• টইপত্তর  অন্যান্য

  • বিকল্প লেখাপত্তর, কি লিখব কেন লিখব

    Ishan
    অন্যান্য | ০৪ সেপ্টেম্বর ২০০৯ | ৪৬৬৩ বার পঠিত
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:
  • omnath | 117.194.200.74 | ২২ সেপ্টেম্বর ২০০৯ ২২:৪০422928
  • ব্যস, এইবার কেউ ভোট বা সার্ভের কথা বললেই আমি পুরো বোর হয়ে গিয়ে ইস্তাফা দেব। ভাটানোয়। আঙুল ক্রস না কি যেন করতে হয়?
  • Aranya | 144.160.98.31 | ২৩ সেপ্টেম্বর ২০০৯ ০২:২২422929
  • গত আড়াই বছর ধরে গুরু পড়ছি। তার আগে পড়তাম পরবাস, BanglaLive ইত্যাদি। দূর্দান্ত, ফাটাফাটি, যাতা - কোনো বিশেষণ-ই যথেষ্ট নয় গুরুর জন্য। বিকল্প লেখালেখি সম্বন্ধে কিছু কথা পরে বলছি ---
  • Aranya | 98.221.52.119 | ২৩ সেপ্টেম্বর ২০০৯ ০৭:১৭422930
  • ১গল্পের একটা টান সব সময়-ই থাকবে। ভারত ব্রিট্রিশ কলোনী হবার বহু দিন আগে লেখা মহাভারত শুধু গল্পের টানেই এখনো লোকে পড়ে, আমরা কলোনী-বাসী হওয়ার আগেও পড়েছে। পিতার প্রভাবের কোন ব্যাপার সেখানে নেই।
    ২ গল্প, খিল্লি, মননশীল গম্ভীর লেখা, ঠাট্টা ইয়ার্কি - আমার মত একজন সাধারণ পাঠক এর সব কিছুই উপভোগ করতে পারে যদি লেখাটা ভালো হয়। ভালো লেখার সংজ্ঞা কি তা নিয়ে যুদ্ধ না করে বরং একটা উদাহরণ দি - সত্যিই যদি একটা বাচ্চা ফুলদানীর পাশে ছেঁড়া জুতো - এরকম সৃষ্টি করে চলে, একটু পরেই হয়তো সেটা আমার ভালো লাগবে না, কিন্তু ঈশান যদি লেখে তবে আমার মনোযোগ ধরে রাখবেই (প্যাঁক দিচ্ছি না, আড়াই বছর ধরে পড়ছি তো, ঈশান খুবই প্রতিভাবান)।
    ৩ আমি শরদিন্দু-র লেখার খুব ভক্ত, সন্দীপন বড় প্রিয়জন, নবারুণ-ও খুব কাছের - এদের মিল একটাই - প্রতিভা আর বোধহয় পরিশ্রম/হোমওয়ার্ক/পড়াশুনো - যেগুলোর কোনো বিকল্প নেই
  • h | 203.99.212.224 | ২৩ সেপ্টেম্বর ২০০৯ ১৭:৩৪422931
  • মহাভারতে দেশী 'পিতা'-গণ-ই রামায়নের থেকে অপেক্ষাকৃত কম উপস্থিত হলেও, যথেষ্ট প্রবল। গল্প ফ্যান্টাসটিক, আর এপিক হলেও। এপিকের বাপ। কিন্তু বিষয় তো মূলত: মরালিটি। যে কোনো এপিকেই তাই, মানবজাতির সংকট সময়ে মরাল প্রশ্ন ইত্যাদি। পিতাদের না থেকে উপায় আছে?
  • h | 203.99.212.224 | ২৩ সেপ্টেম্বর ২০০৯ ১৭:৩৮422932
  • মানে উদা হিসেবে উত্তরকলোনী তঙ্কেÄর একটা কাউন্টার পয়েন্ট বলছেন কি মহাভারত কে? ওকে। কিন্তু সময়টা যাতা আলাদা।
  • h | 203.99.212.224 | ২৩ সেপ্টেম্বর ২০০৯ ১৭:৩৯422933
  • সময়ের ডাইমেনশানের অভাব, এটা জেনেরালি পোমো তঙ্কেÄর একটা সমালোচনা, পোকো তঙ্কেÄর নয়। মোটামুটি এই রকম ধারণা আমার মনে মনে। আমি সম্পূর্ণ ভুল হতে পারি।
  • Aranya | 98.221.52.119 | ২৫ সেপ্টেম্বর ২০০৯ ০৬:২৬422934
  • একটু ভেবে লিখব বলে দেরী করছিলাম, তাতে শুধু দেরীই হচ্ছে, মগজে চিরকালীন কারফিউ। আসলে আমি এই বিষয়ে লেখার অধিকারী নই,জ্ঞানগম্যির অভাব,তুমি (তুমিই বলছি),ঈশান -তোমাদের প্রচুর পড়াশুনো, আম পাঠকের একজন হিসেবে আমার দু পয়সা -
    মহাভারতের কথা বলছিলাম এটা বোঝাতে যে ইউরোপীয় কলোনী, মেকলে সাহেব এদের বহু আগে , মানুষ যখন প্রথম লিখতে শুরু করে, বা তারো আগে মানুষ যখন শুধুই শ্রূতিনির্ভর, তখন থেকেই গল্প শোনার আকর্ষণ আমাদের অন্তর্গত রক্তে খেলা করছে। খুবই আদিম এই নেশা। মরালিটি ইত্যাদি ব্যাপারে ধর্মগুরু, সমাজ বিবিধ পিতাদের প্রভাব তো থাকবেই, কিন্ত just গল্পের যে টান সেটা almost biological , তাই প্রান্তিক সমাজে, আদিবাসী-দের মধ্যে , পৃথিবীর যে কোনো দেশে যে কোনো জনগোষ্ঠীতে এবং যে কোনো সময়ে গল্প শোনার এই কালজয়ী ইচ্ছে।ছোটোবেলায় কল্যাণীতে আমার বাড়ীর কাছে একটা সাঁওতাল পাড়া ছিলো, সেখানে এক থুথ্‌থুরে বুড়ীর কছে হাড়াম দেওয়ের গল্প শুনতাম, এখোনো মনে আছে।
  • Aranya | 98.221.52.119 | ২৫ সেপ্টেম্বর ২০০৯ ০৭:২৩422935
  • তাই 'কী লিখব', আমার কাছে এর উত্তর হল আমি গল্প লিখব (মানে যদি লিখতে পারতাম, পারি না সেটা অন্য কথা)। 'কেন লিখব' - মানুষের জন্য লিখব, বিশেষ করে ছোটদের জন্য লিখব ,ভালো লিখলে একটা কিক পাই বলেও লিখব, আবার অনেক পরিশ্রমের ফসল আমার সন্তানের মত সেই লেখাটাকে পাঠক ভালো বললে ছোট্টো করে একটু আনন্দ হয় বলেও লিখব।
    নবারুণ আমার বড় প্রিয় লেখক, অনেক আগে থেকেই। তো তার ফ্যাতাড়ু সিরিজের দুর্দান্ত লেখাগুলোতেও ভালই গল্প রয়েছে প্রভূত খিল্লির আবরণে মোড়া, এবং সেই গল্প না থাকলে লেখাগুলো, আমার মতে, দাঁড়াত না।
  • Aranya | 98.221.52.119 | ২৫ সেপ্টেম্বর ২০০৯ ০৭:৫৯422936
  • কেন ছোটোদের জন্য - নেই নেই করেও বড় দের জন্য যথেষ্টই লেখালেখি হয়। ছোটোদের বাংলা বইয়ের ক্ষেত্রে একটা শূন্যতা রয়েছে। আমার ছোটবেলাটাকে দিতে ইচ্ছে করে এখনকার কিশোর-কিশোরীদের - শুকতারা, কিশোরভারতী, দেব সাহিত্য কুটীরের সেই অসামান্য পূজাবার্ষিকী গুলো। আনন্দমেলা-টাও কি ভালো ছিলো নীরেন চক্কোত্তির সময়। আর একটা চাঁদের পাহাড় তো ছেড়েই দিলাম, হেমেন্দ্রকুমারের মত adventure উপন্যাসই বা কোথায়। এইসব ভাবছিলাম আর কি, তবে কিক টাই বোধহয় সবচেয়ে বড় কথা, আমি চাইলেই তো আর ঈশান বা চন্দ্রিল ছোটোদের জন্য লিখবে না :-( , ওরা যাতে কিক পাবে তাই লিখবে।
  • tatin | 70.177.57.163 | ২৫ সেপ্টেম্বর ২০০৯ ১৯:১৪422938
  • অরণ্যকে সমর্থন
  • 0 | 87.98.218.53 | ২৬ সেপ্টেম্বর ২০০৯ ০৬:৩৫422939
  • অরণ্যকে সাপোর্ট করলাম।
    বিকল্প লেখাপত্র আসুক, বহুত আচ্ছা! কিন্তু গদ্য লেখার ব্যাপারে স্রেফ পিতার স্টাইলের ন্যারেটিভ দিয়ে গু.. মাতানো পাবলিক কিছু আছে, যেমন ইন্দ্রাণী, সামরাণ, দময়ন্তী, কল্লোলদা, শ্রাবণী, পিপি, ট্যান, রঞ্জনদা, টিম, পারোলিন, যোষিতা, কনফু, ইত্যা। এমনকি শিশুটকের পাতায় রিমি, রাত্রি, শমীক, পারমিতা, অরিজিত, ইত্যাদির ছড়ানো মণিমুক্তোগুলোও বারবার উল্টেপাল্টে পড়ি। এসবের সেট করা স্ট্যান্ডার্ডের সাথে টক্কর দেবার মতো মালকড়ি নামানোর চ্যালেঞ্জটা রয়েছে বিকল্প লিখিয়েদের জন্যে। আমার ধারণা কাজটা সহজ নয়, কেউ কেউ হয়তো পেরেছে, যেমন কৃষ্ণকলি, সুমেরু, ইন্দ্রনীল, ঈশান, ইত্যা... তবে সংখ্যাটা তুলনায় কম।
  • h | 61.95.144.10 | ২৬ সেপ্টেম্বর ২০০৯ ০৭:৫৭422940
  • অরণ্য, তাতিন, শুন্য এঁদের প্রত্যেকটা কথাই গুরুঙ্কÄপূর্ণ। খুব সিনসিয়ার এবং সিম্প্যাথেটিক, এবং শুধু তা নয়, নতুন (বা তত পুরোনো নন) এরকম লেখকদের জন্য অসম্ভব ধৈর্যশীল অ্যাপ্রিসিয়েশন রয়েছে, যেটা র থেকে বড় আর কিছু আমরা আশাই করতে পারি না। কিন্তু তবু সমস্যা গুলো থেকে যাচ্ছে, যে গুলো থেকে আলোচনা গুলো ক্রমশ: সরে যাচ্ছে।

    মোটামুটি যা দাঁড়াচ্ছে বেশ কয়েকটা জিনিসের জায়্‌গাই থাকছে না।

    ক। লেখার রাজনীতি
    খ। নন-ন্যারেটিভ লেখা
    গ। এস্থেটিক আইডিয়ালের বিভিন্নতা
    ঘ। বিষয়ের ভৌগোলিক বা অন্যান্য বিস্তৃতি, নতুন এপিক নির্মাণ। এপিক শব্দটা ইচ্ছে করেই ব্যবহার করলাম, জাস্ট একটা কথা মাথায় রেখে। এপিকের চরিত্র হল অসংখ্য ছোট গল্প থাকা আর তার অসংখ্য চরিত্র, এবং সেই পার্শ্ব গল্প গুলো-ই কিন্তু এপিকের মূল মরাল ফাইবারটা গড়ে উঠতে সাহায্য করে, কখনো কখনো চ্যালেঞ্জ ও করে। এইবার একটা নতুন ধরণের লেখার কথা যখন সবাই মিলে বহবার চেষ্টা করছেন, তখন ধরে নিচ্ছি, এই ছোটো লেখাগুলো,বিষয়্‌গুলো,রাজনীতি,এস্থেটিকাঅইডিয়াল গুলো তৈরী হতে হতে পঞ্চাশ -ষাট বছর পরে হয়তো সামগ্রিক ভাবে একটা এপিকের চেহারা নিল। যদি সামগ্রিক ভাবে পড়া যায়, বা এই নির্মিত epoch এর কোন এক নতুন মহান শিল্পী আসেন, বা আমাদের কারো-র হাত দিয়েই একটা লম্বা কইরা ভালো কিসু বারয়।

    যাই হোক আলোচনায় ন্যারেটিভের প্রয়োজন সম্পর্কে জানতে পারছি, কিন্তু বিকল্প প্রস্তাবের এই দিকগুলো নিয়ে আলোচনাটা হচ্ছে না। মানে অরণ্য লেখার আগেও হচ্ছিলো না খুব বেশি। মূল আলোচনাটা দুটো জিনিসে ঠোকা খেয়ে খেয়ে ফিরছিল, অ্যামেচার(নন আকাদেমিক) রাইটিং এবং খিল্লি ও অন্যান্য স্টাইল এবং ছাপা গুরু-র জন্য লেখা বাছাই য়ের পদ্ধতি।

    ফাইন , কিন্তু আরেকটু এগোনো যাক।

  • h | 61.95.144.10 | ২৬ সেপ্টেম্বর ২০০৯ ০৮:০৯422941
  • একটা জিনিস ক্লিয়ার করে দি, আমি কোন মহান মেসাইয়ার অপেক্ষায় নেই। আবার পিতা-দের সমকক্ষ হতে চাই না। স্রেফ একটা কারণেই, কারণ আমার সময়টা আলাদা। কনটেম্পোরারিটির দায়টা পিতাগণের, আমার নয়। দে আর ফাইটিং ফর রেলিভ্যান্স, নট মি :-)

    এইবার তাইলে হল ইতিহাসের এই মাহেন্দ্রক্ষণে বইসা আমি তাইলে করুম কী? এটা লেখার মোটিভেশনের প্রশ্ন। এটার উত্তরে বা উত্তর খোঁজার পদ্ধতিতে প্রভূত বিভিন্নতা থাকবে, এবং না থাকাটা আদৌ কাজের কথা নয়। একটাই বক্তব্য সত্যিকারের বিভিন্নতা যেন থাকে, আর যে চারটে বিষয়ের কথা বলছিলাম, সেগুলোকে যেন কোন না কোন ভাবে অ্যাড্রেস করে। এই গুলো আই-এস-ও কোয়ালিটি চেকিং প্যারাঅমিটার নয়। অতএব প্রশ্ন থাকতেই পারে। কমপিলিট ডিনাইয়াল-ই হোক, কিন্তু লেখার মধ্যে এই প্রশ্ন গুলোকে নিয়ে চিন্তার যদি বিন্দুমাত্র জায়গা না থাকে তাইলে আর যাই হোক, চালু পাঁচটা পত্রিকার বাইরে কিসু করা যাবে না।

    এটা ঠিক নতুন লেখক ব্যক্তি নং -এক এর সঙ্গে নতুন বিকল্প লেখক ব্যক্তি নং - ২ এর পার্সোনাল বক্সিং ম্যাচ নয়।
  • h | 61.95.144.10 | ২৬ সেপ্টেম্বর ২০০৯ ০৮:১৫422943
  • *তো = টু
  • h | 61.95.144.10 | ২৬ সেপ্টেম্বর ২০০৯ ০৮:১৫422942
  • আই ডোন্ট থিংক আই অ্যাম কমপিটিং উইথ এনিওয়ান, ফ্রেন্ড অর এনিমি:-) কেউ-ই করছে বলে মনে হয় না। আই রেকন আই অ্যাম জাস্ট ট্রাইং তো টক অ্যাবাউট স্টাফ দ্যাট আর নাও কনডেমড টু সাইলেন্স। মোটামুটি আজ সকালে এইটেই আমার এস্থেটিক আইডিয়াল ;-)
  • h | 61.95.144.10 | ২৬ সেপ্টেম্বর ২০০৯ ১১:৫৭422944
  • অরণ্য আরেকটা আর্গুমেন্ট ব্যবহার করেছেন। পাওয়ারফুল আর্গুমেন্ট। মানুষের গল্প শোনার আদিম নেশা। বিশেষত: যে গল্পে মূল বিষয় মানুষ নিজে। কিন্তু এটাকে যদি 'প্রবৃত্তি' বলেই ধরি, তবু একটা চাপ থেকে যায়।

    ওরাল ট্রাডিশনের মূল দিক টা যেটা সেটা ছিল একটা উইসডমের কন্টিনিউইটি। কিন্তু ক্রিটিসিজম তার পার্ট ছিল না এটা জাস্ট ক্লেম করা যায় না। থিয়োলোজিকাল লেখা পত্তরের বা ধরুন গুড লিভিং জাতীয় উপদেশাত্মক সাহিত্য-ও যত পাচ্ছি, একটা মূল বক্তব্য একটা কন্টিনুইটি। কিন্তু স্রেফ সংখ্যা আর নানা প্রকারের বিভিন্নতার জন্য একটা বক্তব্যের ভিন্নতা মাঝে মাঝে পাচ্ছি। সেই দক্ষিণী মহিলার লেখা রামায়ন বা ধরুন মহাভারতের বিভিন্ন quirky রসিকতা, এটা ধরুন ভবিতব্য বা সামাজিক আদর্শের প্রতিষ্ঠিত বক্তব্যের সঙ্গে ঠিক যাকে বলে মেলে না। বা মধ্যযুগীয় কাব্য গুলো বা গল্পগুলোকেও আমরা একটা সমকালের ছবি শুধু নয়, ক্রিটিক হিসেবেও দেখতে পারি, একটু ভিন্ন অর্থে। সেন্ট অগাস্টিনের কনফেসন, সেটাকে শুধু মরাল কনফেসন হিসেবে দেখবো, না জ্ঞানচর্চার রাস্তায় একটা আজব মাইলস্টোন হিসেবে দেখব এই চয়েস টা ঐতিহাসিক ভাবে আমাদের কাছে এসেছে অল্প কিছু দিন আগে। এই ধরুন যবে থেকে লেখাপড়ার সঙ্গে জীবনের একটা অবজেকটিভ ডিস্টান্স তৈরী হওয়ার পরে। আমি বলছিনা, 'অবজেকটিভ এনকোয়ারি' এই বস্তুটার বয়স রেনেসাঁর মত। এটা আমার বলার অপেক্ষা রাখে না, নানা সময়ে মানুষ নানা অবজেকটিভ এনকোয়ারি করেছে। রেনেসাঁ র আগেও করেছে। এবং এর সবটাই, এস্টাবলিশড ট্র্যাডিশনের কন্টিনুইটি নয়। গল্প শোনার অভ্যেস কে আদিম প্রবৃত্তি হিসেবে ধরে নিলেও, গল্পের বয়ানের বিভিন্নতা নিয়ে সচেতন না থাকলে চলে না। এবং সেই কারণেই ঠিক নবারুন ভট্টাচার্য্য আর বার্ষিক আনন্দমেলা ঠিক একই রকমের 'ভালো' বা 'শিক্ষামূলক' বা 'বিনোদন' পাঠ্য নন। সবচেয়ে ভাববার মত কথা হল, উইসডমের ট্র্যাডিশন, যেটা কিনা মোটামুটি আধুনিকতা বলুন উত্তরাঅধুনিকতা বলুন সকলেরি মূল দাবী, বিতর্ক শুধু সেটার ঐতিহাসিক লিগাসি আর সূত্র নিয়ে, এবং ক্ষমতার সঙ্গে তার ভয়ংকর সম্পর্ক নিয়ে, সেই ট্র্যাডিশনকে আমাগো ল্যাখাপত্তর কতটা ইনফর্ম করছে, কতটা ঋদ্ধ করছে। শারদ সাহিত্য বা এই যে সব রাবিশ পড়ছি সারাদিন, জাস্ট বাংলা পড়বো বলেই পড়ছি, সেগুলো কতটা সেই ইনকোয়ারির রাস্তায় আমাকে ইয়ে যাচ্ছে পাঠক হিসেবে। কিস্যু নিয়ে যাচ্ছে না। আমার কাছে বিকল্পের সন্ধান এইখানে-ই সবচেয়ে বড় প্রশ্নের মুখে পড়বে। এখানে শুধু স্টাইল দিয়ে পৌঁছবেন নাকি বিষয়ের বৈচিত্র আর বহুপ্রদর্শিত পথটিকেই প্রথা ভাঙা চিন্তা ভাবনা দিয়ে দেখবেন, সেটা লেখক হিসেবে আপনার কেত অথবা মোটিভেশন। শুধু সংবেদনশীলতা দিয়ে আর শুনতে ভালো লাগে এরকম পিতা ঈশপের স্মরণে গল্প বানিয়ে সেখানে পৌঁছনো যাবে কিনা আমার স্লাইট সন্দেহ আছে।

    একটা উদাহরণ দি। আধুনিকতা শহরকে কে বিষয় করেছে। নগর শুধু আর সিমেন্ট লোহা আর কাচ নয়, সেটা এখন রীতিমত সাইকোলোজিকাল স্পেস। তো বেশ, এই শহর যখন প্রথম প্রথম পেয়ে বসছে মানুষকে তখন কার পপুলার সিনেমা গুলো দেখুন। চমৎকার গল্প, কিন্তু গল্পে শহর হল ভিলেন, আর গ্রাম হল আমাদের ট্র্যাডিশনাল হিরো। পরিবার হল আশ্রয় আর পাবলিক স্পেস হল ক্রুর জটিল নিষ্ঠুর। এই ডাইকোটোমির বাইরে না বেরিয়েও অসাধারণ সব সাহিত্য রচনা হচ্ছে, কিন্তু এই ডাইকোটোমিকে প্রশ্ন করলে কি মাল নাবানো যায়, এই ফ্রেমওয়ার্কের বাইরে মানুষকে সমাজকে ইতিহাসকে দেখলে প্রশ্ন কি কান্ড সব করা যায়, সেটাও কব্জির জোরে করে দেখাচ্ছেন অনেকে। এটা শুধু পপুলার আর হাই আর্ট এর লড়াই নয়, এটা হল পারসিভড উইসডমকে ছোটো থেকে বড় নানা মাপের প্রশ্নের সামনে দাঁড় করানো। বিকল্প লেখাপত্তরের দাবীতে এই প্রশ্নের আলোচনা হওআ আবশ্যক।
  • Aranya | 98.221.52.119 | ২৬ সেপ্টেম্বর ২০০৯ ২২:৪০422945
  • বহুত খুব, হনু, বহুত খুব। পয়েন্ট গুলো খুব ভালো ধরেছ। এটাও ঠিক বলেছ যে এখানে কোনো বক্সিং ম্যাচ হচ্ছে না। তুমি, ঈশান, তোমাদের সবার সাথে মুখোমুখি আড্ডা দিতে খুব ইচ্ছে করছে। পূজোর ব্যস্ততার মদ্ধে এখন শুধু acknowledge করে যাই যে তোমার লেখা ভাবাচ্ছে, পরে আরো লিখব যদি লেখার মত nontrivial কিছু পাই।
  • 0 | 194.3.18.6 | ০৪ অক্টোবর ২০০৯ ১২:০৩422946
  • ত্রিস্তানের ডাডা-ম্যানিফেস্টোর সঙ্গে ( http://kl.am/DadaManifesto ) কিছু মিল আছে। ওটাতে সে'সময়ের ইম্প্রেশানিস্ম্‌, কিউবিস্ম্‌, ফিউচারিস্ম্‌, এসব ভ্যানগার্ডগুলোকে বোধায় কিছুটা এসথেটিসিস্ট আর হাইমডার্নিস্ট হবার দোষে ডাডা'রা বাতিল করেছিলো। যদিও পরে ওদের থেকেই সারিয়ালিস্টরা এসে পুরোনো নাকউঁচু সফিসফি ভাবটাই নিয়েছিল।
  • h | 61.95.144.10 | ০৫ অক্টোবর ২০০৯ ০৬:১৯422947
  • ভেবে দেখলাম, বিকল্প লেখা লিখে কোন লাভ নাই। কারণ প্রথমত: বিকল্প কী, সেটা সম্পর্কে কোন ঐক্যমত নাই, ভাট বকে বকে হাত ব্যথা হয়ে গেল, তাও ক্লিয়ার নয়। দ্বিতীয়ত: বেড়াতে গিয়ে অ্যায়্‌সা পয়হার টানাটানি হয়েছে, টু পাইস কামানোর কথা সুদু মাথায় ঘুরতাছে। তাই এবার থেকে শুধু শৈশব আর কৈশোরের স্মৃতিচারণ লিখবো। এই লাইনে, মেন কারেন্সি হল গিয়ে সারল্য আর বিস্ময় আর অল্প বয়স। নিজের স্মৃতি ফুরিয়ে গেলে, অন্যের স্মৃতি ঝেড়ে দোবো অথবা, ওয়র্ড লিমিট ভিত্তিক রেন্ট নোবো:-) এইটে পাব্লিক খায়।
  • T | 14.139.128.11 | ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০১২ ১৫:২২422950
  • পাইদি, এই এক্সপেরিমেন্ট আমরাও করেছি। ফেসবুকে 'অন্ধকার' লিখে সার্চ করে যত ইউজার নেম পাওয়া যায়, তাই দিয়ে। ম্যাটল্যাব জেনারেটেড কবিতা, দিব্যি হয়েছিল। বহু আগে লোটাকম্বলে পোস্ত করেছিলাম। রোহণ সাহেব বড্ড রেগে গিয়েছিলেন।
  • মতামত দিন
  • বিষয়বস্তু*:

কুমুদি পুরস্কার   গুরুভারআমার গুরুবন্ধুদের জানান


  • কোনোরকম কর্পোরেট ফান্ডিং ছাড়া সম্পূর্ণরূপে জনতার শ্রম ও অর্থে পরিচালিত এই নন-প্রফিট এবং স্বাধীন উদ্যোগটিকে বাঁচিয়ে রাখতে
    গুরুচণ্ডা৯-র গ্রাহক হোন
    গুরুচণ্ডা৯তে প্রকাশিত লেখাগুলি হোয়াটসঅ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আমাদের হোয়াটসঅ্যাপ গ্রুপে যুক্ত হোন। টেলিগ্রাম অ্যাপে পেতে চাইলে এখানে ক্লিক করে আমাদের টেলিগ্রাম চ্যানেলটির গ্রাহক হোন।
    • কি, কেন, ইত্যাদি
    • বাজার অর্থনীতির ধরাবাঁধা খাদ্য-খাদক সম্পর্কের বাইরে বেরিয়ে এসে এমন এক আস্তানা বানাব আমরা, যেখানে ক্রমশ: মুছে যাবে লেখক ও পাঠকের বিস্তীর্ণ ব্যবধান। পাঠকই লেখক হবে, মিডিয়ার জগতে থাকবেনা কোন ব্যকরণশিক্ষক, ক্লাসরুমে থাকবেনা মিডিয়ার মাস্টারমশাইয়ের জন্য কোন বিশেষ প্ল্যাটফর্ম। এসব আদৌ হবে কিনা, গুরুচণ্ডালি টিকবে কিনা, সে পরের কথা, কিন্তু দু পা ফেলে দেখতে দোষ কী? ... আরও ...
    • আমাদের কথা
    • আপনি কি কম্পিউটার স্যাভি? সারাদিন মেশিনের সামনে বসে থেকে আপনার ঘাড়ে পিঠে কি স্পন্ডেলাইটিস আর চোখে পুরু অ্যান্টিগ্লেয়ার হাইপাওয়ার চশমা? এন্টার মেরে মেরে ডান হাতের কড়ি আঙুলে কি কড়া পড়ে গেছে? আপনি কি অন্তর্জালের গোলকধাঁধায় পথ হারাইয়াছেন? সাইট থেকে সাইটান্তরে বাঁদরলাফ দিয়ে দিয়ে আপনি কি ক্লান্ত? বিরাট অঙ্কের টেলিফোন বিল কি জীবন থেকে সব সুখ কেড়ে নিচ্ছে? আপনার দুশ্‌চিন্তার দিন শেষ হল। ... আরও ...
    • বুলবুলভাজা
    • এ হল ক্ষমতাহীনের মিডিয়া। গাঁয়ে মানেনা আপনি মোড়ল যখন নিজের ঢাক নিজে পেটায়, তখন তাকেই বলে হরিদাস পালের বুলবুলভাজা। পড়তে থাকুন রোজরোজ। দু-পয়সা দিতে পারেন আপনিও, কারণ ক্ষমতাহীন মানেই অক্ষম নয়। বুলবুলভাজায় বাছাই করা সম্পাদিত লেখা প্রকাশিত হয়। এখানে লেখা দিতে হলে লেখাটি ইমেইল করুন, বা, গুরুচন্ডা৯ ব্লগ (হরিদাস পাল) বা অন্য কোথাও লেখা থাকলে সেই ওয়েব ঠিকানা পাঠান (ইমেইল ঠিকানা পাতার নীচে আছে), অনুমোদিত এবং সম্পাদিত হলে লেখা এখানে প্রকাশিত হবে। ... আরও ...
    • হরিদাস পালেরা
    • এটি একটি খোলা পাতা, যাকে আমরা ব্লগ বলে থাকি। গুরুচন্ডালির সম্পাদকমন্ডলীর হস্তক্ষেপ ছাড়াই, স্বীকৃত ব্যবহারকারীরা এখানে নিজের লেখা লিখতে পারেন। সেটি গুরুচন্ডালি সাইটে দেখা যাবে। খুলে ফেলুন আপনার খেরোর খাতা, লিখতে থাকুন, বানান নিজের বাংলা ব্লগ, হয়ে উঠুন একমেবাদ্বিতীয়ম হরিদাস পাল, এ সুযোগ পাবেন না আর, দেখে যান নিজের চোখে...... আরও ...
    • টইপত্তর
    • নতুন কোনো বই পড়ছেন? সদ্য দেখা কোনো সিনেমা নিয়ে আলোচনার জায়গা খুঁজছেন? নতুন কোনো অ্যালবাম কানে লেগে আছে এখনও? সবাইকে জানান। এখনই। ভালো লাগলে হাত খুলে প্রশংসা করুন। খারাপ লাগলে চুটিয়ে গাল দিন। জ্ঞানের কথা বলার হলে গুরুগম্ভীর প্রবন্ধ ফাঁদুন। হাসুন কাঁদুন তক্কো করুন। স্রেফ এই কারণেই এই সাইটে আছে আমাদের বিভাগ টইপত্তর। ... আরও ...
    • ভাটিয়া৯
    • যে যা খুশি লিখবেন৷ লিখবেন এবং পোস্ট করবেন৷ তৎক্ষণাৎ তা উঠে যাবে এই পাতায়৷ এখানে এডিটিং এর রক্তচক্ষু নেই, সেন্সরশিপের ঝামেলা নেই৷ এখানে কোনো ভান নেই, সাজিয়ে গুছিয়ে লেখা তৈরি করার কোনো ঝকমারি নেই৷ সাজানো বাগান নয়, আসুন তৈরি করি ফুল ফল ও বুনো আগাছায় ভরে থাকা এক নিজস্ব চারণভূমি৷ আসুন, গড়ে তুলি এক আড়ালহীন কমিউনিটি ... আরও ...
    গুরুচণ্ডা৯-র সম্পাদিত বিভাগের যে কোনো লেখা অথবা লেখার অংশবিশেষ অন্যত্র প্রকাশ করার আগে গুরুচণ্ডা৯-র লিখিত অনুমতি নেওয়া আবশ্যক। অসম্পাদিত বিভাগের লেখা প্রকাশের সময় গুরুতে প্রকাশের উল্লেখ আমরা পারস্পরিক সৌজন্যের প্রকাশ হিসেবে অনুরোধ করি। যোগাযোগ করুন, লেখা পাঠান এই ঠিকানায় : [email protected]
    মে ১৩, ২০১৪ থেকে সাইটটি বার পঠিত


    পড়েই ক্ষান্ত দেবেন না। খেলতে খেলতে মতামত দিন