এই সাইটটি বার পঠিত
ভাটিয়ালি | টইপত্তর | বুলবুলভাজা | হরিদাস পাল | খেরোর খাতা | বই
  • হরিদাস পাল  অন্যান্য  বই

  • ডাংকি! 

    Muhammad Sadequzzaman Sharif লেখকের গ্রাহক হোন
    অন্যান্য | বই | ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ | ১৩২৫ বার পঠিত | রেটিং ৪.৫ (২ জন)
  • রাজকুমার হিরানির ডাংকি নেটফ্লিক্সে আসছে, আমিও দেখে নিয়েছি। অনেকেই আমাকে এইটা দেখার জন্য বলছে। আমার রোমানিয়া গমন, বই লেখা এগুলার সাথে না কি সামঞ্জস্য আছে। তাই সুযোগ পাওয়া মাত্র দেখলাম। মনে হল কিছু একটা না লিখলে অপরাধ হয়ে যাবে! 

    বাংলাদেশে আমরা যেটাকে গেম মারা বলি ভারতের বা হিরানি যে পথটা দেখিয়েছেন অবৈধ পথে যাওয়ার সেটাকে ওরা ডাংকি বলে। আমি রোমানিয়ায় যে ভারতীয়দের সাথে ছিলাম তারা কিন্তু ডাংকি কখনও বলেনি, ওরাও গেম দেওয়াই বলত। এখানে যে পথটা দেখিয়েছে, পাকিস্তান হয়ে আফগানিস্তান, ইরান হয়ে তুরস্ক, সেখান থেকে সমুদ্র পথে ইংল্যান্ড, এইটাকে হয়ত ভারতীয়রা ডাংকি বলে। এই একই পথকে বাংলাদেশে গেমই বলে। এখানে অবৈধ পথে যাওয়াটাকেই গেম বলে। গেম দিয়ে বাংলাদেশিরা ল্যাতিন আমেরিকার বন জঙ্গল হয়ে মেক্সিকো দিয়ে আমেরিকা চলে যাচ্ছে! ঢাকায় বিশাল বড় বিল বোর্ড দেখছি আমি, যেখানে লেখা ছিল সহজে মেক্সিকোর ভিসা করায় দেওয়া হয়! যারা মেক্সিকোর ভিসায় যাবে বা যারা মেক্সিকোর ভিসা করায় দিচ্ছে তারা দুই পক্ষই জানে গেম মেরে আমেরিকা ঢুকাই হচ্ছে অভীষ্ট লক্ষ্য!

    যাই হোক, হিরানি সাহেব গেম মারা সিনেমা বানিয়েছেন কিন্তু পুরো সিনেমায় এই বিষয়টাই আসছে খুব অল্প! হাস্যকর কিছু বিষয় দেখিয়েছে, সিনেমা বানাচ্ছি ডকুমেন্টারি না এইটা মনে হয় মাথায় নিয়ে বসে ছিলেন তিনি। শাহরুখ খানকে তো প্রেম করতেই হবে! মানে এত গুরুত্বপূর্ণ একটা বিষয়ের সিনেমাকে ফাইজলামি পর্যায় নিয়ে গেলেন কেন জানি না। মরুভূমি পার হতে গিয়ে নায়ক রোমান্টিক হয়ে যাচ্ছে! জীবন নিয়া টানাটানি, ওর মধ্যে প্রেম আসে কোন জায়গা থেকে? অথচ শুধু মাত্র কন্টেইনারের মধ্যের গল্প দিয়েই সিনেমা বানানো সম্ভব। দুই মিনিটও দেখায় নাই কন্টেইনারে করে যাওয়ার দৃশ্য। সব মিলিয়ে ডাংকি মারার দৃশ্য হয় পনেরো বিশ মিনিট, বাকি হচ্ছে শাহরুখ খানের প্রেম, নায়কোচিত কাজ কারবার, ফালতু কিছু দৃশ্য। ফেরার জন্য উতলা লোকজন ফিরতে পারছে না কেন আমি বুঝি নাই। এই আইন আমার জানা নাই। আস্যাইলাম নেওয়া মানুষজন দেশে কোনদিনই ফিরতে পারে না? ওই দেশের পাসপোর্ট পায়া গেলেও না?

    একেবারেই কিছু নাই সিনেমায়? আছে, আমি আরও বেশি কিছু চাচ্ছিলাম এই যা। প্রবাসী শ্রমিকদের জীবনটা আরও দেখাইতে পারত। অল্প একটু ছুঁয়ে গেল শুধু। যে দৃশ্যে গাদাগাদি করে এত গুলা মানুষ একটা বাড়িতে দেখাইছে ওইটা আমাকে নিজের জীবনের কথা মনে করিয়ে দিয়েছে। তিনতলা বিছানা, এক রুমে দশ বারোজন! একটু যে কন্টেইনারের দৃশ্য দেখিয়েছে ওইটা কলিজায় গিয়ে লাগছে। আমার অভিজ্ঞতা নাই কিন্তু যারা গিয়েছে তাদের সাথে অনেকবার এই বিষয় নিয়ে কথা হয়েছে। প্রত্যেকের গলার স্বর ছিল অন্য রকম। মনে হয়েছে বিভীষিকার কোন ঘটনার কথা যেন আমি মনে করিয়ে দিয়েছি। সবার কথা ছিল ভাই বুঝি নাই এমন হবে!

    আমার মনে আছে আমার সাথের দুইজন গেম মেরে পার হয়ে গিয়ে বিপদে পড়েছিল, যাওয়ার কথা ইতালি, নিয়ে গেছে জার্মানি! ওইখান থেকে আমাকে ফোন দিয়েছে, দিয়েই বলতেছে ভাই জার্মানিতে না আপনার বন্ধু আছে, আমাদেরকে ইতালি পাঠানোর ব্যবস্থা করতে পারবে? আমি আকাশ থেকে পড়েছিলাম। বললাম এইটা ওরা পারবে কি না জানি না, কথা বলে দেখতে হবে। পরে জিজ্ঞাস করলাম যারা এই কাজ করছে ওরা ইতালি নিয়ে যাবে না? না হলে টাকা দিবেন কেন? ওরা বলল ভাই নিয়ে যাবে কিন্তু আবার ওই কন্টেইনারে ঢুকার ইচ্ছা নাই, বলার সময় গলার স্বরে যে তীব্র আতঙ্ক ছিল তা আমি লিখে বুঝাতে পারব বলে মনে হয় না! তারা পরে কন্টেইনারেই ইতালি গিয়েছিল।

    এমন বেশ কিছু জায়গা ছিল যা আমাকে স্পর্শ করে গেছে। আমি আরও বেশি কিছু চাইছিলাম। ছবির নাম যখন ডাংকি তখন আমার চাওয়া তো অপরাধ না, তাই না? এই ছবির নাম অনায়াসে 'হার্ডি সিং কী প্রেম' কথা রাখা যাইত, রাখলেই পারতেন, আমিও কোন আগ্রহ দেখাইতাম না। কিন্তু নাম রাখলেন ডাংকি আর ডাংকিই আড়ালে থেকে গেল, এইটা কেমন কথা! 
    একটা গুরুত্বপূর্ণ বিষয় উঠে এসেছে এখানে, এই জন্য ধন্যবাদ পেতে পারেন পরিচালক। বর্ডার, ভিসা এগুলা সমস্যা শুধু মাত্র গরিবের জন্য, যার টাকা আছে তার জন্য দুনিয়ার সকল বর্ডার খোলা, সব দেশের ভিসা উম্মুক্ত! এইটাই মূল কথা এবং শেষ কথা!

    আমাদের এদিকে মানে ভারতীয় উপমহাদেশের নায়কেরা সহজে নায়ক চরিত্র ছাড়তে চায় না। অনেক পরিবর্তন হয়েছে কিন্তু এখনও বহুদূরের পথ পারি দিতে হবে। এই কারণেই শাহরুখ খানের এখনও নায়কই হতে হবে, বর্ডারে দ্রিম করে গুলি মেরে দিতে হবে, বিদেশে চার্চে মারামারি করতে হবে, যেখানে ওই চার্চের বিয়ের উপের নির্ভর করছিল সবার ভবিষ্যৎ! হিরানি এর আগে দারুণ সব কাজ করলেও তিনিও শাহরুখ খানকে নায়ক বানাতে গিয়ে গুবলেট করে ফেলেছেন।

    আবহ সঙ্গীত ভালই ছিল, একটা গান কানে মধুর লেগেছে। প্রত্যাশা কম থাকলে হয়ত আরও ভাল লাগত। আপাতত প্রত্যাশা পূরণ হয় নাই এইটাই বলতে পারছি শুধু। 
    পুনঃপ্রকাশ সম্পর্কিত নীতিঃ এই লেখাটি ছাপা, ডিজিটাল, দৃশ্য, শ্রাব্য, বা অন্য যেকোনো মাধ্যমে আংশিক বা সম্পূর্ণ ভাবে প্রতিলিপিকরণ বা অন্যত্র প্রকাশের জন্য গুরুচণ্ডা৯র অনুমতি বাধ্যতামূলক। লেখক চাইলে অন্যত্র প্রকাশ করতে পারেন, সেক্ষেত্রে গুরুচণ্ডা৯র উল্লেখ প্রত্যাশিত।
  • অন্যান্য | ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ | ১৩২৫ বার পঠিত
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • পাতা :
  • যোষিতা | ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ০৩:০২528504
  • cryingএ বাবা! রিভিউ পড়েই বোঝা যাচ্ছে কী লেভেলের জিনিস বানিয়েছে।
  • r2h | 208.127.71.78 | ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ০৩:৫৪528505
  • আমিও দেখলাম ডাংকি, চমৎকার লাগলো।
    বেশিরভাগটাই ঢপ ও অবাস্তব, টিপিক্যাল বলিউডি।
    "বর্ডার, ভিসা এগুলা সমস্যা শুধু মাত্র গরিবের জন্য, যার টাকা আছে তার জন্য দুনিয়ার সকল বর্ডার খোলা, সব দেশের ভিসা উম্মুক্ত! এইটাই মূল কথা এবং শেষ কথা!" - এই কথাগুলি অনেক কঠিন, গম্ভীর, কস্টিক, তিক্ত ইত্যাদি মোড়কে বলা হয়ে থাকে, কিন্তু টিকিট কেটে আসা আমোদসন্ধানী মানুষকে বলাটা বিগ ডিল বলে মনে হয়েছে।
    এসবের জন্যই অনেকে সিনেমাটা পছন্দও করেনি; অবশ্য বর্তমান রামরাজ্যে বলিউডের উপস্থিতি ও খানত্র ইত্যাদি ডায়নামিক্সও আলাদা।

    "মরুভূমি পার হতে গিয়ে নায়ক রোমান্টিক হয়ে যাচ্ছে! জীবন নিয়া টানাটানি, ওর মধ্যে প্রেম আসে কোন জায়গা থেকে?" - এটা কোন সঙ্গত প্রশ্ন বলে মনে হলো না।
    এই সিনেমার প্রেক্ষিতে অবশ্য ঠিকই আছে।
  • :|: | 174.251.161.113 | ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ০৫:৪১528506
  • "আবহাওয়া সঙ্গীত" :D
  • Kuntala | ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ০৬:৫৭528507
  • আমি তো দেখবো না ঠিকই করে রেখেছি। আপনার লেখা পড়ার পর আর এই সব ছ্যাবলামি হৃদয়ে নেবে না, জানি। 
    আপনার বইটি পড়ার অপেক্ষায় রইলাম 
  • Kuntala | ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ০৬:৫৯528508
  • :D হ্যা, আবহ সংগীত হবে ওটা। শুধু এটুকুই দেখলেন বুঝি? 
  • Arindam Basu | ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ০৭:২১528509
  • "আবহাওয়া, সঙ্গীত",  এও হতে পারে। 
    মানে হয়ত ওপেন এয়ার থিয়েটারে সিনেমাটা দেখে থাকতে পারেন। :-)
  • dc | 2401:4900:232e:a656:a5ac:a115:e91d:dffd | ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ০৮:৫০528510
  • যদ্দুর মনে পড়ে, শারুকখানের দিলওয়ালে সিনেমার কিছুটা লাস্ট দেখেছিলাম - কাজল আর আদিগন্ত সর্ষের ক্ষেত laugh​রাজকুমার হিরানির কোন সিনেমা অবশ্য দেখিনি। জীবনে সময় খুব কম, ডাংকি দেখে সেই সময় নষ্ট করা ঠিক হবে না। 
  • Muhammad Sadequzzaman Sharif | ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ২২:১৯528535
  • আবহাওয়া সঙ্গীত! laugh laughlaugh
  • Muhammad Sadequzzaman Sharif | ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ০০:১৭528545
  • হিরানি তো খারাপ পরিচালক না। থ্রি ইডিয়টস বা পিকে বিশাল কিছু না হলেও ভালো সিনেমাই বলা চলে। এখানে এসে একেবারেই কী থেকে যে কী করে ফেলল! ডাংকি দেখে আসলেই সময় নষ্ট করার কোন মানে নাই। বিষয়বস্তুটা শক্তিশালী ছিল। কেন জানি খেই হারিয়ে ফেলেছে পরিচালক।  
  • r2h | 165.1.200.97 | ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ০০:২৮528547
  • আমার আবার থ্রি ইডিয়টস মোটেই পোষায়নি।
    দিনের শেষে প্রতিভাহীন বা পিছিয়ে থাকার তেমন দাম নেই, অন্য রকম পথ বাছতে পারো কিন্তু তাতেও ফেল করা চলবে না - এর থেকে আলাদা কিছু মনে হয়নি।

    পিকে অবশ্য বিষয়ের কারনে খুব ইন্টারেস্টিং লেগেছিল, আর ঐ কারনেই, বিনোদনের বৃত্তে দরকারী জিনিস বলে মনে হয়েছিল। চিঠি লেখা ফোন করা ইমেল করা ইত্যাদি নিয়ে প্রেমিক প্রেমিকার ভুল বোঝাবুঝি নিয়ে একটা হাস্যকর ফাঁক ছিল অবশ্য গল্পে, তবে সিনেমায় ওসব হয়েই থাকে।
  • দীমু | 182.69.183.218 | ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ০০:৩০528548
  • বিধু বিনোদ চোপড়া ছিল না বলে এবার ছড়িয়ে ফেলেছে।
  • Arindam Basu | ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ০০:৩৫528549
  • আমারও পিকে আর থ্রি ইডিয়টস অসহ্য লেগেছিল। মোশা শরীফের রিভিউ পড়ে হচ্ছে এটাও আরেকটা ঐ রকম সময় নষ্ট করানো ফালতু ছবি।
  • dc | 2401:4900:232e:a656:c954:ff2f:415e:fde7 | ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ০৩:৫০528551
  • পিকে দেখিনি, তবে থ্রি ইডিয়টস এর কয়েকটা সিন দেখেছি। বিশেষ করে এক বন্ধুর জোরাজুরিতে দেখতে হয়েছিল, তার মধ্যে একটা ছিল চতুরানন নামে এক ক্যারেক্টারের একটা স্পিচ। সে খুব একটা হিন্দি জানেনা, তাই স্পিচের মধ্যে নানারকম ম্যালঅ্যাপ্রোপিজম, গ্যাফ ইত্যাদি ঢুকে পড়েছিল, সেই নিয়ে মজা। সিনটা আমার অসহ্য লেগেছিল কারন ইন্ডিয়ানদের মধ্যে ঠিক এই ধরনেরই জেনোফোবিয়া আছে, ঠিক এইভাবেই "আমরা" খুঁচিয়ে খুঁচিয়ে "ওদের" নিয়ে মজা করি। 
     
    তবে বিধু বিনোদ চোপড়ার কথায় মনে পড়লো, পরিন্দা সিনেমাটা ভালো লেগেছিল। রোজা, বম্বে, আর পরিন্দা, এরকম কয়েকটা সিনেমা মনে পড়লো যেগুলো ভালো লেগেছিল।  
  • র২হ | 2607:fb90:3f60:2321:211a:ae8c:e090:b9db | ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ০৫:১০528552
  • ঠিক, ওই চতুরানন ভুলে গেছিলাম - আরও কী ছিল র্যাগিং ট্যাগিং নিয়েও বোধহয় খুবই আপত্তিকর সব 'মজা'। বিচ্ছিরি লেগেছিল সব মিলিয়েই।
    পরিন্দা মাইলস্টোল বলা যায় হিন্দি ছবিতে। রোজাতে দেশভক্তির ওভারডোজ তত পোষায়নি তবে গান টান সুন্দর। বম্বে ভালো লেগেছিল।
  • dc | 2401:4900:232e:a656:c954:ff2f:415e:fde7 | ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ০৫:২১528553
  • রোজার প্রেমকাহিনীটা বেশ ভালো লেগেছিল :-)
  • র২হ | 2607:fb90:3f60:2321:211a:ae8c:e090:b9db | ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ০৫:৫০528554
  • হ্যাঁ - রোজা প্রায় পুরোটাই খুব সুন্দর!
    ওর কাছাকাছি সময়, কয়েক বছর আগে, একটা তেলুগু সিনেমা খুব নাম করেছিল, গীতাঞ্জলি। সেটা আমাদের শহরে ছেলে ছোকরারা ডিডি ওয়ানে খুব মন দিয়ে দেখেছিল। প্রেম প্রসঙ্গে আরবিট মনে পড়লো।
  • :|: | 174.251.161.113 | ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ০৫:৫৮528555
  • হিরানী এবং মনিরত্নম কি তকাই আর আলু-নারকোলের মতো ব্যাপার নাকি?
  • র২হ | 2607:fb90:3f60:2321:211a:ae8c:e090:b9db | ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ০৬:০৮528556
  • না না, গীতাঞ্জলি যে মণিরত্নম এই গুগল করে দেখলাম। কার সিনেমা কী ব্যাপার কিছুই জানতাম না/ মনে ছিল না। প্রেম প্রসঙ্গে মনে পড়লো।
    রোজা বম্বেও তো মণিরত্নম?
     
    কে প্রযোজক কে পরিচালক সেসব গুগল না করে বলতে পারিনা মোটেই।
  • Arindam Basu | ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ০৬:৩০528558
  • রোজাও ভুলভাল, আনরিয়েলিস্টিক, বস্তাপচা মেলোড্রামা! 
    এইগুলো মানুষ দেখে কি করে কে জানে, ভাল লাগা দূরস্থান। 
  • dc | 2401:4900:232e:a656:2ce4:80b1:a5f5:1dea | ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ০৯:০২528562
  • মণি রত্নম এর আরেকটা সিনেমা ভালো লেগেছিল, থিরুদা থিরুদা। এটা হিন্দিতে চোর চোর নাম দিয়ে রিলিজ করেছিল। 
     
    আর সাউথ ইন্ডিয়ার সিনেমার কথা যদি ওঠেই তো বলবো গৌথম মেননের সিনেমা ভিনাইথান্ডি ভারুভায়া (Vinnaithaandi Varuvaayaa) দেখতে। এটায় ছিলেন তৃষা আর সিম্বু, এটা পুরো সাউথ ইন্ডিয়া মেগা হিট হয়েছিল। আর আমার সিরিয়াসলি ভালো লেগেছিল, দুর্দান্ত সিনেম্যাটোগ্রাফি, এডিটিং আর স্টোরি টেলিং এর জন্য। 
     
    এই দুটো সিনেমারই সঙ্গীত পরিচালক এ আর রহমান। আরও একটা ভালো লাগা সিনেমা হলো পূভেলাম উন্ভাসম (Poovellam Un Vaasam), এটায় ছিলেন অজিত আর জ্যোতিকা। 
     
    এরকম আরও অনেক সিনেমা আছে, কোন হিন্দি সিনেমা এগুলোর ধারেকাছেও আসতে পারেনা।  
  • র২হ | 2601:c6:d200:2600:4197:c97b:39d7:e097 | ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ১০:৩৫528572
    • Arindam Basu | ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ০৬:৩০
    • ...এইগুলো মানুষ দেখে কি করে কে জানে... 
    দেখা এমনিতে কঠিন কিছু না, তবে রুচিবোধ তো একান্ত ব্যক্তিনির্ভর।
    কত লোক কেরালা ফাইল অ্যানিমেল দেখে ফাটিয়ে দিচ্ছে। কী করে দেখে আর কী করলে দেখবে সেই জিনিসটা যদি প্রেডিক্ট করা যেত আর তা ভেবে যদি উদার ও মুক্তমনা প্রতিভাবানরা কিছু বানাতেন কী ভালোই না হত।
     
    ঋত্বিক ঘটক পড়েছি ওই জিনিস চেয়েছিলেন - পপুলার মাধ্যম বিপুল সম্ভাবনা আর তার উপাদানে নানান কিছুর সঙ্গে মাপমত মেলোড্রামা ইত্যাদি। 
    তুলনা কিছু না শুধু ওই এজেন্ডা আর উপকরন প্রসঙ্গে।
    আজকের ছবির বাজারের হুজ হু-দের মধ্যে তো তাঁর অনেক ছাত্রও বোধহয় আছেন।
    একেবারেই অপ্রাসঙ্গিক যদিও।
  • Muhammad Sadequzzaman Sharif | ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ১৫:০৩528582
  • @র২হ দাদা, পিকের বড় গুজামিল ছিল এলিয়েন একজন পতিতার কাছ থেকে পৃথিবীর ভাষা ( যা আসলে হিন্দি!)  শিখে কনডম কী জিনিস তা নিয়ে বিরাট ক্যাচাল করা! 
     
    যাই হোক, বিধু বিনোদ চোপড়ার নাম যেহেতু আসল, তাঁর টুয়েলভথ ফেল দেখেছেন কেউ? কেমন লাগছে? 
  • দীমু | 182.69.183.218 | ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ১৫:১০528583
  • দেখেছি। টুয়েলফথ ফেল রাজু + বিধু বিনোদের এই সবকটা সিনেমার মধ্যে বেস্ট। ছবিটার মধ্যে কোনো ভাঁড়ামি বা সুগারকোটিং নেই। 
  • র২হ | 2601:c6:d200:2600:3cce:6cbe:88c2:5ee0 | ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ২০:৫৫528586
    • Muhammad Sadequzzaman Sharif | ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ১৫:০৩
    • ... এলিয়েন একজন পতিতার কাছ থেকে পৃথিবীর ভাষা ( যা আসলে হিন্দি!)  শিখে কনডম কী জিনিস তা নিয়ে বিরাট ক্যাচাল করা! 
     
    এটা কী ছিল একদমই মনে নেই তবে কল্পবিজ্ঞানের গল্পে এটা সাধারন ব্যাপারই তো, এলিয়েন পৃথিবীতে এসে বেড়ালের সঙ্গে দেখা হয়ে বেড়ালের ভাষা শিখে নিল!
  • র২হ | 2607:fb90:3f60:2321:dc:b11e:b413:dd46 | ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ০৩:০২528597
  • ওদিকে স্যাম বাহাদুর নিয়ে ভালো ফিডব্যাক শুনেছিলাম। কিন্তু শুরু করে কিছুক্ষন পর কাটিয়ে দিলাম।
  • Arindam Basu | ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ০৩:২১528598
  • দেখা এমনিতে কঠিন কিছু না, তবে রুচিবোধ তো একান্ত ব্যক্তিনির্ভর।
     
    আবার বয়সের ওপর, সঙ্গে কে আছে, কিছুটা নির্ভর করে। প্রথমবার রোজা যান দেখেছিলাম, দারুণ লেগেছিল। এখন ভাবলে অবাক ঐরকম একটা বোকা বোকা মুভি অতক্ষণ ধরে দেখে উলুত পুলুত হয়েছিলাম। 
  • দীমু | 182.69.179.69 | ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ১৩:৫৯528612
  • র২হ , জোরাম দেখে ফেলুন। প্রাইমে আছে মনে হয়। 
     
    অল্প বয়সে দলবেঁধে বহু খাজা ছবি হলে বসে দেখতে ভালই লাগে। সিনেমাহল একটা কালেকটিভ এক্সপিরিয়েন্স। ওটিটি তা নয়। ফলে অনেকসময় হলে বহু অচেনা লোকের সঙ্গে বসে বা বাড়ির টিভির সামনে চেনা সবাই মিলে বসে রোজা বা পিকে, থ্রি ইডিয়টসের মত মাস ছবি দেখে ভাল লাগলেও পরে আলাদা করে একা বসে দেখলে মোটেই ভাল লাগবে না।
  • Muhammad Sadequzzaman Sharif | ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ১৫:০৮528616
  • র২হ, না না, ভাষা শিখছে ওইটা সমস্যা না, সমস্যা হচ্ছে পতিতার কাছ থেকে ভাষা শিখে কনডম না চেনা! laugh
     
  • binita rahaman | 117.233.154.209 | ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ২২:৫৬528720
  • যারা এখনো এইসব সিনেমার নাম, স্টার..পরিচালক..গল্প _ ইত্যাদির গোলক ধাঁধা তে পড়ে দেখবার সাহস করবেন তাঁদের জন্যে সহানুভূতি!
    আমার বেঁচে থাকার সময় আরও কোনো ভালো লাগার কাজে ব্যয় করতে চাই 
     
  • r2h | 165.1.200.98 | ২২ ফেব্রুয়ারি ২০২৪ ২৩:০০528722
  • হুম, 'পতিতা'র শব্দভান্ডারে কন্ডোম আবশ্যক সংযোজন হওয়া উচিত, এটা অবশ্য যুক্তিগ্রাহ্য বটে!
  • পাতা :
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]


মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত
পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। ক্যাবাত বা দুচ্ছাই প্রতিক্রিয়া দিন