• বুলবুলভাজা  ভ্রমণ  পথ ও রেখা  খাই দাই ঘুরি ফিরি

  • পথ ও রেখা – ৭ : কে বলবে মানুষটা দশটা রোল্‌স রয়েসের মালিক!

    হিরণ মিত্র
    ভ্রমণ | পথ ও রেখা | ০৩ জুন ২০২১ | ২৯৯ বার পঠিত | ১ জন
  • পছন্দ
    জমিয়ে রাখুন পুনঃপ্রচার
  • ওয়াঙ কিপিং। বিশ্ববিখ্যাত ভাস্কর। দুনিয়ার নানা গ্যালারি, জাদুঘরে ছড়িয়ে আছে তাঁর শিল্প। বাসিন্দা প্যারিসের। সেখানেই পরিচয়। বিপুল খ্যাতি। কিন্তু বোঝার উপায় নেই, ব্যবহারে এমনই অমায়িক। হিরণ মিত্র


    ২০০৬, প্যারিস। যেদিন সকালে রামিরেজের সঙ্গে দেখা হয়, হয়তো সেদিন, অথবা তারই আশেপাশে, এক সকালে, এই প্রখ্যাত ভাস্কর ওয়াঙ কিপিং-এর সঙ্গেও দেখা হয়েছিল। ১৯৪৯-এ জন্ম, কেইজিং-এ প্যারিসে আছেন, ১৯৬৪ সাল থেকে। বহু সম্মানে ভূষিত।



    যখন আমরা প্যারিসের গ্যালারি অঞ্চলে ঘুরে বেড়াচ্ছি তিনজন, তখনও জানি না কার সাথে ঘুরছি। বিভিন্ন গ্যালারিতে ঢুকছি। ওয়াঙ-এরই পরিচিত, তারা নানা কথা বলছে, আমি পাশে পাশে। এক কাফেতে ঢুকে তিনজন খেলাম। কালো কফি বড়ো কাপে। ছবি নিয়ে নানা কথা হচ্ছে। প্যারিসে এসেছি, ছবির রঙের দোকানে যাচ্ছি। বিশাল একটা কারখানা। ছাদ ছুঁয়েছে ক্যানভাস-এর স্তূপ। রঙের র‍্যাকের শেষ দেখা যায় না। সব রকম শেড। এ দেশে যে রং-ই চাইব, দেখা যাবে তার স্টক নেই। এমনই দুর্দশা। ওখানে, কী প্রাচুর্য। প্রতিটা শেড থরে থরে সাজানো। বিভিন্ন কোম্পানির, বাছাই করার সুযোগ, কারা যে এত আঁকে, ভেবে পাই না। রপ্তানি হয় নিশ্চয়ই, নানা দেশে। আমি অবাক তাকিয়ে থাকি। ইজেলের কত বাহার। যে কোণের অংশটায় ফ্রেম বানাচ্ছে, যন্ত্রের সাহায্যে তার কর্মকাণ্ড দেখলে তাক লেগে যায়। এক ধরনের হীনম্মন্যতা এসে পড়ে। এসব কাটিয়ে, নিজের কাজে মন দিই। এখান থেকে বাঁধাই হয়ে, লন্ডন যাবে সমস্ত ছবি। বেশ ব্যয়বহুল ব্যাপার। এই দেশে, আরও একটি বিশেষ ব্যাপার, প্রতিটা ফ্রেমের নির্দিষ্ট মাপ আছে। সেই মাপের থেকে সামান্য ছোটো বা বড়ো রাখলে সমূহ বিপদ। দ্বিগুণ দাম পড়বে তার। নির্দিষ্ট মাপ থাকলে, সাধ্যের মধ্যে ঘটবে। সেই মাপ ধরে আমার ছবিগুলো বোধহয় আঁকা হয়েছিল। অনেকদিন আগের ব্যাপার, ভুলে গেছি।

    এই কথাগুলো বিশদে বলার কারণ, ওয়াঙ। যার বিশাল বিশাল স্টুডিয়ো, নানা শহরে। শুধু প্যারিস শহরেই, দশহাজার স্কোয়ার ফুটের কাজের জায়গা। পরে জেনেছিলাম, উনি, কাঠের বিশাল মাপের ভাস্কর্য বানাতে ওস্তাদ।



    দুনিয়া জোড়া নাম। কিন্তু যেভাবে আমার সঙ্গে ঘুরছিলেন, গল্প করছিলেন, বোঝার উপায় নেই, দশটা রোল্‌স রয়েস-এর মালিক। হংকং-এ গেলে বিমানবন্দরে বিশিষ্ট জন আসেন, সম্ভাষণ জানাতে। পরে গুগলে গিয়ে দেখতে পেলাম, তাঁর কাজের বহর। বিশ ফুট উঁচু কাঠের ভাস্কর্য। সারা পৃথিবীর জাদুঘরে ছড়িয়ে রয়েছে ভাস্কর্য, এতটাই খ্যাতিমান। একসাথে ফুটপাথ দিয়ে হাঁটছি, পাশাপাশি, একটু পিছিয়ে কন্যা, ফিশফিশ করে বাংলায় এইসব খবর দিতে থাকে আমাকে। আমি হতবাক। আমি সামান্য এক ছবি আঁকিয়ে, তার এত খাতির। তার কারণও ছিল, সেই সময় বা তার কিছু পরেই, জেরার্ড আমাকে নিয়ে একটা বই লিখছিল, ফরাসি ভাষায়। ওয়াঙ-কে নিয়ে প্রদর্শনী, নানা মহলে আলাপ করানো, এইসব করতে যাবে জেরার্ড। উনিই আলাপ করান। এইসব ঘটনা ঘটেছিল চোদ্দো বছর আগে। তারা সব কোথায় কোনো হদিশ জানি না। জেরার্ড কোথায়? ওয়াঙ কোথায়? জেরার্ড-এর খুবই পছন্দের ভাস্কর, তাই তাকে বিশেষ স্থান দিতে, উনি ব্যস্ত হয়ে পড়েন। ওয়াঙ-এর সাথে আর পরে কখনও দেখা হয়নি। আজও জীবিত, কাজে ব্যস্ত, এটুকুই জানি। একটা সময়, ওয়াঙ আমাদের কাছ থেকে বিদায় নেন। প্যারিসের ওইসব রাস্তায়, মানুষজন, হেঁটে ঘুরতেই ভালোবাসে। কোনো ব্যস্ততা নেই। ধীর ছন্দে জীবন চলছে যেন। গল্পে, শিল্প-আলোচনায় বয়ে যাওয়া নদীর মতো, কুলকুল শব্দে বয়ে যাচ্ছিল সকাল। রোদ বিছানো রাস্তা, গাছের ছায়া। মানুষের কণ্ঠে তখন কথার ফরাসি সংগীত।


    (ক্রমশ...)




    ছবি: হিরণ মিত্র
    গ্রাফিক্স: মনোনীতা কাঁড়ার
  • বিভাগ : ভ্রমণ | ০৩ জুন ২০২১ | ২৯৯ বার পঠিত | ১ জন
  • পছন্দ
    জমিয়ে রাখুন পুনঃপ্রচার
  • কোনোরকম কর্পোরেট ফান্ডিং ছাড়া সম্পূর্ণরূপে জনতার শ্রম ও অর্থে পরিচালিত এই নন-প্রফিট এবং স্বাধীন উদ্যোগটিকে বাঁচিয়ে রাখতে
    গুরুচণ্ডা৯-র গ্রাহক হোন
    গুরুচণ্ডা৯তে প্রকাশিত লেখাগুলি হোয়াটসঅ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে যুক্ত হোন। টেলিগ্রাম অ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলটির গ্রাহক হোন।
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • বিপ্লব রহমান | ১১ জুন ২০২১ ০৪:৪৮494830
  • কাজের ব্যস্ততায় পুরো ধারাবাহিক এড়িয়ে গেছি! এই পর্ব থেকেই পড়া শুরু করলাম। ব্রাভো 

আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত


পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। ভ্যাবাচ্যাকা না খেয়ে প্রতিক্রিয়া দিন