• বুলবুলভাজা  অন্য যৌনতা

  • বস্টনে বংগে : দ্বিতীয় পর্ব

    বর্ন ফ্রি লেখকের গ্রাহক হোন
    অন্য যৌনতা | ০২ এপ্রিল ২০১৩ | ১১৮ বার পঠিত
  • জমিয়ে রাখুন পুনঃসম্প্রচার
  • পর্ব দুই - মুর্গ-মশল্লম্‌

    আচ্ছা, বলুন দেখি, মুর্গি আগে না মশলা আগে? না না, কথার খেলা করছি না, মা কসম, জাস্ট আগে মুর্গির কথা বলব না মশালা, সেইটা নিয়ে একটু কনফিউজড। ভেবেচিন্তে দেখলাম, যেহেতু মশালার কথা আগে শুনেছি অতএব আগে মশলা পরে মুর্গি (রেফারেন্স, অর্জুন, দুর্যোধন এবং নীতিশ ভরদ্বাজ)।

    মশলার কথা শুনেছিলাম ব্যাঙ্গালোরে থাকতে, করিমের মুখে। করিম কিছুকাল বস্টনে ছিল, তারপর এ ফর আলাস্কা থেকে জেড ফর জিম্বাবোয়েতে কাটিয়ে অবশেষে ব্যাঙ্গালরে পৌঁছয়। ছোট ছোট করে কাটা চুল, দারুন ম্যানলি চেহারা আর তার সাথে একটা সাঙ্ঘাতিক ইচ্ছাকৃত কন্ট্রাস্টে কানে গোঁজা কাঠগোলাপ ফুল, এই হচ্ছে করিম। আমি বস্টনে আসব শুনে ও আমাকে বস্টন মশালার সাথে যোগাযোগ করতে বলল। আমি বস্টন মশালাকে ইন্টারনেটে খুঁজলাম, এম ডি এইচ থেকে লাস ভেগাসের ইন্ডিয়ান স্ট্রিপ শো সব পেলাম খালি বস্টনের সাউথ এশিয়ান এলজিবিটি গ্রুপ মশালার খোঁজ পেলাম না। কারণটি অত্যন্ত সহজ, কিন্তু আমার মোটা মাথায় ঢুকতে একটু সময় লাগল। আমি জানি আপনারা আমার থেকে অনেক বেশি বুদ্ধিমান, এর মধ্যেই ধরে ফেলেছেন গোলমাল কোথায়, তাই সে কথায় পরে আসছি।

    যাইহোক, বেঙ্গল থেকে বেঙ্গালুরু হয়ে বস্টনে তো এসে পৌঁছলাম। ইদিক সিদিক করে, সম এবং ‘বিষম’কামী মিলিয়ে এক দুজন বন্ধুও হল(ঘাবড়াবেন না, হেটেরোসেক্সুয়াল-এর এই বাংলাই কবি বলে গেছেন)। কিন্তু দেশি লোকজন না পেলে ঠিক পেটের স্যান্ডুইচ-স্যালাড হজম হয় না। কতক্ষণ আর সরি, থ্যাঙ্কু, এস্কুজ মি চালানো যায়? চিরটাকাল চার হাত দূরে, বাসের সীট খালি হব হব করলে, দুজনকে টপকে, একজনকে ছোট্ট করে কনুই দিয়ে টুস্কি দিয়ে, আরেকজনের বগলের তলা দিয়ে গলে গিয়ে বসে পড়ার অভ্যেস, এখন হঠাৎ করে ন্যাজ ধরে টানলে তা কি আর সোজা হবে? কিন্তু দেশি ভারতীয়, তাও আবার গে, কোথায় পাই? তা কথায় বলে, সত্যিকারের মন দিয়ে গুগল করলে ভগবানকে পর্যন্ত পাওয়া যায়, আর এ তো দেশি গে, অতি সামান্য ব্যাপার। অতএব খোঁজা শুরু, এবং দুজন ভারতীয় বাচ্চাকে (পিএইচডি স্টুডেন্ট) মিট করার পর, অবশেষে পাহাড় মহম্মদের কাছে এল, আমি মশালাকে খুঁজে না পেলেও মশালার বর্তমান কর্ণধার অনিন্দ্য আমার খোঁজ পেল এবং মধুযামিনীতে দুজনের দেখা হল। মানে আমার আর মশালার। বুঝলাম, ইন্টারনেটে আমি মশালাকে খুঁজে পাই নি, তার কারণ আমি শালা বানানে গোলমাল করেছিলাম। এটি হল ম-সালা, আর আমি খুঁজেছিলাম ম-শালা (একটা এক্সট্রা এইচ লাগিয়ে দিয়েছিলাম)।   

    মসালা (MASALA) হচ্ছে ম্যাসাচুসেটস এরিয়ার সাউথ এশিয়ান এলজিবিটি গ্রুপ। পুরো নাম, ম্যাসাচুসেটস এরিয়া সাউথ এশিয়ান ল্যাম্বডা এসোসিয়েসন। ল্যাম্বডা কাকে বলে জানতে চাইলে গুগল করুন গিয়ে। আমি তো আর দাদাগিরির দাদা কিংবা পশ্চিমবঙ্গের দিদি নই যে সব বিষয়ে কথা বলতে পারব, সোজা বাংলায় এটি কেম্ব্রিজ, বস্টন এবং তার চারপাশের খয়েরি চামড়ার সংখ্যালঘু যৌনতার মানুষজনের এক হওয়ার জায়গা। যে জায়গায় তাঁরা আসবেন, বাংলা-হিন্দি-সিংহলি-পুস্তু যাতে ইচ্ছে কথা বলবেন, বেগুন ভর্তা দিয়ে রুটি বা রোটি খাবেন, নাচবেন, গাইবেন, খালেদা জিয়া কিংবা জারদারির সম্পর্কে দু-চারটি ভালমন্দ কথা বলবেন, আড্ডা দেবেন, গালি দেবেন, হাসবেন, কাঁদবেন, ভাল-মাঝারি-খারাপ কিছু একটা বাসবেন, তারপর দিনের শেষে যে যার নিজের বাসার পরবাসে ফিরে যাবেন। এটাই মসালা। গোদা বাংলায়, জীবন যখন শুকায়ে যায়, মসালা মীটিং-এ এসো। জীবন রসেবশে থাকলেও আসতে পারেন, রসিক বন্ধুর অভাব হবে না। যাই হোক, আমার বস্টনবাসের অনেকটাই জুড়ে থাকবে এই মসালার গপ্প, থাকবে অনিন্দ্য, শতাব্দি, রেখা, সেহজাদ, রোহিতদের কথা। ওদের মধ্যে কেউ বস্টনে এসেছে দু-মাস আগে, কেউ আছে দশ বছর, কারোর বা জন্মই এখানে। কেউ তার নিজের যৌনতার কথা বাড়িতে জানিয়েছে, কেউ বা এখনও জানায় নি, কারোর মা মেয়ের জন্য পাত্রী খুঁজছেন তো কারোর সঙ্গে তার জন্মদাতা পরিবার সমস্ত সম্পর্ক ছিন্ন করে দিয়েছে। কেউ একা তো কেউ তার সঙ্গীর সঙ্গে কাটিয়ে দিয়েছেন দশ দশটি বছর। বিভিন্ন মানুষ, বিভিন্ন পরিবেশ, আলাদা আলাদা গল্প, আলাদা আলাদা চাহিদা। তবু কোথাও তারা একরকম, কোথাও তারা একসুতোয় বাঁধা, হয়ত বা একাকীত্বে অথবা সংখ্যালঘুত্বের সংকটে। একাকীত্ব বলতে শুধু সঙ্গীর অভাবই নয়, অন্য শূন্যতাও থাকতে পারে। যেমন, ধরুন, রেখার কথা। রেখার জন্ম, বড় হওয়া সব কিছুই এই দেশে। কিন্তু অন্যান্য অনেক প্রবাসী ভারতীয় পরিবারদের মতো, রেখার পরিবারের মনও নোঙরে বাঁধা সত্তর সালের ভারতে, যখন তাঁরা দেশ ছেড়েছিলেন। তাই রেখা যখন তাঁদের কাছে তার যৌনতার কথা জানাল, তাঁরা তা মানতে পারলেন না, তাঁদের মনে হল, দেশে তো কই এইরকম হয় না, অতএব এসব আমেরিকার কুফল, এ তাঁদের ব্যর্থতা, তাঁরা কেমন করে লোকের কাছে মুখ দেখাবেন। তাঁরা এদেশে এমনিতেই সংখ্যালঘু, দ্বিতীয় প্রান্তিকতার ভার বইতে তাঁরা আর রাজি হলেন না, তাঁরা রেখাকে ত্যাগ করলেন। আজকে রেখা তার স্ত্রীর সঙ্গে সুখী, তারা দুজনে তাদের আগতপ্রায় সন্তানের জন্য দিন গুনছে, তবুও এই সুখের দিনে কোথাও কি একটা ফাঁকা জায়গা থেকে যায় না? কখনো কি ওর মনে হয় না, আহা, আজ যদি মা পাশে থাকত? কখনো কি ইচ্ছে করে না উজ্জ্বল মুখে বাবার সামনে গিয়ে দাঁড়াতে, পরিবারকে পাশে পেতে? ইচ্ছে করে বলেই, রেখা এবং রেখার মত আমরা সবাই খুঁজে ফিরি আমাদের পরিবারকে, রক্তের সম্পর্কের চেনা গণ্ডী পেরিয়ে গড়ে তুলতে চাই মানবিক সম্পর্কের, বন্ধুত্বের সম্পর্কের এক অন্য, অনন্য পরিবার, ধরে ফেলি কাছেই কারোর একখানা বাড়ানো হাত, অনিন্দ্য পৌঁছে যায় রেখা আর তার স্ত্রীর বেবি শাওয়ারে, চেনা ডাল-ভাত, ইডলি-সম্বরের জীবনে যোগ হয় নতুন ‘মসালা’।
  • বিভাগ : অন্য যৌনতা | ০২ এপ্রিল ২০১৩ | ১১৮ বার পঠিত
  • জমিয়ে রাখুন পুনঃসম্প্রচার
আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • ওপু | 24.96.29.188 (*) | ০৩ এপ্রিল ২০১৩ ০৫:৩৩76370
  • বেশ ভালো লাগছে। আগেরটার মতন ছবি চাই।
  • বিপ্লব রহমান | 212.164.212.20 (*) | ১৩ এপ্রিল ২০১৩ ০২:১৮76371
  • খানিকটা স্বচ্ছতার সংকটসহ এই পর্বটিও আগের মতোই অকপট, সাহসী।

    "সংখ্যালঘু যৌনতার মানুষ" কথাটি একদম করোটির ভেতরে গেঁথে গেলো।... তিন শব্দের এই ছোট্ট কথাটির মধ্যে রয়েছে কতোই না নির্মম বাস্তবতা, একই সঙ্গে অনেকটা নিষ্ঠুরতাও! ...

    প্রসঙ্গক্রমে, চরিত্রের উচ্ছিষ্টকে জিইয়ে না রাখলে হয়তো এই নোটটির বটম লাইন হতে পারতো রেখা'ই স্বয়ং। এছাড়া এবারের পর্বে বাক্যের জটিলতাসমূহ অহেতুক বলে মনে হয়েছে। খুব তাড়াহুড়ো করে লেখা কী?

    পরের পর্বের অপেক্ষায়। চলুক।
  • koutuholi | 161.141.84.239 (*) | ১৩ এপ্রিল ২০১৩ ০৯:২০76372
  • একটা টেকনিকাল কোশ্চেন ছিল, একদম অ্যাকাডেমিক কৌতূহলমাত্র।
    এই যে লেখায় উল্লিখিত দুটি মেয়ের সংসার, রেখা আর তার স্ত্রীর-এদের যে সন্তান হবে(লেখায় পেলাম রেখার স্ত্রী সন্তানসম্ভবা), সে কি এদের কোনো একজনের ওভামজাত? নাকি টুইনস, দুইজনেরই ওভামজাত? (ধরে নিচ্ছি স্পার্ম ব্যাংক ও ইন-ভিট্রো ফার্টিলাইজেশনের হেল্প নেওয়া হয়েছিল) নাকি, এদের কারুর নয়, ইনি কেবল সারোগেট-মাদার?
    আশা করি কেউ কিছু মনে করলেন না। অনেকদিন থেকেই এই প্রশ্ন মনের মধ্যে ছিল, আজ লেখাটি পেয়ে করে ফেল্লাম।
  • abc | 131.241.218.132 (*) | ২৯ মে ২০১৩ ০১:৩২76373
  • কৌতুহলী-র প্রশ্না তা আমার ও ache
  • Born free | 168.144.176.250 (*) | ২৯ মে ২০১৩ ০২:২৪76374
  • বিপ্লবদা,
    আপনার প্রশংসা ও সমালোচনার জন্য ধন্যবাদ।

    "প্রসঙ্গক্রমে, চরিত্রের উচ্ছিষ্টকে জিইয়ে না রাখলে হয়তো এই নোটটির বটম লাইন হতে পারতো রেখা'ই স্বয়ং।"
    ঠিক বুঝলাম না। আরেকটু বিস্তারিত করবেন?

    " এছাড়া এবারের পর্বে বাক্যের জটিলতাসমূহ অহেতুক বলে মনে হয়েছে। খুব তাড়াহুড়ো করে লেখা কী?"

    তারাহুর করে লেখা নয়, আমার লেখার দুর্বলতা। পরেরবার থেকে মনে রাখব।

    কৌতুহলী এবং abc

    রেখা এবং তার স্ত্রীর সন্তানদের বিষয়ে বিশেষ জানি না। কখনো জিগ্গেস করি নি। তবে ওদের জমজ সন্তান হয়েছে আর তারা দারুন মিষ্টি, এটুকু জানি। পরের কোনো পর্বে ওদের ছবি দেব। রেখা আর আলীশা বলেছে যে ছবি দিতে ওদের কোনো আপত্তি নেই। :)
  • বিপ্লব রহমান | 212.164.212.20 (*) | ০২ জুন ২০১৩ ০২:৩০76375
  • বর্ন ফ্রি,

    আমার মন্তব্যকে আমলে নেওয়ার জন্য সাধুবাদ।

    আমার মনে হয়েছে, 'রেখা' চরিত্রটি নোটে ঠিকভাবে আসেনি। তাকে শুধুমাত্র খানিকটা উপস্থাপন করা হয়েছে, পুরোটা নয়। অথচ তাকে পুরোপুরি তুলে ধরা হলে এই 'রেখা'ই হয়তো লেখার বটম লাইন/পাঞ্চ লাইন হতে পারতো। লেখনি শৈলীর প্রতির আরো মনযোগী হওয়ার জন্য বিনীত অনুরোধ আরেকবার। খটোমটো বাক্য-বিন্যাসে মূল বক্তব্যটিই অনেক সময় হারিয়ে যায়। এছাড়া অপ্রসঙ্গের অহেতুক অবতারণায় ফোকাস পয়েন্টটি হয়ে পড়ে আউট অব ফোকাস।

    এই খর সমালোচনা মনে এই নয় যে, আপনি খুব খারাপ লিখছেন। সত্যি কথা বলতে, বরং আপনার নোটগুলো খুব বেশী ভালো হচ্ছে। এ জন্যই হয়তো পাঠ প্রত্যাশা ক্রমেই বাড়ছে। জানিয়ে রাখি, খুব ব্যস্ত থাকলেও এরই মাঝে গুরুতে আপনার নতুন কোনো পর্ব এলো কি না, তা দেখতে একবার এখানে গুরুতে ঢুঁ দিয়ে যাই। :)

    আসলে ভালোর তো কোনো শেষ নেই, তাই না? তাছাড়া প্রত্যেকের পাঠসীমাবদ্ধতাসহ রুচিবোধের প্রশ্নও আছে। আপনার নোটের সবচেয়ে চুম্বক শক্তি হচ্ছে, এর বিষয় এবং তুখোড় অকপটতা।

    শুভেচ্ছা রইলো।
  • Born free | 24.96.142.154 (*) | ০৫ জুন ২০১৩ ০৩:১৫76376
  • আপনার উত্সাহ এবং "খর" সমালোচনার জন্য ধন্যবাদ। তাতে নিজের ভুল ত্রুটি গুলো বুঝতে পারা যাই।

    রেখা চরিত্রকে আমি খানিকটা জেনে বুঝে-ই জাস্ট স্কেচ করে গেছি। মশলার বিভিন্ন চরিত্রদের পরে ভিভিন্ন সময়ে ফিরিয়ে নিয়ে আসার ইচ্ছে রয়েছে। সম্ভব হলে আরো বেসি ডিটেলস সহ। তবে অন্যদের কথা কতটা ডিটেলস-এ বলতে পারি তা নিয়ে আমার নিজের একটু সংশয় আছে। বিশেসত যেহেতু আমি নিজের আত্ম-পরিচয়ে লিখছি না তাই অন্যের ব্যাপার-এ কতটা বিস্তারিত আমি লেখার অধিকারী সেই নিয়ে আমার খানিকটা দ্বিধা আছে।

    "খরতর" সমালোচনার অপক্ষায় থাকলাম। :)
  • বিপ্লব রহমান | 212.164.212.20 (*) | ০৫ জুন ২০১৩ ০৪:১৭76377
  • "বিশেসত যেহেতু আমি নিজের আত্ম-পরিচয়ে লিখছি না তাই অন্যের ব্যাপার-এ কতটা বিস্তারিত আমি লেখার অধিকারী সেই নিয়ে আমার খানিকটা দ্বিধা আছে। "

    একটি বিষয় খোলসা করা ভালো। চলতি ধারাবিহক নোটে লেখক যখন অপর যৌনতার মানুষ হিসেবে পশ্চিম [এবং খানিকটা পূর্বও বটে] দুনিয়ার পর্যবেক্ষণ তুলে ধরছেন, সেহেতু রিপোর্টাজ স্টাইলে অন্যকে পর্যবেক্ষণে তো ক্ষতি নেই। বরং ব্যাখ্যা-বিশ্লেষণ বাদে শুধু পর্যবেক্ষণটি তুলে ধরাও কম জরুরি নয়। হোক না তা একান্ত লেখকেরই। এখানে আত্নবিশ্লেষণ খুব আবশ্যক নয়।

    অবশ্যই এটি আমার নিজস্ব মত। তবে লেখক কি লিখবেন না লিখবেন, কতোটুকুই বা লিখবেন-- তা তাকেই নির্ধারণ করতে দেওয়াই বোধহয় সবচেয়ে ভালো। নইলে ওপর থেকে চাপানো লেখা কখনোই মান সম্মত হতে পারে না। তবু অধম শুধু তার ভাবনার কথাটিই আরেকবার রেখে গেলো।

    চলুক।
    ________

    অ/ট: মন্তব্যের ঘরে খুব টাইপো দেখতে পাই। কেমনে কি? :)
  • tracer | 217.250.168.5 (*) | ১৫ আগস্ট ২০১৩ ০৬:০৫76378
  • ভেবেছিলাম সব গুলো পড়ে পরে মতামত দেব - কিন্তু এত স্মার্ট লেখার হাত দেখে আর থাকতে পারলাম না। অসাধারন বর্ণ ফ্রি - আর প্লিস দয়া করে অন্য বিষয় নিয়েও লিখুন
আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত