• বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়।
    বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে।
  • দিল্লি জয়ের স্বাদ-বিস্বাদ

    জয়ন্ত ভট্টাচার্য
    বিভাগ : আলোচনা | ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০ | ১০২৮ বার পঠিত
  • আপ-এর জয় বর্তমান ভারতের শ্বাসরুদ্ধকর অবস্থায় খানিকটা রিলিফ। বিভিন্ন স্তরের সাধারণ মানুষের মধ্যে প্রতিক্রিয়ায় সেটা বোঝা যাচ্ছে। মানুষের মাঝে এক তিরতিরে ভরসার স্রোত বইছে।

    আমি ভীতু, ভয়ার্ত, সন্দেহবাতিকগ্রস্ত মানুষ।

    "আমরা তো অল্পে খুশি, কি হবে দুঃখ করে" - এরকম আমার মতো আরও অনেকেই আছে এই যা ভরসা। আমি রেশন কার্ড, ভোটার কার্ড, প্যান কার্ড, এমনকি আধার কার্ড বা পাসপোর্ট করার সময়েও বিশ্বাস করুন একটুও ভয় পাইনি। করা দরকার, করা উচিৎ বলে হাসিমুখে করে ফেলেছি। পরে মনে হয়েছে এগুলো inclusionary, মানে হল গিয়ে এই পরিচয়পত্রগুলো আমাদের নিয়েই চলতে চায়। ভারত রাষ্ট্রে আমাদের বাঁচা সরল করে তুলতে চাইছে। বেশ তো, আমরাও একে সাথ দিলাম। 

    তাহলে CAA, NPR, NRC নিয়ে এত ভয় পাচ্ছি কেন? এর মাঝে কি ভয়ের উপাদান লুকিয়ে আছে? কেমন একটা ভয়ের ত্রাস তাড়া করে বেড়াচ্ছে "আমাদের শুকনো ভাতে লবণের ব্যবস্থা হোক" গোত্রের লোকজনকে। বারেবারে মনে হচ্ছে এগুলো exclusionary, মানে হল গিয়ে পছন্দমতো বাদ রেখে, বাতিল করে চলতে চায়।

    কেন? রাষ্ট্র তো আমাদের আশ্রয়। আশ্রয় বলেই আমরা এর সাথে তর্ক-বিতর্ক করে চলি। প্রয়োজনে বিরুদ্ধ মত পোষণ করে প্রতিবাদ করি। কারণ? আমরা করদাতা নাগরিকেরা কষ্টে আছি। তোমাকেই তো দেখতে হবে, আমাদের কথা শুনতে হবে, পাল্টা যুক্তি দিতে হবে। রাষ্ট্রের চরিত্র আর কাঠামো আরো সংবেদী হবে। এরকমই তো রাষ্ট্র-নাগরিকের দ্বৈত সম্পর্ক হবার কথা।

    এগুলো সবই হবে খোলা, মুক্ত, নাগরিক বা অনাগরিক পরিসরে - যেমনটা ইউরোপের গণতান্ত্রিক দেশগুলোতে হয়ে থাকে। আমাদের সংবিধানের অনেককিছুই তো এ দেশগুলোর কাছ থেকেই নেওয়া। মুসোলিনির ইতালি, তোজোর জাপান কিংবা হিটলার-হিমলারের জার্মানির কাছ থেকে নয়। ইতিহাস তো এদের পরিত্যাগ করেছে।

    নেদারল্যান্ডসের জেলখানাগুলোর অনেকগুলোই বন্ধ করে দিতে হয়েছে। আমাদের জেলখানাগুলো ভরে যাচ্ছে। ওদেশের প্রধানমন্ত্রী ফ্যাসিস্ট জমানার অত্যাচারের জন্য ক্ষমা চাইছেন। এরকমটাও তো হতে পারে, হচ্ছে। বর্তমান পৃথিবীতেই হচ্ছে। অতীত ইতিহাস নয়, ২০২০ সালের ইতিহাস। 

    তারপর? আপের যে প্রার্থী শাহিনবাগ, জামিয়া মিলিয়া অঞ্চল থেকে সম্ভবত সর্বাধিক ৩০০০০ ভোটে জিতলেন তিনি এবং আপ কি করবেন? যে আতঙ্কে সমগ্র ভারতের এক বড়ো সংখ্যক মানুষ ভীত, উন্মাদ- প্রায় সে বিষয়ে কি সিদ্ধান্ত নেবেন? কিন্তু CAA, NPR, NRC নিয়ে আপ তো একটি কথাও বলেনি। বরঞ্চ সংসদে পরোক্ষে সমর্থন করেছে। তাহলে? আমাদের ভাবিয়ে তুললো। আবার ২০১৪ সালের ৭ ফেব্রুয়ারি, ইকনোমিক টাইমসে প্রকাশিত একটি পুরনো রিপোর্ট বলছে - RSS ইডিয়লোগে Govindacharya says Arvind Kejriwal had met him to synergise activities। অরবিন্দ
    কেজরিওয়ালের এনজিও “কবীর”-এর আর্থিক সহায়তার জন্য ফোর্ড ফাউন্ডেশনের সাথে যোগাযোগের খবরও একসময়ে বাতাসে ভেসেছিলো।

    এসব সত্ত্বেও ভালো স্কুল আমাদের দরকার, স্বাস্থ্যের সুযোগ দরকার আমাদের। আপ এরকম পথ দিল্লির আমজনতার জন্য খুলে দিয়েছে। মানুষ খুশি হয়েছে, ভালোবেসেছে, আশীর্বাদ করেছে। ভোট বাক্সে তার ফল মিলেছে।

    স্বাস্থ্যের অধিকার নিজের বিশিষ্টতার জন্য সবার মৌলিক অধিকার, মানবাধিকার হবার কথা। স্বাস্থ্য নিয়ে যেসব বিশ্ববিখ্যাত পণ্ডিতেরা কাজ করছেন - তিনি স্যার মাইকেল মার্মটই (The Health Gap) হোন বা অভিজিৎ বন্দ্যোপাধ্যায়ই (Poor Economics) হোন - তারা এ কথাগুলোতে ভিন্ন ভিন্নভাবে জোর দিচ্ছেন। 

    চতুর্দিকে অপ্রাপ্তির মাঝে আপ এসব ক্ষেত্রে উজ্জ্বল উদাহরণ তৈরি করেছে। কিন্তু রাষ্ট্রের সাথে এর দীর্ঘকালীন সম্পর্ক কি হবে? অভিমুখ কি?

    মানুষের সামাজিকভাবে বাঁচা যখন অনিশ্চিত হয়ে পড়ছে তখন নিরাশ্রয়, রাষ্ট্রহীন না-নাগরিক মানুষদের কাছে কিভাবে ভরসার হাত বাড়াবে? আমরাতো সে হাত ধরার জন্য অপেক্ষা করে আছি।

    যখন সংকট থাকে তখন আন্তর্জাতিক কর্পোরেট পুঁজিও কিন্তু এরকম পরিসর চায় যাতে লগ্নির জন্য সাময়িক স্থিতিশীল ব্যবস্থা পাওয়া যায়।

    মানুষের অস্তিত্ব, ভালোবাসা, উৎপাদনশীল জীবন যাপন নাকি কর্পোরেট পুঁজির জন্য সাময়িকভাবে কার্যকরী স্থিতাবস্থা - কোন পথে হাঁটবে আপ?

    ভবিষ্যৎ বলবে সেকথা। কিন্তু এ মুহূর্তে আপের বিজয়কে বড়ো সংখ্যক মানুষ নিজেদের বিজয় বলে মনে করছে। বর্তমানে এটাই প্রাপ্তি! তাছাড়াও মানুষের মাঝে একটা বোধ বা বিশ্বাস তৈরি হয় আমাদের প্রচলিত তাত্ত্বিক ধারণার বাইরে গিয়ে। আপ-এর বিজয়ও মানুষের কাছে একটা ভরসার আবহ তৈরি করবে। বর্তমান সময়ে এর পরিমাপ আমরা সবটা করে উঠতে পারবো বলে মনে হয়না। আরও কিছুদিন বাদে বোঝা যাবে।
  • বিভাগ : আলোচনা | ১৪ ফেব্রুয়ারি ২০২০ | ১০২৮ বার পঠিত
  • আমার গুরুবন্ধুদের জানানকরোনা ভাইরাস

  • পাতা : 1
  • pi | 141.101.98.93 | ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০০:৩৫90969
  • সি এ এ, এন আফ সি নিয়ে আপ বলেছে। মণীশ শিশোদিয়া আগেই বলেছেন। কেজরিও বলেছেন, আজই পড়লাম! বলেছেন মানে বিরোধিতা করেছেন। স্পষ্টব্জাবে।
  • জয়ন্ত ভট্টাচার্য | 172.69.134.56 | ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০০:৫৪90971
  • কোথায় বলেছেন সোর্স জানতে পারলে উল্লেখ করবো। নির্দিষ্ট তথ্য জানা দরকার ।

  • ujjwal sen | 162.158.118.245 | ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১০:৫৭90975
  • আপ যদি CAA-NPR-NRC বিরোধী অবস্থান নেয়, দিল্লিতে টিকতে পারবে না। দিল্লির মানুষ দিল্লিতে আপ এর সরকার চাইলেও কেন্দ্রে কিন্তু মোদিকেই দেখতে চায়।

  • S | 108.162.245.129 | ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১১:৪৫90976
  • pi | 162.158.158.180 | ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১৩:২৭90977
  • https://www.ndtv.com/india-news/arvind-kejriwal-on-ndtv-townhall-dont-understand-the-need-for-citizenship-act-need-to-focus-on-unemp-2158302

    "Citizenship Law Will Hurt Both Hindus, Muslims": Arvind Kejriwal To NDTV
    "Economy is down, there are no jobs. What was the need for this law," Arvind Kejriwal said at townhall with Delhi citizens.
    All India Reported by Nidhi Razdan, Edited by Anindita Sanyal
    Updated : January 03, 2020 08:06 pm IST

    New Delhi: Delhi Chief Minister Arvind Kejriwal has voiced concern over the new citizenship law and the government's insistence on it amid spiralling protests. Instead of focusing on Hindus from Pakistan, the government, he said, should "First fix its own country". He also expressed reservations about a resolution passed in any state assembly, saying it is the parliament which needs to reject the law.
    Asked whether Delhi would follow Kerala's example in passing a resolution against the law, Mr Kejriwal said, "It does not matter if the bill is rejected or passed in Assembly. It has to be rejected by the entire country and it has to be rejected in Parliament. If I reject the bill in assembly, will it get stalled? The parliament has to reject it.

    Referring to the contentious law that has unleashed a storm across the country, he said he did not understand the need for such a law at this time.

    "So much love for Pak Hindus and what about Indian Hindus? I don't get this. The economy is down, no homes, no jobs. for our children... and they plan to get 2 crore Pakistani Hindus. What was the need for this law? First fix your own country. Then we will get everyone," he said at a townhall this evening, referring to the law which, in a first, makes religion the test of citizenship.
  • pi | 162.158.158.180 | ১৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১৩:২৮90978
  • Mr Kejriwal suggested that the law would hurt both Hindus and Muslims. "This bill will lead to Hindu Muslim both being ousted," he said.

    The Chief Minister also ridiculed the Centre's scale-down of the discussion on the National Register of Citizens, suggesting that the time to discuss it was now."Amit Shah says won't talk of NRC now. Kejriwal says - when will he talk about it then?" he said at a townhall held this afternoon.
  • জয়ন্ত ভট্টাচার্য | 162.158.154.222 | ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ০৮:২০90980
  • ধন্যবাদ! আন্তরিক ধন্যবাদ! 

  • S | 108.162.245.129 | ১৬ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ১২:৫০90981
  • আগেও বলেছে।
    গোদি মিডিয়াকে কিকরে হ্যান্ডেল করতে হয় দেখিয়ে দিয়েছে।

  • Du | 172.69.69.45 | ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ২২:০৯90987
  • দিল্লীর মানুষের কাছে কি ডকুমেন্ট আছে যে তারা এনারসি সিএএ নিয়ে সাপোর্টিভ? জানা দরকার। নাকি তাদের মধ্যে এতই ভাব যে কেউ একে অপরকে ডি ভোটার বলে কমপ্লেন করবে না?
  • Du | 172.69.69.45 | ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০ ২২:১৪90988
  • কেজরী যেভাবে গোদি মিডিয়াকে হ্যান্ডল করছে সেটা ইনকাম্বেন্ট সি এম ছাড়া ডুএবল নয়।
    বর্তমান সময়ে আইডিওলজিকাল ভোটার শুধু বিজেপির একদিকে, অন্যদিকে ইনকাম্বেন্ট গভর্ন্মেন্ট সব যোজনা শুদ্ধু, অথবা জাস্ট একটা অপোজিশন। পুরো ব্যাপারটা টিভির জমানায় টুপার্টিতে গিয়ে পৌছচ্ছে।
  • করোনা ভাইরাস

  • পাতা : 1
  • গুরুর মোবাইল অ্যাপ চান? খুব সহজ, অ্যাপ ডাউনলোড/ইনস্টল কিস্যু করার দরকার নেই । ফোনের ব্রাউজারে সাইট খুলুন, Add to Home Screen করুন, ইন্সট্রাকশন ফলো করুন, অ্যাপ-এর আইকন তৈরী হবে । খেয়াল রাখবেন, গুরুর মোবাইল অ্যাপ ব্যবহার করতে হলে গুরুতে লগইন করা বাঞ্ছনীয়।
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত