এই সাইটটি বার পঠিত
ভাটিয়ালি | টইপত্তর | বুলবুলভাজা | হরিদাস পাল | খেরোর খাতা | বই
  • খেরোর খাতা

  • ইতিহাসের পাতায় না পাওয়া স্বাধীনতার বীরাঙ্গনারা (তৃতীয় পর্ব)

    Surajit Dasgupta লেখকের গ্রাহক হোন
    ২৭ নভেম্বর ২০২২ | ১০০ বার পঠিত
  • প্রফুল্লনলিনী ব্রহ্ম
     
    ১৯১৪ সালের ২২শে ফেব্রুয়ারি তৎকালীন কুমিল্লা জেলায় (ত্রিপুরাভূক্ত) জন্মগ্রহণ করেন প্রফুল্লনলিনী ব্রহ্ম। পিতা শ্রী রজনীকান্ত ব্রহ্ম এবং মাতা শ্রীমতী রঙ্গবাসী ব্রহ্ম। তাঁর পিতা ছিলেন মোক্তার। কিন্তু তিনি কোর্টের পেশা ত্যাগ করে আইন অমান্য আন্দোলনে যোগ দিয়েছিলেন এবং এইরকম স্বদেশী ভাবাপন্ন পরিবেশেই প্রফুল্লর বেড়ে ওঠা। পিতার কাছ থেকেই প্রফুল্ল স্বাধীনতা সংগ্রামের পথে এগিয়ে যাওয়ার প্রেরণা পেয়েছিলেন। তৎকালীন কুমিল্লা জেলায় সাইমন কমিশনের বিরুদ্ধে যে আন্দোলনের জোয়ার এসেছিল সেই জোয়ারে অনেক পুরুষ বিপ্লবীর পাশাপাশি যে কতিপয় নির্ভীক কিশোর-কিশোরী পা রেখেছিলেন প্রফুল্ল তাঁদের মধ্যে অন্যতম। তিনি ছিলেন 'যুগান্তর' দলের প্রথম নেত্রী। তিনিও শান্তি ঘোষ এবং সুনীতি চৌধুরীর মতো কুমিল্লার ফৈজুন্নেসা চৌধুরী বালিকা বিদ্যালয়ের ছাত্রী ছিলেন, শান্তি-সুনীতির চেয়ে এক ক্লাস উঁচুতে পড়তেন। যুগান্তর দল তাঁকে দ্বায়িত্ব দিয়েছিল নারীদল গঠনের, তিনি প্রথমে শান্তি-সুনীতি ও পরে অন্যান্য মেয়েদের নিয়ে তৈরী করেছিলেন 'Tripura District Women Students Association'। এই দলে তিনি ছিলেন প্রেসিডেন্ট, শান্তি ঘোষ সেক্রেটারী এবং সুনীতি চৌধুরী ক্যাপ্টেন। কুমিল্লা জেলার ম্যাজিস্ট্রেট চার্লস জিওফ্রে বাকল্যান্ড স্টিভেন্স সাহেবের অত্যাচারে জেলাবাসী অতিষ্ঠ হয়ে উঠলে দল ম্যাজিস্ট্রেটকে হত্যার দ্বায়িত্ব দেয় শান্তি-সুনীতিকে আর প্রফুল্লর দ্বায়িত্ব পড়ে বাইরে থেকে গোপনে হত্যার ঘটনাকে সম্পূর্ণতা দেওয়ার। ১৯৩১ সালের ১৪ই ডিসেম্বর সুনীতি চৌধুরী সামনে থেকে গুলি করে হত্যা করেন এবং এই কাজে তাঁকে সহযোগীতা করেন শান্তি ঘোষ। ওইদিনই শান্তি-সুনীতি ধরা পড়েন আর পরেরদিন প্রফুল্ল, সুনীতির দাদা শিশির চৌধুরীসহ আরও অনেক নেতাকে পুলিশ ধরে। প্রফুল্লর বিরুদ্ধে বলা হয়েছিল, 'সে স্থানীয় বিদ্যালয় থেকে বালিকা সংগ্রহ করেছিল এবং সাহস ও বিপ্লবী আদর্শে অনুপ্রাণিত করেছিল'। প্রফুল্লের বিরুদ্ধে উপযুক্ত প্রমান না পাওয়ায় ২২শে মার্চ ১৯৩২ সালে তাঁকে 'ডেটেনিউ' হিসেবে প্রথমে কুমিল্লা এবং পরে হিজলি বন্দী নিবাসে রেখে দেওয়া হয়। বন্দী অবস্থাতেই তিনি আই এ, বি এ পাশ করেন। ১৭ই এপ্রিল ১৯৩৬ এ বন্দী দশা থেকে মুক্তি পেলেও তাঁকে নিজের বাসায় গৃহবন্দী করে রাখা হয়। সেইসময় তাঁর অ্যাপেনডিক্সের সমস্যা দেখা দেয়। নিয়মানুযায়ী কোনো গৃহবন্দীকে শহরের বাইরে নিয়ে গিয়ে চিকিৎসা করতে গেলে স্থানীয় এস ডি ও সাহেবের অনুমতি লাগে। অনুমতি পাবার আশায় প্রফুল্লের বাবা দিনের পর দিন এস ডি ও সাহেবের বাংলোয় গিয়ে হত্যে দিয়ে পরে থাকলেও এস ডি ও সাহেবের দেখা পাননি, অনুমতি তো দূর অস্ত। ১৯৩৭ সালের ২২শে ফেব্রুয়ারী মাত্র ২৩ বছর বয়সে বিনা চিকিৎসায় বিপ্লবী প্রফুল্ল নলিনী ব্রহ্ম মারা যান। স্বাধীনতার ৭৫তম বছরে আমরা এই বীর বিপ্লবীকে স্মরণ করি ও সম্মান জানাই।
     
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]


মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত
পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। মন শক্ত করে মতামত দিন