এই সাইটটি বার পঠিত
ভাটিয়ালি | টইপত্তর | বুলবুলভাজা | হরিদাস পাল | খেরোর খাতা | বই
  • হরিদাস পাল  ব্লগ

  • যদি ডাকে লিন্ডসে !

    সমরেশ মুখার্জী লেখকের গ্রাহক হোন
    ব্লগ | ১৮ এপ্রিল ২০২৪ | ২৬৯ বার পঠিত | রেটিং ৪ (১ জন)

  •  
    উপরোক্ত ছবিতে তার RV’র (Recreational Vehicle) সামনে দাঁড়িয়ে কথা বলছে লিন্ডসে। ওর মতো কিছু Free Spirited Traveler দের পোষ্ট করা এমন সব YT ভিডিও আমি মাঝে মধ‍্যে দেখি। তাদের কেউ সোলো, কেউ স্বামী স্ত্রী, একটি পিতা পুত্রের টিম‌ও আছে। ৪০% কাস্টমস ডিউটি দিয়ে আমদানি করে প্রায় ৩ কোটি টাকা দিয়ে Airstream Atlas Camper বা ১৮ কোটি দিয়ে Earthroamer XV-HD RV কেনার ক্ষমতা কেন - স্বপ্ন‌ও আমার নেই। ভিডিও দেখে দুধের সাধ ঘোলে মেটার কথা‌ নয়। তবু দেখি। সাধ না মিটিলে‌ও আনন্দ হয় দৃশ‍্যসুখে।
     
    4x4 ডজ স‍্যাসীতে Overland Explorer কেবিন ফিট করে লিন্ডসে চার বছর ধরে একাই ঘুরে বেড়াচ্ছে যেদিকে দুচোখ যায় মোডে। ঐ গাড়িঘরে বাস করেই স‍্যাটেলাইট ব্রডব্যান্ডের মাধ‍্যমে ও প্রত‍্যন্ত জায়গা থেকেও আপেল ল‍্যাপটপে ওর কনসাইনমেন্ট শিপিং‌য়ের  ব‍্যবসাও চালিয়ে যাচ্ছে। পাঁচ-দশের ঢ‍্যাঙা লিন্ডসের সংকল্পের তারিফ করতেই হয়। শুরুটা ও করেছিল একটা Airstream compact RV দিয়ে। ডজের পিঠে OE Cabin ফিট করা ওর অভিজ্ঞ হয়ে নেওয়া পরবর্তী পদক্ষেপ।

    ভাবছি‌লাম লিন্ডসেকে একটা মেল করবো। বলবো আমার‌ও আছে পচুর অবসর আর এমন কাছাখোলা মোডে বেড়ানোর খুব ইচ্ছে। আমাকে ডেকেই দ‍্যাখোনা একবার, মাইনে নয়, পরা নয়, কেবল খেতে দিলেই হবে। গাড়ি‌ও খারাপ চালাই না। ওটা আমার প‍্যাশন। হিমালয়, পশ্চিম‌ঘাটের পাহাড়ে‌ও চালিয়ে‌ছি। কখনো চাইলে - তোমায় একটু রিলিফ দিতে - ধরতে পারি ঐ দুম্বো গাড়ি‌র স্টিয়ারিং। অবশ‍্য‌ ওদেশে গাড়ি চালানোর লাইসেন্স তো আমার নেই। তাই চালাতে পারি বিরান কোনো জায়গায় অফ রোডে - যেখানে লালমুখো কপ এসে খপ করে ধরবে না আমায়। 

    শোবো‌ও না তোমার চলমান ঘরের শয‍্যাকক্ষে। তুমি তোমার আপেল খুলে আঙুল চালিয়ে করবে বাণিজ্য। আমি শোবো ড্রাইভিং কেবিনের পিছনে টানা সীটে। আমি‌ও পাঁচ দশ - না হয় শুতে হবে একটু পা মুড়ে। তাতে কী?  ওভাবে তো একদা ছিলাম দশমাস - মাস তিনেকে কী‌ই বা এসে যায়? এমনি‌তেও মার্কিন অভিবাসন দপ্তর ছমাসের বেশী ট‍্যূরিস্ট ভিসায় ওদেশে থাকতে দেবে না।

    লিন্ডসের বিচরণ ক্ষেত্র মূলতঃ আমেরিকার পূর্ব উপকূলে। প‍্যাসিফিক ওয়েস্ট কোস্টে থাকে আমার এক অতীত বান্ধবী। অনেক‌দিন হয়ে গেল সে ওদেশে‌র নাগরিক হয়ে গেছে। বহুবার কল্পনায় শুনেছি ওর ডাক - "চলে আয় কদিনের জন‍্য এখানে - থাকবি আমার বাড়ি - শুবি আমার পাশে গেস্ট‌ রুমে। চুটিয়ে ঘুরবো দুজনে আমার MDX Acura SUVতে বা Lexus 350তে। আমার বরটা একটা বেরসিক - থাকবে ও আপেল খুলে কাজে মজে।"

    কোনো সকালে‌ই সে ডাক আসে নি। তাই যাওয়া‌ও হয়ে ওঠেনি। জীবনে বহু দিবাস্বপ্ন‌ই বাস্তবে সত‍্য হয় না। তা বলে কী কল্পনা‌বিলাসী মানুষ ভাবের ঘোরে ঘুরে বেড়ানো বন্ধ করে দেবে? আমি‌ও দিইনি। বরং আজ‌ও আশায় থাকি, সকাল গড়িয়ে দুপুর চলে গেলেও কেউ হয়তো কখনো ডাক দেবে গোধূলী‌তে - রাত্রি নামার আগে। সে হতে পারে বন্ধু বা পুত্র বা পরিচিত।। যদি আসে লিন্ডসের মতো সম্পূর্ণ অপরিচিত কারুর এমন একটা দিলখুশ করা মেল - আহা তা হবে হাতে চাঁদ পাওয়া।

    "চলে এসো সৌমেন - ইউ আর মোস্ট ওয়েলকাম। যদি পারো হাত লাগাতে ফুটো টায়ার বদলাতে, ছাদে উঠে সোলার প‍্যানেল পরিস্কার করতে, খালি করতে ৪০ কিলোর গ্ৰে ওয়াটার ট‍্যাঙ্ক, মাঝে মধ‍্যে চলঘরের একটু সাফ সাফাই, কিছু DIY যোগাড়েপনা তাহলে তো খুবই ভালো। মনে হয় সুখী টাইপের নিষ্কর্মার ঢেঁকি তুমি ন‌ও - না হলে বুড়ো বয়সে একা একা ব‍্যাকপাকার স্টাইলে ঘুরে বেড়াতে না। এলে যতটুকু পারবে - ততটুকু‌ই সাহায্য করবে। 

    আসবে তুমি ইস্ট কোস্টে - একটু আগে জানি‌য়ে - তখন আমি জর্জিয়া, মেইন, মেরিল‍্যান্ড, ভার্জিনিয়া, নর্থ ক‍্যারোলাইনা যেখানেই থাকি। খামোখা পশ্চিম উপকূলে একদা বান্ধবী‌র কাছে কদিনের জন‍্য গিয়ে কী করবে? অতীত সুরের সাথে বর্তমান ছন্দ মিলবে না। তাল কেটে মন খারাপ হবে। মনে রেখো It is not wise to travel down the memory lane. 
    Take it easy. Take care, 

    Lindsey"


     

    Airstream Atlas 2020  Side Extension feature সহ এটি একটি HiFi আইটেম - তাই ওদেশে এর দাম প্রায় ২.৪ লাখ ডলার - ভারতীয় মূদ্রায় ২ কোটি - ৪০% কাস্টম ডিউটি সহ ৩ কোটি। তবে লিন্ডসে হয়তো শুরু করেছিল কোনো Compact Airstream RV দিয়ে



     
    তবে ১৭ লাখ ডলারের Earth Roamer XV-HD RV সম্প্রদায়ের বড়দা। এতে ছজন দিব‍্যি শুতে পারে। দূর্ঘটনা না হলে বিজ্ঞাপিত বলা আছে এর আয়ু  ৯০ বছর। Ford F-750 স‍্যাসীতে 6700 CC / 330 HP / 4x4 ইঞ্জিনের তাকতে ইনি যে কোনো ঋতু‌তে পাঁচপেঁচিদের অগ‍ম‍্য স্থানেও চলে যেতে সক্ষম। দাম কী এর এমনি নিচ্ছে? ভারতে এনাকে‌ই বরণ করতে প্রায় ২০ কোটি খসাতে হবে বলেছিলাম শুরুতে। 


    তবে এতে থাকলে মনে‌ই হবে না আছো  চলমান বাড়িতে


    রান্না বান্না করে খাও আরামসে


    বা লিভিং রুমে মজাসে আড্ডা মারো ছ’জনে
     

    পুনঃপ্রকাশ সম্পর্কিত নীতিঃ এই লেখাটি ছাপা, ডিজিটাল, দৃশ্য, শ্রাব্য, বা অন্য যেকোনো মাধ্যমে আংশিক বা সম্পূর্ণ ভাবে প্রতিলিপিকরণ বা অন্যত্র প্রকাশের জন্য গুরুচণ্ডা৯র অনুমতি বাধ্যতামূলক। লেখক চাইলে অন্যত্র প্রকাশ করতে পারেন, সেক্ষেত্রে গুরুচণ্ডা৯র উল্লেখ প্রত্যাশিত।
  • ব্লগ | ১৮ এপ্রিল ২০২৪ | ২৬৯ বার পঠিত
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • Arindam Basu | ১৮ এপ্রিল ২০২৪ ১০:৩৯530721
  • আরেকটা জনপ্রিয় উপায় হচ্ছে একটা পুরনো বাস কিনে সেটাকে নিজের মত করে ফিট করে নেওয়া। বেশীর ভাগ দেশে পুরনো প্রাইভেট বাস, বা ইস্কুলের বাস পুরনো গাড়ীর চেয়েও অনেক সময় কম দামে পাওয়া যায়, বহু লোক আজকাল জায়গা বাঁচাতে বাসগুলোকে বিক্রি করে দেন। এবার সেই সব বাস কিনে চমৎকার ক্যাম্পার ভ্যানের কাজ হয়। ধরুণ একটা ছোট মিনিবাস কিনে, পোর্টেবল টয়লেট, শাওয়র, কিচেন, আর শোবার ঘর, বসার ঘর, অনেকে লাইব্রেরী ইত্যাদি তৈরী করে বছরের পর বছর ঘুরে বেড়ান। এরকম এক দম্পতির ভিডিও দেখাই (ইতিমধ্যে দেখেছেন হয়ত):
     
  • সমরেশ মুখার্জী | ১৮ এপ্রিল ২০২৪ ১৮:২৮530749
  • অরিনবাবু,

    আ হা হা হা! কী দেখালেন। 
     
    এটা দেখিনি। তবে এরকম অন‍্য দেখেছি। তবে এটাতো ওদের মোটর-হোম - সারা বছর বা বছরের অনেকটা সময় কাটানোর জন‍্য। আমি ভেবেছিলাম একটা ক‍্যারাভানের কথা - বছরে এক বা দুবার মাস দুয়েকের জন‍্য বেড়ানো‌র জন‍্য। বাকি সময় স্থাবর বাড়িতে‌ই থাকবো। অর্থাৎ গাছের‌ও খাবো ও তলার‌ও কুড়োবো মনোবৃত্তি। 

    ক‍্যারাভানের ভাবনা‌টা এসেছি‌ল স্বদেশ সিনেমা দেখে। সিনেমাটা দেখেছি চারবার আর একটা গানের সিন - যেটা মাতোয়ারা করে দিয়েছি‌ল ঐ ভাবনায় - কতবার দেখেছি জানিনা। রাখছি এখানে সেটা।

    আপনার পাঠানো ভিডিও‌টা অস্ট্রেলিয়ার। বিদেশে‌র অনেককিছুই একটু অধিকন্তু - Big - Fat - Indulging. আমার দিল হ‍্যায় ছোটাসা - ছোটিসি আশা - পকেটের মাপে।  Jioতে জীবনের শেষ চাকরি‌টা আড়াই বছর আগে ছেড়ে তার তিন বছরের মাথায় DHFL Scamএ 37 লাখের থাপ্পড় খেয়ে পকেটের মাপটা আরো ছোট হয়ে গেছে। ফলে এ জীবনে আর স্কুল‌বাস কিনে ক‍্যারাভান বানিয়ে ঘোরা হবেনা। 

    আপনার ভিডিও‌তে মিনিবাস‌টি টয়োটার। শুনেছি টয়োটা is built for eternity, especially its engine - কিন্তু ভারতীয় কোম্পানির বিশ পঁচিশ বছর চালিয়ে বাতিল করা কোনো স্কুলবাসের এমন খাস্তা‌গজা অবস্থা হবে যে তাকে সারিয়ে মোটরহোম বানাতে অনেক রেস্ত লাগবে। তাও চলার পথে হয়তো তাকে বহুবার গ‍্যারেজে দেখাতে হবে।

    Circumstances taught me to clip my caravan dream n explore other avenues. তাই বছরে দু একবার কারুর সাথে এদিক সেদিক, কখনো গাড়িতে বেড়ানোর সাথে অন্ততঃ একবার জনবাহনে মাসদুয়েকের একাকী ভ্রমণে আমি সবিশেষ আনন্দ খুঁজে পেয়েছি। 
    তবে আপনি আমার ভাবনা‌বিলাস অনুভব করে তা পূরণের সম্ভাব্য উপায়ে‌র পরামর্শ দেওয়ার জন‍্য আন্তরিক ধন‍্যবাদ জানাই। 

  • অরিন | 119.224.61.73 | ১৯ এপ্রিল ২০২৪ ০০:৫৯530768
  • ভারতে ক্যামপারভ্যান (আমেরিকায় আর ভি বলে) কতটা সুলভ জানি না, তা আমাদের এখানে অনেকে ঐভাবে ঘোরে। যেটার ভিডিও পোস্ট করেছিলাম, এরা একটু সফিস্টিকেটেড। ঐরকম করে ঘোরার কিছু দেশে সমস্যাও আছে যে সব জায়গায় ফ্রিডম ক্যামপিং করতে দেয় না।
    আপনি যেমনভাবে ঘোরেন আমার মনে হয়েছে একটা ছোট মাইক্রোবাস টাইপের গাড়ী কিনে নিজের মত করে সাজিয়ে নিতে পারেন। কলকাতায় দেখেছি এক ধরণের ছোট ট্রাক পাওয়া যায়, ওরা বলে ছোট হাতি। একটা পুরনো ছোট হাতি কিনে তাকে সাজিয়ে নেবার কথা ভাবা যেতে পারে।
    আমাদের এখানে আমদের গরমকালে বহু ক্যামপারভ্যান কোমপানী ছোট টয়োটা এস্টিমা গাড়ীকে ঐভাবে সাজায়। আগে বহু হণ্ডা CR-V গাড়ীতে মাইক্রোওয়েভ ওভেন ফিট করা থাকত, এবং ঐ গাড়ীগুলোকে ক্যামপারভ্যানের মত ব্যবহার করা যেত।
    আমরা যখন ছোট ছিলাম, আমার মা বাবা আমাদের গাড়ী নিয়ে অনেক সময় ঐরকমভাবে ঘুরে বেড়াতেন, আমরা রীতিমতন দূর অচেনা গাঁয়ে গঞ্জে গাড়ির পেছনের সীট ফেলে, সামনের বাকেট সীট পুরো নীচে শুইয়ে রাতের তারা আর ছায়াপথ দেখতে দেখতে ঘুমিয়ে পড়তাম। 
    তো ঐরকম করা যায়।
  • সমরেশ মুখার্জী | ১৯ এপ্রিল ২০২৪ ০৯:৫৩530780
  • অরিনবাবু 
     
    আপনি আমার প্রিয় নাড়ি ধরে নাড়া দিচ্ছেন - পাগলকে সাঁকো নাড়াতে তাতাচ্ছেন। laugh
     
    আচ্ছা, আপনারা ছোটবেলায় মা বাবা‌র সাথে কোথায় অচেনা গাঁয়ে গঞ্জে বেড়াতে  যেতেন? ভারতে না বিদেশে? কারণ বাকেট সীট, ফোল্ডিং ব‍্যাকসীট আপনার ছোটবেলায় ভারতে কোনো গাড়িতে হোতো কী? জানি না।
     
    একসময় সত‍্যি ক্ষেপে উঠেছিলাম জানেন - একটা ছোট ক‍্যাপাসিটির Tempo Traveller বা Tata Winger দিয়ে CV বানাবো। TTতে ভেতরে দাঁড়ানো যায়, TW এ‌ দাঁড়ানো না গেলেও Ambulance Version এর মতো করে নিলে ভালো হেডরুম পাওয়া যায়। ছোট গাড়িতে যেমন হাতি বা Tata Ace delivery van কে CV বানালে একটু যেন Claustrophobic লাগে।
     
    আপনি প্রথমে যে টয়োটা বাস দিয়ে বানানো RV টার ভিডিও পাঠিয়েছে‌ন - ওটা একদম চমচম। পরে ফিরে এলে বৌ বাড়ি থেকে বার না করে দিলে -  ওতে তো আমি সারা বছরই থাকতে পারি।
     
    তবে cut your dream according to your budget ফর্মুলা‌য় একটা Maruti Ecco Van দিয়ে CV বানানো‌র কথাও ভেবেছিলাম। যাতে কোনো বিরান জায়গায় রাতে থেকে যেতে পারি। টয়লেট আমার জন‍্য জরুরি নয়। সাথে টয়লেট টেন্ট, ফোল্ডিং কমোড চেয়ার আর ছোট গাঁ‌ইতি থাকবে। জায়গা দেখে ফুট খানেক গভীর গর্ত করে ঝুরো মাটি পাশে রাখবো। তার ওপর পাতবো কমোড চেয়ার। পুরো সেট আপ ঢেকে দেবো টয়লেট টেন্ট দিয়ে। মহাকাশ থেকে ঝরে পড়বে আমার বর্জ‍্য। কাজ সেরে মাটি চাপা দিয়ে টেন্ট গুটিয়ে চলে যাবো। বাকি কাজ করবে মাটির পোকা, ব‍্যাকটেরিয়া - আহা কেষ্ট‌র জীব সব - ওদের কথাও তো ভাবা উচিত। ইচ্ছা‌টা এখনো ভেতরে ধিকি ধিকি ধোঁয়া ছাড়ছে - জানিনা কখনো দপ করে জ্বলে উঠবে কিনা।
     
    তবে বয়স হয়ে যাচ্ছে - আর কী কখনো হবে? কে জানে।
     
    যখন বয়স সহায় ছিল তখন ক‍রতে পারলাম না -  যেমন পেরেছি‌ল নীচের এই জুটি heart
     
     
  • Arindam Basu | ১৯ এপ্রিল ২০২৪ ১১:২১530783
  • "আপনারা ছোটবেলায় মা বাবা‌র সাথে কোথায় অচেনা গাঁয়ে গঞ্জে বেড়াতে  যেতেন? ভারতে না বিদেশে? কারণ বাকেট সীট, ফোল্ডিং ব‍্যাকসীট আপনার ছোটবেলায় ভারতে কোনো গাড়িতে হোতো কী? জানি না।"
     
    না, ছিল না তো। অন্তত আমার জানা কোন গাড়ীতে দেখিনি (যেমন অ্যামবাসাডর বা ফিয়াট, এই দুটোই আমাদের বাল্যকালে জনপ্রিয় গাড়ী ছিল) |
     
    কিন্তু আমার পিতৃদেবের গাড়ীর নেশা, এবং তদুপরি আমার মা বাবার ঘোরার শখ ছিল খুব। এবং তাঁরা (আমার মা বাবা) অনেকটা আপনার মত করে ঘুরে বেড়াতেন, যার জন্য আমরা ছোট বয়সে (পরে একটু বড় বয়সেও) ভারতের নানান প্রান্তের ছোট শহর আর গঞ্জে বিভিন্ন সাধু সন্তের আশ্রম বিস্তর চিনে গেছিলাম। তবে এরা যে খুব দেব দ্বিজ ভক্ত ছিলেন তা নয় (মা কিছুটা, আমার বাবা একেবারেই নাস্তিক ছিলেন), কিন্তু ঘোরার শখ সাংঘাতিক এবং এমন এমন জায়গায় তাঁদের যাওয়া চাই যেখানে চট করে "টুরিস্ট" রা যেতেন না। অগত্যা বাবা (পরে আমার গাড়ীর লাইসেনস হবার পর) আমাদের নিজেদের গাড়ী নিজেরা চালানোটাই একমাত্র উপায় ছিল (মাঝে মাঝে ট্রেনে যাওয়া হত অবশ্য) |
     
    এবার বাকেট সিট আর ফোলডিং ব্যাকসিট | বাবার একটা আদ্যিকালের পুরনো স্ট্যানডার্ড হেরাল্ড গাড়ী ছিল,  গাড়ীটা মাথায় খাটো, কিন্তু গাড়ীটার ভেতরে প্রচুর জায়গা ছিল, আর সামনের সীটদুটো স্প্লীট সীট (একটা ড্রাইভারের একটা তার পাশে যিনি বসবেন), মাঝখানে ফ্লোরে গিয়ার আর হ্যাণ্ডব্রেক | অতএব ঘোরাঘুরির সুবিধার জন্য সামনের সিটগুলোকে বাকেট সীটের মত করে ব্যবহার করা হত, পেছনের সীট-টাকে কি করে যেন ফোল্ড করা যেত, গাড়ীটায় প্রচুর বুট স্পেস ছিল। পরে আমাদের একটি মারুতি গাড়ী কেনা হয়, তখন আরেকটু সুবিধে হয়েছিল | বাবা সে গাড়ি নিজেই সারিয়ে নিতেন বা তেল চেঞ্জ করে নিতেন বেশীর ভাগ সময়ে । 
     
    বহু, বহু, বছর পরে (তখন আর বাবাও বেঁচে নেই), আমেরিকাতে থাকার সময় এক ভদ্রলোককে দেখেছিলাম আমার পিতৃদেবের মতন নিজের গ্যারেজে আদ্যিকালের স্ট্যানডার্ড হেরাল্ড গাড়ী (আমেরিকাতে বলত ট্রায়ামফ, বিলেতে তৈরী হত, ভারতে স্ট্যানডার্ড অটোমোবাইল বানাত) সারাচ্ছিলেন, যা হয়, এসব ক্ষেত্রে, গাড়ির সূত্রে ভাব হয়ে গেল।
     
    গত সপ্তাহে এখানে এক ভদ্রলোকের কাছে আমাদের লন মোয়ার গোলমাল করছিল, সারাতে নিয়ে গেছি, দেখি ৭০এর ওপর বয়স ভদ্রলোক, তিনি একটি রেসিং কার (Dirt Track Racing) এর গাড়ী সারাচ্ছেন, বললেন সামনের সপ্তাহে রেস আছে, নিজে হাতে গাড়ীটাকে তৈরী করেছেন, আজ ন'বছর ধরে দিব্যি দৌড়চ্ছে, আফসোস কতগুলো "ইয়াংকি ছোঁড়া" গতবার তাঁকে হারিয়ে দিয়েছিল, তাই এবারে গাড়ীটাকে নতুন করে তৈরী করছেন | কথায় কথায় বেজায় ভাব হয়ে গেল | 
    এইসব ব্যাপার স্যাপার।
     
    গাড়ীর নেশা সাংঘাতিক নেশা মশাই কি বলব | 
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]


মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত
পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। কল্পনাতীত প্রতিক্রিয়া দিন