এই সাইটটি বার পঠিত
ভাটিয়ালি | টইপত্তর | বুলবুলভাজা | হরিদাস পাল | খেরোর খাতা | বই
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • dc | 132.174.179.202 (*) | ২৪ এপ্রিল ২০১৬ ০৩:১৩52728
  • শর্ট টার্ম প্রোবাবিলিটির ব্যাপারটা আরেকটু লিখে দি।

    আগামী পাঁচ বছর আমেরিকার রেসিডেন্ট হবেন হিলারি বা ট্রাম্প (ধরে নিচ্ছি রিপাবলিকানরা ট্রাম্পকেই নমিনেশান দেবে)। তাহলে আগামী পাঁচ বছরে এনাদের কোন একজনের আন্ডারে ওয়েল্থ ডিস্ট্রিবিউশান নর্মালাইজ করার, বা সেই প্রসেসটা চালু হওয়ার, সম্ভাবনা জিরো।

    অন্যদিকে গত দশ বছরের এনার্জি সেক্টার আর ডিস্ট্রিবিউশান সেক্টরের ট্রেন্ড দেখুন। সাসটেইনেবল এনার্জির পার্সেন্টেজ (মোট এনার্জি প্রোডাকশনের) দ্রুত বাড়ছে, আর প্রায় প্রতিটা সেক্টর ক্রমাগত বেশী এফিসিয়েন্ট হয়ে চলেছে। আগামী পাঁচ বা দশ বছর এই টেকনোলজিকাল ইনোভেশনের ট্রেন্ড অবশ্যই কন্টিনিউ করবে। কাজেই গ্রোথ থেমে যাবার চান্স প্রায় জিরো।

    তবে অবশ্যই ক্লিন এনভায়রনমেন্টের জন্যও ইমিডিয়েট সল্যুশান বার করা জরুরি। ইলেকট্রিক ভেহিকল আরো বেশী মার্কেট ক্যাপশার করা জরুরি, ওয়েস্ট মিনিমাইজেশনের ট্রেন্ড আরেকটু স্ট্রং হওয়া দরকার ইত্যাদি।
  • Ekak | 53.224.129.49 (*) | ২৪ এপ্রিল ২০১৬ ০৩:১৪52730
  • ক্যাপিটালিস্ম নিয়ে অসুবিধের জন্যে সমস্যা না :) যে কোনো ইসম ই হোক না ক্যানো গ্রোথ তো চালিয়ে যেতেই হবে । আজ যদি কোনো দেশ বলে গ্রোথ নিয়ে মাথা ঘামাবেনা যা ওয়েলথ আছে তাই দিস্ত্রিবিউত করবে তাহলে সে এডভার্স কন্ডিশন সামাল দেবে কিকরে ?
    একটা বাজার প্রচলিত মিথ আছে যে এই আরো আরও বেশি গ্রোথের কনসেপ্ট বোধয় শুধু রাজাগজা দের ভালো থাকার জন্যেই এসেছিল । এটা মিথ । মানুষ কোন্তিউনিউঅস গ্রোথ করে বাইরের আক্রমন বা কোনো এডভার্স সিচুএশন সামাল দেওয়ার জন্যে । সেটা বহিসত্রুর আক্রমন হতে পারে , উদ্ভট কোনো মহামারী ছড়ানো হতে পারে এরকম যা কিছু আন প্রেদিকতেবল তাকে অতিরিক্ত অর্থ ও ক্ষমতা দিয়ে সামাল দিতে না পারলে সেই দেশ বা জাতি জাস্ট মুছে যাবে । পৃথিবীর ইতিহাসে এমন অনেক জাতি এভাবে মুছে গ্যাছে । কাজেই, আমরা দেশের সবকটা লোক খেয়েপরে আছি এটা শুধু লং টাইম সাসটেইন এর পক্ষে যথেষ্ট নয় । সর্বদাই অতিরিক্ত অর্থ- রিসার্ভ ও ক্ষমতা দরকার । সে দিস্ত্রিবিউত করে দিক সবার মাঝে বা না করুক । যে রাজনীতিই হোক ।

    এবার , এন্টি ক্যাপিটালিস্ম নিয়ে বলতে গিয়ে কেও যদি মনে মনে ভেবে নেয় যে গোটা পৃথিবী একটাই আইল্যান্ড , তার একটাই সেন্ট্রাল প্ল্যান , তাহলে আলাদা কথা । একমাত্র সেক্ষেত্রেই , মানে যদি আমরা এক্সট্রা টেরিস্ট্রিয়াল আক্রমন জাস্ট গুজব বলে কাটিয়ে দি , তাহলে পৃথিবী কে গোটা টা একটা সিস্টেম ধরে মডেল ড্রো করা যেতে পারে , যে আর অতিরিক্ত গ্রোথের দরকার নেই , চল শুধু দিস্ত্রিবিউত করি । তাছাড়া তো সম্ভব নয় । এই মডেল গুলো হাস্যকর এই কারণেই লাগে , এই এনাদের মনোলিথ সিস্টেম ধরে এগোনোর কারণে । যেটা পৃথিবী আদতে নয় । ইন্দিভিজুয়ালিস্ম যদি অস্বীকার ও করেন , তারপরেও নেশন থেকেই যাবে । ভাঙ্গবে জুড়বে কিন্তু থাকবে । ওরকম এক সেন্টার সিস্টেম রাজনৈতিকভাবেও চূড়ান্ত বিপজ্জনক সেদিকে আর গেলুম না ।
  • dc | 132.174.179.202 (*) | ২৪ এপ্রিল ২০১৬ ০৩:১৪52729
  • S এর সাথে অনেকটাই একমত।
  • Debabrata Chakrabarty | 11.39.56.241 (*) | ২৪ এপ্রিল ২০১৬ ০৩:১৫52731
  • এই দু চারদিন ভোটের ডিউটিতে ব্যস্ত থাকার দরুন আপনাদের মন্তব্য বিশেষ দেখতে পারিনি কিন্তু কথা হচ্ছিল জল নিয়ে এবং টেকনোলজি কোথাও থামা দরকার কিনা গ্রোথ এই সব নিয়ে । এই নিয়ে প্রথমে জল থাক । ২০১5 সালে মিশিগান থেকে এই খবর আসে “ The inspector’s reading of the Walter home found that the water contained lead levels at 104 parts per billion (ppb) – anything over 15 ppb is considered unsafe by the Environmental Protection Agency (EPA). When they tested the water again in March 2015, they found it had lead levels of 397 ppb. “ সুতরাং আমার জল দুষিত নয় এই কল্পনার রাজ্যে বাস না করাই যুক্তিযুক্ত । সূত্র ঃ- Flint water crisis: What's in that contaminated water http://gu.com/p/4g39p/stw
  • Debabrata Chakrabarty | 11.39.56.241 (*) | ২৪ এপ্রিল ২০১৬ ০৩:১৬52732
  • বলছিলেন কোথা থেকে জানা গেলো আমেরিকার নদী নালা পুকুর লেক সব দুষিত ? EPA’র বক্তব্য এইরূপ “ A new report by the Environmental Protection Agency found that the majority of rivers and streams in this country can't support healthy aquatic life and the trend is going in the wrong direction. The report labels 55 percent of the nation's water ways as being in "poor" conidtion and another 23 precent as just "fair." Only 21 percent of rivers are considered "good" and "healthy biological communities." Even worse, the number of rivers and streams that qualify as "good" went down seven precent between 2004 and 2009.The reason for these failing grades is, of course, pollution; specifically, phosphorus and nitrogen pollution that comes from fertilizer and wastewater run-off. Those chemicals, which come from farms and industrial sites, choke off healthy plant growth, which turn leads to more soil erosion, more flooding, and unhealthy fish and wildlife. তা এই বিপুল পরিমাণ দূষণের কারন কি ?ইন্ডাস্ট্রিয়াল বর্জ্য । এতো উপায় থাকা স্বত্বেও the number of rivers and streams that qualify as "good" went down seven precent between 2004 and 2009. সূত্র ঃ- Half of All U.S. Rivers Are Too Polluted for Our Health http://www.theatlanticwire.com/national/2013/03/half-all-us-rivers-are-too-polluted-our-health/63579/ … via @TheWire কারন লিমিট লেস গ্রোথ ।
  • Debabrata Chakrabarty | 11.39.56.241 (*) | ২৪ এপ্রিল ২০১৬ ০৩:১৭52733
  • আমাদের মত গরীব দেশের নদীর অবস্থা বিষয়ে “ what could give headache to the Narendra Modi government, which is already battling to revive the polluted Ganga, the number of contaminated rivers in the country has more than doubled over the past five years. According to the latest assessment by the Central Pollution Control Board (CPCB), the number of polluted rivers has gone up from 121 in 2009 to 275. তা এই দূষণ কি ভাবে কমবে ? কোন টেকনোলোজি ? আর ইতিমধ্যে যে গতিতে এগোচ্ছে কবে পরিষ্কার হবে ? ততদিনে আরও কত নদী দুষিত হবে ? কোথাও তো থামতে হবে । সূত্র ঃ- Pollution in India: Polluted rivers have doubled over past five years http://dailym.ai/1NNsHYU  via @MailOnline
  • dc | 233.189.27.242 (*) | ২৪ এপ্রিল ২০১৬ ০৩:৩১52734
  • ওয়েল্থ ডিস্ট্রিবিউশান আর গ্রোথ এর আলোচনাটা অন্য একটা টই খুলে করা যেতে পারে। খুব ইন্টারেস্টিং আলোচনা।
  • Ekak | 53.224.129.49 (*) | ২৪ এপ্রিল ২০১৬ ০৩:৩৯52735
  • গোটা পৃথিবীকে একটা আমসত্ব না ধরে আলোচনা করবেন পীলীস । মানে নরমাল পৃথিবী যেভাবে চলে , পড়শী দেশ আক্রমন শানাবে , যে কোনদিন বাতাসে জীবানু বোম , জলে বিষ মিশিয়ে দিতে পারে ,এলাই ঘন ঘন চেঞ্জ হবে , সর্বপরি সব দেশ "নো গ্রোথ পলিসি " গ্রহণ নাও করতে পারে , এসব ধরে আর কি ।
  • Debabrata Chakrabarty | 11.39.56.241 (*) | ২৪ এপ্রিল ২০১৬ ০৩:৪৩52736
  • প্রশ্নটা গ্রোথ নিয়ে হচ্ছিল - সাসটেইনেবল গ্রোথ এই বিষয়ে অনেকেই তাদের মতামত দিয়েছেন যার মধ্যে অন্যতম বুকচিনের এক লেখা থেকে আমি কোট করেছিলাম " “To speak of ‘limits to growth’ under a capitalistic market economy is as meaningless as to speak of limits of warfare under a warrior society. The moral pieties, that are voiced today by many well-meaning environmentalists, are as naive as the moral pieties of multinationals are manipulative. Capitalism can no more be ‘persuaded’ to limit growth than a human being can be ‘persuaded’ to stop breathing. Attempts to ‘green’ capitalism, to make it ‘ecological’, are doomed by the very nature of the system as a system of endless growth.” পুঁজিবাদী উৎপাদন ব্যবস্থায় গ্রোথ নিয়ন্ত্রণ অসম্ভব ।

    দূষণ বর্তমান সেতো সবাই জানেন কিন্তু তা আপত্তি এইখানেই যে আরও কঠিন দূষণ নিয়ন্ত্রণ ব্যবস্থা নিয়ে এই ভয়ঙ্কর গতিতে বেরে চলা দূষণ ঠেকানো সম্ভব কিনা - তথ্যমতে সম্ভব নয় , ২০০৯ সালে আমাদের দেশের দুষিত নদীর সংখ্যা ছিল ১২১ -২০১৪ তে বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৭৫ এই রেটে দূষণ চললে আগামী ৫ বছরে কোথায় দাঁড়াবে ? আর কি ঠিক উপায় নেওয়া হচ্ছে এই নিয়েই তো বিতর্ক ।

    ভালোই জানেন সোলার বা উইন্ড এনার্জি ঠিক কতপরিমাণ এনার্জি চাহিদা মেটায় , আর আমাদের এনার্জি চাহিদা মেটানোর জন্য কত দ্রুত এই আল্টারনেটিভ এনার্জি; জোগান বাড়াতে হবে - সম্ভব ? আমাদের হাতে সময় আছে অতো ? বিজ্ঞানীরা বলছেন নেই । James Lovelock বলছেন : '' James Lovelock: 'enjoy life while you can: in 20 years global warming will hit the fan' http://gu.com/p/x3k69/stw সুতরাং থামতে তো হবেই অথবা এই লিমিট লেস গ্রোথের চক্করে আজকে লাতুর কালকে অর্ধেক ভারতবর্ষ তীব্র খরার কবলে পড়বে
  • হ্যা হ্যা হ্যা | 132.177.13.75 (*) | ২৪ এপ্রিল ২০১৬ ০৩:৫২52825
  • একদম অ্যাপ্ট!
  • sm | 53.251.91.253 (*) | ২৪ এপ্রিল ২০১৬ ০৩:৫৪52738
  • এককের কথা ঠিক বুঝলুম না। ইউরোপে অনেক উন্নত দেশ আছে যার নিজস্ব সেরকম সৈন্য বাহিনী নেই। গ্রোথ গত ৫০ বছরে বেশ ভালো। পড়শী দেশ আক্রমন করলে; কিভাবে সামাল দেবে?
    আর ওয়েলথ দিস্ত্রিবুষণ সুষম হলে গ্রোথ বাড়বেনা কেন?
    খালি, বাফে, কার্লস স্লিম্স, আম্বানি এদের কাছে পয়সা জমে থাকলেই গ্রোথ বাড়া সম্ভব?
  • S | 108.127.180.11 (*) | ২৪ এপ্রিল ২০১৬ ০৪:০০52739
  • ইনসেন্টিভ?
  • Debabrata Chakrabarty | 11.39.56.153 (*) | ২৪ এপ্রিল ২০১৬ ০৪:০১52740
  • এইটা মার্চের খবর ঃ-

    জলসঙ্কটের কারণে বন্ধ হয়ে গেল এনটিপিসি-র ফরাক্কা তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রের উৎপাদন।
    শুক্রবার বিকেল থেকে রাত পর্যন্ত একের পর এক পাঁচটি ইউনিট বন্ধ করা হয়। বাকি একটি চালু থাকলেও শনিবার দুপুর থেকে আর সেটিও চালানো যায়নি। এর ফলে, খানিকটা হলেও রাজ্যে বিদ্যুৎ সঙ্কট দেখা দিয়েছে। কবে ফের উৎপাদন চালু করা যাবে, তা-ও অনিশ্চিত।
    ডিভিসি সূত্রের খবর, বিহারে বৃষ্টির অভাবে গঙ্গার জলপ্রবাহে ঘাটতি এবং বাংলাদেশকে চুক্তি মতো বাড়তি জল দিতে গিয়েই জলসঙ্কট দেখা দিয়েছে। ফলে ফিডার ক্যানালে জলস্তর অস্বাভাবিক রকম কমে গিয়েছে। ফরাক্কায় ২১০০ মেগাওয়াট উৎপাদন ক্ষমতার ছ’টি ইউনিট শীতল রাখতে ফিডার ক্যানাল থেকে প্রতি ঘন্টায় দু’লক্ষ ২৫ হাজার কিউব মিটার জল লাগে। আর, তা পেতে গেলে ক্যানালে কমপক্ষে ২০ মিটার গভীর জলস্তর থাকা দরকার।জল নেই গঙ্গায়, বিদ্যুৎ উৎপাদন থমকে ফরাক্কায় - Anandabazar http://www.anandabazar.com/state/%E0%A6%9C%E0%A6%B2-%E0%A6%A8-%E0%A6%87-%E0%A6%97%E0%A6%99-%E0%A6%97-

    আজকের খবর ঃ- ফারাক্কায় ফের বন্ধ ৩ ইউনিট ঃ- একদিকে বৃষ্টি না হওয়ায় গঙ্গার জলস্তর নেমে গিয়েছে । আর অন্যদিকে ,চুক্তি অনুযায়ী গত ২১ সে এপ্রিল থেকে ,চুক্তি অনুযায়ী ফের ৩৫ হাজার কিউসেক জল দিতে হচ্ছে বাংলাদেশ কে । দুইয়ে মিলিয়ে জলাভাবে ফের তিনটে ইউনিট বন্ধ করে দিতে হোল এন টি পিসি-র ফারাক্কা তাপবিদ্যুৎ কেন্দ্রে ।
  • S | 108.127.180.11 (*) | ২৪ এপ্রিল ২০১৬ ০৪:০৪52741
  • ভালো তো। দুষণ কমবে। চিরকালের জন্য এক্কেবারে বন্ধ করে দেওয়া উচিত।
  • sm | 53.251.91.253 (*) | ২৪ এপ্রিল ২০১৬ ০৪:১০52742
  • ফারাক্কা তো জ্যোতি দাদুর ,"বাঁশ ছিল ঝাড়ে,আয় আমার ---" প্রজেক্ট ।
    তিস্তা তাও আটকানো গেছে; সাময়িক।
    এনি ওয়েস পব র গ্রামে বেশি করে পুকুর কাটলে কি সমাধান সম্ভব?
  • dc | 120.227.247.66 (*) | ২৪ এপ্রিল ২০১৬ ০৪:১৪52743
  • শুধু ব্রাজিল না, গ্লোবালি উইন্ড আর সোলার এনার্জি প্রোডাকশান দ্রুত বাড়ছে। ইন ফ্যাক্ট উইন্ড এনার্জি সেক্টরে তীব্র কম্পিটিশান শুরু হতে চলেছে বা শুরু হয়ে গেছে, যার মানে হচ্ছে এই সেক্টরটা টেকনোকমার্শিয়ালি ম্যাচিয়র স্টেজে চলে এসেছে।

    আর অল্টারনেটিভ এনার্জি প্রোডাকশান রেট বাড়ার আরেকটা কারন স্মার্ট গ্রিড ডিপ্লয় হচ্ছে, যার ফলে অ্যাসিন্ক্রোনাস এনার্জি প্রোডাক্শন সম্ভব হচ্ছে যেটা উইন্ড আর সোলার দুটোতেই দরকার। আগামী দশ বছরে এই ট্রেন্ড বাড়বে বলেই মনে হয়।
  • kc | 204.126.37.130 (*) | ২৪ এপ্রিল ২০১৬ ০৪:১৬52745
  • ফরাক্কার কুলিং টাওয়ার গুলো ওপেন সার্কিট না ক্লোজড সার্কিট? কেউ জানে? শ্রাবণীদিও আসেনা। ডেটা দেখে তো মনে হচ্ছে ওপেন সার্কিট। জলের ইনটেক রিকোয়ারমেন্ট টেকোনলজি দিয়ে তো কমান যায়।
  • sm | 53.251.91.253 (*) | ২৪ এপ্রিল ২০১৬ ০৪:১৬52744
  • অমিত, আগের দিন লিখেছিল পানীয় জল নিয়ে ইউ এসের রেগুলেশন খুব কড়া।ভালো কথা। দেবব্রত পাল্টা যুক্তি দিয়েছে; তাও দেখলাম ।কিন্তুক; ওদেশে কোক, পেপসি, বা ঐরকম হাজারো ফিজি ড্রিংক; যা শরীরের পক্ষে চরম ক্ষতিকর; রম রম করে, কয়েক দশক চলল বা চলছে কি করে?
  • dd | 116.51.31.65 (*) | ২৪ এপ্রিল ২০১৬ ০৪:২০52826
  • অ্যাপ্টেস্ট
  • S | 108.127.180.11 (*) | ২৪ এপ্রিল ২০১৬ ০৪:২২52746
  • তাপ বিদ্যুত কেন্দ্রে কত জল লাগে? কুলিঙ্গ টাওয়ার নাই? বক্রেশ্বরে চলে কি করে? অনেক ছোট অবশ্যি।
  • Debabrata Chakrabarty | 11.39.56.153 (*) | ২৪ এপ্রিল ২০১৬ ০৪:৩৪52747
  • শুধু ব্রাজিল না, গ্লোবালি উইন্ড আর সোলার এনার্জি প্রোডাকশান দ্রুত বাড়ছে। নিশ্চয়ই বাড়ছে এইটা ডাটা ঃ- এই হচ্ছে রেনিউএবেল এর অবস্থা
    In 2008, total worldwide energy consumption was 132,000 terawatt-hours এর মধ্যে সোলার /উইন্ড টারবাইন ইত্যাদি 1400.6 terawatt-hours বিশ্বের এনার্জি কন্সামসনের মাত্র ঃ- 1.06% আসে রিনিউএবেল থেকে - তাও ২০১৩ সাল থেকে ১৪% গ্রোথ হওয়ার পড়ে এই অবস্থা ।
  • Debabrata Chakrabarty | 11.39.56.153 (*) | ২৪ এপ্রিল ২০১৬ ০৪:৩৭52749
  • শুধু ব্রাজিল না, গ্লোবালি উইন্ড আর সোলার এনার্জি প্রোডাকশান দ্রুত বাড়ছে। নিশ্চয়ই বাড়ছে এইটা ডাটা ঃ- এই হচ্ছে রেনিউএবেল এর অবস্থা
    In 2008, total worldwide energy consumption was 132,000 terawatt-hours এর মধ্যে সোলার /উইন্ড টারবাইন ইত্যাদি 1400.6 terawatt-hours বিশ্বের এনার্জি কন্সামসনের মাত্র ঃ- 1.06% আসে রিনিউএবেল থেকে - তাও ২০১৩ সাল থেকে ১৪% গ্রোথ হওয়ার পড়ে এই অবস্থা ।
  • dc | 120.227.247.66 (*) | ২৪ এপ্রিল ২০১৬ ০৪:৩৯52750
  • এত সিলেক্টিভলি কোট করেন কেন? :d

    ঐ একই উইকি থেকেঃ

    The IEA estimates that, in 2013, total world energy consumption was 13,541 Mtoe , or 5.67 × 1020 joules, equal to an average power consumption of 18.0 terawatts.[3] From 2000–2012 coal was the source of energy with the largest growth. The use of oil and natural gas also had considerable growth, followed by hydro power and renewable energy. Renewable energy grew at a rate faster than any other time in history during this period, which can possibly be explained by an increase in international investment in renewable energy.

    আর

    Renewable energy is gradually replacing conventional fuels in four distinct areas: electricity generation, hot water/space heating, motor fuels, and rural (off-grid) energy services.[47]
    Based on REN21's 2014 report, renewables contributed 19 percent to our energy consumption and 22 percent to our electricity generation in 2012 and 2013, respectively. This energy consumption is divided as 9% coming from traditional biomass, 4.2% as heat energy (non-biomass), 3.8% hydro electricity and 2% electricity from wind, solar, geothermal, and biomass. Worldwide investments in renewable technologies amounted to more than US$214 billion in 2013, with countries like China and the United States heavily investing in wind, hydro, solar and biofuels.
  • Debabrata Chakrabarty | 11.39.56.153 (*) | ২৪ এপ্রিল ২০১৬ ০৪:৪১52751
  • sm পেপসি /কোক নিয়ে লিখেছেন এইটা আমাদের দেশের অবস্থা ঃ-

    জল নাকি জীবনের অন্য নাম
    একদিকে লাতুরে ,মহারাষ্ট্রে দিল্লী থেকে রেলের ট্যাংকারে করে জল যাচ্ছে , বিশেষজ্ঞ’রা বলছেন ২০২৩ সালের মধ্যে কেবল জলের কারনে বাঙ্গালোর আর মনুষ্য বাসযোগ্য থাকবেনা -জলের জন্য হাহাকার দেশ জুড়ে অন্যদিকে বিগত তিন বছরে দেশী এবং বিদেশী কোম্পানি মিলিয়ে মোট ১৪৪ টি কোম্পানি কে বিনি পয়সায় মাটির তলা থেকে ঢালাও জল তুলে বোতলবন্দী করে ব্যবসা করার অনুমতি দেওয়া হয়েছে এবং তার মধ্যে কয়েকটি জল যেখানে অপ্রতুল সেই সমস্ত অঞ্চলে অবস্থিত ।

    বর্তমানে ভারতে বোতলবন্দী জলের ব্যবসা ১০০০ কোটির অধিক এবং এই ব্যবসা বাৎসরিক ৪০-৫০% হারে বৃদ্ধি পাচ্ছে অন্যদিকে মাটির নিচে জলের টেবিল হু হু করে নেমে যাচ্ছে । এই নূতন লাইসেন্স প্রাপ্ত ১৪৪ টি কোম্পানি তাদের ব্যবসার স্বীকৃতি পেয়েছেন স্বয়ং কেন্দ্রীয় জলসম্পদ মন্ত্রালয়ের অধীন সেন্ট্রাল গ্রাউন্ড ওয়াটার অথরিটির কাছ থেকে । এই নব্য লাইসেন্স প্রাপ্ত সংস্থা গুলির মধ্যে ২৯ টি আসামে ,২৮ টি উত্তর প্রদেশে ,১৩ টি অন্ধ্রপ্রদেশে ,১০ টি হরিয়ানায় এবং ৮টি মহারাষ্ট্রে ।

    এই কোম্পানি গুলির মধ্যে অন্যতম “ পেপসি “। পেপসি মাটির তলা থেকে প্রতি বছর 648000 কিউবিক মিটার জল তুললেও এক ড্রপ জলও মাটিতে ফিরিয়ে দেয়না যদিও চুক্তি অনুসার প্রতি বছর ৮৩,৭৭৮ কিউবিক মিটার জল তাদের মাটিতে ফিরিয়ে দেওয়ার কথা । ত্রিনিদাদ এবং টোবাগো ভিত্তিক আরেক আন্তর্জাতিক কোম্পানি MJ Beverages Asia Ltd. বাঙ্গালোরের কাছে হোসকোটাকা প্ল্যান্ট এ প্রতিবছর ৭৮০০ কিউবিক মিটার জল মাটি থেকে তুললেও প্রাপ্ত তথ্য অনুসার এক বিন্দু জলও মাটিতে ফিরিয়ে দেয়নি -অথচ বাঙ্গালোর জলের অভাবে ২০২৩ সালের মধ্যে আর মনুষ্য বাসযোগ্য থাকবেনা এই মতামত অনেক বিশেষজ্ঞের ।

    এই ভয়ঙ্কর পরিস্থিতি’র ওপরে কোবরা পোস্টের তরফে এক বিস্তারিত তদন্ত মূলক রিপোর্ট বানিয়েছেন Md Hizbullah । রিপোর্ট টি আপনাদের জন্য সংলগ্নিত ঃ-
    Cobrapost Exclusive Digging Deeper for Profit Leaving Poorer the Earth the Common Man http://cobrapost.com/index.php/news-detail?nid=9583&cid=7
  • S | 108.127.180.11 (*) | ২৪ এপ্রিল ২০১৬ ০৪:৪২52752
  • ক্লিন এনার্জির বিরোধিতা করলে সেইটা বাড়বে কি করে বুঝছিনা?
  • dc | 120.227.247.66 (*) | ২৪ এপ্রিল ২০১৬ ০৪:৪৫52754
  • আবার সেই খিল্লির দিকে এগোচ্ছে ঃ(
  • Debabrata Chakrabarty | 11.39.56.153 (*) | ২৪ এপ্রিল ২০১৬ ০৪:৪৫52753
  • উইকি নয় BP-statistical রিভিউ পড়ুন একটা XLS ওয়র্কবুক আছে পড়ুন । দেখে নিন /Users/admin/Downloads/bp-statistical-review-of-world-energy-2015-workbook.xlsx
  • S | 108.127.180.11 (*) | ২৪ এপ্রিল ২০১৬ ০৪:৪৬52755
  • তেলেভাজা কি শরীরের জন্য ভালো? বা কষা মাটন? বা মিস্টি? বা বার্গার? বা চীজ? বা অ্যালকোহল? বা সিগ্রেট? বা সোয়াবিন? বা তেল? বা ঘী? বা ডীম? বা দুধ?
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • কি, কেন, ইত্যাদি
  • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
  • আমাদের কথা
  • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
  • বুলবুলভাজা
  • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
  • হরিদাস পালেরা
  • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
  • টইপত্তর
  • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
  • ভাটিয়া৯
  • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]


মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত
পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। যুদ্ধ চেয়ে প্রতিক্রিয়া দিন