• বুলবুলভাজা  খবর  টাটকা খবর  বুলবুলভাজা

  • সিঙ্গুরে মহাপঞ্চায়েত দিল্লির কৃষক নেতৃত্বের: বিজেপিকে ভোট না-দেওয়ার আহ্বান

    বহ্নিহোত্রী হাজরা
    খবর | টাটকা খবর | ১৪ মার্চ ২০২১ | ৩৫০ বার পঠিত | ১ জন
  • পছন্দ
    জমিয়ে রাখুন পুনঃপ্রচার
  • নন্দীগ্রাম দিবসে সিঙ্গুরে হয়ে গেল কৃষক মহাপঞ্চায়েত। ঘুরে এসে তার বিবরণ লিখলেন বহ্নিহোত্রী হাজরা।

    নন্দীগ্রাম দিবস, ১৪ মার্চ, ২০২১। আজ আর এক অসম্ভব কঠিন পরিস্থিতির মুখে দাঁড়িয়ে আজকের এই বিশেষ দিনটিতে সংযুক্ত কিষাণ মোর্চার মহাপঞ্চায়েত আজ অনুষ্ঠিত হল জমি অধিগ্রহণ বিরোধী আন্দোলনের ক্ষেত্র সিঙ্গুরে। ৫০০ সংগঠনের যৌথ মঞ্চ 'সংযুক্ত কিষাণ মঞ্চ'-এর নেতৃত্ব বাংলার নির্বাচনকে বিশেষ গুরুত্ব দিয়ে বাংলায় বিজেপি-কে একটিও ভোট না দেওয়ার আবেদন করছেন, তাঁরা বলছেন এই ভোটে বিজেপি-কে উচিৎ শিক্ষা দিন। সিঙ্গুরে অনুষ্ঠিত কৃষকদের এই মহাপঞ্চায়েতের সভা পরিচালনা করেন পশ্চিমবঙ্গ কৃষি কো-অর্ডিনেশন কমিটির আহ্বায়ক তেজেন্দ্র সিং বল। সভায় উপস্থিত ছিলেন সিঙ্গুর কৃষি জমি রক্ষা কমিটির কর্মী-সমর্থকেরা। গোটা আয়োজনে উল্লেখযোগ্য ভূমিকা রাখেন তাঁরাও।

    শুরুতেই বক্তব্য রাখেন দিল্লি কৃষক আন্দোলনের অন্যতম শীর্ষ প্রতিনিধি অভীক সাহা। তিনি কৃষক আন্দোলনের শুরুর দিকে তাঁদের অভিজ্ঞতার কথা বলেন। করোনার অজুহাতে তাঁদের দিল্লিতে পোর্ট ক্লাবে ঢোকার আবেদনকে ফিরিয়ে দিয়েছিলেন অমিত শাহ। সেই ছিল শুরু। দীর্ঘ সাত মাসের বেশি জারি আছে কৃষক আন্দোলন। ইতিমধ্যে মারা গেছেন প্রায় ৩০০ জন, তবু কৃষকরা অনড় তাঁদের দাবিতে। আম্বানি-আদানি-র মত দেশি-বিদেশি বড় পুঁজিপতির স্বার্থে মোদী সরকার যে তিনটে কৃষি আইন লাগু করেছে, তা অবিলম্বে বাতিল করতে হবে। লাঠি চালিয়ে, জলকামান দিয়ে, ব্যারিকেড আর কাঁটাতারে ঘিরে ফেলে — শত চেষ্টা করেও তাঁদের থামাতে পারেনি সরকার। অভীক সাহা তাঁর বক্তব্যে স্পষ্ট ভাবে জানিয়ে দিলেন, কোনও দলের হয়ে প্রচার করতে তাঁরা আসেননি। সম্পূর্ণ অরাজনৈতিক সংগঠনের ব্যানারে আয়োজিত এই মহাপঞ্চায়েত। তাঁদের মানুষের কাছে একটাই আবেদন- ' বিজেপিকে ভোট দেবেন না।' তিনি মনে করিয়ে দিলেন নরেন্দ্র মোদী অর্ডিন্যান্স জারি করে কৃষি জমি কেড়ে নেওয়ার এই আইন আনেন।

    মোদী সরকারের রেল-বিমান-বিমা বেচে দেওয়ার প্রক্রিয়া থেকে শুরু করে পেট্রোল-ডিজেলের মুল্যবৃদ্ধি, গ্যাসের দাম বেড়ে যাওয়া ইত্যাদি সমস্ত বিষয়কে তাঁদের বক্তব্যে গুরুত্ব দিয়ে তুলে ধরলেন কৃষক নেতারা। একে একে মঞ্চে বক্তব্য রাখেন বলবীর সিং রাজেওয়াল, গুরনাম সিং চাডুনি, প্রফেসর মনজিৎ সিং, হিমাংশু তিওয়ারি, রাজা রাম, মেধা পাটেকর প্রমুখ। বিহারের কৃষক নেতা রাজা রামজী বলেন, আজ দ্বিতীয়বার তিনি এলেন সিঙ্গুরে। ২০০৬-২০০৭ এর কৃষি জমি রক্ষার আন্দোলনের সময়ে এসেছিলেন তিনি। পূর্ব অভিজ্ঞতা তুলে ধরেন গর্বের সঙ্গে। যে দেশে প্রায় ২৫ শতাংশ মানুষ অপুষ্টিতে ভুগছে বা বিশ্ব ক্ষুধার সুচকে যে দেশ ১০২তম স্থানে দাঁড়িয়ে, যা বাংলাদেশ, পাকিস্তান বা নেপালের মতো প্রতিবেশী দেশেরও পিছনে, সেই দেশে কৃষি ক্ষেত্রে কর্পোরেট থাবা বসালে রেশন ব্যবস্থা ভেঙে পড়তে পারে। যার ফলে খাদ্য সুরক্ষার বিষয়টি তো সম্পূর্ণ উপেক্ষিত হবে এমন আশঙ্কা প্রকাশ করে রাজা রামজী বলেন, এই আইন শুধু কৃষক বিরোধী নয় বরং সমস্ত খেটে খাওয়া মানুষের বিরুদ্ধে। কৃষক নেতারা তাঁদের বক্তব্যে আজও বারবার তুলে আনেন স্বাধীনতা সংগ্রামে বাংলা এবং পাঞ্জাবের গুরুত্বপূর্ণ অবদানের কথা। ভগৎ সিং, সর্দার অজিত সিং, নেতাজি সুভাষ চন্দ্র বসুর কথা তাঁদের বক্তব্যে স্মরণ করেন।

    পূর্ব উত্তরপ্রদেশের কৃষক নেতা হিমাংশু তিওয়ারী বলেন, ঐতিহাসিক সিঙ্গুর আন্দোলন কৃষকদের কাছে গর্বের। মোদী সরকারকের "বেচনেওয়ালা সরকার" আখ্যা দিয়ে তিনি বলেন "লড়াই দু'তরফের — একদিকে দেশ বেচনেওয়ালা, অন্যদিকে দেশ বাঁচানেওয়ালা।"

    সাংবাদিকদের প্রশ্নের উত্তরে বিশিষ্ট সমাজকর্মী মেধা পাটেকর বলেন— "ভোটের থলি ভর্তি করার কাজ আমরা করি না, কিন্তু কেউ যদি বিভাজনের রাজনীতি করে ভোটবাক্সে ভরতে চায় তাহলে তাঁকে রুখে দিতে হবে।" তাঁর বক্তব্যে রাজকুমার ভুল, তাপসী মালিকের শাহাদাতের কথা মনে করিয়ে দিলেন মেধা পাটকর। BSNL, BPCL, LIC বেচে দেওয়ার বিরোধিতা থেকে শুরু করে চুক্তিচাষের বিরোধিতা করতে গিয়ে গুজরাটে Pepsico-র মতো কর্পোরেট কিভাবে কৃষকদের ফাঁসিয়েছিল তা মনে করিয়ে দেন তিনি। তিনি বলেন হিন্দু-মুসলিম-শিখ ভাগাভাগি চলবে না - সকলেই আমার দেশের মানুষ। ৪০,০০০ মহিলা শামিল হয়েছেন, অগ্রণী ভূমিকা নিয়েছেন এই আন্দোলনে, সে কথা মনে করিয়ে তিনি স্লোগান দেন-"হিন্দু-মুসলিম-শিখ-ইসাই, আপস মে হ্যায় বহেন-ভাই।" স্লোগানে স্বতঃস্ফূর্তভাবে গলা মেলান অনেকেই। জয় কিষাণ, কিষাণ আন্দোলন জিন্দাবাদ, সংযুক্ত কিষাণ মোর্চা জিন্দাবাদ স্লোগানের পাশাপাশি সিঙ্গুর কৃষিজমি রক্ষা কমিটি জিন্দাবাদ স্লোগান এবং জয় বাংলা স্লোগানেও মেতে ওঠেন উপস্থিত জনতা।

    আন্দোলনের পরবর্তী পরিকল্পনার কথা জিজ্ঞেস করলে সাংবাদিকের প্রশ্নের উত্তরে রাজারাম বলেন, সারা দেশের অনেকগুলি রাজ্যে কৃষক প্রতিনিধিরা যাচ্ছেন, দেশের কোণে কোণে ছড়িয়ে পড়েছে এই আন্দোলন। আগামী ১৬ তারিখ দিল্লিতে মোর্চার বৈঠক এবং সেখানেই স্থির হবে পরবর্তী কার্যক্রম।



    গুরুচণ্ডা৯-র গ্রাহক হোন

  • বিভাগ : খবর | ১৪ মার্চ ২০২১ | ৩৫০ বার পঠিত | ১ জন
  • পছন্দ
    জমিয়ে রাখুন পুনঃপ্রচার
  • কোনোরকম কর্পোরেট ফান্ডিং ছাড়া সম্পূর্ণরূপে জনতার শ্রম ও অর্থে পরিচালিত এই নন-প্রফিট এবং স্বাধীন উদ্যোগটিকে বাঁচিয়ে রাখতে
    গুরুচণ্ডা৯-র গ্রাহক হোন
    গুরুচণ্ডা৯তে প্রকাশিত লেখাগুলি হোয়াটসঅ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে যুক্ত হোন। টেলিগ্রাম অ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলটির গ্রাহক হোন।
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:

Mahapanchayat, Kisan Mahapanchayat, Mahapanchayat Singur, Singur at Nandigram, Farmers Movement, Farmers Leaders, Singur Farmers Leader, Singur Medhar Patekar
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত


পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। চটপট মতামত দিন