ভাটিয়ালি | টইপত্তর | বুলবুলভাজা | হরিদাস পাল | খেরোর খাতা | বই
  • বুলবুলভাজা  পড়াবই  মনে রবে

  • একটি প্রতারক শূন্যতা ...স্মরণে কবি প্রবুদ্ধসুন্দর কর 

    চিরশ্রী দেবনাথ
    পড়াবই | মনে রবে | ৩১ জুলাই ২০২২ | ৪৬৮ বার পঠিত

  • প্রবল জীবন্ত একজন মানুষ যখন হঠাৎ করে নিঃশব্দ হয়ে যায়, তখন তাঁকে নিয়ে লেখা বড়ো কঠিন। আজ নিন্দা বা প্রশংসামুখরিত বাক্যে তাঁর কিছুই যায় আসে না। আমি কবি প্রবুদ্ধসুন্দর করকে চিনি বাইরে থেকে, কবির কবিতা, গদ্য এবং স্যোসাল মিডিয়ায় নানারকম স্ট্যাটাস তাঁর সম্পর্কে একটি ভাবমূর্তি তৈরি করেছে, আমি নিতান্তই সেই পথের অনুসারী। আমাদের রাজ্য কবিতামুখর।  কবিতামুখর রাজ্যের অধিবাসী এই কবি আবহমান  বাংলা কবিতার এক দুরন্ত কলম, যাকে বসন্তকালীন অব্যর্থ ব্যাধের সঙ্গে তুলনা করা যেতে পারে, কবিতার হৃদয়কে যিনি বিদ্ধ করেছেন আঘাতে আঘাতে। কালজয়ী শব্দটি যদিও নিতান্তই আপেক্ষিক এবং প্রজন্মে প্রজন্মে এর ভাষ্য এবং মূল্যায়ন বদলে যায়, তবুও সন্দেহাতীত ভাবে কবি প্রবুদ্ধসুন্দর কর প্রাসঙ্গিক থাকবেন দীর্ঘ দীর্ঘ দিন।

    আজ এই মুহূর্তে বসে এসব কথা লিখতে কেমন অবাস্তব এবং দুঃস্বপ্নের মতো মনে হচ্ছে, বেঁচে থাকার বয়স যত বাড়তে থাকে ততই তা হয়ে ওঠে বেদনাদায়ক, কারণ তখন কিছু মানুষের চির বিদায় দেখতে হয়। তবুও আমি বিশ্বাস করি  একজন প্রকৃত কবি মৃত্যুহীন। পৃথিবীর জলহাওয়ায় অরুচি হলে তিনি বেড়াতে যান। তাঁকে দূর থেকে দেখার লোক তখন বৃদ্ধি পায়। আসলে কবির তো তখনই মৃত্যু হয়, যখন কবিতা তাকে ছেড়ে যায়। আর রেখে যাওয়া প্রত্যেকটি সার্থক কবিতাই কবির বেঁচে থাকা। আমার কাছে ব্যক্তি প্রবুদ্ধসুন্দর থেকে কবি প্রবুদ্ধসুন্দর গুরুত্বপূর্ণ। সেদিক দিয়ে ভাবলে, তাঁর  কবিতার মাধ্যমে তিনি জীবিত থাকবেন  আলোছায়াকুয়াশাময়  মায়াবী ইন্দ্রজালে, যেখানে একজন কবিসত্তার প্রবেশ ঘটে শুধু, তা থেকে নিষ্ক্রমণ নেই, এ হলো বারোমুডা ট্র্যাঙ্গেলের সেই রহস্যজনক ওয়েব লেংথ,  নিজেকে প্রতিটি সৃষ্টিতে সম্পূর্ণ নিঁখোজ করে হঠাৎ জানান দিতে হয় অরণ্যদেবের মতো প্রবল পদচারণায়। অপরিচিত অথচ লেখালেখির জগতে যাদের মেধা প্রত্যেকটি খণ্ডিত সময়ে মুগ্ধ, বিস্মিত করে, তারা তখন হয়ে ওঠেন অবশ্যপাঠ্য। কবিতার সঙ্গে আপোষহীন এই মানুষটিকে তাই পড়তেই হবে বর্তমান এবং উত্তর প্রজন্মকে। নিন্দিত এবং নন্দিত হওয়া যেকোনো সৃজনশীল মানুষের যাত্রাপথের পাথেয়, কেউ হয়তো ইচ্ছে করেও অধিক আলোচিত হওয়ার জন্য নিজেকে নিন্দিত এবং সমালোচিত হতে দেন, এসময়টা তখনই আসে যখন  সৃজনশীলতার গতিপথে সামান্য ছায়া ঘনিয়ে ওঠে, একজন কবির কাছে এই সময়টা হলো সবচেয়ে  কঠিন এবং অন্ধকারতম সময়। কোনো কোনো কবি তখন স্তব্ধ থাকেন, সরিয়ে রাখেন নিজেকে, কেউ বা অত্যন্ত প্রতিক্রিয়াশীল হয়ে ওঠেন, সমস্ত বিষয়েই আক্রমনাত্মক বিচ্ছুরণ, কবিতা তখন শ্লেষ, বিদ্রুপ এবং কবির স্বভাবগত তীক্ষ্ণ মেধা ও শব্দের ওপর আসুরিক ও ঐশ্বরিক দখলে এক একটি  যন্ত্রণাদায়ক উল্কির মতো বিঁধতে থাকে পাঠককে, এই চলমান সময়ে কবি প্রবুদ্ধসুন্দরের লেখাকে আমার তাই মনে হয়েছে।

    কবির কাছে ছিল  দুর্দান্ত শব্দ ভাণ্ডার এবং শব্দের যথাযথ সুকৌশলী,  সংবেদনশীল, নিঁখুত প্রয়োগ, যা তাঁর প্রত্যেকটি কবিতাকে স্মরণযোগ্য করেছে। বিশেষ কোনো জায়গায় একটি আধিভৌতিক শব্দ এসে কবিতাটিকে রহস্যময় করে তুলেছে। এ প্রসঙ্গে  উনার লেখা একটি কবিতার কথা উল্লেখ করবো, কবিতাটির নাম, 'পুরুষানুক্রম'।

    কবিতাটি এরকম,

    "আরও একটি রাত অনিদ্রায় গেল। ঘুম একধরনের বিরল পাহাড়ি কর্পূর। বিষণ্ণ রাত্রির টানে উবে যায়। এই যে অনন্তমোম, তাতে এখনও আমার মা রানিমৌমাছির ডানার গন্ধ। আজ, তাড়িত শিয়রের পাশে তোমার বসার জায়গা রাখি, বুড়ো মজ। যে শ্রুতি রাত্রি ও বিষাদ থেকে লীনকর্পূর ফিরিয়ে আনে ..পাঠ করো সেই পুরুষানুক্রম। আরও একবার চেষ্টা করে দেখি এই শরীরকে শ্রীবিগ্রহের মন্দির বলে ভাবা যায় কি না।"

    এখানে, বিরল, অনন্তমোম, বুড়ো মজ, লীনকর্পূর এই চারটি শব্দ কবিতাটির চালিকা শক্তি। এর মধ্যে বিরল, অনন্তমোম এবং লীনকর্পূর হচ্ছে অভিজাত আর বুড়ো মজ হলো দেহাতি, এই বিপরীত শব্দটি না থাকলে কবিতাটি বেশ খানিকটা দুর্বল হয়ে যেত। এখানেই একজন মেধাবী কবির নিজস্বতা।  

    "আমার অ্যাম্বুশ" কবির লেখা বহুল আলোচিত একটি গদ্য সংকলন। নির্দিষ্ট কোনো বিষয় নয়, তবে প্রথম থেকে শেষপর্যন্ত কবিতা সম্পর্কিত, কবিতাকে হৃদয়ে রেখে স্পষ্টভাবে কবিতাচর্চার একটি মুক্ত আকাশ একজন বুদ্ধিমান কবির মস্তিস্কে যথাযথ আলো হাওয়া বিস্তার করবেই। বইটি পড়তে হবে নির্লিপ্তভাবে। কবি প্রবুদ্ধসুন্দর করের লেখা এই গদ্য সংকলনটিতে বহু কবিতার বই এবং কবির নামের উল্লেখ আছে, যা বর্তমানের অনেক তরুণ কবি শোনেননি, কিন্তু সেইসব কবিরা বাংলা কবিতা জগতের ধারালো কিরিচ, যাদের লেখা পড়া উচিত। গদ্যগুলো কবির ব্যক্তিগত পছন্দ, অপছন্দের কবিদের কবিতা এবং নিজের কবিতা জীবনের অভিজ্ঞতা থেকে উঠে এসেছে। সমস্ত গদ্যগুলোই এত দৃঢ়তা এবং আত্মবিশ্বাসের সঙ্গে লেখা হয়েছে যে, পড়লে মনে হবে কবির কথাই ধ্রুব। এবং লেখাগুলো পড়ার পর বহু তরুণই হতাশাগ্রস্ত হবেন কিংবা অন্য দিক দিয়ে দেখলে আত্ম সমালোচনা করার একটি যথার্থ ক্ষেত্র খুঁজে পাবেন।

    তীক্ষ্ণ ও সমালোচনামূলক লেখার  মেধাবী সংকলনটি কবিকে যারা পছন্দ করেন না, তারাও নিশ্চিত পড়েছেন, এই সমস্ত ছুরি সদৃশ গদ্য ও কবিতার সমন্বয়েই আমার তাঁকে দেখা। 

     "বিষাদ ও নিষাদ ; ধ্বনিসাযুজ্য ছাড়াও দুয়েরই সাদৃশ্য শিকারজীবিকা। শহর কেন্দ্রিক লোকালয় যত বেড়ে ওঠে, বিষাদের মুখ তত চকচক করে। নিষাদের লক্ষ্য, লোকালয় থেকে ক্রমে আরোও দূরে সরে আসা। অন্ধকারাচ্ছন্ন অরণ্যের দিকে ও ভেতরে নিষাদের যাত্রা ও পদচারণা ; আর লোকালয়ে থেকেও যেসব মানুষের মনের গভীরে, অজান্তেই লোকালয়হীন, অন্ধকারাচ্ছন্ন অরণ্য রচিত হয়, সেই গন্তব্যের দিকেই বিষাদের নীরব আনন্দযাত্রা", ... কবি প্রবুদ্ধসুন্দর কর।"

    অসময়ে কবির এই যাত্রা আমাদের এখনও বিষাদে আচ্ছন্ন করে রেখেছে, তাঁর শত্রু মিত্র সকলেই মনে মনে হয়তো অনুভব করছেন এক প্রতারক শূন্যতাকে, এখানেই তিনি নিজেকে অনুবাদ করেছেন তাঁর কবিতার বিতর্কিত শিবিরে।

  • পড়াবই | ৩১ জুলাই ২০২২ | ৪৬৮ বার পঠিত
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • হজবরল | 195.176.3.19 | ০১ আগস্ট ২০২২ ০১:০৯510638
  • "আমার অ্যাম্বুশ " কোন প্রকাশনীর বই ?
  • চিরশ্রী দেবনাথ | 117.194.248.3 | ০১ আগস্ট ২০২২ ০৮:২০510641
  • অক্ষর প্রকাশনা, ত্রিপুরার 
  • Partha Kundu | ০১ আগস্ট ২০২২ ০৮:৫৬510642
  • ওনার সমস্ত বইগুলোর প্রকাশনা সহ বিস্তারিত জানালে সংগ্রহ করারা চেষ্টা করবো।
  • মলয় রায়চৌধুরী | 106.214.180.221 | ০১ আগস্ট ২০২২ ০৯:৪৭510646
  • প্রবুদ্ধ আমার বেশ পছন্দের কবি । যাঁরা  আসাম আর ত্রিপুরায় থাকেন কলকাতায় তাঁদের কেন গুরুত্ব দেয়া হয় না জানি না । শক্তিপদ ব্রহ্মচারীর পর্যায়ের কবিকেও গুরুত্ব দেয়া হয় না ।
  • চিরশ্রী দেবনাথ | 117.194.248.3 | ০১ আগস্ট ২০২২ ১৩:৩৬510654
  • ধন্যবাদ কবি মলয় রায়চৌধুরী
  • চিরশ্রী দেবনাথ | 117.194.248.3 | ০১ আগস্ট ২০২২ ১৩:৩৭510655
  • কবি প্রবুদ্ধসুন্দর করের বইগুলো, আগরতলার অক্ষর প্রকাশনায় পাওয়া যায়
  • র২হ | 2601:c6:c87f:c858:b14f:80c7:1918:72e5 | ০১ আগস্ট ২০২২ ১৯:৫০510662
  •  
    ইন্টারনেটে প্রবুদ্ধসুন্দরের বইপত্রের সন্ধান পাওয়া চাপ। গুরুতে কেউ একটা সম্পূর্ন বিবলিওগ্রাফি তৈরী করতে পারলে বড় কাজ হয়। আমার ধারনা কলেজস্ট্রিট ডট নেটের সঙ্গে যোগাযোগ করলে ([email protected]) কলকাতায় পাওয়া যায় এমন বইপত্র জোগাড় করা যাবে। কলেজস্ট্রিট ডট নেট অক্ষরের বইপত্রের সন্ধানও দিতে পারবে (কর্তৃপক্ষের দরকার হলে অক্ষরের যোগাযোগ আমার ও পাইয়ের কাছে আছে)।
     
    চিরশ্রীকে ধন্যবাদ এই লেখাটির জন্য।
     
     
  • সিএস | 49.37.34.230 | ০২ আগস্ট ২০২২ ০১:১৬510672
  • বুড়ো মজ ঠিক 'দেহাতি' শব্দ নয়। এটি নামশব্দ, অরণ্যদেব কমিকসের চরিত্রটি, জ্ঞানী বৃদ্ধ যে। এই কবিতাটি ছিল 'ইন্দ্রজাল কমিকস' নামে বইটিতে যেটি পরে অন্তর্ভুক্ত হয়েছিল 'আত্মবিষ' বইটিতে, ২০১০-এ বেরিয়েছিল যেটা। 'ইন্দ্রজাল কমিকস' বইটিতে অরণ্যদেব কমিকস থেকে উপাদান নিয়ে কবিতাগুলো লেখা হয়েছিল।

    এই কবিতাটির শুরুতে আছে অনিদ্রা আর ঘুম উবে যাওয়ার কথা, সেই প্রসঙ্গে আসে 'তাপিত শিয়র' যা শান্ত করার জন্য বুড়ো মজকে ডাকা হয়েছে যেন। বুড়ো মজ যেহেতু অতীতের কথা জানে (কমিকসের গল্প অনুযায়ী), অতএব শ্রুতি প্রসঙ্গ এসেছে, যে শ্রুতি বা অতীত যেন সাহায্য করবে 'শ্রীবিগ্রহের মন্দির' হয়ে ওঠার জন্য।

    শান্তি বা নিরসনের কথা বলা হল ? 
     
    আপাতভাবে, কিন্তু সেরকম ঠিক নয়। কারণ শেষ পংক্তিতে লক্ষ্য করি 'আরো একবার' লেখা হয়েছে এবং কবিতাটি শুরুও হয়েছে 'আরও একবার' দিয়েই। 
     
    সার্কুলারিটি ? যেন এই চেষ্টা আরো এক প্রজন্মের, শান্তি বা নিরসনের ? কবিতাটি মনুষ্যসভ্যতা সংক্রান্ত, যার অনিদ্রারোগ ? কবিতাটির শিরোনামটি তারই প্রমাণ ? এই ছোট ৬ - ৭ লাইনের গদ্যকবিতাটি সেরকম বলে ?
  • &/ | 151.141.85.8 | ০২ আগস্ট ২০২২ ০১:২৬510673
  • 'বুড়ো মজ' শুনেই মনে পড়ে গিয়েছিল অরণ্যদেব। বেতাল।
  • চিরশ্রী দেবনাথ | 117.194.247.139 | ০২ আগস্ট ২০২২ ০৯:৩৬510676
  • ভালো মন্তব্য করার জন্য ধন্যবাদ রইল আমার। 
  • চিরশ্রী দেবনাথ | 117.194.247.139 | ০২ আগস্ট ২০২২ ০৯:৩৬510677
  • ভালো মন্তব্য করার জন্য ধন্যবাদ রইল আমার। 
  • শক্তি | 2405:201:8005:900c:d586:854c:33ee:cea | ০৮ আগস্ট ২০২২ ১৫:১১510873
  • চিরশ্রী অকাল প্রয়াত কবি প্রবুদ্ধসুন্দরের যথাসম্ভব যথাযথ মূল‍্যায়ন করেছেন।সদ‍্যোমৃতের রচনার সমালোচনা করা খুব কঠিন।চিরশ্রী ঠিকই বলেছেন প্রবুদ্ধ কবিতার হৃদয়কে আঘাতে আঘাতে বিদ্ধ করেছেন,পাঠক ও মাঝে মাঝে হতবিহ্বল হয়ে যান। কালজয়ী হবেন কিনা সে প্রশ্ন আলাদা।খন্ডিত সময়কে মুগ্ধ করে রেখেছেন বলেই প্রবুদ্ধ কবিতার আলোচনায় প্রাসঙ্গিক থাকবেন।
  • চিরশ্রী দেবনাথ | 117.194.243.153 | ০৮ আগস্ট ২০২২ ১৮:২৮510876
  • ধন্যবাদ ও নমস্কার রইল আমার 
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]


মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত
পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। সুচিন্তিত মতামত দিন