ভাটিয়ালি | টইপত্তর | বুলবুলভাজা | হরিদাস পাল | খেরোর খাতা | বই
  • খেরোর খাতা

  • ইনডিসেন্ট প্রপোজল

    AR Barki লেখকের গ্রাহক হোন
    ০১ জুলাই ২০২২ | ১৫১ বার পঠিত
  • May be an image of 2 people and people standing
    ডেমি মুর (স্ত্রী) , উডি হারেলসন (স্বামী) ও রবার্ট রেডফোর্ড (কোটিপতি) অভিনীত একটা বিখ্যাত হলিউডি মুভি ছিল "ইনডিসেন্ট প্রপোজাল" (১৯৯৩) নামে। ডেমি ও উডি পরস্পরকে হাই স্কুল থেকে গভীর ভাবে ভালবাসে। পড়াশোনা শেষে তাদের গভীর ভালোবাসাকে সামাজিক বন্ধনে বেঁধে নেয়।
    .
    উডি পেশায় আর্কিটেক্ট। আর দশটা শহরের মতো নবদম্পতির জীবন শুরু হয় আর্থিক সংকটের ভেতর দিয়ে। স্বামীকে সাহায্য করার জন্য ডেমি রিয়েল এস্টেট ব্রোকারের কাজ শুরু করে। এই কাজ করতে গিয়ে ডেমি প্যাসিফিক কোষ্টের সান্তা মনিকা বিচে নিজেদের স্বপ্নের বাড়ি তৈরি করার একটা চমৎকার প্লট খুঁজে পায়।
    .
    তাদের যৌথ স্বপ্নকে প্রতিষ্ঠিত করতে দুজনেই উদয়াস্ত পরিশ্রম করতে থাকে। এমন সময় অর্থনৈতিক মন্দা এসে এই নবদম্পতিকে আর সবার মতোই আঘাত করে। উডি ব্যাংক থেকে নেওয়া লোনের প্রথম কিস্তি পরিশোধ করতে ব্যর্থ হয়। দ্বিতীয় কিস্তি পরিশোধ করতে ব্যর্থ হলে ব্যাংক প্লট ও বাড়ি নিয়ে নেবে। আর কোন উপায় দেখতে না পেয়ে দুজনে একটা বুদ্ধি বের করে।
    .
    তাদের শেষ পাঁচ হাজার ডলার লা ভেগাসের ক্যাসিনোতে জুয়া খেলে আরও বাড়িয়ে নেবে। ক্যাসিনোর স্বাভাবিক নিয়মে প্রথমদিকে জিতলেও খুব শীগ্রই তাদের হাতের ডলার শেষ হয়ে যায়। অতঃপর দুজনেই হাল ছেড়ে দেয়। দুজনের কেউই জানত না কোটিপতি ব্যবসায়ী রেডফোর্ড অনেকক্ষণ ধরেই দুজনের কাজকর্ম লক্ষ্য করছিলো। তাদেরকে হতাশ হতে দেখে এগিয়ে এসে নিজেই পরিচিত হয় ও সব কথা জানতে পারে।
    .
    এমন সময় রেডফোর্ড বিনা মেঘে বজ্রপাতের মত একটা অপ্রত্যাশিত প্রস্তাব দেয়। ডেমিকে এক রাত রেডফোর্ডের ইয়টে কাটাতে হবে আর বিনিময় পাবে উডি পাবে এক মিলিয়ন ডলার। স্বামী-স্ত্রীর জন্য প্রস্তাবটি খুবই আকর্ষনীয় ও লোভনীয় হলেও সামাজিকভাবে ছিল খুবই ইনডিসেন্ট ও মর্ম পীড়াদায়ক।
    .
    দুজনেই প্রস্তাবটি প্রত্যাখ্যান করে ফিরে যায় কিন্তু ব্যাংকের দ্বিতীয় কিস্তি পরিশোধের তারিখ এগিয়ে আসার প্রেক্ষাপটে দুজনেরই চিন্তা-ধারা এই প্রস্তাবকে কেন্দ্র করে আবর্তিত হতে থাকে। নিরবতার প্রাচীর ভঙ্গ করে ডেমিই প্রথম মুখ খোলে প্রস্তাবটি নিয়ে।
    .
    উডিকে বলে লোকটা শুধুই এক রাত্রের জন্য তার দেহটা পাবে। ডেমির মন চিরকালের জন্য উডির ছিল এবং থাকবে। অনেক মানসিক দ্বন্দ্ব ও টানাপোড়নের পর উনি রাজি হয়। উকিলের উপস্থিতিতে চুক্তি হয়ে ডেমি এক রাত ইয়টে থেকে আসে। তাদের আর্থিক সমস্যার সমাধান হয়ে যায়।
    .
    আর্থিক সমস্যা সমাধানের পরেও তারা হতাশ হয়ে খেয়াল করে দুজনের মধ্যে নানা রকম নতুন সমস্যা গজিয়ে উঠেছে যা আগে ছিল না। দুজনেই খেয়াল করে তাদের মধ্যে এক অদৃশ্য দূরত্বের প্রাচীর গড়ে উঠেছে যা দুজনের কেউই ভঙ্গ করতে পারছে না। ডেমির মনে চিন্তা খেলতে থাকে উডি কি তাকে আগের মতো গ্রহণ করতে পারছে ?
    .
    উডি ভাবতে থাকে সেদিন ইয়টে আসলে কি ঘটেছিল ? ডেমি তাকে নিয়ে কি ভাবছে ? সে কিভাবে এরকম একটা ব্যাপার অনুমোদন করতে পারলো ? ডেমি কি আগের মতই আছে নাকি ওই কোটিপতিকে মনটাও দিয়ে এসেছে ? হতাশ হয়ে উডি লক্ষ্য করে তাদের অর্থ ছিল না কিন্তু পরস্পরের ভেতরে ছিল আস্থা বিশ্বাস ভালোবাসা। অর্থ এসেছে কিন্তু ওগুলি হারিয়ে গেছে।
    .
    বিশ্বাস অবিশ্বাসের দোলাচলে দুলতে দুলতে শেষ পর্যন্ত তাদের সম্পর্কে ফাটল ধরে। ডেমি ডিভোর্স ফাইল স্যুট করে। উডি এক মিলিয়ন ডলার না ছোঁয়ার প্রতিজ্ঞা করে ছোট একটা চাকরি খুঁজে নেয়।
    .
    একসময় দুজনেই বুঝতে পারে অর্থ সব সমস্যার সমাধান দিতে পারে না। অনেক টানাপোড়েনের পর একপর্যায়ে দুজনেই শহরের সেই বেঞ্চের কাছে গিয়ে হাজির হয় যেখানে তারা দুজন চিরদিন ভালোবাসার বন্ধনে আবদ্ধ থাকার প্রতিজ্ঞা করেছিল।
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • জনৈক দর্শক | 103.108.117.91 | ০১ জুলাই ২০২২ ১৬:২২509535
  • বেশ জনপ্রিয় হয়ে ছিলো 
    সফ্ট ভয়ারিজম আর রোমান্টিক কাকোল্ডিং এর ওপর আসল বই টা লেখা , সিনেমায় অনেক পরিবর্তিত 
    ডেমি মুর কে অসামান্য লেগেছিলো 
     
    অনেক দিন পর মনে করিয়ে দেবার জন্য ধন্যবাদ 
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]


মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত
পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। ক্যাবাত বা দুচ্ছাই মতামত দিন