• টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। যে কোনো নতুন আলোচনা শুরু করার আগে পুরোনো লিস্টি ধরে একবার একই বিষয়ে আলোচনা শুরু হয়ে গেছে কিনা দেখে নিলে ভালো হয়। পড়ুন, আর নতুন আলোচনা শুরু করার জন্য "নতুন আলোচনা" বোতামে ক্লিক করুন। দেখবেন বাংলা লেখার মতো নিজের মতামতকে জগৎসভায় ছড়িয়ে দেওয়াও জলের মতো সোজা।
  • হারিয়ে ফেলেছি আত্মসম্মানবোধঃ গলিত মোমের মতো গলে গেছে বাঙালির স্মৃতি- সত্ত্বা- ভবিষ্য।

    সৈকত মিস্ত্রী
    বিভাগ : অন্যান্য | ০৬ এপ্রিল ২০২০ | ২৩৩ বার পঠিত
  • হারিয়ে ফেলেছি আত্মসম্মান বোধঃ গলিত মোমের মতো গলে গেছে বাঙালির স্মৃতি- সত্ত্বা- ভবিষ্যৎ।
    মোমরাত্রি-১

    "মা কি ছিলেন, মা কি হইয়াছেন"- আনন্দমঠে সত্যনন্দের উচ্চারণ আজও আমাদের হৃদয় ছুঁয়ে যায়।কতকাল হয়ে গেল।সোনার বাঙলার গোলাভরা ধান শ্বেত ইঁদুরে সারা করার পরও,প্রজ্ঞার আশ্রয়ে বাঙালি ঘুরে দাঁড়াতো।বাঙালি ভাবতো,সেই ভাবনার পথ বেয়ে আগামীতে আলোকিত হতো অন্যরা।সেদিন গেছে।রাজনৈতিক পালা বদল-দলদাসত্ব আর সীমাহীন আপোষ বাঙালির দাঁড়াবার আশ্রয়, আত্মমর্যাদাকে ধ্বসিয়ে দিয়েছে।বহুকাল হয়ে গেল ঋজু বাঙালির অনমনীয় ঋতুতায় ক্ষয় ধরছে।মাথা ঝুঁকিয়ে,কোনমতে তাকে চলে ফিরে টিকে থাকতে হয়।সারস্বত জ্ঞান চর্চার পীঠস্থানে চাটুকাররা জাঁকিয়ে বসেছে,মেধাহীন আনুগত্য তার সঙ্গী।সুতরাং ' স্বধর্মে নিধনং শ্রেয়,পরধর্ম ভয়াবহ' -এই স্বধর্ম চ্যুত বাঙালি আজ পরধর্মের আশ্রয়ে যে হাত পা মেলিয়ে দিব্যি আছে- তাতে খারাপ লাগতে পারে, কিন্তু বিস্ময়ের কোন জায়গা নেই।নাহলে যেখানে প্রায় হাজার চারেক সহনাগরিক দারুণ মারীতে আক্রান্ত,দেখতে দেখতে স্বজন - স্বদেশ ছেড়ে চলে গেছেন অনেকে।কোন দিন আর যারা ফিরবেন না নিজের বাড়ি।যেসব পরিবারে নেমে এসেছে শোকের কালো ছায়া।লক্ষ লক্ষ শ্রমিক আজও বিদেশ বিভুঁইয়ে আটকে আছে। না খেয়ে, ঘরে ফেরার প্রতীক্ষায় যাদের দিন কাটছে, অনেকেই ঘরে ফিরতে গিয়ে অকালে চলে গেলেন।কর্মহীন কোটি কোটি মানুষ।ঘরে ঘরে হাহাকার।এই মারী- মৃত্যুর উপত্যকায় দাঁড়িয়ে বোধের পক্ষাঘাত কোন স্তরে নামলে বাজি- ফানুসের বীভৎস মজার উদযাপনে বাঙালি মেতে ওঠে!সেই দৃশ্য দেখতে হল আমাদের একরাশ যন্ত্রণা আর অসহয়তা নিয়ে।
    এমনই কয়েকটা মোমরাত্রির নিদারুণ ছবি জন্ম হল আজ আমার- আপনার অসহায় চোখের সামনে-

    বাড়িতে ফিরতে পারিনি।কোলিয়ারি শহরের একপ্রান্তে আটকে আছি।আমার গৃহস্বামী সিপিআই এমের শ্রমিক সংগঠন করতেন।শুনেছি লেকজনের মুখে।তিনি নিজেও বলেছেন বার কয়েক।চাকরি থেকে তিনি অবসর নিয়েছেন কিছুকাল হল।দলও ক্ষমতা হারিয়েছে।তাই শেষ আশ্রয় ধর্ম- কর্ম।তাঁর বাড়ি বামপন্থী সংস্কৃতির কোন ছাপ কখোনোই আমি দেখিনি।তিনি সকালে ফুল তুলতে যান।পূজারীর বেশে তিনি নিত্য পূজা করেন।তার স্ত্রী তুলসী তলায় দুবেলা ধুনি জ্বালেন।মাঝে মাঝে তাঁর ছেলে রবিবারে গণশক্তি "মাসসেলে" বেরহন।গ্রাউন্ড ফ্লোরটা আমার।তারা থাকেন উপরে।সন্ধ্যায় নেট স্লো চললে বারন্দায় এসে বসি।আজও বসেছিলাম।মোটামুটি আটটা পঞ্চাশ নাগাদ,তাঁর ছেলে নেমে এলেন।পাইচারি করছিলেন। একটু ইতস্তত করে করোনা নিয়ে দুএকটা কথা বলা শুরু করলেন তিনি।টের পেলাম উপরের আলো নিভে গেছে।তার বাড়ির বাচ্চা ও মহিলারা হইচই করছে।তিনি বলতে গেলেন - আটটা পঞ্চান্ন।আসলে..." থামিয়ে দিয়ে বললাম,মোদীর কি পাগলামো বলুন তো?" তিনি আসি বলে বিদায় নিলেন। উপরে মোম জ্বলতে শুরু করেছে। তার গলা পেলাম- শঙ্খ বাজাও। একটু বাদে শাঁখের শব্দ শুরু হল।আশপাশ থেকে ততক্ষণ বাজি ফুটতে শুরু করেছে।
    মোমরাত্রি-২
    আমার এক পিসিমা পার্কস্ট্রীটের রবীনসন স্ট্রীটে থাকেন।অশীতিপর বৃদ্ধা।তিনি একা।তাকে দেখার জন্য দুজন সহায়ক থাকতেন।করোনার ডামাডোলে তারা সবেতনে বাড়ি গেছেন।সম্ভ্রান্ত এলাকার নামী আবাসনে তিনি থাকেন।মার্চে মা তার কাছে গেছিলেন।পিসিমা কেঁদে ফেলেন - কী হবে তার? সবাই চলে গেছে যে।মার ফেরা হয়নি।রাতে মার সাথে কথা হচ্ছিল ফোনে।সেই নামী আবাসনে কেউ বিজ্ঞানী,ডাক্তার,মোক্তার,ধনী মানীর অভাব নেই।নটা বাজতেই আজ যেন অকাল দীপাবলি নেমে এল।পিসি প্রদীপের কথায় বলায়,মার বকা খেয়ে তিনি নিরস্ত হলেন।ততক্ষণে আবাসনের ফ্ল্যাট থেকে বাজি ফুটতে শুরু করেছে। ফানুস উড়ে পাড়ি দিচ্ছে উপরে।
    মোমরাত্রি-৩
    পৌরসভার ১২ নং ও ১৩ নং ওয়ার্ডের আমাদের বাড়ি।দুটো ওয়ার্ডের কিছু লোক মিলে মোমবাতি মিছিলের আয়োজন হচ্ছিল। খবর পেলাম পড়ার কয়েকজনের শুভবুদ্ধির কারণে,রণে ভঙ্গ দিয়ে তারা পালাল।
    মোমরাত্রি-৪
    রাতে এক বন্ধুর সাথে কথা বলছিলাম।সে রাজাবাজার সায়েন্স কলেজে গবেষণা করে।হেসে "লোমবাতি" জ্বালানোর কথা জিজ্ঞেস করতে তার উত্তর - মোম জ্বালেনি।তার মা বলায় প্রদীপ জ্বেলেছে।বললাম বাবা! তার সাফাই পুরোনো ঘি ছিল,তাই দিয়ে প্রদীপ জ্বেলেছে সে।ঘিয়ের প্রসঙ্গটা নিয়ে চেপে ধরায় - তার উত্তর ঝর্ণা ঘিটা এত পুরেনো ছিল,তাই আজ শেষ করে ফেলল প্রদীপ জ্বেল।কোন ক্ষতি নেই তো তাতে!চুপ করে গেলাম।কি উত্তর দেব এর?

    এমন আরও ঘটনার স্বাক্ষী কমবেশি সকলে। অনেকেই ভেবেছে কোনো ক্ষতি নেই তো।হারানোরও কিছু নেই।একদিন একঘেয়ে লকডাউনে একটু হোক না অন্যকিছু।তাদের বলব হারানোর আছে আত্মমর্যাদা বোধ, স্বধর্ম। চারদিকে মৃত্যু, দারিদ্র্য, ক্ষুধার হাহাকারে দাঁড়িয়ে, বিভৎস মজায় মেতে মনুষ্যত্বের অন্যতম শর্ত অন্যের জন্য এমপ্যাথি, সেটা হারিয়ে ফেললাম আমরা। আজ স্বধর্ম চ্যুত হয়ে মেতে উঠলাম একটা কদর্য প্রতিযোগিতায়।বিপন্ন মানুষ যেখানে দাঁড়ায়,সেই মানবিকতার শেষ আশ্রয়টুকুও নিঃশেষ করলে কোথায় দাঁড়াবো আমরা? কি করছি একবারও ভেবে দেখব না!এই বিষাক্ত আবহে দাঁড়িয়ে একটাই অসহায় প্রশ্ন আর কতটা নামব আমরা?
  • আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা ভাইরাস

  • পাতা : 1
  • MDpu | 172.69.34.109 | ০৬ এপ্রিল ২০২০ ২২:৫৪730465
  • কী যে সব হিজিবিজি লেখা বেরোয় আজকাল ।

  • করোনা ভাইরাস

  • পাতা : 1
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত