• হরিদাস পাল  ব্লগ

  • রবিনসন স্ট্রিট, গল্ফ গ্রীন, ও খবর

    অবন্তিকা লেখকের গ্রাহক হোন
    ব্লগ | ১৪ জুন ২০১৫ | ১৪২৬ বার পঠিত
  • পার্থ ডিম-কলা-পাউরুটি দিয়ে প্রাতরাশ খেয়েছেন, পার্থ দাঁত মাজার জন্য দামি টুথপেস্ট চেয়েছেন, পার্থ রবীন্দ্রসঙ্গীতের বই নিয়েছেন কিন্তু সংবাদপত্র হাতে নেন নি – সম্প্রতি জানলাম l পার্থ কে, আপামর বাঙালিকে আর এই মুহূর্তে বলে দিতে হবে না l আপাতত এটুকু মনে করিয়ে দেওয়া জরুরি, তিন নম্বর রবিনসন স্ট্রিটের পার্থ দে স্বীকৃতভাবে একজন মনোরোগী l স্বয়ং মনোরোগ বিশেষজ্ঞরাই পরীক্ষা করে এ কথা জানিয়েছেন l তর্কের খাতিরে বলা যেতেই পারে, যেকোনো ধর্ষক, যেকোনো খুনী এক একজন মনোরোগী, সুতরাং মনোরোগের দোহাই দিয়ে অপরাধকে লঘু করা যায় না l কিন্তু অন্যান্য অপরাধীর সাপেক্ষে পার্থ দে-র বিষয়টা যে আলাদা সেটা আগে বুঝে নেওয়া দরকার l প্রথমত, পার্থর অপরাধ এখনও প্রমাণিত নয়, কিছু তথ্যের ভিত্তিতে পুলিশের অনুমান মাত্র l কঙ্কালটি আদৌ তার দিদির কিনা সে ফরেনসিক পরীক্ষার রিপোর্ট-ও এখনও পাওয়া যায়নি l দ্বিতীয়ত, পার্থর অসুস্থতা এ মুহূর্তে সেই পর্যায়ে যেখানে তিনি খুন বা অপরাধ সম্পর্কে যথেচ্ছ জ্ঞাত বা অবহিত নন l

    এ লেখাটা লেখার তাগিদ অনুভব করতাম না, যদি না সমান্তরালভাবে উঠে আসত আরো একটি মনোরোগের ঘটনা l গল্ফ গ্রীনে জনৈকা মা ও ছেলে ঘরের মধ্যে দীর্ঘদিন ধরে বানিয়ে রেখেছেন আবর্জনার স্তূপ l সেখানে ‘আমের খোসা ও আঁটি/ কাঁঠালের ভুতি/ মাছের কানকা/ মড়া বেড়ালের ছানা’ কী নেই ! জিজ্ঞাসাবাদের পর বাবা জানিয়েছেন ছেলের মানসিক বিকারের কথা l রবিনসন স্ট্রিট ও তৎপরবর্তী গল্ফ গ্রীনের ঘটনার প্রেক্ষিতে কিছু অবশ্যম্ভাবী প্রশ্ন এসে যায় l ধরা যাক আপনার কোনো নিকটাত্মীয়ের টার্মিনাল ম্যালিগ্নেন্সি ধরা পড়েছে l শহরের দুঁদে ডাক্তাররা জানিয়ে দিয়েছেন ওই ব্যক্তির আর বাঁচার আশা নেই l এমতাবস্থায় ঘটনাটা কখন ‘খবর’ হয়ে উঠতে পারে? যদি অত্যাধুনিক চিকিৎসাব্যবস্থা প্রয়োগ করে কোনো ডাক্তার বা প্রতিষ্ঠান তাঁকে পুরোপুরি সুস্থ করে তোলেন, অথবা জানা যায় যে ওই রোগটি আদৌ টার্মিনাল ম্যালিগ্নেন্সি ছিল না, চিকিৎসকদের অনুমান ভুল ছিল- তবেই l অর্থাৎ একটা সাধারণ শারীরিক অসুস্থতা যেমন মেনিনজাইটিসে মারা যাওয়া অথবা কোলেসিসটাইটিসে বেঁচে ওঠা কিন্তু এমনি এমনি ‘খবরে’ পরিণত হয় না l অনুষঙ্গে থাকতে হয় অন্য কোনো প্রেক্ষিত l অপেক্ষাকৃতভাবে মানসিক অসুস্থতা অনেক বেশি ‘খবর’ l এই পার্থর ক্ষেত্রটাই ধরা যাক না কেন l অনুমানের ভিত্তিতে গোটা ঘটনায়- হুমকি, টাকাপয়সার লোভ, খুন, সাসপেন্স, ইনসেস্ট- কী নেই l বলতে গেলে এক্কেবারে টানটান বলিউডি থ্রিলার l প্রসঙ্গত জেনে নেওয়া ভালো, শারীরিক হোক বা মানসিক, যেকোনো অসুখের ক্ষেত্রে চিকিৎসার নৈতিকতার ধারাগুলো কিন্তু এক l একজন ডাক্তার, রোগী অথবা তার পরিবারের ‘কনসেন্ট’ ছাড়া কোনো অসুস্থতাকে ‘পাবলিক’ করে ফেলতে পারেন না l মেডিকেল কাউন্সিল অফ ইন্ডিয়ার ২০০২ সালের কোড অফ এথিক্স-এ উল্লিখিত দ্বিতীয় অধ্যায়ের ২.২ দাগের নির্দেশ অনুযায়ী- “Patience and delicacy should characterize the physician. Confidences concerning individual or domestic life entrusted by patients to a physician and defects in the disposition or character of patients observed during medical attendance should never be revealed unless their revelation is required by the laws of the State. Sometimes, however, a physician must determine whether his duty to society requires him to employ knowledge, obtained through confidence as a physician, to protect a healthy person against a communicable disease to which he is about to be exposed. In such instance, the physician should act as he would wish another to act toward one of his own family in like circumstances.” অর্থাৎ, একজন চিকিৎসক তখনই রোগটিকে সর্বসমক্ষে তুলে আনতে পারেন যদি তা রাষ্ট্রের পক্ষে দরকারি হয়; অথবা জনসাধারণ ও সমাজের পক্ষে জরুরি, যেমন- কোনো সংক্রামক রোগ বিষয়ে সচেতনতার প্রচার l পার্থর ক্ষেত্রে সংবাদমাধ্যম আত্মপক্ষ সমর্থনে প্রথম যুক্তিটি ব্যবহার করতে পারেন l তবে সেক্ষেত্রেও বলব, রাষ্ট্রের প্রয়োজনে পার্থর ঘটনায় কর্তব্যরত চিকিৎসক বা চিকিৎসাকর্মীরা তথ্যের আদানপ্রদান পুলিশ ও সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের সঙ্গে করতেই পারেন, কিন্তু সংবাদমাধ্যমের বদান্যতায় গড়পরতায় সাধারণ মানুষ পার্থ বা তার বাবার মানসিক বৈকল্যের কথা বা ব্যক্তিগত সম্পর্কের খবর (বৈধ বা অবৈধ যাই হোক না কেন) জেনে যাবেন তাদের পরিবারের ‘কনসেন্ট’ ছাড়াই- এ একপ্রকার মানবাধিকার লঙ্ঘন ছাড়া আর কী! এ ঘটনায় একটা সুবিধে হয়েছে যে, পার্থর পরিবারের সরাসরি নিকটাত্মীয়রা কেউই জীবিত নেই l যাঁরা আছেন তাঁরাও প্রাথমিকভাবে মুখ খুলতে রাজি নন l ফলত পার্থর হয়ে কনসেন্ট দেওয়ার কেউ নেই l তাই পার্থকে ট্রিট করা হচ্ছে কিছুটা অবলা জন্তুর মতোই l সে কী খেল, কী খেল না, কী লিখল, কী লিখল না, তার আপডেট জনসমক্ষে তুলে ধরা হচ্ছে ঘন্টায় ঘন্টায় l

    গল্ফ গ্রীনের সাহা পরিবারের প্রতিবেশীরা জানিয়েছেন, রবিনসন স্ট্রিটের খবর জেনে তাঁদের মনে হয়েছে সাহাবাবুর ছেলে আসলে মানসিকভাবে সুস্থ নন l অথচ সাহা পরিবার ওই অঞ্চলের বেশ পুরনো বাসিন্দা l বাড়িটাকে ভ্যাট বানিয়ে ফেলার পরেও, দুর্গন্ধে অতিষ্ট পরিপার্শ্বের কেউই উদ্যোগী হয়ে সাহা দম্পতির ছেলেকে ডাক্তারের কাছে নিয়ে যাওয়ার পরামর্শ দেন নি l তাহলে চিকিত্সকের কাছে না নিয়ে গিয়ে, এখন গায়ে পড়ে সংবাদমাধ্যম বা পুলিশকে জানানোর পিছনে পড়শীদের কতটা সচেতনতা ও কতখানি লাইমলাইটে আসার আকাঙ্ক্ষা তা নিয়ে ধন্দ থেকেই যায় l মনোরোগ বিষয়ে সাধারণ মানুষের ধ্যান ধারণা ও সচেতনতার অভাব দিকে দিকে সুস্পষ্ট l গ্রামে ডাইনি সন্দেহে পুড়িয়ে মারার ঘটনা এখনও শোনা যায় l আর রবিনসন স্ট্রিট বা গল্ফ গ্রীনের জোয়ারে শহরের কথা নতুন করে নাই বা তুললাম ! আক্ষরিক অর্থেই কিছুদিন আগে পর্যন্ত আদমসুমারি হলে তার মাথা কেউ গুনতো না l বেসরকারি সংস্থার উদ্যোগে শহরের বেশকিছু মনোরোগী এই কয়েকমাস আগে তাদের রেশনকার্ড পেল, প্রথমবার l মনোরোগীর মানবিক অধিকারের প্রশ্নে কয়েকটি সংগঠন যখন নিরলস কাজ করে চলেছে, তখন খুন ও অবৈধ যৌনতার ঘটনাকে (যা আবার এখনও প্রমাণিতও নয়) দৃষ্টান্ত করে জনমানসে একটা প্যানিক ছড়িয়ে দেওয়ার প্রবণতাকে তীব্র সমালোচনা করা ছাড়া আর কোনো উপায় থাকে কী? তবে মিডিয়া সস্তায় খবর বেচে হাততালি কুড়োবে আর কলরবী জনতা তার বিপক্ষে প্রতিবাদ চালিয়ে যাবে- এও বুঝি এক নিরন্তর প্রক্রিয়া l যাই হোক, মনোরোগ বিষয়ে প্রচার আর প্রসারের ফলে এই টালমাটাল সময়ে দাঁড়িয়েও মানুষের জ্ঞান ও সচেতনতা ক্রমশ বাড়বে, এ প্রত্যাশাটুকু রেখে গেলাম l

     

  • আরও পড়ুন
    D 14/10 - Arka Goswami
  • বিভাগ : ব্লগ | ১৪ জুন ২০১৫ | ১৪২৬ বার পঠিত
  • কোনোরকম কর্পোরেট ফান্ডিং ছাড়া সম্পূর্ণরূপে জনতার শ্রম ও অর্থে পরিচালিত এই নন-প্রফিট এবং স্বাধীন উদ্যোগটিকে বাঁচিয়ে রাখতে
    গুরুচণ্ডা৯-র গ্রাহক হোন
    গুরুচণ্ডা৯তে প্রকাশিত লেখাগুলি হোয়াটসঅ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে যুক্ত হোন। টেলিগ্রাম অ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলটির গ্রাহক হোন।
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • পাতা :
  • SC | 83.222.179.56 (*) | ১৫ জুন ২০১৫ ০৮:৩৬67243
  • পার্থবাবু কে নিয়ে যেটা হচ্ছে, সেটা একটা নোংরামোর চূড়ান্ত।
    আমি অনার মানসিক অসুস্থতার একটাই মেটেরিয়াল এভিডেন্স পেয়েছি, ওই কঙ্কাল বাড়িতে রেখে দেওয়া।
    এর থেকে কোথায় ইনসেস্ট, সেক্স এসব এলো, ভগবান জানে।
    অনার পারসনাল ডায়রি তে নাকি দিদির চান করার কি সব বৃত্তান্ত লেখা আছে, বাড়িতে কি চিরকুট লাগানো আছে, তার থেকে এসব প্রমান পাওয়া গেল উনি নাকি যৌন বিকৃতি ইত্যাদিতে ভুগছিলেন, সারা বাড়িতে নাকি ইনসেস্ট চলছিল।
    প্রথমত, সাংবাদিক কে কে অধিকার দিল অর পার্সোনাল ডায়রি পরবার। আর লোকের পার্সোনাল ডায়রি তে কে সেক্স সম্পর্কে কি লিখে রাখে, ওগুলো দেখালে এখানে সকলেই মানসিক রোগী প্রতিপন্ন হবেন। আর ডায়েরিতে কেউ চানের দৃশ্য নিয়ে লিখেছিল মানে বাড়িতে সারাদিন সেক্স করছিল এর থেকে উদ্ভট দাবি আর কথাও শুনিনি। মানে আমি যদি ডায়েরিতে মাধুরী দীক্ষিত কে খুব ভালো লাগে লিখি, এর মানে আমি মাধুরীর সাথে সেক্স করছিলাম?

    সেদিন সুমনের সাথে এক ঘন্টা না কি একটা প্রোগ্রাম হয়, সেখানে দেখলাম কে একটা সমাজতাত্ত্বিক না কাকে ধরে এনেছে। সে একটা খুব সুর করে করে বলছে, বাড়িটা ছিল অবাধ সেক্সএর paradise , সেই paradise হটাথ বিঘ্নিত হয়েছে।

    এগুলো জাস্ট কোনো কাজ নেই, একটা ঘটনা কে রং চং চড়িয়ে বাজারে খাওয়ানো। উনি আদৌ মনোরোগী কিনা আমার যথেষ্ট সন্দেহ আছে। দিদির মৃত্যুর পরে শোক সামলাতে না পেরে হয়ত এরকম আচরণ করেছেন। কিন্তু বাকি যে জিনিসগুলো ওনার সম্পর্কে বলা হচ্ছে ওগুলো পুরো বানানো গল্প।
  • দানবকৃষ্ণ | 215.174.22.27 (*) | ১৫ জুন ২০১৫ ০৮:৩৬67271
  • : on 16 June 2015 01:04:24 IST
    'মেন্টাল ইন্স্টিটিউশনে প্রাতঃরাশে কি খেতে দেয়' আর তদন্তাধীন সন্দেহভাজন এবং সম্ভবত মনোরোগীর ডাইরীতে কি লেখা তার তথ্য এক হলো?

    সাংবাদিকের আর দোষ কি।
  • কল্লোল | 230.226.209.2 (*) | ১৫ জুন ২০১৫ ০৯:০৫67244
  • পার্থবাবু মনোরোগী। এ নিয়ে কোন সন্দেহ নেই।
    কিন্তু, যারা ওনার রোগ নিয়ে ব্যবসা করছে ও আমরা যারা তাতে সামিল হচ্ছি, তাদের মনোরোগের চিকিৎসা কে করে?
    কোন চ্যানেলে এই সংক্রান্ত আলোচনা হলে তা বয়কট করুন। টিআরপি একটু হলেও কমুক।
  • san | 11.39.35.235 (*) | ১৫ জুন ২০১৫ ০৯:১৫67245
  • অবন্তিকার সঙ্গে সহমত। লেখাটি ভাল লেগেছে।

    আর পার্থ দে'র ডায়েরির কনটেন্টসমূহ অফিশিয়াল তদন্তকারীদের কাছে বড় ক্লু হতেও পারে - কিন্তু কোন যুক্তিতে তা মিডিয়ার সম্পত্তি ও জনসাধারণের জ্ঞাতব্য হয় , সত্যিই বোঝা অসম্ভব।
  • a x | 138.249.1.202 (*) | ১৫ জুন ২০১৫ ০৯:১৬67272
  • লোকে সাধ্যাতীত জিনিস পারবেনা বলে, সাধ্যের মধ্যের জিনিসও করবেনা?

    এনিওয়ে, আর কারো পক্ষে সম্ভব না হলে, আমি একটা চিঠি তৈরি করার চেষ্টা করব। আমি বহুদিক থেকে অসম্ভব কাজে পড়ে গেছি আর এখানে খুব বাজে ঝড় ঝঞ্ঝার পূর্বাভাস।
  • সে | 188.83.87.102 (*) | ১৫ জুন ২০১৫ ০৯:৩১67273
  • হ্যাঁ, চিঠি তৈরী হোক।
  • | 183.17.193.253 (*) | ১৫ জুন ২০১৫ ০৯:৪৩67274
  • সদা,আমেরিকাতে দুজন খুনী জেল পালিয়েছে- খুবই ভয়ের বিষয় সন্দেহ নাই। গত আটদশদিন ধরে সে নিয়ে সিএনেনে যা হচ্ছে তাকে আটচালা কালচার বলবো না ফাস্ট লাইফস্টাইলের অভাব বুঝতে পারছি না।
    মশলাদার খবর প্রচার সর্বত্রই বেড়েছে, সব বেটাকে ছেড়ে কেষ্টা কে ধরলে গায়ের জ্বালা মেটা ছাড়া বাকিটা অন্ধের হস্তিদর্শনের মত হয়ে যাবে না??:(
  • মনোজ | 24.96.84.140 (*) | ১৫ জুন ২০১৫ ১১:৩৭67246
  • একটা জিজ্ঞাস্য ! পুলিশ যদি দে-পরিবারের লেখা সমূহ সীজ করে - সেগুলো তো গোপনীয় ! তাহলে সংবাদ মাধ্যম সেগুলো প্রকাশ করে কি করে ! নাকি মিডিয়াই এসব তৈরি করে ও বাজারে ছাড়ে ! - লোকে বেশি খায় ! না লোককে বেশি খাওয়ানো হয় !
    মনোজ
  • Du | 183.74.40.186 (*) | ১৫ জুন ২০১৫ ১২:৪০67247
  • সেই পেপার আবার ওনার হাতের কাছেও রেখে দেয়া হয়েছে এবং তাতে ওনার প্রতিক্রিয়াও একটা খবর। গোটা শহর মিলে এই পরিবারের শেষ সদস্যকেও মেরে ফেলে দেবে।
  • pi | 233.176.12.244 (*) | ১৬ জুন ২০১৫ ০৩:৫৭67276
  • কোলকাতার মিডিয়াই এই 'মরবিড কিউরিওসিটি' নিয়ে সরব হয়েছে দেখে ভাল লাগছে।
  • শ্রী সদা | 24.96.80.177 (*) | ১৬ জুন ২০১৫ ০৪:০৪67277
  • মিঠুদি, গায়ের জ্বালা মেটানোর জন্যে লিখছিনা। আমার দাবী হল মিডিয়াগুলো যা দেখাচ্ছে তাতে তাদের টি আর পি বাড়ছে বলেই দেখাচ্ছে, মানে মেজরিটি জনতা এই ধরণের নিউজ/এন্টারটেনমেন্টই পছন্দ করে। তো এই অবস্থায় আমাদের মতো মুষ্ঠিমেয় লোকজনের ভালো-খারাপ লাগার উপর বেস করে জাজমেন্ট দিয়ে দেওয়া মনে হয় না খুব একটা কাজের জিনিস, মানে দেওয়াই যায় কিন্তু তাতে না মিডিয়া না ম্যাঙ্গো পাবলিক কারোরই কিছু আসবে যাবে না। বরং আরো গভীরে গিয়ে ভাবা উচিত যে কেন মানুষকে এই বিকৃত আনএথিক্যাল জিনিসপত্তর থেকে এন্টারটেইনমেন্ট পেতে হয়, এবং আমার ধারণা লাইফস্টাইল, কসমোপলিটান কালচার, অর্থনৈতিক অবস্থা সবই কন্ট্রিবিউট করে এই চাহিদাতে। আমেরিকায় কী হয় সে নিয়ে আমার বিশেষ আইডিয়া নেই, কিন্তু এই লেভেলের ছিঁচকে রিপোর্টিং এবং পাবলিকলি মিথ্যা প্রচার হয় কিনা আম্রুগুরুরা কনফার্ম করতে পারেন।
  • pi | 233.176.12.244 (*) | ১৬ জুন ২০১৫ ০৪:০৫67278
  • মিডিয়াতে এই লেখাগুলোও আসছে দেখে ভাল লাগল।
  • avi | 113.24.86.93 (*) | ১৬ জুন ২০১৫ ০৪:০৯67280
  • যাচ্চলে, রিপিট হয়ে গেল তো।
  • pi | 233.176.12.244 (*) | ১৬ জুন ২০১৫ ০৪:১৪67281
  • রিপিটেন্তু ন দোষায়। অন্ততঃ এধরণের লেখার রিপিট।
    আসলে এই 'পাবলিক' বা 'আমরা ' ব্যাপারটা তো ঠিক সমসত্ব নয়, তার চাপে বা তাকে ক্যাটার করা মিডিয়ার ক্ষেত্রেও সেটা না হলেই ভাল হয়। এবং হবেনা, সেটুকু আশা বোধহয় এখনো রাখা যায়। বাজারের চাপ কথাটা যদিও আসবেই। তাপসদার সুতোয় এই নিয়ে বেশ ভালো কিছু আলোচনা হয়েছিল।
  • quark | 24.139.199.12 (*) | ১৬ জুন ২০১৫ ০৪:৫০67282
  • আমি আবার পড়লাম "পাবলিক ব্যাপারটা ঠিক আমসত্ব নয়"। সময়ের দোষ হবে।
  • de | 24.97.11.243 (*) | ১৬ জুন ২০১৫ ১২:০৩67283
  • চিঠি লেখা হলে আমিও সাইন করবো। কি অসহ্য লাগছে কয়েকদিনের আবাপর কাগজ আর চ্যানেল - প্রথম পাতার ছবিগুলোই এতো ডিস্টার্বিং ছিলো - গত কয়েকদিন ধরে এই জঘন্য চ্যানেল ও কাগজ দুটোই দেখা ছেড়েছি। মিডিয়া এতো অমানবিক কি করে হয়?
  • se | 204.230.155.142 (*) | ১৭ জুন ২০১৫ ০৩:৩৪67287
  • মানসিক রোগীর নাগরিক কোনো অধিকার থাকে না? এতো ভয়ংকর ব্যাপার। এইটেই কি মূল কারণ সামাজিক স্টিগমার পেছনে। বিষয় সম্পত্তি থেকে অধিকার হারায় মানসিক রোগী? কতটা অসুস্থ হলে? কোন কোন মানসিক রোগে? ডেঞ্জারাস নিয়ম তো। অন্যদেশে কিরম আইন?
  • একক | 24.96.126.188 (*) | ১৭ জুন ২০১৫ ০৪:৪৪67288
  • পাগল হলে লোকে ঢিল মারবে এই ভয়ে লোকে পাগলকে ঢিল মারে ।
  • he he party | 91.145.165.209 (*) | ১৭ জুন ২০১৫ ১২:০২67284
  • hna hna চিঠি হোক,
    হয়ে যাক আজ ফয়সালা সন্বাদ্পত্ত বড় না পেরাইভেট ইনফো, গর্জে উঠুক বাঙালি আজ আবার এই গুরুর পাতায়

    কতা হচ্ছে পাত্ত দার আজকের মেনু কি?
    ওদিকে তো পাভলভ এ সহবাসীরা পাত্তদার ওপর আদিখ্যাতায় হেব্বি খাপ্পুশ
    কঙ্কাল টা সোজা ছিল না উপুর হয়ে কেউ তো কিচ্ছু বললনা
  • lcm | 118.91.116.131 (*) | ২০ জুন ২০১৫ ০৬:৩৮67289
  • এপাড়ার জয়দীপ/নন্দনা ছিল পার্থর ক্লাসমেট, রাজাবাজার সায়েন্স কলেজে - জয়দীপের একটা লেখা বেরিয়েছে পার্থকে নিয়ে -
    http://www.telegraphindia.com/1150620/jsp/calcutta/story_26807.jsp
  • a x | 60.171.26.111 (*) | ২০ জুন ২০১৫ ০৬:৪৮67292
  • আমি ড্রাফটটা করে কজনকে দিয়েছি। তাদের একটু সময় লাগছে। লোকে কিছু ব্যপারে খুব ক্লিয়ারও না। বহু প্রশ্নও আছে। আল্টিমেটলি পাঠানো হবে কিনা জানিনা।

    এই লেখাটা থাকুক -কিছু জায়গায় এক মত নই, তাও একটা অন্যরকম পার্সপেকটিভ থেকে লেখা। http://kindlemag.in/je-suis-partha/
  • byaang | 132.167.113.44 (*) | ২০ জুন ২০১৫ ০৬:৫৮67290
  • লেখাটা ভালো লাগল এলসিএম। এই সময়ের (খবরের কাগজ নয়) জন্য খুবই দরকারি লেখা।
  • সে | 87.59.50.18 (*) | ২০ জুন ২০১৫ ০৭:১৯67293
  • পড়লাম
  • সে | 188.83.87.102 (*) | ২০ জুন ২০১৫ ০৭:২৫67291
  • এইটা ফেসবুকে দেখলাম।
  • Abhyu | 57.32.74.66 (*) | ০৫ ফেব্রুয়ারি ২০১৬ ০৪:৪৩67294
  • পাতা :
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:

কুমুদি পুরস্কার   গুরুভারআমার গুরুবন্ধুদের জানান


  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত


পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। লুকিয়ে না থেকে মতামত দিন