি হোয়াটসঅ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে যুক্ত হোন। টেলিগ্রাম অ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলটির গ্রাহক হোন।
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • ranjan roy | 24.97.41.8 (*) | ১৯ জুন ২০১৩ ০১:৩৮76988
  • জরুরি, কিন্তু চিন্তা বাড়ছে। বিশেষ করে মুখ্যমন্ত্রীর সফরের পর।
  • অনুপম | 125.253.179.213 (*) | ১৯ জুন ২০১৩ ০২:১০76989
  • প্রতিনিয়ত কামদুনি'র সাথে শহরের যোগাযোগ না থাকলে প্রতিবাদী গ্রামবাসীদের দূর্ভোগের স্বাদ পেতে হতে পারে। অতএব টানটান থাক সার্বিক প্রতিবাদ।
  • কৃশানু | 177.124.70.1 (*) | ১৯ জুন ২০১৩ ০৫:৩৬76987
  • ভালো। জরুরি।
  • sandipan | 146.152.4.237 (*) | ১৯ জুন ২০১৩ ০৭:৩৬76990
  • ভালো লেখা। গ্রামবাসীদের দুর্ভোগের হাত থেকে বাঁচানোর জন্য নয়, শহরবাসীরা বরং সচেতনতার জায়গা থেকে দাবীর পক্ষে দাঁড়িয়ে কামদুনির মানুষের সংগে থাকুন।
  • রূপঙ্কর সরকার | 126.203.181.148 (*) | ২০ জুন ২০১৩ ০৫:৫৭76991
  • এক মাসের মধ্যে নাকি ফাঁসির দাবী জানান হবে। ব্যাস হয়ে গেল ফাঁসি। অরুণা শানবাগের ধর্ষনকারি সোহনলাল বাল্মিকী তিন বছর জেল খেটে ছাড়া পেয়েছে।

    আমি একটা বালখিল্যের মত কথা বলছি - লোকে বলে আইন নিজের হাতে তুলে নেবেননা। আরে আইন রাস্তায় পড়ে কাঁদছে যে - তুলে নেবনা? কি জানি, আর কখানা এমন কান্ড হলে লোকে আমার সুরে কথা বলবে। নাকি কোনওদিনই বলবেনা।
  • Arijit | 227.115.65.15 (*) | ২০ জুন ২০১৩ ০৬:৪৬76992
  • প্রতিদিন কামদুনির মানুষের কাছে যাওয়া
    দরকার। চোপ -এর পাল্টা চোপ আর কবে বলতে শিখবো?
  • প্রচার | 69.93.245.216 (*) | ২০ জুন ২০১৩ ১১:২৫76994
  • [প্রতিদিন কামদুনির মানুষের কাছে যাওয়া
    দরকার। চোপ -এর পাল্টা চোপ আর কবে বলতে শিখবো?]

    আমার তো মনে হয় এটাই সবচেয়ে আগে ও সবচেয়ে বেশী দরকার । " যাওয়া দরকার" এর সাথে শুধু যোগ করতে চাই " যতটা সাধ্য ওদের অবশ্যম্ভাবী প্রয়োজন মেটানতে সাহায্য করা । "
  • saradindu pal | 127.201.96.151 (*) | ০৪ জুলাই ২০১৩ ১১:০৬76995
  • রাচান্তা ভালো laglo
  • Ashish Saha | 213.197.123.130 (*) | ০৫ জুলাই ২০১৩ ০৯:১৬76996
  • khub bhalo laglo
  • harmad | 203.222.161.6 (*) | ০৫ জুলাই ২০১৩ ১০:৪৩76997
  • চোপ !!! যত সব মাও
  • Amit | 213.94.240.251 (*) | ১২ জুলাই ২০১৩ ০৩:৪৬76998
  • প্রতিবেদনটা পড়ে মন খারাপ হওয়া ছাড়া বোধহয় আমাদের আর কিছু করার নেই।

    আজ শুনছি , "চোপ !!! যতসব মাও"
    আগে শুনেছি "এমনতো কতই হয় !!! (বানতলা প্রসঙ্গে) "

    সেই ট্র্যাডিশন সমানে চলছে।
  • মতি | 233.180.161.132 (*) | ০৩ সেপ্টেম্বর ২০১৩ ০৬:৪১76999
  • গতকালও (২সেঃ) সিটি সেসন কোর্ট(ব্যাঙ্কশাল)-এ কামদুনির কেসের শুনানি শুরু হল না, ১০ তারিখ আবার ডেট। দুটো নাগাদ গিয়ে দেখি কামদুনির মানুষেরা তখনও এসে পৌঁছয়নি, দুটো পিক-আপ ভ্যানে আসছিল ওরা, পুলিশ মাঝপথে ডাইভার্ট করে দেয়, আগের ডেটেও নাকি রাস্তায় পুলিশ হয়রানি করেছিল।। প্রায় তিনটা নাগাদ এসে পৌঁছে কোর্টের মধ্যে পুলিশের বেরিকেডের সামনে মহিলারা রাগে ফেটে পড়ল। আগের দিন যদ্দুর গেছিলাম আজগে তাও যেতে দিবানা, তোমরাকি আমাদের ঠেলতে ঠেলতে কামদুনিতেই ফেরত পাঠাতে চাও নাকি! বারাসত থেকে এখানে আনিছ ভাবছ আসতি পারবনা! ভিক্ষা করি হলিও আসফ, তোরা কত ঘুষ খাবি খা! এইসব বলছিল উত্তম খিস্তি সহ কেউ কেউ। ওদের পিক-আপ ভ্যান দুটো অনেক দূরে রাখতে হয়েছে কাছাকাছিতে পুলিশ পয়সা চাওয়ায়, ঘুষের প্রসঙ্গটা আসছিল বোধ হয়। দূর থেকে আসামীদের গাড়িতে তোলা দেখে মেয়েরা ধেয়ে যেতে চাইলে পুলিশের সাথে সামান্য ধাক্কাধাক্কি হয়।

    মেয়েটির ভাই এসে দেখা করে যায়। ওরা ক্ষুব্ধ পিপি-র ভূমিকায়। নিজস্ব উকিলকে গৌণ করে দেওয়া হচ্ছে, সরকার ডিলে-ডালিং করে যতটা সম্ভব লঘু করার চেষ্টায় আছে।

    অপরাধীদের সুরক্ষা আর আন্দোলনকারীদের হয়রানি, সিআইডির ভূয়ো চার্জশীট, সিবিআই তদন্ত, মুখ্যমন্ত্রীর প্রতিশ্রুতি, ধিক্কার, কামদুনি বিচার চায়ছে, আন্দোলন চলছে--এইসব বিশয় শ্লোগানে আসে, চত্বর ও বাইরের রাস্তায় মিছিল করে অরা ফিরে যায়। ১০ তারিখ আবার কামদুনি থেক আসবেন ওরা, তার আগে ৭ তারিখে কামদুনিতে আমরা যাবো।
  • pi | 118.22.237.164 (*) | ০৭ সেপ্টেম্বর ২০১৩ ০৫:৪৪77000
  • ফেসবুক গ্রুপে অসীম গিরি এই পোস্টটা দিয়েছেন। আজ কামদুনি নিয়ে প্রেস কনফারেন্স ও কামদুনি থেকে ঘুরে আসার পর।

    AAJ KAMDUNI TE APARAJITA R KHOON O DHORSONER 3 MONTH PURNO HOLO. EKHONO BICHAR KICHUI EGOYNI, CID TODONTE CHURANTO CONTROVERSY , AR BARASAT THEKHE CASE SORIE NEOA HOECHE KOLKATAY, JEKHANE KAMDUNIR GRAMER LOK BICHAR SUNTE GELE PRATIDIN JON PROTI 100 TAKA KHOROCH HOBE, JE GARI GULOTE KORE ONARA JACHCHEN, SEI GARI GULOKE PARTY NETADER NIRDESHE BOLA HOCHCHE, TARA JENO GARI NIE KAMDUNIBASHIDER NA NIE ASHEN, EEI PORISTHITEI AAJ PRESS CONFERECE HOECHE SOMAJER GONNYO MANNYO EKHONO JADER MOSTOK BONDHOK NOI TYARA KORECHEN PRESS CONFERENCE KOLKTA PRESS CLUB E, GURUCHANDALITE SWEI PRESS RELEASE PATHlam,
    aaj kamduni schhol mathe kamduni pratibadi mancher dake prothom meeting hoi, meeting e ami charo upostit chilen samir aich, bolan ganguli, saswati ghosh , ex police officer sisir bandyopadhay, meher enginner, sutia pratibadi mancho, khorjuna r adhibashi, aminul hottar birodhi commitee, kapdr, isa, pragatisil mohila samitir pratinidhira, mumbai bengalurute jekhane 15 days er modhey charge sheet die jabojibon kara dondo hote pare, delhite alredy 2 joner saja hoeche ar badd bakira sajar opekhay, sekhane e rajje je sorkari ukil deo HOECHE SE ADOUU edoroner mala porichalonar avigata nei ar jara aprajitar hoe swal korchen tadero badha deoa hochche, fale suprem courte appeal janieche,9th sei date, sekhaneo sorkar pokher ukil er cheye aporadhiderukil strong, eei holo west bengal still. aaj 600 lok aparajita jekhane mra geche sekhane michil kore jay, doshider sastir dabite o duson mukto dolbaji hin prosahoner dabite sochaar hoi, ektimichil aprajitar bediporjonnto gie mombati jwalie srodhya nibedon kore, aporadhider araler birudhey ghrina ugre daay,neritto den priyo mastermosai pradip babu, savapoti bhaskar mondol . sectratray mousumi koyal. rajnitir tokma lagachche sorkar etao somalochito hoi, eti modhey ami samir aich o miratun nahar humkir mukhe porechi eei holo west bengaler haalhokikot.
  • aranya | 154.160.98.31 (*) | ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৩ ০৩:৫০77002
  • কামদুনি মামলা কলকাতাতেই চলবে - সুপ্রীম কোর্টের রায় :-(
  • pi | 172.129.44.87 (*) | ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৩ ০৬:১০77005
  • হাইপারলিংক আসবেনা। তাই আবাপ আনন্দের এই রিপোর্টটাই থাক এখানে।

    "চার্জ গঠনের দিনও সরকারি আইনজীবীর ওপর অনাস্থা৷ চাই দ্রুত বিচার৷ আর এই দাবি ঘিরেই এবার কামদুনির বাসিন্দাদের সঙ্গে পুলিশের ধস্তাধস্তিতে কার্যত রণক্ষেত্র হয়ে উঠল রাজপথ৷ ধস্তাধস্তিতে অসুস্থ হয়ে পড়ে মৃত কলেজ ছাত্রীর ভাই৷ ভর্তি হাসপাতালে৷
    কামদুনিতে কলেজ ছাত্রীকে ধর্ষণ করে খুনের ঘটনার তিন মাস পর মঙ্গলবার এই মামলায় ৮ অভিযুক্তের বিরুদ্ধে চার্জ গঠন করেছে নগর দায়রা আদালত৷ কিন্তু এখনও ফেরার অভিযুক্ত মহম্মদ রফিক৷ তাই তাকে বাদ দিয়েই হয়েছে চার্জগঠন৷ ১৮ তারিখ থেকে শুরু হবে পরবর্তী শুনানি৷ অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে ধর্ষণ, খুন-সহ একাধিক মামলায় চার্জ গঠন করা হয়েছে৷

    কিন্তু, মুখ্যমন্ত্রীর আশ্বাস সত্ত্বেও বিচার পেতে কেন এত বিলম্ব? এই প্রশ্ন তুলে, দ্রুত বিচারের দাবিতে এবং সরকারি আইনজীবীর ওপরও অনাস্থা প্রকাশ করে এদিন নগর দায়রা আদালত থেকে বেরিয়ে বিকেল তিনটে চল্লিশে কাউন্সিল হাউস স্ট্রিট ক্রসিংয়ে জমায়েত করেন কামদুনির বাসিন্দারা৷ বিচারের দাবিতে মোমবাতি হাতে শুরু হয় মিছিল৷ পুলিশ বিক্ষোভকারীদের রাস্তা থেকে সরাতে গেলেই কামদুনির বাসিন্দাদের সঙ্গে তাদের ধস্তাধস্তি বেধে যায়৷
    ধস্তাধস্তিতে অসুস্থ হয়ে পড়েন কামদুনির মৃত কলেজ ছাত্রীর ভাই৷ তড়িঘড়ি তাঁকে মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়৷
    কামদুনি মামলার শুনানির সময় বারাসত আদালতের সামনে ধারাবাহিকভাবে বিক্ষোভ দেখিয়েছেন গ্রামবাসীরা৷ বিক্ষোভের জেরে প্রভাবিত হতে পারে কামদুনি মামলার বিচার৷ অভিযুক্ত পক্ষের এই আশঙ্কাকে গুরুত্ব দিয়ে কামদুনি মামলা নগর দায়রা আদালতে সরানোর নির্দেশ দেয় কলকাতা হাইকোর্ট৷ কিন্তু, বারাসত থেকে কলকাতায় স্থানান্তরের পরও বিক্ষোভ অব্যাহত৷

    "
  • pi | 172.129.44.87 (*) | ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৩ ০৮:৪৫77006
  • অসীম গিরি ফেসবুকে এই পোস্টটা করেছেন। সাইটে করতে পারছেন না। তাই পেস্ট করে দিলাম।

    BAIRER MOVEMENT NA UTTLE COURT E BICHAR HOBENA KARON PRESSURE DICHCHE POLITICS O PROSASON, KHELATA ONEK OPORER LOKHYO 2014R MUSLIM VOTE, KINTU ORA BUJHCHENA JE EEI VABE MUSLIM JONTOTAKE POA JABENA NATOK BAJI KORE JONOTA VOLANO JAAYNA, AMINUL TOH MUSLIM, MEYEDER BANCHATE GIE POLICE O PROMOTER GUNDAR JOGSAJOSHE OKE DAKAAT BOLAY THANAR SAMNE ATTOHOTMA KORECH!!!!!!!!!!!!BICHAR PEYECHE? SUJAT TOH BANGALI O HINDU KONOTAI NOI ULTE O PROSATITUTE BOLE PROCHAR PEYECHE, DAMAYANTI SEN RATARAI BODLI HOECHEN, EKHON SUNCHI JAVED SAMIM KEO SORANO HOECHE KARON ERA SOTTIE VALO KAJ KORCHILEN, FALE KAMDUNITE MUSLIM JONOTAR PROTI SORKAR JODI VABE JE TATE TADER RAPE NIE SOMORTHON PABE SETA HOBE NA, HINDU-MUSLIM BIVAJON TA AAJKAL LOKE BOJHE, ONTOTO WESTBENGAL E. IMAM VATA NIE EI MODHEY GORIB DALIT MUSLIMDER MODHEY SORKARER PROTI FEELING NOSTO HOECHE, SOHORE AAJ I EK TAXIWALABOLCHILEN JE TADER OPOR POLICER JULUMER KATHA, HISTORY KI BOLE? BESH DHOREI NILAM APARAJITAR DHORSON O TAKE HOTTA JARA KORECHE TARA CHARA PABE. KINTU KOTODIN THAKBE TAHOLE GOVT? SRTA KENO BUJHCHEN NA GOVT? TAPASHI MALIKER HOTTA KARIRAO CHARA PEYECHILO TATE CPM SORKAR TIKECHE? KENO MANONIA ETA BUJHCHEN NA JANINA, RABINDRANATH BOLECHILE, '' HATE TAROBARI THAKHILE TA SECHCHACHARI HOIYA UTTIEBEI ''(LOKOHITO PROBONDHO). KEE CHARA PABE? SARADA RHEKE PIYALI HOTTA, KAMDUNI THEKHE RNALIKOOL, KHORJUNA GHEDE KATWA, AMINUL, BARUN BISWASH SOB MANUSH VULE JABE VOTER BOXE??? HOI NAKI? 5 BOCHOR ACHCHA DHORLAM 10 BOCHOR TARPOR EKHON JEMON PURBOTONO SORKARER LOKJON HAAT KAMRACHCHEN TEMNIE HOBENA KI? AR JODI KEU VABEN 1972 ER MOTO OPERATION KORBEN SETAO 2013TE SOMVOB? CONGRESS JE CHOLE GECHILO 1977 O 1979 E ESECHE AR KI? KEE MONE REKHECHE SIDHARETHA ROY EKJON CHIEF MINISTER CHILEN. KEE TAR MRITTUR POR EKBARO SOK KORECHEN WEST BENGALE? HISTORY ETAI VOI, JAIL, HOTTAr rajniti die esob ki hoi naki? barier gorjon i pare obosthake narate.
  • pi | 118.22.225.56 (*) | ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৩ ১২:৩৯77004
  • একজনের কাছে জানলাম ঃ 'Just got news that protesters in Kamduni were lathicharged by police and several have been hospitalized'
আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত


পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। আলোচনা করতে মতামত দিন